গর্ভাবস্থায় নন-স্ট্রেস পরীক্ষা

গর্ভাবস্থায় নন-স্ট্রেস পরীক্ষা

গর্ভবতী মহিলা হিসাবে আপনার এবং আপনার সন্তানের স্বাস্থ্য নিশ্চিত করতে আপনাকে একটি গুচ্ছ পরীক্ষা এবং অ্যাপয়েন্টমেন্টের মধ্য দিয়ে যেতে হবে। এই পরীক্ষাগুলির বেশিরভাগ ক্ষেত্রে আপনার শারীরিক বা মানসিক সুস্বাস্থ্যের উপর সামান্য পরিমাণে চাপ পড়লেও একটি পরীক্ষা রয়েছে যা আপনার বা আপনার সন্তানের উপর কোন চাপ সৃষ্টি করে না। আসুন নীচে এটি সম্পর্কে আরও জানি

aniview

ননস্ট্রেস পরীক্ষা কী?

উচ্চ ঝুঁকিযুক্ত গর্ভাবস্থার সাথে জড়িত সবচেয়ে সাধারণ পরীক্ষাগুলির মধ্যে একটি হল এনএসটি বা ননস্ট্রেস টেস্ট, যা গর্ভাবস্থার ২৭তম সপ্তাহ পরে সঞ্চালন করা হয়। এটিকে এই নাম দেওয়া হয়েছে, কারণ এটি সঞ্চালিত হওয়ার সময় এটি আপনার শিশুর কোন সমস্যা তৈরি করে না; আসলে, এটি যা করে তা হল আপনার শিশুর প্রাকৃতিক ক্রিয়াকলাপ নিরীক্ষণ করে। এটি ভ্রূণের হার্ট বিটকে তার স্বাস্থ্যের স্থিতি বোঝার জন্য নিরীক্ষণ করতে ব্যবহৃত হয়। প্রথমে শিশুর হৃদস্পন্দনটি যখন সে বিশ্রাম করে বা ঘুমন্ত অবস্থায় থাকে তখন পরিমাপ করা হয় এবং পরে যখন সে সক্রিয় থাকে তখন পরিমাপ করা হয়। যদি হার্ট বিটের হার ক্রিয়াকলাপের স্তরের সাথে মিলে যায়, তবে আপনি নিশ্চিন্ত হতে পারেন যে শিশু পর্যাপ্ত পরিমাণে পুষ্টি এবং অক্সিজেন গ্রহণ করছে। সাধারণত ভ্রূণের মৃত্যুর উচ্চতর সম্ভাবনা আছে কিনা তার এনএসটি পরামর্শ দেওয়া হয়, কারণ এই পরীক্ষাটি বলতে পারে যে আপনার বা আপনার ভ্রূণের হাসপাতালে ভর্তি বা চিকিৎসার প্রয়োজন আছে কিনা অথবা যদি কোন গর্ভাবস্থা প্রসবের প্রস্তাবিত তারিখেরও পরে চলতে থাকে

এই পরীক্ষাটি নেওয়া কার দরকার?

এনএসটি গর্ভাবস্থা সাধারণত প্রায়শই সুপারিশ করা হয়, তবে বিশেষত উচ্চ ঝুঁকিযুক্ত গর্ভাবস্থা, প্রসব শ্রম অতিরিক্ত পিছিয়ে গেলে, জরায়ুতে সাবপটিমাল অবস্থার জন্য, আগের গর্ভাবস্থায় জটিলতা থাকলে ইত্যাদির জন্য করা হয় এই পরীক্ষার আল্ট্রাসাউন্ডগুলি দেখায় যে শিশুটি প্রত্যাশার চেয়ে ছোট কিনা বা যদি শিশুর গতিবিধি প্রত্যাশার চেয়ে কম হয়, তখনও এনএসটি প্রস্তাবিত হয়। আপনার যদি প্রিক্ল্যাম্পসিয়া বা গর্ভকালীন ডায়াবেটিসের মতো সমস্যা হয়, তখনও এটি করা যেতে পারে।

কখন একটি ননস্ট্রেস টেস্ট সম্পন্ন হয়?

গর্ভাবস্থায় ননস্ট্রেস পরীক্ষা তৃতীয় ত্রৈমাসিকের মধ্যে প্রসবের নির্ধারিত তারিখের প্রায় সপ্তাহ আগে প্রস্তাবিত হয়। এর কারণ, গর্ভাবস্থার কমপক্ষে ২৮ সপ্তাহের পরে কেবল ভ্রূণের হার্ট বিট সঠিকভাবে পরিমাপ সরবরাহ করতে পারে।

এনএসটি কেন সম্পাদন করা হয়?

