গর্ভাবস্থায় গোলমরিচ – স্বাস্থ্যে উপকারিতা এবং পার্শ্ব প্রতিক্রিয়া

Black Pepper During Pregnancy - Health Benefits & Side Effects

অনেক মহিলারা গর্ভাবস্থায় মশলাদার খাবার খান এবং এটি সাধারণ। তবে গর্ভাবস্থায় অতিরিক্ত মশলাদার খাবার খাওয়া সত্যই নিরাপদ নয়। গর্ভাবস্থায় সাধারণ মশলার সংযোজন কাঁচা লঙ্কা এবং শুকনো লঙ্কার সুপারিশ করা হয় না, কারণ এগুলি অম্বল, বুকজ্বালা এবং অন্যান্য হজমের সমস্যা সৃষ্টি করে। পরিবর্তে গর্ভবতী মহিলাদের জন্য এর সেরা বিকল্প হল গোলমরিচ। গোলমরিচে ঔষধি গুণ রয়েছে এবং এটি স্বাস্থ্যের পক্ষে ভাল। তবে যখন গর্ভাবস্থার কথা আসে, তখন আপনি চান্স নিতে চান না। তাই আপনি যদি নিজের গর্ভাবস্থার ডায়েটে এটি অন্তর্ভুক্ত করতে চান তবে এটি গর্ভবতী মহিলাদের জন্য নিরাপদ কিনা তা জেনে নিন।

aniview

গর্ভাবস্থায় গোলমরিচ খাওয়া কি নিরাপদ?

হ্যাঁ, গোলমরিচ গর্ভাবস্থাকালীন সেবনের জন্য সম্ভবত নিরাপদ, তবে এটি পরিমিতভাবে খাওয়া উচিত। অন্য যে কোনো খাবারের মতো, সংযতভাবে খেলে এটি ক্ষতিকারক নয়। এটি শুধু বা জিরা গুঁড়ো দিয়ে মিশিয়ে সালাদ, ফল এবং শাকসব্জিতে জন্য ব্যবহার করা যেতে পারে। গোলমরিচ অতিরিক্ত খাওয়ার ফলে অম্লতা, গর্ভপাত, বদহজম এবং বুকজ্বালার কারণ হতে পারে।

গোলমরিচের পুষ্টিগুণ

গোলমরিচ কিছু গুরুত্বপূর্ণ পুষ্টির একটি দুর্দান্ত উত্স। এতে ভিটামিন সি এবং ভিটামিন কেএর মতো ভিটামিন রয়েছে। এতে আয়রন, ক্যালসিয়াম, ম্যাগনেসিয়াম, পটাসিয়াম এবং তামার মতো প্রয়োজনীয় খনিজও রয়েছে। এটি অ্যান্টিঅক্সিডেন্টগুলিরও খুব ভাল উত্স।

গর্ভাবস্থায় গোলমরিচ খাওয়ার স্বাস্থ্যকর উপকারিতা

আপনার গর্ভাবস্থার ডায়েটে গোলমরিচ অন্তর্ভুক্ত করা (অবশ্যই পরিমিতভাবে!) গর্ভাবস্থায় আপনার স্বাস্থ্যের জন্য খুব উপকারী হতে পারে। এর কিছু নীচে তালিকাভুক্ত করা হয়েছে।

. এটি রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা উন্নত করতে সহায়তা করে

গোলমরিচ শরীরের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা উন্নত করে বলে পরিচিত। গর্ভাবস্থায়, ডায়েটে গোলমরিচের নিয়মিত গ্রহণ প্রাকৃতিক প্রতিরোধ ক্ষমতা বৃদ্ধির কাজ করে।

. এটি হজমের উন্নতি করে

গর্ভাবস্থায় ক্রমবর্ধমান জরায়ু হজমতন্ত্রের বিরুদ্ধে চাপ দেয় এবং অম্বল, বদহজম সৃষ্টি করে। গর্ভাবস্থায় এই সমস্যার সাথে লড়াই করার একটি প্রাকৃতিক উপায় হল আপনার ডায়েটে গোলমরিচ অন্তর্ভুক্ত করা। এটি গর্ভাবস্থাকালে ঘটা পেট ফাঁপা এবং ফোলাভাব উল্লেখযোগ্যভাবে কম করে।

