ডিম্বস্ফোটনের জন্য সার্ভিক্যাল মিউকাস বা শ্লেষ্মার অনুসরণ বা ট্র্যাক

ডিম্বস্ফোটনের জন্য সার্ভিক্যাল মিউকাস বা শ্লেষ্মার অনুসরণ

সারা মাস জুড়ে আপনার শরীর দ্বারা উত্পাদিত সার্ভিক্যাল মিউকাসের গুণমান এবং পরিমাণ অনুসরণ করা আপনার ডিম্বস্ফোটন হচ্ছে কিনা ও কখন হচ্ছে তা বুঝতে সহায়তা করবে । এই জ্ঞান গর্ভধারণ করার চেষ্টা করার সময় আপনাকে আরও সাহায্য করবে । ডিম্বস্ফোটনের জন্য সার্ভিক্যাল মিউকাস ট্র্যাকিং সম্পর্কে সব জানতে পড়ুন ।

aniview

সার্ভিক্যাল মিউকাস হল মাসিক চক্রের বিভিন্ন পর্যায়ে আপনার সার্ভিক্স দ্বারা উত্পাদিত জলজ পদার্থ । প্রতিটি সুস্থ মহিলা বিভিন্ন ধরণের সার্ভিক্যাল মিউকাস (সিএম) তৈরি করে যা তার চক্রের উপর নির্ভর করে । গর্ভবতী হওয়ার জন্য সার্ভিক্যাল মিউকাসের পরিমাণ, গুণ এবং অবস্থাটি একজন মহিলার স্বাস্থ্য, শরীর গর্ভধারণের জন্য কতটা উপযুক্ত তা যৌনসঙ্গমের সময় জড়িত থাকার একটি দুর্দান্ত নির্দেশক হতে পারে ।

যদিও ডিম্বস্ফোটন সনাক্ত করার জন্য আরো পরিশীলিত এবং নির্ভুল পদ্ধতি বিদ্যমান আছে, তবে আপনার সার্ভিক্যাল মিউকাস ব্যবহার করে নির্দেশক হিসাবে ব্যবহার করা সহজ, কম সময় গ্রহণকারী এবং বিনামূল্যের পদ্ধতি । সার্ভিক্যাল মিউকাস ট্র্যাকিং শুধুমাত্র আপনার শরীরকে আরও ভালভাবে বোঝার জন্য একটি সরঞ্জামই দেয় না, পাশাপ্সহি এটি আপনাকে আপনার যৌন জীবন, গর্ভাবস্থা এবং পারিবারিক পরিকল্পনা সম্পর্কে জ্ঞাত সিদ্ধান্ত নিতেও সক্ষম করে ।

যাইহোক, আমরা সার্ভিক্যাল মিউকাস ও ডিম্বস্ফোটনের মধ্যে সংযোগ এবং বিভিন্ন ধরনের সার্ভিক্যাল মিউকাস ক্মন দেখতে তা বোঝার আগে, আমরা প্রথমে ডিম্বস্ফোটন এবং সার্ভিক্যাল মিউকাস সম্পর্কে একটু বুঝে নিই ।

সার্ভিক্যাল মিউকাস কি?

সার্ভিক্যাল মিউকাস (সিএম) একটি চটচটে, জলজ, পাতলা পদার্থ যা সার্ভিক্সে উপস্থিত গ্ল্যান্ডস (গলার মতো দেখতে গর্ভাশয়ের নিচের অংশ, যা একে যোনির সঙ্গে সংযুক্ত করে) দ্বারা উপস্থাপিত করা হয় । সার্ভিক্যাল মিউকাস, বিশেষ করে, নিম্নলিখিত কাজ করে:

