শিশুদের চুল পড়ে যাওয়া- কারণ সমূহ, রোগ নির্ণয় এবং চিকিৎসা

শিশুদের চুল পড়ে যাওয়া- কারণ সমূহ, রোগ নির্ণয় এবং চিকিৎসা

আপনার শিশু যদি খুব তাড়াতড়ি একটা উল্লেখযোগ্য পরিমাণ চুল খোওয়াতে থাকে, বিষয়টির দিকে দৃষ্টি দেওয়া এবং অবিলম্বে তার চিকিৎসা করানো গুরুত্বপূর্ণ, তা সে চিকিৎসাজনিত বা অ-চিকিৎসাজনিত যে কারণেই হোক না কেন।প্রচুর পরিমাণে চুল হারানোর অর্থ হল তার সাথে সাথে আত্মবিশ্বাস এবং আত্ম-মর্যাদাও হারিয়ে ফেলা আর মা-বাবা হিসেবে আপনি কখনই চাইবেন না যে আপনার সন্তানও তার মধ্য দিয়ে অতিবাহিত করুক।

aniview

শিশুদের চুল পড়ে যাওয়ার কারণ সমূহ এবং চিকিৎসাগুলি

চিকিৎসাজনিত শর্তগুলিই হল চুল পড়ে যাওয়ার মূল কারণ।এখানে শিশুদের চুল পড়ে যাওয়ার সবচেয়ে সাধারণ কারণগুলির উল্লেখ করা হলঃ

চিকিৎসাজনিত শর্তগুলি

চিকিৎসাজনিত শর্তগুলি হল জৈবিক অবস্থা বা শারীরিবৃত্তিয় পরিবর্তন সমূহ যা শিশুদের চুলের বৃদ্ধি হ্রাস বা চুল পড়ে যাওয়ার কারণ হয়ে ওঠে।এই অবস্থাগুলির কার্যকর চিকিৎসার জন্য প্রয়োজন চিকিৎসা বিষয়ক তদারকি এবং ডাক্তার নির্ধারিত ওষুধ।এখানে শিশুদের মধ্যে হয়ে থাকা কয়েকটি সাধারণ বিষয়ের উল্লেখ করা হলঃ

1.টিনিয়া ক্যাপাইটিস

মাথার ত্বকের উপর আঁশযুক্ত লালচে অঞ্চল অথবা চুলকানি যুক্ত দাগের দ্বারা টিনিয়া ক্যাপাইটিস বোঝা যায়।কালো বিন্দুগুলি দেখা যায়, যেখানে চুলের সূত্রগুলি ভেঙ্গে যায় এবং ফুলে ওঠা লসিকা গ্রন্থির সাথে নিম্ন মানের জ্বর হওয়া হল এই সংক্রমণের সাধারণ লক্ষণ সমূহ।

কারণ সমূহ

ডার্মাটোফাইটস হিসেবে পরিচিত এক প্রকার ছত্রাকের কারণে মাথার স্ক্যাল্পের উপরে প্যাঁচযুক্ত টাকের দাগ বা দাঁদ হয়ে থাকে, আর এই অবস্থাটিই টিনিয়া ক্যাপাইটিস নামে অভিহিত।এটি দুর্বল স্বাস্থ্যবিধি এবং শারীরিক যোগাযোগের মাধ্যমে এক ব্যক্তি থেকে অন্য ব্যক্তির মধ্যে প্রেরিত হয়।এটি সংক্রমণ প্রবণ ব্যাক্তির ব্যবহৃত চিরুনি, বিছানাপত্র ব্যবহার করলে এবং এই সংক্রমণে আক্রান্ত ঘরের পোষ্যগুলির সংস্পর্শে আসলেও তা এই সংক্রমণ বিকাশের ক্ষেত্রে অবদান রাখে।

