গর্ভাবস্থায় পাউরুটি খাওয়া – উপকারিতা এবং পার্শ্ব প্রতিক্রিয়া

গর্ভাবস্থায় পাউরুটি খাওয়া - উপকারিতা এবং পার্শ্ব প্রতিক্রিয়া

আমাদের প্রতিদিনের জীবনে আমরা যে খাবার খাই, গর্ভাবস্থায় তাতে যথেষ্ট পরিবর্তন আসে। বেশিরভাগ পরিবারে চাকুরীজীবী ​​বাবা-মা এবং ক্রমবর্ধমান জীবনের গতিযুক্ত হওয়ায়, উপযুক্ত খাবার প্রস্তুত করা সবসময় সম্ভব নয়। পাউরুটি-ভিত্তিক খাবারগুলি, স্যান্ডউইচ থেকে শুরু করে পিজ্জা পর্যন্ত এবং অন্যান্য খাদ্য সামগ্রীগুলি আমাদের প্রতিদিনের জীবনের অংশ হয়ে দাঁড়ায়। তবে এটি বোঝা দরকার যে গর্ভবতী মহিলারা গর্ভাবস্থায় সাদা পাউরুটি বা হোয়াইট ব্রেড খেতে পারে।

aniview

গর্ভাবস্থায় পাউরুটি খাওয়া কি স্বাস্থ্যকর?

বাজারে যে সাধারণ সাদা পাউরুটি পাওয়া যায় তা সাধারণত ময়দা ব্যবহার করে তৈরি করা হয়। এগুতে সাধারণত উচ্চ পরিমাণে গ্লুটেনেগুলি থাকে। গর্ভাবস্থায় অবিরাম এই পাউরুটি খেলে কোষ্ঠকাঠিন্য বাড়তে পারে যা ইতিমধ্যেই গর্ভবতী মহিলাদের জন্য একটি বড় সমস্যা। সমস্ত ধরণের গ্লুটেনই পেটের স্থিতিস্থাপকতায় প্রভাব ফেলে, পেটে পূর্ণতা এবং ফাঁপাভাবের অনুভূতি সৃষ্টি করে, যা পুষ্টির সঠিক শোষণকে সীমাবদ্ধ করতে পারে।

অন্যদিকে, বাদামি পাউরুটি বা ব্রাউন ব্রেড গমের আটা থেকে প্রস্তুত করা হয়। এটি সাদা পাউরুটির তুলনায় অনেক ভাল, কারণ এতে প্রচুর প্রোটিন এবং ভিটামিন রয়েছে যা সাদা পাউরুটিতে উপস্থিত থাকে না। গর্ভাবস্থায় একজন মা প্রয়োজনীয় শক্তি এবং এনার্জি সরবরাহ করার জন্য এগুলি প্রয়োজনীয়।

পাউরুটিতে কি থাকে?

রুটিতে সাধারণত একাধিক উপাদান থাকে, যার মধ্যে কয়েকটি প্রাথমিক উপাদান এখানে দেওয়া হল।

১. গমের উপাদান

সমগ্র গম থেকে তৈরি পাউরুটিতে গমের যথেষ্ট পরিমাণের পুষ্টিগুণ ধারণ করে। এগুলির মধ্যে রয়েছে ভিটামিন ই, ওমেগা-৩ অ্যাসিড, ফোলেট এবং আরো অনেক পুষ্টিকর উপাদান রয়েছে। এগুলি হার্টের স্বাস্থ্যের উপর সরাসরি প্রভাব ফেলে।

২. কার্বোহাইড্রেট

কার্বোহাইড্রেট পাউরুটির একটি প্রাথমিক অংশ গঠন করে। গর্ভবতী মহিলাদের জন্য এনার্জি পাওয়ার পাওয়ার হাউস হওয়ায় এই অত্যাবশ্যকীয় পুষ্টিগুলি অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ। পাউরুটিতে থাকা কার্বোহাইড্রেটেও যথেষ্ট পরিমাণে কম গ্লাইসেমিক সূচক থাকে। ডায়াবেটিসের ঝুঁকি হ্রাসের কারণে এটি একটি স্বাস্থ্যকর বিকল্প।

