মহিলাদের জন্য প্রজনন উর্বরতার ওষুধ – উপকারিতা ও পার্শ্ব প্রতিক্রিয়া

মহিলাদের জন্য প্রজনন উর্বরতার ওষুধ - উপকারিতা ও পার্শ্ব প্রতিক্রিয়া

নারীর বন্ধ্যাত্বের ক্ষেত্রে, ডাক্তার সন্তান জন্ম দেওয়ার সম্ভাবনা বাড়ানোর জন্য প্রজনন উর্বরতার ওষুধ নির্ধারণ করে । যাইহোক, এই ওষুধের উপকারিকা এবং অপকারিতা দুই আছে । সুতরাং তারা কতটা উপকারী এবং তাদের ব্যবহারে জড়িত কোন ঝুঁকি আছে কিনা? মহিলাদের জন্য পাওয়া যায় এমন বিভিন্ন প্রজনন ওষুধ সম্পর্কে জানুন, তাদের সুবিধা, পার্শ্ব প্রতিক্রিয়া এবং আরও অনেক কিছু জানুন ।

aniview

একটি প্রজনন উর্বরতার ওষুধ কি?

উর্বরতা বৃদ্ধি করার ওষুধটি প্রজনন ওষুধ হিসাবে পরিচিত । উর্বরতা বৃদ্ধির ওষুধগুলি হরমোনগুলিকে ট্রিগার করতে ব্যবহৃত হয় যা ডিম্বাশয় থেকে ডিম্বাণুকে মুক্ত করে – ডিম্বস্ফোটন প্রক্রিয়া ।

কোন স্বাস্থ্যসংক্রান্ত অবস্থায় প্রজনন ওষুধ ব্যবহৃত হয়?

উর্বরতা ওষুধগুলি সাধারণত মহিলাদের মধ্যে প্রজনন সমস্যাগুলির জন্য নির্ধারিত হয় । যাইহোক, এটি অন্যান্য স্বাস্থ্যসংক্রান্ত অবস্থার মধ্যে ব্যবহার করা যেতে পারে, যেমন:

  • পলিসিস্টিক ওভারি সিন্ড্রোম
  • ডিম্বস্ফোটন সংক্রান্ত সমস্যা
  • কম ওজন, বেশি ওজন বা একটি চরম শারীরিক পরিশ্রম রুটিন অনুসরণ করা
  • থাইরয়েড সমস্যা
  • খাওয়ার সমস্যা

মহিলাদের জন্য প্রজনন ওষুধের উপকারিতা?

উর্বরতা ওষুধ বিভিন্ন উপায়ে সাহায্য করে, তা নীচে তালিকাভুক্ত করা হয়েছে :

  • এটি হরমোন উত্পাদন বৃদ্ধি করে যা প্রজনন প্রক্রিয়াতে সহায়তা করে ।
  • ডিম্বস্ফোটন চক্র প্রজনন ওষুধ ব্যবহার দ্বারা নিয়ন্ত্রিত হয় ।
  • উর্বরতা ওষুধগুলি ভিটামিন এবং খনিজগুলি ধারণ করে যা গর্ভধারণের জন্য প্রয়োজনীয়, যার ফলে গর্ভপাতের সম্ভাবনা হ্রাস পায় ।
  • এটা ডিএমবি ধারণকারী ফলিকল উত্পাদন করতে আপনার ডিম্বাশয়কে উত্সাহিত করে । এই ফলিকলগুলি বৃদ্ধি পেলে ডিম্বস্ফোটনে সাহায্য করে ।

মহিলাদের জন্য প্রজনন ওষুধ ব্যবহারে অপকার কি?