রোগ নির্ণয়

এটি নির্ণয়ের জন্য ডাক্তারবাবু একটি চাক্ষুষ পরীক্ষা চালান।মাথার ত্বকের উপর হয়ে থাকা সংক্রমণের চিহ্নগুলি পরীক্ষা করতে ও তা নির্ধারণ করতে ‘উডস ল্যাম্প’ নামে পরিচিত একটি বিশেষ আলো ব্যবহার করা হয়।চুল এবং ত্বকের নমুনা সংগ্রহ করা হয় এবং একটি মাইক্রোস্কোপের অধীনে ছত্রাক পরীক্ষা চালানোর জন্য সেগুলিকে ল্যাবে প্রেরণ করা হয়।

চিকিৎসা

ডাক্তাররা গ্রিজোফুলভিনএবংটার্বিনাফাইনহাইড্রোক্লোরাইড ওষুধগুলিকে টিনিয়া ক্যাপাইটিসের চিকিৎসার জন্য লিখে দেন।এই ছত্রাক জনিত সংক্রমণটির বিকাশ রোধ করতে উচ্চ ফ্যাট যুক্ত খাবারের সাথে এই ছত্রাক বিরোধী ওষুধগুলি ছয় সপ্তাহ পর্যন্ত গ্রহণ করতে হয়।

2.অ্যালোপেসিয়া এরিয়াটা

অ্যালোপেসিয়া এরিয়াটা হল এমন এক অবস্থা যে কারণে মাথার স্ক্যাল্পের কিছু নির্দিষ্ট অঞ্চলের কিম্বা সারা দেহের চুল পড়ে যায়।এটি পারিবারিক ইতিহাস থেকে থাকলে তা ফিরে আসে এবং টাইপ 1 ডায়াবেটিস অথবা রিউম্যাটয়েড আর্থ্রাইটিস রোগের ইতিহাস থাকা পরিবারের ব্যক্তিদের মধ্যে এই রোগটি হতে দেখা যায়।

কারণ সমূহ

শিশুদের মধ্যে অ্যালোপেসিয়া হওয়ার কোনও নির্দিষ্ট জ্ঞাত কারণ নেই।জিনগত কারণে যাদের মধ্যে এই রোগটি হওয়ার সম্ভাবনা আগে থেকেই থেকে থাকে, তাদের মধ্যে কিছু নির্দিষ্ট পরিবেশগত কারণগুলি সেটি হওয়ার সম্ভাবনাকে আরও বাড়িয়ে তোলে বলে ধারণা করা হয়।

রোগ নির্ণয়

এইসংক্রমণেরকারণেচুলপড়ারপরিমাণনির্ণয়করেবাচুলেরনমুনাগুলিসংগ্রহকরেএবংএকটিমাইক্রোস্কোপেরঅধীনেপরীক্ষাকরেএই রোগটি নির্ণয়করাহয়।রোগনির্ণয়েরঅংশহিসাবেঅস্বাভাবিকঅ্যান্টিবডিগুলিরউপস্থিতিপরীক্ষাকরারজন্যরক্ত ​​পরীক্ষারপাশাপাশিমাথার স্ক্যাল্পের একটিবায়োপসিকরাহয়।

চিকিৎসা

রেডিয়েশন থেরাপি যেমন ফোটো-কেমো থেরাপি এই রোগ চিকিৎসার কার্যকর উপায়।এই সংক্রমণের চিকিৎসার জন্য স্টেরয়েডইঞ্জেকশন, কর্টিকোস্টেরয়েডক্রীমএবংচুলেরবৃদ্ধি উদ্দীপনারজন্যকিছু নির্দিষ্ট মাথায় ঘষার ওষুধযেমনমিনোক্সিডাইল(রোগাইন) ব্যবহারকরাহয়।

3.ট্রাইকোটিলোম্যানিয়া

ট্রাইকোটিলোম্যানিয়া

ট্রাইকোটিলোম্যানিয়া হল এক ধরণের মানসিক ব্যাধি যা মানসিক চাপ বা উদ্বেগের কারণে চুল ধরে টানতে বাধ্য করে তোলে।