  • এটা সার্ভিক্সকে পিচ্ছিল করে ।
  • এটি সার্ভিক্সকে আর্দ্র রাখে এবং ডিহাইড্রেশন থেকে সঙ্কুচিত হতে বাধা দেয় ।
  • ডিম্বস্ফোটনের পরে, সার্ভিক্যাল মিউকাস শুক্রাণুকে ডিম্বাণুতে পৌঁছানোর জন্য একটি পরিবহন মাধ্যম হিসাবে কাজ করে এবং এভাবে ডিম্বাণুকে নিষিক্ত করার সুযোগ করে দেয় ।
  • এই সময়ের মধ্যে, সিএম এছাড়াও শুক্রাণুকে দীর্ঘায়ু করে ।
  • মাসিক চক্রের অন্যান্য পর্যায়ে, সার্ভিক্যাল মিউকাস শুক্রাণুগুলির বাধা হিসাবে কাজ করে এবং তাদের জরায়ুতে পৌঁছাতে বাধা দেয় ।

সার্ভিক্যাল মিউকাস এবং ডিম্বস্ফোটন

ডিম্বস্ফোটন প্রক্রিয়াটি যার মধ্যে ডিম্বাশয়টি গর্ভাশয়ে একটি পরিপক্ক ডিম্বাণু প্রকাশ করে । ডিম্বস্ফোটন সাধারণত মাসিক চক্রের প্রায় মাঝখানে ঘটে। যদি একটি মহিলার ডিম্বস্ফোটনের ৭২ ঘন্টার মধ্যে অনিরাপদ যৌন সঙ্গম হয়, সে গর্ভবতী হবে তার সম্ভাবনা বেশি থাকে ।

ডিম্বস্ফোটন এবং সিএম-কে ঘনিষ্ঠভাবে সম্পর্কিত করা হয় এবং গর্ভবতী হওয়ার সম্ভাবনা উন্নত করার জন্য ব্যবহার করা যেতে পারে, কারণ সার্ভিক্যাল মিউকাসের গঠন মাসিক চক্র জুড়ে পরিবর্তনশীল হয় । এর মানে হচ্ছে, তার শরীরের দ্বারা উত্পাদিত মিউকাসের অধ্যয়ন করলে, একজন মহিলা প্রকৃতপক্ষে বলতে পারবে যে তার ডিম্বস্ফোটন হচ্ছে কি না ।

মাসিক চক্র প্রাথমিকভাবে ৪টি হরমোন দ্বারা পরিচালিত হয় – ফোলিক-স্টিমুলেশন হরমোন (এফএসএইচ), ল্যিউটিনাইজিং হরমোন (এলএইচ), ইস্ট্রোজেন এবং প্রজেসটেরোন । এই হরমোনগুলির মাত্রা পরিবর্তন করার প্রতিক্রিয়ায়, মহিলার শরীর মাসিক চক্রের বিভিন্ন পর্যায়ে প্রবেশ করে ।

ডিম্বস্ফোটনের সময় সার্ভিক্যাল মিউকাস নিরীক্ষণ

একজন মহিলা সার্ভিক্যাল মিউকাসকে তার চেহারা বা অনুভূতি দ্বারা করতে পারে । চেহারা দ্বারা, আমরা আপনাকে আপনার ডিম্বস্ফোটনের সময় নির্ধারণ করার জন্য সার্ভিক্যাল মিউকাসের রঙ এবং সামঞ্জস্য লক্ষ্য করার কথা বলছি । এছাড়াও সার্ভিক্যাল মিউকাসের দ্বারা উত্পন্ন সংবেদন আপনার ডিম্বস্ফোটনের সময় সনাক্ত করতে সাহায্য করতে পারে । মহিলা আঙুল দিয়ে পরীক্ষা করতে পারেন; আপনার যোনি মধ্যে একটি আঙ্গুল ঢোকান এবং সার্ভিক্যাল মিউকাসের নোট নিন । প্রাক-ডিম্বস্ফোটন সময়কালে এটি শুষ্ক হবে । যখন আপনি উর্বর বা অত্যন্ত উর্বর থাকবেন, সার্ভিক্যাল মিউকাস আর্দ্র বা পিচ্ছিল হবে । এবং ডিম্বস্ফোটনের পরের পর্যায়ে, এটা শুকনো হয় ।

কী টেকওয়ে: সার্ভিক্যাল মিউকাসের বিভিন্ন পর্যায়ে এটি আরও ভালভাবে বোঝার জন্য এবং আপনি যদি গর্ভবতী হতে চান তবে এগুলি নোট করুন –

