আপনার 16 মাস বয়সী শিশুর বৃদ্ধি এবং বিকাশ

আপনার 16 মাস বয়সী শিশুর বৃদ্ধি এবং বিকাশ

আপনি নিশ্চিতভাবে খুব ব্যাস্ত হয়ে পড়েছেন আপনার টল্টলয়ামান শিশুটির পিছনে সারা ঘর জুড়ে ছোটাছুটি করে,যা আপনার পা দুটিকে সদা ব্যাস্ত রেখেছে।আসুন আমরা আপনাকে এই চমৎকার যাত্রাপথের মধ্য দিয়ে নিয়ে যাই এবং আপনার 16 মাসের শিশুটির কাছ থেকে আপনি যা কিছু আশা করতে পারেন সে ব্যাপারে আপনাকে তৈরী করে তুলি।

aniview

16-মাস বয়সী টলটলায়নকারীর বিকাশ

আপনার শিশুটির একজন টলটলায়মানে পরিণত হয়ে ওঠার পর্বটি অবলোকন করা এক দারুন চিত্তাকর্ষক ব্যাপার।আসুন এবার দেখে নেওয়া যাক আপনার 16 মাস বয়সী শিশুটির কয়েকটি মাইলস্টোন যেগুলো সে অতিক্রম করতে চলেছে বা ইতিমধ্যে অতিক্রম করে ফেলেছে।

1. শারীরিক বিকাশ

এখন আপনার বাচ্চাটি 16 মাসের বন্ধনীতে, তাই এখন থেকে ডাক্তারবাবু তাকে প্রতি দুই মাস অন্তর তার বৃদ্ধির চেক আপ করবেন।আপনি লক্ষ্য করবেন যে আপনার বাচ্চাটির বৃদ্ধি প্রথম বছরের মত দ্রুত হচ্ছে না।প্রতিটি শিশুর ওজন ভিন্ন হয়। আদর্শগত ভাবে আপনার 16 মাস বয়সী বাচ্চাটির ওজন হওয়া উচিত 8.5 কেজি-12.9 কেজি মত।

  • আপনি লক্ষ্য করবেন যে এখন সে তার শারিরীক সীমাবদ্ধতাগুলোকে চ্যালেঞ্জ জানাতে পছন্দ করে।সে জানে যে, সে আত্মবিশ্বাসের সাথে এখন হাঁটতে পারে তাই দেখবেন সে কোনো ভারী বস্তু যেমন তার ব্লক বাক্সটিকে বহন করে নিয়ে চলেছে যদিও শীঘ্রই সেটি নিয়ে সে কিছু বানাতে ব্যাস্ত হয়ে পরবে।সে আবার হয়ত একটা চেয়ারকে ঠেলে রান্নাঘরে ঢুকিয়ে দিতে চেষ্টা করবে আর তারপর তার উপরে উঠে কাউন্টারের ওপরে রাখা জিনিসগুলিকে দেখতে চাইবে।সে রান্না করতে চেষ্টা করবে বার্না্রে পিছনের দিকে আর কড়াইয়ের হাতলটিকে তার ভিতরের দিকে রাখবে।রান্নাঘরটি কিন্তু খুব ভয়ঙ্কর একটি জায়গা তাই আপনার 16 মাসের টলটলায়মানটির উপর তীক্ষ্ণ দৃষ্টি রাখতে হবে।
  • এই সময়ে আপনার সন্তানের সূক্ষ্ম সঞ্চালন দক্ষতাটি অর্থাৎ কোনো কিছুকে ধরার ব্যাপারটি সবচেয়ে ভালভাবে রপ্ত হয়ে যাবে।সে তার সূক্ষ সঞ্চালন দক্ষতাটিকে সব কাজেই কাজে লাগাতে চাইবে।সে তার ছোট্ট ছোট্ট আঙ্গুল গুলো দিয়ে ড্রয়ার এবং ক্যাবিনেটগুলো খুলবে আর সেগুলোর ভিতরে কি কি আছে সেটা আবিষ্কার করবে।আপনি যদি এখনও আপনার ঘরটিকে শিশু সুরক্ষিত না করে থাকেন তাহলে অবশ্যই এখন সেটা করিয়ে নেওয়ার কথা ভাবতে হবে। ড্রয়ার এবং ক্যাবিনেটগুলোতে লকারের ব্যবস্থা করুন।যাবতীয় ক্ষতিকারক রাসায়নিক এবং ঔষধগুলি যেন আপনার বাচ্চার নাগালের বাইরে থাকে সেটা মনে রাখবেন।
  • 16 মাস বয়সী শিশুরা তাদের হাত এবং আঙ্গুলগুলোকে আরও বেশি ভালভাবে ব্যবহার করে থাকে।তাদের মোম রঙ আর একটা সাদা কাগজ দিন আর প্রত্যক্ষ্য করুন তাদের সর্বাপেক্ষা সৃষ্টিশীল রূপটি।তাদের চারপাশের সব কিছুকেই সে ক্যনভাস বানিয়ে ফেলে,তাই আপনার দেওয়াল গুলি তার শিল্পকর্মের সাক্ষী হয়ে উঠবে তাতে কোনো সন্দেহ নেই, তবে আপনি অবশ্যই নিশ্চিত হয়ে নেবেন ক্রেয়নের রঙ যেন স্থায়ী প্রকৃতির না হয়, যাতে সেগুলোকে খুব সহজেই মুছে ফেলা যায়।