কারণ সমূহ

মনস্তাত্ত্বিক লক্ষণগুলি হল ট্রাইকোটিলোম্যানিয়ার অন্তর্নিহিত কারণ আবার কিছু বিশেষজ্ঞ এটি OCD (অবসেসিভ কম্পালসিভ ডিসঅর্ডার) সিনড্রোমের সাথে যুক্ত বলে বিশ্বাস করে থাকেন।

রোগ নির্ণয়

ঘন ঘন চুল ধরে টানাই হল ট্রাইকোটিলোম্যানিয়া রোগ নির্ণয়ের সাধারণ উপায়।যেহেতু ছত্রাক সংক্রমণের থেকেও এটি আরও বেশি আচরণ ভিত্তিক একটি রোগ, তাই ডাক্তাররা অনবরত চুল ধরে টানার অভ্যাসকে সনাক্তকরণের দ্বারাই এই রোগটি নির্ধারণ করে থাকেন।

চিকিৎসা

শিশুদের মধ্যে ট্রাইকোটিলোম্যানিয়ার চিকিৎসা গড়ে তোলার সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ বিষয়টি হল তাদের সাথে আচরণগত থেরাপি এবং সমষ্টিগত সমর্থনের দ্বারা তাদের মানসিক এবং আবেগীয় সহায়তার সন্ধান করা।চিকিৎসকেরা এর উপসর্গগুলি লাঘব করতে এবং চিকিৎসায় সহায়তা করার জন্য ডিপ্রেশন উপশমকারী ওষুধ এবং মেজাজ উন্নয়নকারী ওষুধগুলি যেমন যেমন আনফ্রানিল, জাইপ্রেক্সা এবং N-এসিটাইলসিস্টাইনগুলি নির্ধারণ করতে পারেন।

4. টেলোজেন এফ্লুভিয়াম

টেলোজেন এফ্লুভিয়াম হল এক ধরণের ক্ষতহীন বা দাগহীন অ্যালোপেসিয়া সংক্রমণ যা শিশুদের চুল টেনে ছিঁড়ে ফেলার দিকে পরিচালিত করে।আর তাদের মধ্যে এই সংক্রমণ দীর্ঘকাল স্থায়ী হয় যাদের সংক্রমণের পটভূমি বা ইতিহাস রয়েছে।

কারণ সমূহ

বংশগত ভাবে উচ্চ জ্বর বা অত্যধিক মানসিক চাপের কারণে শিশুদের মধ্যে যখন চুলের সাধারণ ফলিক্যল চক্র বাধাপ্রাপ্ত হয় তখন টেলোজেন দেখা দিয়ে থাকে।চুলের ফলিক্যলগুলি একটি বিশ্রামের পর্যায়ে প্রবেশ করে যা ‘টেলোজেন’ হিসেবে পরিচিত যার সাথে আবার চুল অত্যধিক মাত্রায় ঝড়ে যাওয়া বা মারাত্মক ভাবে পড়ে যাওয়া যুক্ত।

রোগ নির্ণয়

টেলোজেন এফ্লুভিয়াম নির্ধারণের জন্য কোনও নির্দিষ্ট রোগ নির্ণয়ক পরীক্ষা বর্তমানে নেই।শিশুদের মধ্যে এই রোগের উপস্থিতি নির্ধারণের জন্য চাক্ষুষ পরীক্ষা করার পরে চিকিৎসকের অভিজ্ঞতা সাধারণত অনুসরণ করা হয়।

চিকিৎসা

এই সংক্রমণের জন্য সেরকম কোনও নির্দিষ্ট চিকিৎসা ব্যবস্থা এখনও পর্যন্ত নেই। একবার মানসিক চাপের পর্যায়টিকে কাটিয়ে উঠলেই চুলের ফলিক্যলের বৃদ্ধি ছয় মাস থেকে এক বছরের মধ্যে পুনরায় ফিরে আসে।

