গর্ভাবস্থায় গর্ভকালীন স্যাক বা থলি-এটি কি সূচিত করে

গর্ভাবস্থায় গর্ভকালীন স্যাক বা থলি-এটি কি সূচিত করে

গর্ভাবস্থার অগ্রগতি প্রতিটি মহিলার ক্ষেত্রেই পৃথক প্রকৃতির হয়ে থাকতে পারে।একটি সন্তানধারণ করা আবার একটি জটিল প্রক্রিয়াও হয়ে উঠতে পারে।ভ্রূণের বিকাশের প্রাথমিক পর্যায়ে সাধারণত একটা নিরাপদ এবং সুস্থ ও স্বাস্থ্যকর গর্ভাবস্থার ভিত্তি গড়ে ওঠে।সুতরাং একটা আল্ট্রাসাউন্ড এবং কিছু রক্ত পরীক্ষা করানোর মাধ্যমে গর্ভাবস্থার নিশ্চিতকরণটি অনুসরণ করা হয়।আপনার ডাক্তারবাবু হয়ত একটা রক্ত পরীক্ষার মাধ্যমে hCG(হিউম্যান ক্রনিক গোনাডোট্রপিন)-এর মাত্রাটি পরীক্ষা করতে পারেন।একটা আল্ট্রাসাউন্ড করানোর সময় ডাক্তারবাবু গর্ভকালীন থলিটির অবস্থা বোঝার চেষ্টা করেন, যা তাঁকে গর্ভাবস্থার অগ্রগতি নিরূপণে সহায়তা করে।

aniview

গর্ভদশার তিন থেকে পাঁচ সপ্তাহের মধ্যে একটি গর্ভকালীন থলির উপস্থিতি সাধারণত একটা ইতিবাচক চিহ্ন হিসেবে বিবেচিত।আবার অনেক সময়, ভ্রূণের উপস্থিতি ছাড়াও একটা গর্ভকালীন থলি সনাক্ত হওয়ার মত ঘটনা ঘটতে পারে।

কিছু কিছু ক্ষেত্রে, আলট্রাসাউন্ড করানোর সময়, ডাক্তারবাবু গর্ভকালীন থলিটি দেখতে অসর্মথ হতে পারেন।গর্ভকালীন তারিখগুলির ভ্রান্ত গণনার জন্য এজাতীয় পরিস্থিতি দেখা দিতে পারে, যার অর্থ হতে পারে যে, গর্ভকালীন থলিটি দেখা দেওয়ার ক্ষেত্রে সেটি অনেকটাই শীঘ্র সময়।তবে নিয়মিত ভিত্তিতে অনুসরণগুলি করতে থাকার সময়েও যদি গর্ভকালীন থলি না সনাক্ত করা যায় বা দেখা যায়, তবে সেটি সম্ভবত একটি এক্টোপিক গর্ভাবস্থা বা একটা গর্ভপাতের সঙ্কেত হতে পারে।

গর্ভকালীন স্যাক বা থলি কি?

প্রারম্ভিক আল্ট্রাসাউন্ডের মাধ্যমে গর্ভকালীন স্যাক বা থলির সনাক্তকরণ করাটি হল সাধারণত গর্ভাবস্থার অগ্রগতি নির্ণয়ের সহজতম উপায়।গর্ভকালীন থলিটি হল বিকাশকারী ভ্রূণকে ঘিরে থাকা তার চারপাশের কুসুমযুক্ত গহ্বর, যেটি সাধারণত জরায়ুতে উপস্থিত থাকে।একটা অবস্টেট্রিক আল্ট্রাসাউন্ডে যখন দেখা হয়, সেটি চারপাশে সাদা রিম বা বেড়যুক্ত একটা অন্ধকার জায়গার মত দেখায়।