এনএসটি ভ্রূণের হাইপোক্সিয়ার সম্ভাবনা পরীক্ষা করার জন্য করা হয়, এটি হল সেই অবস্থা জখন ভ্রূণের অক্সিজেন সরবরাহের অভাব হয়, যা মারাত্মক জটিলতা সৃষ্টি করতে পারে। প্রসব শ্রমের প্রস্তাবিত তারিখের থেকে অতিরিক্ত পিছিয়ে যাওয়ার পাশাপাশি, নন স্ট্রেস পরীক্ষা করার জন্য আরও কয়েকটি কারণ রয়েছে।

  • উচ্চ রক্তচাপ, এটি ভ্রূণের স্বাস্থ্যের ক্ষতি করতে পারে।
  • আপনার যদি পলিহাইড্র্যামনিওস (এমন একটি অবস্থা যেখানে ভ্রূণের চারপাশে অ্যামনিয়োটিক থলিতে অতিরিক্ত অ্যামনিয়োটিক তরল থাকে) বা অলিগোহাইড্রামনিয়াস (পর্যাপ্ত অ্যামনিয়োটিক তরলের অভাব) থাকে তবে গর্ভাবস্থার জটিলতা দেখা দিতে পারে।
  • লেটপ্রেগ্ন্যনাসি অ্যামনিওসেন্টেসিস বা এক্সটারনাল সিফালিক ভারশনস (একটি শিশুকে ব্রিচ/ট্রান্সভার্স থেকে ভার্টেক্সে বা মাথা নিচের দিকের অবস্থানে ফিরিয়ে দেওয়ার পদ্ধতি) শিশুর উপর প্রভাব ফেলতে পারে।
  • ভ্রূণের গতিবিধি হ্রাস বা বৃদ্ধি আরও অন্য সমস্যাগুলি নির্দেশ করতে পারে।
  • আগে গর্ভপাত বা মৃত শিশুর স্থির জন্ম হলে ভ্রূণের মৃত্যুর ঝুঁকি বাড়ায়।
  • ভ্রূণের একটি জিনগত অস্বাভাবিকতা রয়েছে যা পর্যবেক্ষণের প্রয়োজন।

গর্ভাবস্থায় ননস্ট্রেস টেস্ট কতবার করা হয়?

গর্ভাবস্থার জটিলতার একটি বর্ধিত ঝুঁকি থাকলে গর্ভধারণের ২৮তম সপ্তাহের পরে, সপ্তাহে কমপক্ষে দুইবার এনএসটি করানো হতে পারে। এনএসটি ফ্রিকোয়েন্সি হবু মা ও তার ভ্রূণের পরিস্থিতির তীব্রতার উপর নির্ভর করবে, সুতরাং পরামর্শের জন্য আপনার ডাক্তারের কাছে জিজ্ঞাসা করে তা নিশ্চিত করুন। যদি আপনার ডাক্তার ভ্রূণের হাইপোক্সিয়ার সম্ভাবনা সন্দেহ করে, তবে আপনাকে দৈনিক ননস্ট্রেস পরীক্ষা করতে বলা হবে।

গর্ভাবস্থায় নন-স্ট্রেস টেস্ট কতবার করা হয়?

গর্ভাবস্থায় ননস্ট্রেস পরীক্ষা সম্পাদনের পদ্ধতি

প্রক্রিয়াটির শুরুতে আপনাকে আপনার পিঠে সমর্থন দিয়ে আপনার দেহের বাম পাশে ঘুরে শুয়ে থাকতে হবে। দুটি গ্যাজেট আপনার পেটেরর সাথে সংযুক্ত করা হয়, একটি জরায়ুর সংকোচন রেকর্ড করে এবং অন্যটি ভ্রূণের হার্ট রেট ও গতিবিধি রেকর্ড করে। মাঝেমধ্যে, শিশুটি ঘুমিয়ে থাকতে পারে, তাই ডাক্তার তাকে ঘুম থেকে জাগাতে আপনাকে কিছু খেতে বা পান করতে পরামর্শ দিতে পারে। আপনার পেটটি হালকাভাবে চাপ দিয়েও এই ফলাফল অর্জন করা যায়। পরীক্ষাটি এক ঘন্টা সময় নিতে পারে, তাই পরীক্ষার আগে বাথরুমটি নির্দ্বিধায় ব্যবহার করুন। পরীক্ষাটি আপনার এবং শিশু উভয়ের জন্য একদমই বেদনাদায়ক নয়।

আপনি কখন পরীক্ষার ফলাফল পাবেন এবং ফলাফলের অর্থ কী?