দুর্ভাগ্যবশত, মহিলাদের প্রজনন ওষুধ ব্যবহারের জন্য গুরুতর পরিণতি হতে পারে, যার মধ্যে কয়েকটি নীচে তালিকাভুক্ত রয়েছে ।

১) মেজাজের দোলাচল বা মুড সুইং

এই ওষুধ খাওয়ার সময়, মহিলাদের কঠিন মেজাজের দোলাচল বা মুড সুইং ভোগ করতে পারে । কারণ সমস্ত প্রজনন ওষুধ দেহে হরমোনের মাত্রা পরিবর্তন করে, বিশেষ করে ইস্ট্রোজেনের । ইস্ট্রোজেনের উচ্চ মাত্রা মুড সুইং এবং বিষণ্নতার কারণ ।

২) একাধিক গর্ভধারণ

একাধিক গর্ভাবস্থা মা, সেইসাথে শিশুদের জন্য একটি ঝুঁকি হতে পারে । বাচ্চাদের খুব কম জন্মের ওজন হতে পারে যা দীর্ঘমেয়াদী স্বাস্থ্যের সমস্যার কারণ হতে পারে এবং এমনকি কিছু ক্ষেত্রে মারাত্মক হতে পারে ।

৩) অকালজাত শিশু

একাধিক জন্ম, যা প্রজনন ওষুধ ব্যবহার করার ফলে হয় তবে এটি প্রাক-মেয়াদী প্রসবের কারণ হতে পারে, যা জন্মের সময় শিশুর জন্য বিভিন্ন জটিলতা সৃষ্টি করে ।

৪) ওভারিয়ান হাইপার স্টিমুলেশন সিন্ড্রোম (ওএইচএসএস)

হরমোন ইনজেকশনগুলির প্রতিক্রিয়া বেশি হলে ডিম্বাশয় ফুলে যায়, এটির ফলে OHSS হতে পারে । এই অবস্থায় ব্যথা, দ্রুত ওজন বৃদ্ধি, কম প্রস্রাব, বমি বমি ভাব, বমি হওয়া, এবং শ্বাস নিতে সমস্যা হয় । গুরুতর ক্ষেত্রে, এটি মহিলার জন্য মারাত্মক হতে পারে ।

৫) এক্টোপিক গর্ভাবস্থার ঝুঁকি

উর্বরতার ওষুধগুলি চার গুণে এক্টোপিক গর্ভাবস্থার ঝুঁকি বাড়ায় । এটি ইস্ট্রোজেন এবং একাধিক ওয়েসাইটস-এর উচ্চ মাত্রার কারণে হয় ।

উর্বরতার ওষুধগুলি চার গুণে এক্টোপিক গর্ভাবস্থার ঝুঁকি বাড়ায়

প্রজনন ওষুধের ধরন

প্রজনন ওষুধ শুধুমাত্র তখনই গ্রহণ করা উচিত যখন আপনি বছরেরও বেশি সময় ধরে চেষ্টা করার পরেও গর্ভধারণ করতে পারেননি । যাইহোক, ১ বছরের সীমায় পৌঁছানোর পর, ডাক্তার নিম্নোক্ত প্রজনন ওষুধ নির্ণয় করতে পারেন ।

১) ক্লোমিড

এটি বাজারে পাওয়া সবচেয়ে সাধারণ প্রজনন ওষুধ এবং সম্ভবত আপনার প্রথম প্রজনন ওষুধ যা ডাক্তার আপনাকে নির্দেশ দিতে পারেন । ওষুধের জনপ্রিয়তার কারণ এটি মোটামুটি সস্তা এবং এটি গ্রহণকারী ৮০% মানুষকে ওষুধ গ্রহণের ৬ মাসের মধ্যে গর্ভধারণ করতে সহায়তা করে । ইনজেকশনযোগ্য উর্বরতা ওষুধের থেকে ভিন্ন, এটি একটি পিল যা গ্রহণ করা সহজ ।