একটি গর্ভকালীন থলি হল কেবল এমন এক গঠণগত প্রমাণ যা কোনও ভ্রূণ সনাক্ত না হওয়া অবধি একটি ইন্ট্রাউটেরাইন প্রেগন্যান্সি বা জরায়ুস্থ গর্ভাবস্থার অস্তিত্বের ইঙ্গিত দিতে পারে।এটি সাধারণত শেষ মাসিক চক্র শেষ হওয়ার প্রায় 5 থেকে 7 সপ্তাহ পরে বিকাশ লাভ করে।গর্ভধারণের প্রায় তিন থেকে পাঁচ সপ্তাহের মধ্যে এটি সাধারণত লক্ষণীয় হয়, যখন MSD (মিন স্যাক ডায়ামিটার বা থলিটির গড় ব্যাস) টির পরিমাপ অবস্টেট্রিক আল্ট্রাসনোগ্রাফি দ্বারা মোটামুটি প্রায় 2-3 মিমি ব্যাসের হয়ে থাকে অথবা যখন HCG এর মাত্রা হয়ে থাকে 1500 থেকে 2000 এর কাছাকাছি।

গর্ভাবস্থার প্রথম দিকে (8-10 সপ্তাহের আগে) গর্ভকালীন থলিটির আকার সাধারণত একটা গুরুত্বপূর্ণ অবদান রাখে।যদিও একটা বৃত্তাকার গর্ভকালীন থলিকেই সাধারণত আদর্শ হিসেবে বিবেচনা করা হয়ে থাকে, কিন্তু অন্যান্য আকারগুলির অর্থ যে কি তা ব্যাখ্যা করার বা বোঝানোর কোনও নির্দিষ্ট প্রণালী নেই।তবে কোনও ক্ষেত্রে, চিকিৎসক যদি অস্বাভাবিক আকারের গর্ভকালীন থলির সন্ধান পান, তবে সেক্ষেত্রে কোনও সমস্যা বা জটিলতা আছে কিনা তা নির্ধারণের জন্য তিনি সেটি নিয়মিত পর্যবেক্ষণ করতে পারেন।সাধারণত, গর্ভকালীন থলিটি সর্বশেষ পরীক্ষা করার 1 কিম্বা 2 সপ্তাহ পরে ডাক্তারবাবুর ভ্রূণের হৃদ্‌স্পন্দনটি সনাক্ত করতে পারা উচিত, যা গর্ভাবস্থাটি ভালভাবে এগিয়ে চলার একটা নিশ্চিত লক্ষণ।

আপনার একটি আল্ট্রাসাউন্ড করার মাধ্যমে যদি একটা গর্ভকালীন থলি দেখা যায়, তবে সেটা কি একটা স্বাভাবিক গর্ভাবস্থার প্রতিভূ?

একটা আলট্রাসাউন্ড করানোর সময় একটা গর্ভকালীন থলি ধরা পড়লে, তা গর্ভাবস্থার একটা ইতিবাচক লক্ষণ।তবে একটা গর্ভকালীন থলির একাকী উপস্থিতি একটা স্বাভাবিক গর্ভাবস্থার প্রতিভূ নাও হয়ে থাকতে পারে।গর্ভকালীন থলিটি ছাড়াও, এর মধ্যে একটা কুসুম থলি গড়ে ওঠা এবং তার সাথে আবার তার বিকাশ হওয়াটাও গুরুত্বপূর্ণ।কুসুম থলিটি খুবই গুরুত্বপূর্ণ, যেহেতু ক্রম বিকশিত ভ্রূণটি এটি থেকে তার প্রয়োজনীয় পুষ্টি পায় যতক্ষণ না প্ল্যাসেন্টা বা অমরা সেই ভার গ্রহণ করে।একটা ট্রান্সভ্যাজিনাল আল্ট্রাসাউন্ডে, গর্ভাবস্থার 5-6 সপ্তাহের মধ্যে সাধারণত একটা কুসুম থলি প্রতীয়মান হয়ে ওঠে।অনেকসময় আবার আলট্রাসাউন্ডে গর্ভকালীন থলিটি দেখা যেতে পারে কিন্তু তা সত্ত্বেও তার মধ্যে কুসুম থলিটির সন্ধান নাও মিলতে পারে।