5.পুষ্টিগত ঘাটতি

পুষ্টিগত ঘাটতি

যখন শরীর তার যথার্থ বৃদ্ধি এবং বিকাশের জন্য পর্যাপ্ত পুষ্টি পায় না তখন পুষ্টিগত ঘাটতিগুলী বাড়তে থাকে।পুষ্টির ঘাটতিগুলি শিশুর মধ্যে স্বাস্থ্য সমস্যাগুলিকে সুবিন্যস্ত করে তোলে যার মধ্যে চুল পড়ে যাওয়াও অন্তর্ভূক্ত।

কারণ সমূহ

পুষ্টিগত ঘাটতির কারণে শিশুদের চুল পড়ে যাওয়ার সাথে যুক্ত রয়েছে তাদের ডায়েটে ভিটামিন H এবং জিঙ্কের অভাব।জিঙ্ক চুলের ফলিক্যলের বৃদ্ধি এবং শৈশবকালে শিশুর চুলের বিকাশ নিয়ন্ত্রণে ইন্ধন যোগায়।শরীরে শক্তি যোগানের জন্য বায়োটিন কার্বোহাইড্রেটকে গ্লুকোজে রূপান্তরিত করে এবং বায়োটিন শূণ্য একটি দুর্বল ডায়েট শিশুদের চুল পড়ে যাওয়ার একটি অন্যতম প্রধান কারণ।

রোগ নির্ণয়

রক্ত পরীক্ষা এবং একটি সার্টিফায়েড বা প্রত্যয়িত ক্লিনিক্যাল পুষ্টিবিদের সাথে আলোচনা করাই হল শিশুদের মধ্যে পুষ্টিগত ঘাটতি নির্ণয়ের প্রধান উপায়।এটি নির্ণয়ের লক্ষণগুলির সাথে জড়িত রয়েছে চেহারায় পরিবর্তন, ক্লান্তি, অবসাদ এবং শরীরের যথাযথ বিকাশের ঘাটতি।

চিকিৎসা

ভিটামিন, অপরিহার্য অ্যামাইনো অ্যাসিড এবং নানান খনিজ সমৃদ্ধ একটি স্বাস্থ্যকর ডায়েট একটি কার্যকর চিকিৎসা হিসেবে পরিবেশিত হয়ে থাকে।আপনার শিশুকে পুষ্টির পরিপূরকগুলি দেওয়ার সিদ্ধান্ত গ্রহণের পূর্বে সে ব্যাপারে আপনার ডাক্তারবাবুর সাথে কথা বলে নিন।

6.এন্ডোক্রাইন সমস্যা

এন্ডোক্রাইন সমস্যা

এন্ডোক্রাইন হল মানব দেহের একগুচ্ছ গ্রন্থির একটি জোট বা সমষ্টি যা হরমোন নিঃসরণ করে শরীরের বিভিন্ন নির্দিষ্ট অঙ্গাণুগুলিতে বহন করে।এন্ডোক্রাইন সমস্যা বা ব্যাধিগুলি সাধারণত শিশুদের চুল পড়ে যাওয়ার মাত্রাকে বাড়িয়ে তোলে।

কারণ সমূহ

হাইপোরথাইরয়েডিজমের মত এন্ডোক্রনিক সমস্যাগুলিতে থাইরয়েড গ্রন্থি কম কার্যকর হয়ে যায় এবং পর্যাপ্ত থাইরয়েড হরমোন উৎপন্ন করে না যার ফলে চুল পড়ে যায়।এন্ডোক্রাইন লক্ষণগুলির ফলস্বরূপ একটি নিয়ন্ত্রিত বিপাকের অভাব শিশুদের চুল পড়ে যাওয়ার সাথে যুক্ত।

রোগ নির্ণয়

এই অবস্থার পরিসরটি নির্ধারণের জন্য রক্ত পরীক্ষাগুলি পরিচালনা করার পাশাপাশি থাইরয়েড গ্রন্থির স্ক্যান করানোর দ্বারা এই রোগটি নির্ণয় করা হয়।

