প্রসব শ্রমেরপ্রসব শ্রমের যে লক্ষণগুলির প্রতি আপনাকে নজর রাখতে হবে

Signs of labour

আপনি হাসপাতালের জন্য ব্যাগ গোছাতে প্রস্তুত হওয়ার আগে, নিশ্চিত করুন যে আপনি প্রসব প্রসব শ্রমের প্রকৃত লক্ষণগুলি অনুভব করছেন, কারণ অনেক সময়, এটি একটি মিথ্যা সংকেত বা প্রসব শ্রম পূর্ববর্তী লক্ষণ হতে পারে। আপনার শরীর আসন্ন প্রসব শ্রমের জন্য নিজেকে প্রস্তুত করে, এবং তাই আপনি সক্রিয় প্রসব শ্রমের সাথে এটিকে গুলিয়ে ফেলতে পারেন। নীচের প্রবন্ধে, আমরা আপনাকে প্রসব শ্রমের লক্ষণগুলির সাথে পরিচিত করাব এবং আপনাকে যা করতে হবে তা জানাব।

aniview

প্রসব শ্রমের প্রাথমিক চিহ্নগুলি কী কী?

আপনি যে লক্ষ্ণগুলির সম্মুখীন হচ্ছেন তা প্রাথমিক প্রসব শ্রম কিনা ভেবে যদি আপনি চিন্তিত হন, তবে আপনি নিম্নলিখিত প্রসব শ্রমের প্রথম লক্ষণগুলি সন্ধান করতে পারেন:

1. লিক করা বা স্রাবের অভিজ্ঞতা প্রাপ্ত হলে

আপনি যদি আপনার যোনি থেকে কোন তরল বা রক্ত লিক করতে লক্ষ্য করেন বা আপনি একটি ভিন্ন রঙের স্রাব (বাদামী বা লালচে) লক্ষ্য করেন, আপনাকে অবশ্যই আপনার ডাক্তারকে ডাকা উচিত। আপনার সার্ভিক্সকে ঢেকে রাখা মিউকাসের প্লাগ নষ্ট হয়ে গিয়ে থাকতে পারে।

2. আপনার খিঁচ লাগতে পারে

আপনার খিঁচ লাগতে পারে; এটি আপনি আপনার পিরিয়ডের সময় যে ধরনের খিঁচ অনুভব করেন ঠিক সেই ধরনের। যাইহোক, এই খিঁচ লাগার সাথে ডায়রিয়া হতে পারে বা নাও হতে পারে।

3. আপনি সংকোচন অনুভব করতে পারেন

আপনার পেট খুব প্রসারিত এবং শক্ত মনে হতে পারে। যদি আপনি নিয়মিত সময় অন্তর সংকোচন অনুভব করেন, তাহলে আপনার প্রসব প্রসব শ্রম হতে পারে। তবে, ব্র্যাক্সটন হিকস সংকোচনও এই সময়ে খুব সাধারণ, কিন্তু তারা এলোমেলোভাবে হয়।

4. আপনি আপনার পেলেভিসে চাপ অনুভব করতে পারেন

আপনি আপনার পেলেভিক অঞ্চলে চাপ অনুভব করতে পারেন। এই চাপকে খানিকটা আপনার শিশু আপনার পেটের নীচের দিকে ধাক্কা দিচ্ছে বলে মনে হতে পারে।

5. আপনি পিঠে ব্যথা অনুভব করেন

আপনি পিঠে একটি ব্যাথা অনুভব করতে পারেন, যদিও এই ব্যথা আপনার পিঠের নীচের দিকে চারপাশে আরও বেশী বোঝা যাবে এবং সেটি তীব্রতাহীন এবং হালকা হতে পারে। কিন্তু এটি আপনার ডাক্তারের কাছে জানানো ভালো।