  • সার্ভিক্যাল মিউকাস আপনার সার্ভিক্সের গ্রন্থি দ্বারা তৈরি হয় এবং শুক্রাণু সম্পর্কিত দুটি কার্যকারিতা রয়েছে ।
  • সার্ভিক্যাল মিউকাস শুক্রাণুকে বের করে দিতে পারে বা এটিকে গর্ভাশয়ে প্রবেশ করিয়ে দিতে পারে ।
  • চক্রের শুরুতে সার্ভিক্যাল মিউকাস শুকনো থাকে, তারপর চটচটে হয় । আপনি ডিম্বস্ফোটন শুরু হলে এটি ক্রিমের মতো হবে এবং অবশেষে, ডিম্বস্ফোটনের সময় এটি পিচ্ছিল হবে ।
  • পিচ্ছিল মিউকাস একটি অত্যন্ত-উর্বর পর্যায়কে নির্দেশ করে এবং শুক্রাণু এটিতে আকৃষ্ট হয় ।
  • গর্ভবতী হতে, এটি যৌন সঙ্গমের একটি উপযুক্ত সময় ।

ডিম্বস্ফোটনের সময় সার্ভিক্যাল মিউকাসের চেহারা

ডিম্বস্ফোটনের সময়, এফএসএইচ, এলএইচ, ও ইস্ট্রোজেন বৃদ্ধি পায়, এবং প্রজেসটেরোন হ্রাস পায় । এর প্রতিক্রিয়ায়, মিউকাসের গঠন পরিবর্তিত হয়: ডিম্বস্ফোটনের সময় সার্ভিক্যাল মিউকাস ৯৮% জলের মতো হয় । এটি এটিকে ‘পাতলা’, আরও জলজ করে তোলে এবং এর ফলে শুক্রাণু এর মাধ্যমে সাঁতার কাটতে এবং গর্ভাশয়ে পৌঁছাতে পারে । এই সময় সার্ভিক্যাল মিউকাসের পিএইচপি বেশি ক্ষারীয় হয়, শুক্রাণুকে এতে বেঁচে থাকার অনুমতি দেয় । প্রধানত মহিলা শরীরে ডিম্বস্ফোটনের সময় উত্পাদিত হয় যে মিউকাস তা ‘উর্বর সার্ভিক্যাল মিউকাস’ হিসাবে পরিচিত ।

ডিম্বস্ফোটনের পরে, প্রজেসটেরোনের মাত্রা বৃদ্ধি পায়, এবং FSH, LH, এবং ইস্ট্রোজেনের মাত্রা নিম্নমুখী হয় । এই সার্ভিক্যাল মিউকাস কম জলজতে পরিণত হয় (প্রায় ৯৩%), পুরু, কম তরল, এবং আরো অম্লীয় হয় । এই কারণে এটি অনুর্বর সার্ভিক্যাল মিউকাস হিসাবে গণ্য হয় ।

সার্ভিক্যাল মিউকাস ট্র্যাকিং বা অনুসরণ করা

এটি ডিম্বস্ফোটন সময় সার্ভিক্যাল মিউকাসের উপরে বর্ণিত বর্ণনা থেকে এটা পরিষ্কার যে: একটি গর্ভধারণ করার চেষ্টা করছে এমন একটি দম্পতির জন্য, সার্ভিক্যাল মিউকাস ধারাবাহিকতা অধ্যয়ন করা ডিম্বস্ফোটনের একটি সহজ এবং দ্রুত সূচক হতে পারে । যদিও ডিম্বস্ফোটনের ট্র্যাকিং করার জন্য বিভিন্ন পরিশীলিত পদ্ধতি বিদ্যমান – যেমন অভল্যুশন প্রেডিক্টর কিট – তবে আপনার সিএম পরীক্ষা করা আরও বেশি স্বতন্ত্র এবং সহজ । উপরন্তু, এটি মহিলাদেরকে তাদের সর্বাধিক উর্বর দিনের সনাক্ত করার অনুমতি দেবে এবং সেই অনুসারে দম্পতিকে তাদের যৌন সঙ্গমের পরিকল্পনা করতে সহায়তা করবে, যাতে গর্ভাবস্থার সম্ভাবনা বাড়িয়ে তুলতে পারে ।