পরীক্ষা সম্পাদন করার সাথে সাথেই তার ফলাফল পাওয়া যায়। ননস্ট্রেস পরীক্ষার মূলত দুটি ধরণের ফলাফল রয়েছে:

. প্রতিক্রিয়াশীল

ফলাফলকে প্রতিক্রিয়াশীল বা স্বাভাবিক বলা হয়, যদি বাচ্চার হার্ট রেট বিশ্রামের সময় কমপক্ষে ১০১৫ বিপিএম হয়, নড়াচড়ার পর ১৫ বিপিএম হয়। ফলাফলটি প্রতিক্রিয়াশীল হিসাবে বিবেচিত হওয়ার জন্য ২০ মিনিটের মধ্যে শিশুটিকে দুবার পরীক্ষা করতে হবে।

. অপ্রতিক্রিয়াশীল

যদি ভ্রূণের হৃদস্পন্দন গতিবিধির সাথে বৃদ্ধি না পায় বা কমপক্ষে ৬০৯০ মিনিট অন্তর যদি ভ্রূণটি না নড়াচড়া করে, তবে সেই ফলাফলকে অপ্রতিক্রিয়াশীল বলা হয়। এই ফলাফলের অর্থ হল ভ্রূণের হাইপোক্সিয়া বা প্লাসেন্টার সমস্যাগুলি নির্ণয় হতে পারে। তবে এর অর্থ এই নয় যে আসলে নিশ্চিতভাবে কোন সমস্যা আছে এবং চিকিৎসক আপনাকে কয়েক ঘন্টা পরে পুনরায় এনএসটি করতে বা রোগ নির্ণয়ের বিষয়টি নিশ্চিত করতে আরও কিছু পরীক্ষা করানোর পরামর্শ দিতে পারেন।

আর কোন পরীক্ষার কি প্রয়োজন আছে?

যদি পরীক্ষাটি অপ্রতিক্রিয়াশীল ফলাফল দেখায়, তবুও চিকিৎসক নিশ্চিতভাবে বলতে পারবেন না যে এটি অল্প অক্সিজেন সরবরাহ বা গর্ভাবস্থার ওষুধগুলি, ভ্রূণের ঘুমের ধরণ বা জিনগত ত্রুটির মতো কোন কারণে হয়েছে কিনা। আপনার যদি এনএসটির ফলাফল অপ্রতিক্রিয়াশীল হয় তবে দুটি প্রধান পরীক্ষা করাতে হতে পারে:

. কন্সট্রাকশন স্ট্রেস টেস্ট

এই পরীক্ষাটি চিকিৎসককে জানাবে যে শিশুটির জন্য প্রসব শ্রম ও প্রসব কতটা চাপের হতে চলেছে। কন্সট্রাকশন স্ট্রেস টেস্টগুলি পরিমাপ করে যে কীভাবে ভ্রূণের হৃদস্পন্দন জরায়ুর সংকোচনের চাপের সাথে পরিবর্তিত হয়। চিকিৎসক আপনাকে অক্সিটোসিন দেবেন, যা জরায়ুর সংকোচনকে উদ্দীপনা দেয়, তবে একটি হালকা উপায়ে। সংকোচন চলাকালীন শিশুর বিপিএম হ্রাস হওয়ার অর্থ সে প্রসবের সময় চাপ পেতে পারে।

. বায়োফিজিক্যাল প্রোফাইল

এই পরীক্ষাটি আলট্রাসোনোগ্রাফির সাথে একযোগে একটি ননস্ট্রেস পরীক্ষা। এটি ভ্রূণের শ্বাসপ্রশ্বাসের হার, ক্রিয়াকলাপ, দেহের গঠনের পাশাপাশি জরায়ুতে অ্যামনিয়োটিক তরল পরিমাপ করে। একটি অস্বাভাবিক বায়োফিজিকাল প্রোফাইল পরীক্ষা অকাল প্রসবকে বোঝায়।

ননস্ট্রেস টেস্টের সাথে কি কোন ঝুঁকি বা পার্শ্ব প্রতিক্রিয়া জড়িত?

এনএসটি অনাক্রমণাত্মক পরীক্ষা, যার অর্থ এটি শারীরিক ব্যথা বা বিপদের সাথে জড়িত নয়। একটি ঝুঁকি রয়েছ তা হল, এনএসটি পুরোপুরি সঠিকভাবে জটিলতা সনাক্ত করতে পারে না বা ভুলটিকে নির্দেশ করতে পারে না, যার ফলে আরও পরীক্ষা প্রক্রিয়া পরিচালিত হয়।

আপনার শিশুর সুস্বাস্থ্য নিশ্চিত করার জন্য ননস্ট্রেস পরীক্ষা হল অন্যতম গুরুত্বপূর্ণ এবং ঝুঁকিমুক্ত পরীক্ষা। শিশুর স্বাস্থ্যের উপর একটি নজর রাখতে নিয়মিত আপনার চিকিৎসকের সাথে দেখা করুন। যদি এনএসটি পরীক্ষার ফলাফল কোন বিপদ নির্দেশ করে, আপনার চিকিৎসক সম্ভবত প্ররোচিত প্রসবের পরামর্শ দেবেন।