২) ব্রোমোক্রিপ্টাইন

এটি একটি সাধারণভাবে নির্ধারিত উর্বরতা ওষুধ যা মহিলাদের এবং পুরুষদের জন্য নির্ধারিত করা যেতে পারে । এটা প্রোল্যাক্টিন হরমোন-এর অত্যধিক উত্পাদন বন্ধ করতে ব্যবহৃত হয় । মহিলাদের মধ্যে, এটি মাসিক চক্রের সমস্যার চিকিত্সার জন্য ব্যবহার করা হয় । পুরুষদের মধ্যে, এটি প্রোক্যাক্টিনের উচ্চ স্তরের কারণে সৃষ্ট কম শুক্রাণু গণনা বা নিম্ন টেসটোসটের ক্ষেত্রে সহায়তা করে ।

এ ছাড়াও, ড্রাগটি পার্কিনসনের রোগের চিকিত্সা, পিউটিউটি টিউমারের বৃদ্ধি হ্রাস এবং টাইপ ২ ডায়াবেটিসের ক্ষেত্রেও ব্যবহার করা যেতে পারে ।

মহিলাদের জন্য উপলব্ধ প্রচলিত উর্বরতা ওষুধ

বাজারে মহিলাদের জন্য অনেক প্রজনন ওষুধ পাওয়া যায় । তবে, সবচেয়ে সাধারণ বেশী নীচে তালিকাভুক্ত করা হয়েছে ।

১) ক্লোমিফেন সিট্রেট

এটি প্রাথমিকভাবে ডিম্বস্ফোটনের সমস্যায় ভোগা নারীর জন্য নির্ধারিত হয় । এটি পিসিওএস রোগ আছে এমন নারীদেরও দেওয়া হয় এবং নিয়মিত ডিম্বস্ফোটন থাকা মহিলাদের ডিম্বাণু উৎপাদনেও উন্নত করে ।

২) লেট্রোজোল

এটি মৌখিকভাবে প্রজেসটেরোনের স্তর কমিয়ে আনার জন্য খাওয়া হয়, মস্তিষ্ককে আরও ফোলিক স্টিমুলিউটিং হরমোন (এফএসএইচ) উৎপন্ন করতে এবং আরও ডিম্বাণু বের করতে এবং আরও ডিম্বাণু মুক্ত করতে সহায়তা করে । এটি পিসিওএস সহ মহিলাদের এবং স্বাভাবিক ডিম্বস্ফোটোনযুক্ত মহিলাদের মধ্যে ডিম্বাণুকে উন্নত করতে সাহায্য করে ।

৩) হিউম্যান মেনোপজাল গনডোট্রোপিন

এই ওষুধে দুটি হরমোন গথাকে, যেমন ফোলিক স্টিমুলিয়েটিং হরমোন (এফএসএইচ) এবং ল্যুটিনাইজিং হরমোন (এলএইচ) । উভয়ই ডিম্বাশয়ে ভাল মানের ডিম্বাণু উত্পাদন এবং ডিম্বাণু বিকাশে সাহায্য করে ।

৪) হিউম্যান কোরিয়নিক গনডোট্রোপিন

এই ওষুধ ইনজেকশন ফর্মে পাওয়া যায় এবং এটি ডিম্বাণুকে পরিপক্ক হতে সাহায্য করে । এটি বেশিরভাগ ক্ষেত্রেই পিসিওএস-এর ভুক্তভোগী মহিলাদের জন্য বা ক্লোমিফেন ওষুধ কাজ না করলে, এমনকি যদি বন্ধ্যাত্বযুক্ত মহিলার আইভিএফ চিকিত্সায় এই ওষুধ ব্যবহৃত হয় ।

৫) গোনাডোট্রপিন –মুক্ত করা হরমোন অ্যাণ্টাগোনিস্ট

এই ওষুধটি আইভিএফ সহ নিয়ন্ত্রিত ডিম্বাশয় স্টিমুলেশন টেকনিক চিকিত্সা চলাকালীন মহিলাদের জন্য নির্ধারিত হয় । এটি এলএইচ এবং এফএসএইচকে দমন করে ডিম্বস্ফোটন হতে বাধ্য করে । এবং শুধুমাত্র আইভিএফ-এর সময় ডিম্বকে বিকশিত করার অনুমতি দেয় ।