সার্ভিক্যাল মিউকাসের বিভিন্ন পরামিতি রয়েছে যা আপনি সার্ভিক্যাল মিউকাস ও ডিম্বস্ফোটন বোঝার জন্য এবং গর্ভধারণ করার চেষ্টা করার সময় লক্ষ্য করতে হবে । এইগুলো হল:

  • সিএম-এর ঘনত্ব (এটা পুরু না পাতলা)
  • মিউকাসের রং
  • মিউকাসের অস্বচ্ছতা (এটি গাঢ বা স্বচ্ছ)
  • মিউকাসের পরিস্থিতি (এটি ক্রিমের মতো না জলের মতো)

আপনার মাসিক শেষ হওয়ার পরে, সার্ভিক্সটি বেশ শুষ্ক থাকে, এটিতে একটি আর্দ্রতার খুব মৌলিক স্তর উপস্থিত থাকে, যেমনটি শরীরের অন্য যে কোন অংশে পাওয়া যেতে পারে । কয়েকদিন পর, সার্ভিক্স ক্রমবর্ধমান আদ্রতা পায় ।

নিম্নলিখিত সার্ভিক্যাল মিউকাসের পর্যায়গুলি আপনি অনুসরণ করতে সক্ষম হবেন ।

১) ক্রিমের মতো সার্ভিক্যাল মিউকাস

আপনি যদি আপনার সিএমকে পরীক্ষা করেন এবং এটি ক্রিমের মতো অবস্থায় খুঁজে পান তবে এটি একটি চিহ্ন যে আপনি ডিম্বস্ফোটনের কাছাকাছি । এই ধরনের মিউকাস সাধারণত ডিম্বস্ফোটনের আগে ২ থেকে ৩ দিন পাওয়া যায় ।

ক্রিমের মতো সার্ভিক্যাল মিউকাস

এটি সর্বাধিক উর্বর সার্ভিক্যাল মিউকাসের পর্যায় নয় । যাইহোক, এটি শুক্রাণুর জন্য অস্বস্তিকর বা প্রতিকূল নয় ।

২) জলের মতো সার্ভিক্যাল মিউকাস

এই ধরনের মিউকাস ডিম্বস্ফোটনের একটি নিশ্চিত চিহ্ন । ডিম্বস্ফোটনের মিউকাস পাতলা, স্বচ্ছ এবং জলের মতো প্রায় একই সামঞ্জস্যপূর্ণ তরল মিউকাস গঠনের দ্বারা চিহ্নিত করা হয় ।

জলের মতো সার্ভিক্যাল মিউকাস

এই পর্যায় একটি দম্পতি যদি যৌনসঙ্গমে লিপ্ত হয় তবে গর্ভধারণের সম্ভাবনা খুব ভাল হয় ।

৩) ডিমের সাদা অংশের মতো সার্ভিক্যাল মিউকাস (EWCM)

ডিমের সাদা অংশের মতো সার্ভিক্যাল মিউকাস – বা EWCM – সার্ভিক্যাল মিউকাসের সেই পর্যায় যা স্বচ্ছ মিউকাস দ্বারা চিহ্নিত করা হয়, যা কাঁচা ডিমের সাদা অংশের মতই দেখায় । এটির প্রায় কাঁচা ডিমের সাদা অংশের মতো একই সামঞ্জস্য, টেক্সচার, এবং স্বচ্ছতা থাকে । আপনি যদি আপনার আঙুলের মধ্যে EWCM ধরে রাখেন এবং এটি প্রসারিত করার চেষ্টা করেন, তবে তা না ভেঙ্গে ২ ইঞ্চি পর্যন্ত প্রসারিত হবে ।

ডিমের সাদা অংশের মতো সার্ভিক্যাল মিউকাস

EWCM সবচেয়ে উর্বর ধরনের সিএম । গর্ভধারণ করার চেষ্টা করার জন্য এটি আপনার সেরা সুযোগ!