৩. প্রোটিন

গমের পাউরুটিতে প্রধান প্রোটিন হল গমের গ্লুটেন। এই গ্লুটেন প্রোটিনের একটি মূল সরবরাহকারী, যা গর্ভবতী মায়ের মধ্যে ভ্রূণের সুস্থতা এবং অবিরত বিকাশের জন্য প্রয়োজনীয়।

৪. ফাইবার

আশ্চর্যের বিষয় হল, পাউরুটি একটি ভাল খাবার হিসাবে পরিচিত যা ব্র্যানের খাদ্যতালিকাগত ফাইবার ধারণ করে। এগুলি কেবল হার্টকেই প্রভাবিত করে না এবং তাঁকে সুস্থ রাখে, তবে লাইপোপ্রোটিন কোলেস্টেরল হ্রাসও করে আনে, যা মায়ের পাশাপাশি সন্তানের জন্য একটি স্বাস্থ্যকর অবস্থা অর্জনে সহায়তা করে।

ফাইবার

গর্ভাবস্থায় পাউরুটি খাওয়ার উপকারিতা

পাউরুটির বিভিন্ন পুষ্টিকর উপাদানগুলি হবু মায়ের জন্য প্রচুর সুবিধা প্রদান করে, এর মধ্যে কয়েকটি হল:

১. পিত্তথলির পাথর প্রতিরোধ

পাউরুটি একটি সহজেই প্রাপ্ত খাবার, যাতে ভাল পরিমাণে ফাইবার থাকে। সমগ্র গমের এমন খাবার গ্রহণ করা, যার মধ্যে সিরিয়ালও অন্তর্ভুক্ত থাকে, হজমতন্ত্রের উন্নত করতে এবং পিত্তথলিতে পাথর গঠন প্রতিরোধে কাজ করে।

২. হাঁপানির ঝুঁকি হ্রাস

যদি কোনো মায়ের শ্বাসকষ্ট হয় বা হওয়ার উচ্চতর সম্ভাবনা থাকে, তবে আহারের অংশ হিসাবে সমগ্র গমের পাউরুটি খেলে শ্বাসকষ্ট সংক্রান্ত কোনো অস্বস্তি হওয়ার সম্ভাবনা কমে এবং পাশাপাশি হাঁপানি হওয়ার লক্ষণগুলি হ্রাস করতে সহায়তা করে।

৩. বিপাকের রক্ষণাবেক্ষণ

অন্যান্য পুষ্টিকর উপাদানের পাশাপাশি, সমগ্র গম থেকে তৈরি রুটিতে প্রচুর পরিমাণে ভিটামিন বি, রাইবোফ্লাভিন, নিয়াসিন এবং থিয়ামিন থাকে। ভিটামিন বি-কমপ্লেক্স গ্রুপের অন্তর্ভুক্ত এই সমস্ত উপাদানগুলি শরীরের প্রক্রিয়াগুলি সহজতর করার জন্য এবং আপনার বিপাকীয় ক্রিয়াকলাপগুলিকে নিয়ন্ত্রণ করতে মূল ভূমিকা পালন করে।

৪. ভিটামিন সি-এর ভাল উত্স

পাউরুটিতে সাধারণত একটি দুর্দান্ত পরিমাণে ক্যালসিয়াম থাকে, তবে এতে ভাল পরিমাণে ভিটামিন সিও রয়েছে। এগুলি প্রতিরোধ ক্ষমতা জোরদার করতে এবং ঘাটতির সম্ভাবনা হ্রাস করতে সহায়তা করে। তবে সব ধরণের রুটিতে ভিটামিন সি থাকে না, যদি ভিটামিন বা অ্যাসকরবিক অ্যাসিড গুঁড়ো রুটিতে মিশ্রিত হয়, তবে আপনি ভিটামিন সি পেতে পারেন।

ভিটামিন সি-এর ভাল উত্স

৫. পর্যাপ্ত ক্যালসিয়াম সরবরাহ করে

ক্যালসিয়াম গর্ভবতী মহিলার এবং শিশুর বিকাশের জন্য প্রয়োজনীয় একটি মূল উপাদান। সমগ্র গমের পাউরুটিতে প্রচুর পরিমাণে ক্যালসিয়াম থাকে, যা গর্ভবতী মহিলাদের জন্য উপকারী।