আপনাকে কী করতে হবে

আপনি একটি শান্ত জায়গায় গিয়ে আরামদায়কভাবে শুয়ে পড়তে পারেন। ধীরে ধীরে শ্বাস নিন এবং আসন্ন প্রক্রিয়ার জন্য মানসিকভাবে নিজেকে প্রস্তুত করুন। আপনার শরীরকে হাইড্রেটেড রাখার জন্য জল বা রস পান করতে পরামর্শ দেওয়া হয়। জলের অভাব বা ডিহাইড্রেশনও খিঁচুনি সৃষ্টি করতে পারে এবং আপনাকে অস্বস্তি দিতে পারে। আপনি আপনার উপসর্গগুলি ট্র্যাক করতে চাইতে পারেন, এবং তার জন্য, আপনি আপনার সহযোগী বা বন্ধুকে আপনাকে সাহায্য করতে বলতে পারেন। আপনার লক্ষণগুলি কমে গেলে বা দূর হয়ে গেলে, সেই দিনটি রিল্যাক্স করা ভালো। তবে, যদি আপনার লক্ষণগুলি আরও তীব্র হয়ে যায় এবং ব্যথা বেড়ে যায়, তবে তাৎক্ষণিক চিকিৎসার সহায়তা নিন।

সক্রিয় প্রসব শ্রম-এর চিহ্নগুলি কী কী?

নীচে প্রসব শ্রমের কাছাকাছি পৌঁছানোর কিছু লক্ষণ দেওয়া হলো:

1. শক্তিশালী এবং আরও নিয়মিত সংকোচন:

আপনি সক্রিয় প্রসব শ্রমের সময় আরো স্পষ্ট এবং নিয়মিত সংকোচন অনুভব করবেন। এই সংকোচনগুলি ব্র্যাক্সটন হিকসের সংকোচনের মতো হালকা হয়ে যাবে না বা দূর হবে না; পরিবর্তে, তারা আপনার শিশুর প্রসব পর্যন্ত থাকবে। এই সংকোচনগুলি স্বাভাবিক খিঁচুনির মতো হয়ে শুরু হতে পারে, কিন্তু আরো সুস্পষ্ট হয়ে উঠবে এবং প্রতি 3 থেকে 8 মিনিটে হতে পারে। আপনি এই সংকোচনগুলিকে আপনার পিঠ থেকে শুরু হয়ে ধীরে ধীরে আপনার পেটের দিকে আসছে বলে অনুভব করতে পারেন।

2. আপনার জল ভেঙে যাওয়া বা অ্যামনিওটিক স্যাক ফেটে যাওয়া

আপনি যদি অনুভব করেন যে আপনার অ্যামনিওটিক স্যাক ভেঙে গেছে বা আপনার জল ভেঙে গেছে এবং আপনি এর সাথে সংকোচনও অনুভব করছেন, তবে আপনি অবশ্যই শ্রমে যাচ্ছেন। তবে, যদি আপনার সংকোচন শুরু না হয় তবে প্রসব শ্রম শুরু হওয়ার জন্য আপনাকে কয়েক ঘন্টা অপেক্ষা করতে হতে পারে। জল ভাঙ্গা সূক্ষ্ম, এবং আপনার মনে হতে পারে যে আপনি প্রস্রাব করছেন, কিন্তু আপনার সেটার উপর নিয়ন্ত্রণ না থাকতে পারে। এটিও দেখা গেছে যে মাত্র দশ শতাংশ নারী অ্যামনিওটিক স্যাকের ভাঙা অনুভব করতে পারেন।

3. তীব্র রেকটাল এবং পেলভিক চাপ

আপনি আপনার শ্রমে প্রবেশ করলে, বর্ধিত পেলভিক এবং রেকটাল চাপ অনুভব করতে পারেন। রেকটাল চাপ অনেকটা পায়খানা করার অনুভূতির মতো মনে হবে। যখন আপনি এই লক্ষণগুলি অনুভব করেন, তখন তার মানে আপনার বাচ্চা বেরিয়ে আসতে চলেছে।

আপনি যদি উপরে উল্লিখিত প্রসব শ্রম ব্যথার উপসর্গগুলি অনুভব করেন, তবে আপনাকে হাসপাতালে যেতে প্রস্তুত হতে হবে।

এটা মিথ্যা নাকি সত্য প্রসব শ্রম তা কিভাবে বুঝবেন?