৪) চটচটে সার্ভিক্যাল মিউকাস

চটচটে সার্ভিক্যাল মিউকাস সাধারণত ডিম্বস্ফোটনের পরে দুই বা তিন দিন পাওয়া যায় । এটি নির্দেশ করে যে আপনার শরীরে পরিবর্তন হচ্ছে এবং আপনি ল্যুটেয়াল ফেজে প্রবেশ করছেন ।

চটচটে সার্ভিক্যাল মিউকাস

এই গর্ভধারণ করার জন্য একটি ভাল সময় নয় ।

কিভাবে সার্ভিক্যাল মিউকাস পরীক্ষা করতে হয়?

আপনি আপনার সার্ভিক্যাল মিউকাস অবস্থা পরীক্ষা করতে পারেন এমন বিভিন্ন উপায় রয়েছে ।

১) আপনার টয়লেট পেপার চেক করুন

সাধারণত, যখন আপনি প্রস্রাব করার পরে মোছেন, তখন আপনার টয়লেট পেপারে আপনার মিউকাস অল্প পরিমাণে লেগে যায় । আপনার টয়লেট পেপারে যে সার্ভিক্যাল মিউকাস লেগে থাকবে তার ধরন পরীক্ষা করে দেখুন । যদি যথেষ্ট না হয়, তবে আপনি আপনার যোনিতে টিস্যু পেপারটি একটু গভীরে ঢুকিয়ে আবার চেষ্টা করতে পারেন ।

দ্রষ্টব্য: নিশ্চিত করুন আপনার টয়লেট পেপারটি পরিষ্কার । সর্বদা টয়লেট পেপারকে পরিষ্কার ও শুষ্ক স্থানে সংরক্ষণ করুন এবং সংক্রমণ এড়াতে সর্বদা এটিকে ঢেকে রাখুন ।

২) আপনার প্যান্টি লাইনার চেক করুন

অনেক মহিলারা প্যান্টি লাইনার ব্যবহার করে যখন তারা জানে যে দীর্ঘ ঘন্টার জন্য ঘর থেকে বাইরে থাকবে । একটি প্যান্টি লাইনার হল একটি স্যানিটারি ন্যাপকিনের একটি ছোট, পাতলা, নরম সংস্করণ যা আপনার প্রস্রাবের পর থাকা অপ্রয়োজনীয় আর্দ্রতা এবং অবশিষ্ট মূত্র শোষণ করে, এবং আপনার প্যান্টিকে শুষ্ক রাখে । এটি আপনাকে তাজা অনুভব করায় । আপনার CM খুব সময় ধরে আপনার প্যান্টি লাইনারের উপর জমা হতে পারে । তাই পরবর্তী সময়ে যখন আপনি প্রস্রাব করবেন এটিকে ভালভাবে পরীক্ষা করে নিতে পারেন ।

৩) একটি সার্জিক্যাল সওয়াব ব্যবহার করুন

একটি সার্জিক্যাল সওয়াব একটি তুলোর কুঁড়ির মত, কিন্তু তুলো একটি ঘন ‘কুঁড়ি’, এবং একটি দীর্ঘ লাঠির সঙ্গে থাকে । সাধারণত, সার্জিক্যাল সওয়াব রোগীদের পরিদর্শন এবং নির্ণয় জন্য নমুনা সংগ্রহ করতে ডাক্তার ও প্রযুক্তিবিদদের দ্বারা ব্যবহৃত হয় । এগুলি সহজেই একটি অসুধের দোকানে পাওয়া যায় । আপনি একটি নির্বীজকৃত সার্জিক্যাল সওয়াব কিনা নিশ্চিত করুন । উপরের ব্যাখ্যা হিসাবে নমুনা পরিদর্শন করুন ।

৪) একটি পরিষ্কার আঙুল ঢোকান

একটি টয়লেট পেপার আপনার সিএম থেকে জলজ অংশ শোষণ করতে পারে এবং এর ফলে তার সামঞ্জস্য পরিবর্তন হয় । এই সম্ভাবনা এড়ানোর জন্য আপনি কেবল আপনার যোনিতে এক বা দুইটি আঙুল ঢোকাতে পারেন, এবং আপনার আঙুল দিয়ে আপনার সার্ভিক্স সওয়াব করতে পারেন ।

সামঞ্জস্য, টেক্সচার, এবং স্থিতিস্থাপকতার মতো জিনিস টিস্যু কাগজের তুলনায় আপনার খালি আঙুলের সঙ্গে ভাল মূল্যায়ন করা যেতে পারে ।

সার্ভিক্যাল মিউকাসে কি কোন পরিবর্তন হতে পারে?