চিকিৎসা

এন্ডোক্রাইন সম্পর্কিত সমস্যাগুলির চিকিৎসা করার উদ্দেশ্যে হরমোন প্রতিস্থাপনের ওষুধগুলি দেওয়া হয়ে থাকে।এর ওষুধ নির্ধারণ করা নির্ভর করে আপনার শিশুর বয়স, তার সহ্য ক্ষমতা এবং সার্বিক স্বাস্থ্যের উপর।এর চিকিৎসা এবং তার সাথে সম্পর্কিত সম্ভাব্য বিষয়গুলি জানার জন্য একজন অভিজ্ঞ এবং সার্টিফায়েড বা প্রত্যয়িত শিশুরোগ বিশেষজ্ঞের সাথে আলোচনা করুন।

অ-চিকিৎসাজনিত শর্ত এবং সমাধানগুলি

শিশুদের চুল পড়ে যাওয়ার অ-চিকিৎসাজনিত কারণগুলি হলঃ

  • বিনুনি, পনিটেল এবং ঝুঁটি করার জন্য চুলের গোঁড়াগুলি প্রচণ্ড শক্ত করে বাঁধা।
  • রুক্ষ চুলে খুব বেশি মাত্রায় হিট ব্যবহার করা
  • চিরুনি কিম্বা চুল আঁচড়াবার ব্রাশ দিয়ে ভিজে চুলগুলিকে আঁচড়ানো
  • নবজাতকদের প্রথম কয়েক মাস চুল পড়ে যায় যা আবার সময়ের সাথে ফিরে পুনরায় তা পূরণ হয়ে যায়।

কম রাসায়নিক যুক্ত এবং প্রাকৃতিক উপাদানে তৈরী শ্যাম্পুগুলি ব্যবহার করুন।আপনার শিশুর চুলগুলিকে খুব জোরে শক্ত করে না বাঁধাকে আপনি নিশ্চিত করুন।নরম তোয়ালে দিয়ে তার চুলগুলিকে শুকিয়ে নিন এবং ভেজা চুল না আঁচড়ানো হল শিশুদের চুল পড়ে যাওয়া হ্রাস করার প্রাকৃতিক উপায়।আপনার শিশুকে বাধ্যতামূলকভাবে তার চুলগুলিকে ধরে না টানতে এবং স্কুল জীবনের প্রতিদিনের মানসিক চাপগুলিকে মোকাবিলা করার জন্য কীভাবে মানসিকভাবে স্বাস্থ্যকর উপায়গুলি বের করা যায় তা শেখান।

শিশুদের চুল পড়ে যাওয়ার ঘরোয়া প্রতিকারগুলি

শিশুদের চুল পড়ে যাওয়ার চিকিৎসাজনিত কারণগুলি তাদের পরবর্তী জীবনে পুনরায় ফিরে আসা রোধ করার জন্য যদিও সেগুলির চিকিৎসা করাটা গুরুত্বপূর্ণ, তবে এক্ষেত্রে চিকিৎসার জন্য বেশ কয়েকটি নির্দিষ্ট ঘরোয়া প্রতিকারও আছে যেগুলি প্রাকৃতিক উপায়ে শিশুদের চুল পড়ে যাওয়া রোধ করতে সহায়তা করতে পারেঃ

1.নারকেল তেল

নারকেল তেল

নারকেল তেল চুলের রন্ধ্রগুলিকে পরিষ্কার রাখে এবং মাথার ত্বকে পুষ্টি জোগায়।এটি একটি চুলের কন্ডিশনার হিসেবে কাজ করে এবং এবং তাছাড়াও এমনকি খুশকির বিরুদ্ধে লড়াই করে।এই তেল চুলের ফলিক্যক বৃদ্ধিতে সহায়তা করে এবং একটি দৃষ্টিনন্দন চেহারা প্রদানের দ্বারা চুলের স্বাস্থ্য নিয়ন্ত্রিত করে।