আপনি ’37-সপ্তাহ-গর্ভবতী’ অবস্থায় প্রসব শ্রমের লক্ষণগুলির মধ্যে একটি হিসাবে ব্র্যাক্সটন হিকসের সংকোচনগুলি অনুভব করতে পারেন। এখানে আমরা বিভিন্ন দিক নিয়ে আলোচনা করব যা আপনাকে জানাতে সাহায্য করবে যে এটি মিথ্যা না সত্য প্রসব শ্রম।

নিম্নলিখিত লক্ষণ মিথ্যা প্রসব শ্রম লক্ষণ:

  • সংকোচনগুলি এলোমেলোভাবে আসে, নিয়মিত বিরতিতে নয়।
  • ব্যথা তলপেট অঞ্চলে সীমাবদ্ধ থাকে।
  • সংকোচন সময়ের সঙ্গে তীব্র বা আরো বেদনাদায়ক না।
  • আপনি কথা বলার সময় কোন ব্যথা বা অস্বস্তি অনুভব নাও করতে পারেন।
  • আপনি চারপাশে ঘুরে বেরালে আরাম বোধ করতে পারেন, এবং এমনকি হাঁটলে ব্যাথা হ্রাস পেতে পারে।

নিম্নলিখিত লক্ষণগুলি সত্য প্রসব শ্রমের লক্ষণ:

  • ভ্রূণের গতিবিধিতে পরিবর্তন; এটি স্বাভাবিক গতবিধির তুলনায় হ্রাস বা বৃদ্ধি হতে পারে।
  • সংকোচনগুলি আপনার পেলেভিক অঞ্চলে কেন্দ্রীভূত হবে।
  • আপনি নিয়মিত বিরতিতে সংকোচন অনুভব করবেন, এবং আপনি আপনার সন্তানের প্রসবের কাছাকাছি চলে যাওয়ার সাথে সাথে তারা আরও তীব্র হয়ে উঠবে।

সত্য প্রসব শ্রমের ব্যথা আপনার পিঠ থেকে শুরু হবে এবং মিথ্যা প্রসব শ্রমের অননুরূপভাবে আপনার নীচের পেটের দিকে আসবে, যেখানে মিথ্যা শ্রমে ব্যাথা শুধুমাত্র পেট অঞ্চলের চারপাশে অনুভূত হতে পারে। আপনি সত্য প্রসব শ্রমের লক্ষণ অনুভব করলে, যত তাড়াতাড়ি সম্ভব আপনার ডাক্তারকে কল করা উচিত।

আপনার কখন হাসপাতালে যাওয়া উচিৎ?

আপনার ডাক্তার বা ধাত্রী প্রসব শ্রম এবং প্রসব প্রক্রিয়া সম্পর্কে সঠিকভাবে আপনাকে গাইড করবেন। আপনাকে কখন হাসপাতালে যেতে হবে তা-ও আপনাকে বলা হবে।

নির্দেশিকা বা নির্দেশগুলি আপনার গর্ভাবস্থার উপর নির্ভর করে বিভিন্ন হতে পারে। আপনার যদি স্বাভাবিক গর্ভাবস্থা থাকে, তবে আপনার প্রাথমিক এবং সক্রিয় প্রসব শ্রম লক্ষণগুলি পরিচালনা করার জন্য আপনাকে সাধারণ নির্দেশিকাগুলি সম্পর্কে জানানো হবে। তবে, আপনার যদি উচ্চ ঝুঁকিপূর্ণ গর্ভাবস্থা থাকে, এবং প্রথমবার গর্ভবতী হন, বা আপনার অন্যান্য জটিলতা থাকে, তাহলে আপনার অবস্থার উপর নির্ভর করে, আপনার ডাক্তার আপনাকে বিশেষ নির্দেশিকা দিতে পারেন।