গঠন, সামঞ্জস্য, রঙ এবং এমনকি মিউকাসের গন্ধ এমনকি চারটি প্রাথমিক হরমোন স্তরের দ্বারা নিয়ন্ত্রিত হয় যা মাসিক চক্রকে প্রভাবিত করে এবং নিয়ন্ত্রণ করে । এফএসএইচ, এলএইচ, ইস্ট্রোজেন এবং প্রজেসটেরোন । এই হরমোনগুলির মাত্রাগুলির মধ্যে একটি ভারসাম্য মাসিক চক্রের সময় উত্পন্ন CM-এর পরিমাণ এবং গুণমানকে নিয়ন্ত্রণ করবে ।

আগে ব্যাখ্যা করা হয়েছে, আপনার শরীর দ্বারা উত্পাদিত সিএম-এর পরিমাণ এবং টাইপ আপনি মাসিক চক্র কোন পর্যায়ে উপর নির্ভর করে । এটি একটি প্রাকৃতিক ও স্বাস্থ্যকর প্রক্রিয়া, এবং চিন্তা করার কিছু নেই । যাইহোক, সিএম-এর গুণমানকে প্রভাবিত করে এমন বেশ কয়েকটি কারণ জানা যায় । কি আমাদের সার্ভিক্যাল মিউকাসে পরিবর্তন করতে পারে তা বুঝতে হবে ।

১) গর্ভনিরোধকগুলি

গর্ভনিরোধকগুলি সার্ভিক্যাল মিউকাসের পরিমাণ এবং ঘনত্ব বাড়ায়

বিভিন্ন গর্ভনিরোধক বিভিন্ন উপায়ে কাজ করে । সবচেয়ে বেশি সাধারণ – মৌখিক গর্ভনিরোধক – ডিম্বস্ফোটনকে প্রতিরোধ করার কাজ করে । যাইহোক, অনেক মহিলারা অজ্ঞ হতে পারে যে গর্ভনিরোধকগুলিও কার্যকরী কারণ এগুলি সার্ভিক্যাল মিউকাসের উৎপাদিত পরিমাণ এবং ঘনত্ব বাড়ায় । গর্ভনিরোধক ব্যবহার করা মহিলারা সাধারণত পুরু মিউকাস তৈরি করে যা বাধা হিসাবে কাজ করে এবং শুক্রাণুগুলি তার মাধ্যমে সাঁতার কাটতে এবং গর্ভে পৌঁছাতে বাধা পায় ।

২) হরমোনের ভারসাম্যহীনতা

হরমোন ভারসাম্যহীনতার প্রভাব হল সার্ভিক্যাল মিউকাসের পরিবর্তন

অনেক সময়, ওজন বৃদ্ধি, চাপ ইত্যাদি কারণে হরমোন ভারসাম্যহীনতা অনুভব করতে পারে । শরীরের হরমোন ভারসাম্যহীনতার কারণে অনেকগুলি জিনিস ভুল হয় । এর একটি প্রভাব হল সার্ভিক্যাল মিউকাসের মধ্যে পরিবর্তন ।

৩) রোগ বা সংক্রমণ

একটি সংক্রমণ বা একটি রোগ CM-এর সামঞ্জস্যও বদলাতে পারে

একটি সংক্রমণ বা একটি রোগ ব্যাপকভাবে শরীরের মাইক্রোফ্লোরিয়াকে পরিবর্তন করে । উদাহরণস্বরূপ, যদি কোন মহিলার মূত্রনালীর সংক্রমণ (ইউটিআই) থাকে তবে মিউকাসের পিএইচ পরিবর্তিত হতে পারে । CM-এর সামঞ্জস্যও বদলাতে পারে – প্রায়শই মহিলারা গাঢ, মোটা সিএম-এর রিপোর্ট করে । এটি শরীরের প্রতিরক্ষা প্রক্রিয়াকে ধাক্কা মারে এবং জীবাণুকে শরীরের প্রবেশ থেকে প্রতিরোধ করে ।