. এটি কাশি এবং সর্দি থেকে মুক্তি দেয়

গর্ভাবস্থায় আপনার যদি সর্দি এবং কাশি হয় তবে তার জন্য ওষুধ সেবন করার পরামর্শ দেওয়া হয় না, কারণ এগুলি গর্ভাবস্থায় নিয়মিত খাওয়া ওষুধের সাথে প্রতিক্রিয়া করতে পারে এবং পার্শ্ব প্রতিক্রিয়া সৃষ্টি করতে পারে। তবে আপনি কাশি এবং সর্দি জন্য কিছু সাধারণ ঘরোয়া প্রতিকার ব্যবহার করতে পারেন। ঠান্ডার নিরাময়ের এক সেরা ঘরোয়া প্রতিকার হল সমস্ত খাবারে গোলমরিচ অন্তর্ভুক্ত করা। স্যুপে গোলমরিচ যুক্ত করাও সর্দির লক্ষণগুলি হ্রাস করতে পারে।

. এটি হতাশার বিরুদ্ধে লড়াই করতে সহায়তা করতে পারে

গর্ভাবস্থায় এবং প্রসবের পরে উভয়ই গর্ভবতী মহিলাদের মধ্যে হতাশা খুবই সাধারণ। স্বল্প পরিমাণে গোলমরিচ সেবন করা মানসিক স্বাস্থ্য ভালো রাখা নিশ্চিত করতে পারে তবে এটি প্রতিদিন খাওয়া উচিত নয়, কারণ এটি আপনার স্বাস্থ্যের উপর বিরূপ প্রভাব ফেলতে পারে।

. এটি রক্তচাপ নিয়ন্ত্রণে রাখে

রক্তচাপএর সমস্যা একজন হবু মায়ের পক্ষে ক্ষতিকারক, কারণ এটি শেষ ত্রৈমাসিকের ও প্রসবের সময় আরো জটিলতা সৃষ্টি করতে পারে। গোলমরিচের নিয়মিত সেবনের মাধ্যমে সামান্য উচ্চ রক্তচাপ প্রাকৃতিকভাবে নিয়ন্ত্রণ করা যায়।

. এটি ক্যান্সার প্রতিরোধে সহায়তা করতে পারে।

গোলমরিচে থাকা অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট একজন হবু মায়ের দেহে দ্রুত পরিবর্তনগুলি মোকাবেলায় এবং ক্যান্সার সৃষ্টিতে দায়ী ফ্রি রেডিক্যালগুলি প্রতিরোধ করতে স্বাস্থ্যকর টিস্যুগুলিকে আক্রমণ থেকে রক্ষাতে সহায়তা করতে পারে। গোলমরিচে পাইপ্রিন অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট থাকে যা কিছু নির্দিষ্ট ক্যান্সারের কোষকে মেরে ফেলতে এমনকি ক্যান্সারজনিত কোষগুলির বৃদ্ধিতে বাধা দিতে পারে। হলুদের সাথে গোলমরিচ সেবন করলে তা এমনকি স্তনের ক্যান্সারজনিত কোষগুলির বৃদ্ধি রোধ করতে পারে।

গর্ভাবস্থায় গোলমরিচ খাওয়ার পার্শ্ব প্রতিক্রিয়া

গোলমরিচ গর্ভাবস্থায় খাওয়া যেতে পারে এবং আপনি যদি এটিকে আপনার ডায়েটে পরিমিতরূপে অন্তর্ভুক্ত করেন, এতে কোনো ক্ষতি হবে না। কিছু মহিলার স্বল্প পরিমাণে গ্রহণ করা হলেও কিছু নির্দিষ্ট পার্শ্ব প্রতিক্রিয়া অনুভব করে।