৬. শর্করার পরিমাণ নিয়ন্ত্রণ

বহু গর্ভবতী মহিলাদের ক্ষেত্রে গর্ভকালীন ডায়াবেটিস একটি উদ্বেগের কারণ। সমগ্র গম থেকে তৈরি পাউরুটির মধ্যে প্রচুর পরিমাণে ফাইবার উপস্থিত থাকে, যা রক্তে শর্করার মাত্রা নিয়ন্ত্রণ করতে এবং তার হঠাৎ করে যে কোনো বৃদ্ধি রোধে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে। গর্ভাবস্থায় আপনি সমগ্র শস্যের রুটি খেতে পারেন।

৭. রক্তচাপ নিয়ন্ত্রণ

গর্ভাবস্থায় উদ্বেগ এবং স্ট্রেস শরীরের মাধ্যমে রক্তচাপ বাড়িয়ে তুলতে পারে, যা মা এবং শিশুর দুজনের পক্ষেই ভাল নয়। এর জন্য দুটি প্রধান অপরাধী হল কোলেস্টেরল এবং ট্রাইগ্লিসারাইড, সমগ্র গমের পাউরুটি সেবন করে এগুলি নিয়ন্ত্রণে রাখা যায়। তবে কোনো পাউরুটি কেনার আগে আপনাকে অবশ্যই পরীক্ষা করে নিতে হবে যে তা যেন লবণহীন হয়। পাউরুটিতে লবণের পরিমাণ আপনার রক্তচাপ বাড়িয়ে তুলতে পারে।

৮. কোলেস্টেরল হ্রাস

হার্টকে স্বাস্থ্যকর রাখার জন্য গোটা দানা থেকে তৈরি পাউরুটির মধ্যে থাকা ডায়েটরি ফাইবার অপরিহার্য, কারণ এটি রক্তে কোলেস্টেরলের মাত্রার যত্ন নেয় এবং এগুলি নিরাপদ মাত্রায় বজায় রাখে।

৯. হজমকে উদ্দীপিত করে

হজমতন্ত্রকে ভাল রাখার জন্য প্রয়োজনীয় রফেজ সামগ্রী সরবরাহযুক্ত খাবারগুলিতে থাকা ফাইবারগুলি গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে। পাউরুটির মধ্যে থাকা ফাইবারগুলি অন্ত্রের গতিবিধির জন্য দৃঢ়তার সাথে কাজ করে এবং কোষ্ঠকাঠিন্য ও ডায়রিয়ার সম্ভাবনা হ্রাস করে।

গর্ভবতী হয়ে পাউরুটি খাওয়ার পার্শ্ব প্রতিক্রিয়া

যদিও পাউরুটির প্রচুর পুষ্টিকর মান রয়েছে যা একাধিক সুবিধা প্রদান করে, গর্ভাবস্থায় পাউরুটি খাওয়ার ক্ষেত্রে কয়েকটি পার্শ্ব প্রতিক্রিয়া দেখা দিতে পারে।

  • গম থেকে তৈরি রুটিতে অ্যামাইলোপেকটিন-এ এর ​​উপস্থিতি রক্তে শর্করার পরিমাণ বাড়িয়ে তোলে।
  • পাউরুটির মধ্যে গ্লুটেনের উপস্থিতি নির্দিষ্ট কিছু মহিলার জন্য উদ্বেগের বিষয় হতে পারে, যেহেতু তাদের দেহ জটিল প্রোটিনকে প্রক্রিয়া করতে এবং হজম করতে পারে না। সিলিয়াক ডিজিজ (গ্লুটেনের অসহিষ্ণুতা) যুক্ত মহিলাদের পাউরুটি খাওয়া এড়ানো উচিত।

পাউরুটি যদি আপনার প্রতিদিনের ডায়েটের একটি অপরিহার্য অঙ্গ হয়ে থাকে তবে এটিকে একটি সাধারণ স্তরে হ্রাস করা এবং বিকল্পগুলির সাথে এটিকে প্রতিস্থাপন করা ভাল। গর্ভাবস্থায় সাদা পাউরুটির পরিবর্তে বাদামি পাউরুটি বেছে নেওয়া একটি স্বাস্থ্যকর পছন্দ, যা আপনার দেহের দীর্ঘকালীন উপকার করতে পারে, পাশাপাশি আপনার ডায়েটকেও সুবিধামত রাখতে পারে।