৪) মানসিক চাপ

চাপ শরীরের হরমোনকে প্রভাবিত করে বলে পরিচিত

চাপ বিভিন্ন উপায়ে বিভিন্ন মানুষকে প্রভাবিত করে: চাপের ফলে ওজন বাড়ে, অন্যরা শরীরের এক বা একাধিক অংশে ব্যথা ভোগ করে । চাপ শরীরের হরমোনকে প্রভাবিত করে বলে পরিচিত, এবং অনেক সময়, চাপ উত্পাদিত সিএম-এর পরিমাণে এবং / অথবা গুণমানকে প্রভাবিত করতে পারে ।

৫) গর্ভাবস্থা

গর্ভাবস্থায় তৈরি সিএম পুরু, গাঢ, এবং চটচটে হয়

যখন কোন মহিলা গর্ভবতী হয়, তখন তার শরীর একটি সার্ভিক্যাল মিউকাস প্লাগ তৈরি করে যা বাধা হিসাবে কাজ করে এবং ব্যাকটেরিয়াকে গর্ভে প্রবেশ করতে বাধা দেয় । এই সিএম প্লাগটি নাকের মিউকাসের মতো দেখতে হয়: এতে ইমিউনোগ্লোবুলিন এবং অ্যান্টিমাইকোবায়াল পেপাইডাইডস (ছোট প্রোটিন চেইন) থাকে যা নাকে পাওয়া যায় । চেহারায়, এই সিএম পুরু, গাঢ, এবং চটচটে হয় ।

৬) বুকের দুধ খাওয়ানো

বুকের দুধ খাওয়ানো ডিম্বস্ফোটনকে দমন করে

এটি একটি পরিচিত সত্য যে বুকের দুধ খাওয়ানো ডিম্বস্ফোটনকে দমন করে । কোন ডিম্বস্ফোটন হওয়া মানে কম ইস্ট্রোজেন এবং উচ্চ প্রজেসটেরোনের মাত্রা । এই অবস্থাটি আপনার মাসিকের ঠিক কয়েকদিন পরে অনুকরণ করে এবং তাই আপনার সার্ভিক্স সংশ্লিষ্ট অবস্থায় থাকবে: এটি শুকনো হবে, খুব কমই সিএমের সাথে ।

৭) ওজন পরিবর্তন

ওজন বৃদ্ধি বা হ্রাস মিউকাসের উপর প্রভাব ফেলে

সবার ক্ষেত্রে না, কিন্তু কিছু মহিলার মিউকাসের পরিমাণে, বা গুণগত মান বা উভয় ক্ষেত্রেই পরিবর্তনের রিপোর্ট করে যখন তারা ডায়েট করে । ছোট পরিবর্তনগুলি বোঝা না যেতে পারে, চরম ওজন বৃদ্ধি বা হ্রাস, এবং আপনার খাবারের চরম পরিবর্তনগুলি আপনার সার্ভিক্যাল মিউকাসের আরও সংবেদনশীল পরিবর্তনগুলি সৃষ্টি করতে পারে ।

৮) ভ্রমণ

ভ্রমণকালে সার্ভিক্যাল মিউকাসে পরিবর্তন হওয়া সাধারণত জলের অবস্থার পরিবর্তনের কারণে হয়

ভ্রমণকালে সার্ভিক্যাল মিউকাসে পরিবর্তন হওয়া সাধারণত জলের অবস্থার পরিবর্তনের কারণে হয় । যদি স্নান ও পান করার জন্য ব্যবহৃত জলের গুণাবলি খারাপ হয়, তবে আপনার শরীর দ্রুত এটিকে মানিয়ে নেবে এবং এমন একটি সিএম তৈরি করবে যা সংক্রমণ দূরে রাখতে প্রতিরক্ষামূলক পদ্ধতির মতো স্বাভাবিকের তুলনায় আরো গাঢ এবং চটচটে হবে ।