গর্ভকালীন থলির অনুপস্থিতির কারণ সমূহ

নিম্নলিখিত কারণসমূহের দরুণ গর্ভকালীন থলিটি অনুপস্থিত হতে পারেঃ

  • এর সবচেয়ে সাধারণ একটি কারণ হতে পারে গর্ভধারণের ভুল গণনা।আপনাকে হয়ত সেটি পরীক্ষা করার জন্য অন্য আরেকটি আল্ট্রাসাউন্ড টেস্ট করাতে হতে পারে।আপনার hCG মাত্রার সাথে আপনার আলট্রাসাউন্ড টেস্টের ফলটি তুলনা করলে তা এক্ষেত্রে আপনার পক্ষে সহায়ক প্রমাণিত হতে পারে।আপনার hCG এর মাত্রা যদি 1500 এরও কম হয়, তবে সেক্ষেত্রে আপনার গর্ভকালীন থলিটি পর্যবেক্ষণ করাটা খুব শীঘ্র করা হয়ে গিয়ে থাকতে পারে।
  • একটি গর্ভপাত ঘটে গিয়ে থাকতে পারে কিম্বা সেটি হওয়ার সম্ভাবনা থাকতে পারে। hCG- এর মাত্রা কমে যাওয়া একটা গর্ভপাতের সঙ্কেত হতে পারে।
  • যদি একটি গর্ভকালীন থলি না দেখা যায় এবং hCG এর মাত্রাটি মোটামুটি প্রায় 1500-2000 হয়ে থাকে, তবে সেটি একটা এক্টোপিক গর্ভাবস্থার লক্ষণ হতে পারে।এক্টোপিক গর্ভাবস্থা অথবা এক্সট্রাইউটেরাইন গর্ভাবস্থার অর্থ হল, জরায়ুর বাইরে ভ্রূণের রোপিত হওয়া।এই ধরণের ঘটনাটি হল একটি জরুরীকালীন চিকিৎসাজনিত অবস্থা এবং তার জন্য আরও পরীক্ষা নিরীক্ষা করিয়ে রোগ নির্ধারণ করা এবং তার যথাযথ চিকিৎসা করানোর প্রয়োজন হতে পারে।এক্ষেত্রে BhCG মাত্রার ধারাবাহিক পর্যবেক্ষণের পরামর্শ দেওয়া হয়।

গর্ভকালীন থলির অনুপস্থিতির কারণ সমূহ

একটি শূণ্য বা ফাঁকা গর্ভকালীন থলি কি নির্দেশ করে?

গর্ভদশার 6 সপ্তাহের মধ্যে গর্ভকালীন থলির ভিতরে একটি ভ্রূণকে সনাক্ত করতে পারাটা সম্ভব।তবে মাঝেমধ্যে কখনও কখনও একটি অ্যানএম্ব্রায়োনিক গর্ভাবস্থা বা গর্ভকালীন থলির গর্ভপাতও হয়ে থাকতে পারে।যেমন উদাহরণস্বরূপ, প্রারম্ভিক গর্ভকালীন থলিটি ফাঁকা হয় এবং তার মধ্যে কোনও ভ্রূণ থাকে না।এর খুব সহজ একটা অর্থ হল এই যে, ভ্রূণটি বিকাশ করতে অক্ষম ছিল।কারণগুলি অস্বাভাবিক কোষ বিভাজন থেকে শুরু করে নিম্নমানের ডিম্বাণু বা শুক্রাণু পর্যন্ত হতে পারে।এই ধরণের একটি গর্ভাবস্থা হ্রাস সাধারণত গর্ভাবস্থার প্রথম দিকের দিনগুলিতে ঘটে এবং সেক্ষেত্রে প্রায়শই কোনও মহিলা আবার এমনকি এটিও উপলব্ধি করতে পারেন না যে তিনি গর্ভবতী ছিলেন।