2. অলিভ বা জলপাই তেল

অলিভ বা জলপাই তেল

এই তেল চুলকে করে তোলে মজবুত ও শক্তিশালী, চুল পড়া রোধ করে এবং মাথার ত্বকে পুষ্টি জোগায়।জলপাই তেলের বিকল্পগুলি হল জোজোবা তেল, সরষের তেল এবং নীম তেল।

3.পুষ্টিকর ডায়েট

ভিটামিন A, C, E, জিঙ্ক, আয়রণ এবং বায়োটিন সমৃদ্ধ খাদ্যগুলি চুল পড়ে যাওয়ার চিকিৎসায় সাহায্য করে এবং চুলের বৃদ্ধির উন্নতি ঘটায়।একটি স্বাস্থ্যকর ডায়েট পুষ্টির অভাবকে প্রতিহত করে যা শিশুদের চুল পড়ে যাওয়ার একটি প্রাথমিক কারণ।

4.আপেল সীডার ভিনিগার

আপেল সীডার ভিনিগার

এটি একটি বর্ষ প্রাচীন প্রতিকার যা শরীরে গুরুত্বপূর্ণ পুষ্টিগুলি সরবরাহ করে এবং চুল পড়ে যাওয়ার চিকিৎসার ক্ষেত্রে প্রয়োজনীয় পুষ্টি উপাদানগুলি উৎপাদনে সক্ষম।এই ঘরোয়া প্রতিকারটিকে আপনার চিকিৎসায় অন্তর্ভূক্ত করার আগে আপনার শিশুর ডাক্তারবাবুর সাথে আলোচনা করে নিন।

5.পুষ্টি পরিপূরক

কিছুনির্দিষ্ট ভিটামিনপরিপূরকএবংপুষ্টিরসহায়তাযেমনবায়োটিনশিশুদেরমধ্যেচুলেরফলিক্যলেরবৃদ্ধিপুনরুদ্ধারকরে।আপনারসন্তানেরডায়েটটি যদি সেভাবেকাজনাকরেতবে সেক্ষেত্রেপুষ্টিরপরিপূরকগুলিব্যবহারেরআগেআপনার ডাক্তারেরসাথেআলোচনা করে তাঁর পরামর্শগ্রহণ করুন।

6.আমলকির রস

আমলকির রস

আমলকি অথবা ভারতীয় গুজবেরির রস চুলের ফলিক্যল বৃদ্ধিকে উদ্দিপীত করে এবং চুলের গোড়া শক্ত করার দ্বারা চুল পড়ে যাওয়া রোধ করে।এটি প্রায়শই অন্যান্য কিছু তেল যেমন নারকেল তেল এবং আমন্ড তেলের সাথে মিশিয়ে নিয়ে ব্যবহার করা হয়।

7.চুলের যত্ন নেওয়ার রুটিন

চুলের ক্ষয় ক্ষতি রোধ করতে পারে এমন ধরণের চুলের যত্ন নেওয়ার স্বাস্থ্যকর রুটিনগুলির প্রতিষ্ঠা করা হল শিশুদের চুল পড়ে যাওয়ার চিকিৎসা করার প্রাকৃতিক উপায়।তবে তাদের চুলের যত্ন নেওয়ার জন্য মাথার স্ক্যাল্পের উপর চুলের ফলিক্যল বৃদ্ধি এবং রক্ত সংবহনকে নিয়ন্ত্রিত করতে যে সকল পণ্যগুলি ব্যবহার করা হবে সেগুলি জৈব এবং রাসায়নিক মুক্ত হওয়ার বিষয়টি নিশ্চিত করুন।