প্রতিকূল সার্ভিক্যাল মিউকাস

প্রতিকূল সার্ভিক্যাল মিউকাস হল এমন ধরনের যেটি শুক্রাণুকে বেঁচে থাকার অনুমতি দেয় না, বা তাদের গতিশীলতা অথবা উভয়কে প্রভাবিত করে । এই মিউকাস খুব শুষ্ক, পুরু, অম্লীয় হতে পারে, এমনকি এতে এমন অ্যান্টিবডি থাকতে পারে যা শুক্রাণুর বেঁচে থাকা অসম্ভব করে তোলে ।

এমন একটি মহিলা যার শরীর প্রতিকূল সিএম উৎপাদন করছে সে তার জীবনকালে কখনও গর্ভধারণ করতে পারে না । বোঝা যায় যে, এমন মহিলা সেই মহিলাদের থেকে আলাদা, যার ডিম্বস্ফোটন হয় না । প্রতিকূল সিএম সমস্যার মুখোমুখি হচ্ছে এমন একজন মহিলা ডিম্বস্ফোটন করছে; তার শরীর প্রতি মাসে একটি স্বাস্থ্যকর ডিম্বাণু উৎপাদন করছে । যাইহোক, প্রতিকূল সিএম এই পরিপক্ক ডিম্বাণুতে পৌঁছানোর থেকে শুক্রাণুকে প্রতিরোধ করে । এই কারণে একটি প্রতিকূল সিএম-কে কখনও কখনও ‘বর্বর সার্ভিকাল মিউকাস’ বলা হয় ।

যে উপাদানগুলি প্রতিকূল সার্ভিক্যাল মিউকাসের কারণ

একজন মহিলা যার শরীর স্বাভাবিকভাবেই সুস্থ সার্ভিক্যাল মিউকাস উৎপন্ন করে, প্রতিকূল সার্ভিক্যাল মিউকাসের উৎপাদন বিভিন্ন স্বাস্থ্যের অবস্থার ইঙ্গিত হতে পারে ।

আপনার শরীরে প্রতিকূল সার্ভিক্যাল মিউকাস উৎপাদিত হয় কিনা তা বোঝার উপায়গুলির মধ্যে একটি হচ্ছে আপনি মাসিক চক্রের কোন পর্যায়ে রয়েছেন; যদি মাসিক স্তরের প্রত্যাশিত সিএম থেকে সিএম ভিন্ন হয়, সম্ভাবনা কিছু ‘অফ’ হয় এবং আপনাকে ডাক্তার দেখাতে হবে । সাধারণত, বিভিন্ন ওষুধ পরিস্থিতিটি সংশোধন করতে পারে এবং কাউন্সেলিংয়ের সাথে আপনি শীঘ্রই গর্ভধারণ করতে পারবেন ।

অন্য দিকে, এটাও দেখা গেছে যে কিছু মহিলা স্বাভাবিকভাবেই এমন এক সিএম উৎপাদন করে যা গর্ভধারণের পক্ষে খুব সহায়ক নয় । এমন পরিস্থিতি অনেকগুলি কারণে হতে পারে: লাইফস্টাইল, খাদ্যাভ্যাস, শারীরবৃত্তি, ইত্যাদি । মহিলাদের প্রথমে ডাক্তারের পরামর্শ নেওয়া এবং তাদের স্বাভাবিক / নিয়মিত সিএম কেমন হওয়া উচিত তা বোঝার পরামর্শ দেওয়া হচ্ছে ।

আপনি যদি গর্ভধারণ করার চেষ্টা করছেন, তবে আপনার শরীরের সাথে এটি পরিচিত হওয়ার সঠিক সময় । নিজেকে পরীক্ষা এবং অন্বেষণে বিব্রত বোধ করবেন না । আপনার সিএম, আপনাকে গর্ভধারণ করতে সাহায্য ছাড়াও, আপনার সামগ্রিক স্বাস্থ্যের একটি ভাল সূচকও হতে পারে । আপনার পরবর্তী মাসিকের শেষে শুরু করুন, এবং নিজেকে জানুন ।