৬) মেটফর্মিন হাইড্রোক্লোরাইড

বেশিরভাগ প্রজননশীল ওষুধের মতো, এটি পিসিওএসের ভোগান্তিযুক্ত নারীদের মধ্যে ডিম্বস্ফোটন-এর সমস্যাগুলির চিকিৎসা করতে সহায়তা করে । এটি ইস্ট্রোজেনের স্তর এবং টেসটোস্টেরনের স্তরকে সমানভাবে আনতে সহায়তা করে যার ফলে শরীরটি নিয়মিতভাবে ডিম্বস্ফোটন করতে সহায়তা করে ।

৭) ব্রোমোক্রিপ্টাইন

প্রোল্যাক্টিন হরমোন, এর অত্যধিক উত্পাদন ডিম্বস্ফোটনের সমস্যার সৃষ্টি করে, এই ওষুধের সাথে চিকিত্সা করা হয় । এটি একটি পিল হিসাবে বা যোনিগত সাপোজিটর হিসাবে উপলব্ধ ।

কিভাবে প্রজনন ওষুধ একে অপরের থেকে ভিন্ন?

প্রজনন ওষুধ রূপের দিক থেকে একে অপরের থেকে পৃথক হতে পারে । কিছু পিলের আকারে এবং কিছু ইনজেকশন আকারে হয় ।

ক্লোমিফেনের মতো উর্বরতা ওষুধগুলি কিছু পিসিওএস সহ মহিলাদের ডিম্বস্ফোটন করতে সহায়তা করে, তবে কিছু মহিলা মেটফর্মিনে ভাল সাড়া দিতে পারে । কিছু ক্ষেত্রে, উভয় ওষুধের সমন্বয় ভালভাবে কাজ করে ।

হরমোনের উচ্চ স্তরযুক্ত মহিলারা প্রোল্যাক্টিনকে ব্রোমোক্রিপ্টাইন বা ক্যাবারগোলাইন নির্ধারণ করা হবে, যা ডিম্বস্ফোটনের সমস্যার চিকিৎসার জন্য নির্ধারণ করা হবে ।

ডাক্তারের পরামরশে সঠিক প্রজনন ওষুধ নির্বাচন করতে হবে

প্রজনন ওষুধের সঠিক ডোজ খোঁজা

মহিলাদের মধ্যে প্রজনন সমস্যায় সফলভাবে ব্যবহার করার ক্ষেত্রে প্রজনন ওষুধের সঠিক ডোজ গুরুত্বপূর্ণ । প্রজনন ওষুধের ডোজ এবং প্রকার সমস্যার কারণ এবং সমস্যার তীব্রতার উপর নির্ভর করে । ওষুধের কম মাত্রা সফলতা পেতে আপনার সম্ভাবনাগুলিকে দূরে সরিয়ে দিতে পারে এবং উচ্চ মাত্রায় ওএইচএসএস-এর মতো গুরুতর স্বাস্থ্য সমস্যা হতে পারে ।

প্রজনন ওষুধ মহিলার বন্ধ্যাত্ব চিকিত্সার থেরাপির প্রথম লাইন । অনেক উপকারী ওষুধ রয়েছে যা আপনাকে গর্ভধারণ করতে সহায়তা করবে । আপনার ডাক্তারের সাথে কথা বলার জন্য খোলামেলা হোন এবং তার দ্বারা নির্ধারিত প্রজনন ওষুধগুলি চেষ্টা করুন । সঠিক ডোজ সহ সঠিক প্রজনন ওষুধ আপনাকে গর্ভধারণ করতে সহায়তা করবে ।