শিশুদের চুল পড়ে যাওয়ার সাথে মোকাবিলা করা

চুল পড়ে যাওয়া শিশুদের জন্য একটা হতাশাজনক এবং উদ্বেগজনক অভিজ্ঞতা।কিছুটা অন্যরকম ও পৃথক দেখতে লাগার কারণে স্কুলে বন্ধুদের থেকে খেপানোর ফলে নিজেকে তাদের কাছে অনুপোযুক্ত বোধ হওয়ার কারণে, চুল পড়ে যাওয়ার চিকিৎসা শুরু করার আগে এবং পরে একজন মা-বাবা হিসেবে আপনার শিশুকে মানসিক এবং মনস্তাত্ত্বিকভাবে সমর্থন করাটা খুবই গুরুত্বপূর্ণ।এখানে বলা হল আপনি এক্ষেত্রে যা যা করতে পারেনঃ

  • আপনার সোনাকে বলুন যে মাথায় টাক পড়ে যাওয়াটাও একেবারেই ঠিক আছে এবং মাথায় চুল কমে যাওয়ার অর্থ এই নয় যে সেটি তাকে অন্যদের থেকে পৃথক করে তোলে।
  • আপনার সন্তানকে মানসিকভাবে সমর্থন করুন এই বলে যে এই পর্যায়ের মধ্য দিয়ে তার যাওয়াটা ঠিকই আছে এবং সেটির চিকিৎসা করার জন্য সময় লাগবে।উপরন্তু আপনার সন্তানের আত্মপ্রত্যয়টিকে গড়ে তুলুন তার এই অবস্থার কোনও বিচার বিবেচনা না করার দ্বারা এবং তাকে এটি দেখান এবং বুঝতে দিন যে আপনি তার প্রতি যত্নশীল সে কে এবং কি তার জন্য সে কীরকম দেখতে তার জন্য নয়।
  • আপনি সন্তান যদি তার মাথার স্ক্যাল্পের আক্রান্ত জায়গাটিকে গোপন করতে চায় তবে তাকে মাথায় বাঁধার স্কার্ফ এবং টুপির মত আনুষঙ্গিক জিনিসিগুলি সরবরাহের দ্বারা সেটি করার সম্মতি দিন।
  • আপনার সন্তান যদি একটি উইগ বা পরচুল পরতে চায় তবে তাকে তা পরতে দিন যদি না সেটি ছত্রাক সংক্রমণকে প্ররোচিত করে এবং ডাক্তারবাবু সেটিকে ব্যবহার করতে বারণ না করে থাকেন।
  • আপনার সন্তান যদি একটি কিশোর বা কিশোরী হয়ে থাকে, তবে চুল পড়ে যাওয়ার ধারণাগুলির ব্যাপারে তাকে জানান এবং তার অবস্থাটির বিস্তৃত ব্যাখা তার কাছে করুন।এছাড়াও তাকে তার চিকিৎসা পদ্ধতির ব্যাপারে বলুন এবং তার সাথে এও জানান যে সেটি কত দীর্ঘ সময় লাগতে পারে।

চুল পড়ে যাওয়া আত্ম মর্যাদাবোধ এবং আত্ম বিশ্বাসে ভাঙন ধরাতে শুরু করে তবে চুলের যত্ন নেওয়ার রুটিনগুলি এবং স্বাস্থ্যকর জীবনযাত্রার অভ্যাসগুলির সঠিক সংমিশ্রণের সাথে সাথে আপনার শিশু প্রায় কোনওরকম সময় ব্যতীতই তার চুলগুলির বৃদ্ধি পুনরায় ফিরে পেতে দেখতে পাবে।যদি আপনার বাচ্চার চুল পড়ে যেতে দেখেন তবে এইরকম একটি অস্থায়ী অবস্থাকে কখনই স্থায়ীভাবে রূপান্তরিত করতে না চাওয়ার কারণে আপনি কোনওরকম বিলম্ব না করে অবিলম্বে আপনার ডাক্তারবাবুর সাথে আলোচনা করুন এবং এটিকে একদমই ফেলে রাখবেন না।মানসিক সমর্থন, যথাযথ স্বাস্থ্যবিধি বজায় এবং ডাক্তারবাবুর পরামর্শ অনুসরণ করার দ্বারা আপনার সন্তান নির্ধারিত সময়ে চুল পড়ে যাওয়াকে বিদায় জানাতে পারে।