যদি আপনার কোনো সন্দেহ থাকে বা আপনি আপনার প্রসব শ্রম সম্পর্কে বিভ্রান্ত হন তবে আপনার ডাক্তারকে জানাতে দ্বিধা করবেন না। আপনি হাসপাতালের প্রসব কেন্দ্রে পৌঁছানোর আগে পর্যন্ত, কিভাবে আপনার মিথ্যা প্রসব শ্রম মোকাবিলা করতে হবে বা কিভাবে আপনার প্রকৃত প্রসব শ্রম মোকাবিলা করতে হবে সে বিষয়ে গাইড করা হবে। যাইহোক, যদি আপনি উচ্চ ঝুঁকিপূর্ণ গর্ভাবস্থায় থাকেন, তবে আপনাকে আপনার ধাত্রীকে মাঝে মাঝেই আপডেট করতে হবে এবং যখনই আপনি শ্রমে যাবেন তখনও আপডেট করতে হবে।

আপনার গর্ভাবস্থায় কোন জটিলতা না থাকলে, আপনার প্রতিটি সংকোচন এক মিনিট ধরে স্থায়ী হওয়া পর্যন্ত অপেক্ষা করতে বলা হতে পারে। এটি একসাথে এক ঘন্টা পর্যন্ত সময়কালে প্রতি পাঁচ মিনিটে আসতে পারে। আপনার সংকোচনগুলির সময় নিরীক্ষণ এবং রেকর্ড করা একটি ভালো বুদ্ধির কাজ হবে। যেই আপনি প্রসব শ্রমের প্রকৃত লক্ষণগুলি অনুভব করবেন, যেখানে সংকোচনগুলি আরো সুস্পষ্ট, এবং নিয়মিত বিরতিতে হয়, আপনাকে আপনার ডাক্তারের সাথে যোগাযোগ করতে হবে।

তবে, নিম্নলিখিত লক্ষণগুলি দেখলে, যত তাড়াতাড়ি সম্ভব আপনার ডাক্তারের সাথে যোগাযোগ করার পরামর্শ দেওয়া হয়:

  • ভ্রুণের গতিবিধি কমে যাওয়া বা কম থাকা।
  • আপনার যোনি রক্তপাত, ব্যথা এবং এমনকি জ্বর থাকা।
  • আপনার অ্যামনিওটিক স্যাক ফেটে গেলে বা আপনি বাদামী, সবুজ, বা হলুদ তরল দেখতে পেলে। এটি মেকোনিয়াম হতে পারে, আপনার বাচ্চার পায়খানা হতে পারে বা এটি ভ্রুণের চাপকে নির্দেশ করতে পারে।
  • যদি আপনার অ্যামনিওটিক স্যাক 37 সপ্তাহের আগে ভেঙ্গে যায় বা আপনার সংকোচন হয়, তবে এর অর্থ হল আপনার অকাল প্রসব শ্রম হচ্ছে।

কিছু মহিলাদের প্রসব শ্রমের সঙ্গে যুক্ত বড় লক্ষণগুলিও এড়িয়ে যাওয়ার প্রবণতা থাকে, তাঁরা ভাবেন যে গর্ভাবস্থায় এগুলি স্বাভাবিক। পরামর্শ দেওয়া হয় যে, প্রসব শ্রমের সাথে সম্পর্কিত কোনো একটিও লক্ষণ এবং উপসর্গ যদি আপনি অনুভন করেন, তবে জটিলতা এড়াতে আপনার ডাক্তারের সাথে খুব তাড়াতাড়ি যোগাযোগ করুন।