. এতে অ্যালার্জি প্রতিক্রিয়া হতে পারে

কিছু মহিলা গর্ভাবস্থায় কিছু খাবার উপাদানে অ্যালার্জি প্রতিক্রিয়া অনুভব করতে পারেন। গোলমরিচ অ্যালার্জির ইঙ্গিত দেয় এমন লক্ষণগুলির একটি সিরিজকে ট্রিগার করতে পারে। আপনি যদি এ জাতীয় কোনো প্রতিক্রিয়া অনুভব করেন তবে গোলমরিচ খাওয়া এড়ানো ভাল, বিশেষত গর্ভাবস্থায়। প্রয়োজনীয় মশলাদার স্বাদ দিতে আপনি এটির একটি চিমটি যোগ করার চেষ্টা করতে পারেন এবং প্রতিক্রিয়াটি তারপরেও থাকে কিনা তা পরীক্ষা করতে পারেন। অ্যালার্জির লক্ষণগুলি গুরুতর হলে আপনি আপনার ডাক্তারের সাথে পরামর্শও করতে পারেন।

. এটির কারণে জ্বালার সংবেদন হতে পারে

গোলমরিচ খাওয়ার পরে পেট বা গলায় জ্বালার সংবেদন অনুভব করা বেশ স্বাভাবিক। তবে গর্ভাবস্থায়, যখন বদহজম এবং অম্বলের জ্বালার সমস্যা থাকে, তখন গোলমরিচ সেবন করায় পরিস্থিতি আরো খারাপ হতে পারে। এই জাতীয় পরিস্থিতিতে মশলাদার খাবার এড়ানো ভাল।

. এটি শরীরের উত্তাপ বাড়িয়ে তুলতে পারে

আপনার যদি গ্রীষ্মের সময় গর্ভাবস্থা হয় তবে মশলাদার জিনিসগুলি না খাওয়াই ভাল, কারণ এগুলি দেহের তাপ বৃদ্ধি করতে পারে। আপনার ডায়েটে গোলমরিচ বা অন্যান্য মশলা অন্তর্ভুক্ত করা শরীরের উত্তাপকে বাড়িয়ে তোলে এবং বদহজমের সমস্যা, মুখের আলসার ও এ জাতীয় অন্যান্য জটিলতা সৃষ্টি করতে পারে।

সতর্কতা

আপনার ডায়েটে সাধারণ পরিমাণে গোলমরিচ অন্তর্ভুক্ত করা কোনো ক্ষতি নাও করতে পারে, তবে গর্ভবতী মহিলাদের জন্য এর সম্ভাব্য পার্শ্ব প্রতিক্রিয়াগুলিও রয়েছে। হজম এবং গ্যাস্ট্রোইনটেস্টাইনাল সমস্যা সৃষ্টি করা ব্যতীত, এটি কোনো মহিলার জন্য গর্ভাবস্থার যাত্রা কঠিন করে তুলতে পারে। অতিরিক্ত গোলমরিচের ব্যবহার এড়াতে হবে, কারণ এটি অকাল সংকোচন, অম্বল ইত্যাদির কারণ হতে পারে। এছাড়াও, যদি গোলামরিচের তেল টপিকভাবে (ত্বকে) ব্যবহার করা হয় তবে এটি জরায়ুর জন্য উত্তেজক হিসাবে কাজ করতে পারে এবং তাড়াতাড়ি সংকোচনের কারণ হতে পারে।

গোলমরিচ মশালাদের মধ্যে রাজা এবং এটি স্বাস্থ্যের জন্য অসংখ্য উপকার করে। তবে এটি পরিমিতভাবে খাওয়া উচিত। আপনার ডায়েটে এটির এক চুটকি যুক্ত করা আপনার গর্ভাবস্থার সাথে সম্পর্কিত স্বাস্থ্য সংক্রান্ত উদ্বেগগুলি খুব সহজেই কমাতে সহায়তা করবে তা নিশ্চিত। তবে এটিকে আপনার ডায়েটের অংশ করার আগে কোনো ডাক্তারের পরামর্শ নিন!