আবার অনেক ক্ষেত্রে, কোনও কোনও মহিলার ক্রোমোজমীয় অনিয়মতার কারণে স্বাভাবিকভাবে গর্ভপাতটি হয়ে থাকে।যখন আবার কিছু ক্ষেত্রে কোনও মহিলাকে D এবং C (ডায়ালেশন এবং কারেটেজ) পদ্ধতিটিকে বেছে নিতে হতে পারে।

একটা ফাঁকা গর্ভকালীন থলি পর্যবেক্ষণের পর আপনার ডাক্তারবাবু কি করবেন?

একটি ফাঁকা বা খালি গর্ভকালীন থলির জন্য যে কারণগুলি হতে পারে তার মধ্যে রয়েছে প্রারম্ভিক ইন্ট্রাউটেরাইন বা জরায়ুস্থ গর্ভাবস্থা, অ্যানএম্ব্রায়োনিক গর্ভাবস্থা বা ব্লাইটেড বা ক্ষয়রোগাক্রান্ত ডিম্বাশয়। আপনার ডাক্তারবাবু যদি একটি ফাঁকা বা খালি গর্ভকালীন থলি দেখতে পান, তবে সেক্ষেত্রে তিনি আপনার hCG এর মাত্রাগুলি পরীক্ষা করতে পারেন এবং আরও একটি আল্ট্রাসাউন্ড করানোর পরামর্শ দিতে পারেন, কারণ কখনও কখনও গর্ভাবস্থার প্রথম দিকে গর্ভকালীন বয়স গণনা করাটা কঠিন হয়ে ওঠে এবং পরীক্ষা করার জন্য করে থাকা আল্ট্রাসাউন্ড পরীক্ষাগুলিতে পরের দিকে একটি ভ্রূণ প্রকাশ পেতে পারে।

যাইহোক, ফলাফলগুলি যদি আপনার অনুকূলে না হয়ে থাকে, তবে সেক্ষেত্রে আপনার ডাক্তারবাবু হয়ত আপনাকে গর্ভপাত করানোর জন্য প্রস্তুত করাতে পারেন, যেহেতু গর্ভাবস্থাটি আপনার ক্ষেত্রে স্বাভাবিকভাবে অগ্রসর হয় না এবং পরিণামস্বরূপ একটি সন্তান জন্ম দেওয়ারও সম্ভাবনা থাকে না।আপনার ডাক্তারবাবু যদি কোনও অনিয়মিত গর্ভকালীন থলি পর্যবেক্ষণ করেন তবে সেক্ষেত্রে তিনি আপনার গর্ভাবস্থাটিকে অটেকসই (ব্যর্থগর্ভাবস্থা) বলে ঘোষণা করতে পারেন, যার সহজ অর্থ হলগর্ভকালীন থলটি কোনও একটি সাধারণ গর্ভকালীন থলির সুসংজ্ঞায়িত এবং ধারাবাহিক কাঠামো বা গঠণের অধিকারী নয়।

বিভিন্ন মহিলার গর্ভাবস্থার অভিজ্ঞতাটি বিভিন্ন ধরণের হতে পারে।এক্ষেত্রে যতটা সম্ভব হাসিখুশি এবং চাপ মুক্ত থাকাটাই গুরুত্বপূর্ণ।আর তার জন্য সর্বদা আপনার পরিবার এবং বন্ধুদের থেকে আপনার মানসিক এবং শারীরিক সমর্থন পাওয়া এবং তা গ্রহণ করাটাও জরুরি। এধরণের কোনও জটিলতার ক্ষেত্রে প্রয়োজনীয় গাইডেন্স এবং চিকিৎসার জন্য আপনার ডাক্তারবাবুর সাথে পরামর্শ করাই হল বুদ্ধিমানের কাজ।