2. সামাজিক এবং আবেগীয় বিকাশ

  • বয়েসের এই পর্যায় এসে আপনার টডলার পদাধিকারীটি আপনাকে তার এক সম্প্রসারিত অংশ হিসাবেই মনে করার চেষ্টা করবে।সে আপনার ওপর খুব বেশি নির্ভর করে সেই সব জিনিস গুলো পাওয়ার ব্যাপারে যেগুলোর সে নাগাল পায় না।কাপবার্ডের ওপরে থাকা খেলনাগুলো যেগুলোর নাগাল সে শারিরীকভাবে পেতে অক্ষম হয়, সেগুলো তার কাছে নামিয়ে দেওয়ার জন্য আপনাকে ধরে পীড়াপীড়ি করেতে থাকবে।আপনি তাকে খুব বেশি সাহায্য করা থেকে বিরত থাকুন এবং খুব তাড়াতাড়ি আপনি দেখতে পাবেন যে, সে নিজে নিজেই সেই খেলনাটা পেতে সক্ষম হবে।তাকে কাঁদতে দিন এবং তার হতাশা দূর করুন তাহলে সে শিখতে সক্ষম হবে।
  • 16 মাস বয়সের শিশুটি এটা বুঝতে পারে যে তার ভাল ব্যবহারের জন্য সে প্রশংসিত হবে এবং তার খারাপ ব্যবহারের জন্য সে লাঞ্ছিত হবে।সে এটা বুঝতে শিখে যায় যে তার কোন ব্যবহার আপনি পছন্দ করবেন না কিন্তু তা তার বড় ভাই বা বোনের মুখে হাসি ফুটিয়ে তুলবে।সে হয়ত এমন ধরণের খেলাধূলা করবে যার জন্য তার পরবর্তীতে আপনার মধ্যে প্রতিক্রিয়া সৃষ্টি হবে।সেটা ছোটোখাট অর্থহীন ব্যাপার যেমন তার পুতুলটি দিয়ে কফি টেবিলের ওপর ঠকঠক শব্দ করা কিম্বা আপনার পোষ্যটির লেজ ধরে টানা এইসব আর কি।
  • একজন 16 মাস বয়সী শিশু নিজেকে স্বাধীন মনে করে এবং সে পরিস্থিতিগুলো নিয়ন্ত্রণ নিজে নিজেই করা উপভোগ করে।আপনি তার সাথে খেলতে পারেন তার রান্না ঘরে যেখানে আপনি তাকে আপনার পছন্দের একটা সুস্বাদু পদ রান্না করতে বলতে পারেন। এতে সে আবিষ্কার করার জন্য উৎসাহিত হয় এবং আনন্দ লাভ করে ও গর্ব অনুভব করে।

সামাজিক এবং আবেগীয় বিকাশ

3. জ্ঞানীয় এবং ভাষার বিকাশ

  • বাচ্চারা নিজে নিজেই স্বাধীনভাবে কাজ করতে শেখে আমাদের শুধু তাদের সাহায্য করা প্রয়োজন।আপনার 16 মাস বয়সী বাচ্চার সাথে সাথে আপনিও এই বিষয়টি খুব তাড়াতাড়ি বুঝতে পারবেন।একবার সে কথা বলা শুরু করলে,সে শীঘ্রই বুঝতে শেখে যে, সে নিজেও একজন ব্যাক্তি।এই বয়সে সে সম্ভবত কয়েকটিমাত্র কথা বলতে শেখে এবং বেশিরভাগ ক্ষেত্রেই সে অব্যক্ত অঙ্গভঙ্গির মাধ্যমে যোগাযোগ রক্ষা করে,কিন্তু সে যোগাযোগ করার প্রয়োজনীয় শব্দগুলোর থেকেও আরও বেশি শব্দ নিশ্চিতভাবেই বুঝতে সক্ষম হবে।
  • আপনার টলটলায়মানটি যখন তার প্রথম শব্দটি উচ্চারণ করে,সে এক তীব্র দ্বন্দ্বের সম্মুখীন হয় তার ঠোঁট,জিহ্বা এবং শ্বাসপ্রশ্বাসের মধ্যে সমন্বয় সাধণ করে সেটিকে বোধগম্য করার ক্ষেত্রে, তার সাথে আস্তে আস্তে এবং ছোটো ছোটো বাক্যে কথা বলুন যাতে সে বুঝতে পারে এবং তুলনা করতে পারে।

আচার আচরণ

16 মাসে,আপনার টলটলায়মান ছোট্ট ব্যাক্তিটি নানা ধরনের প্রতিবন্ধকতার লক্ষণ প্রকাশ করতে পারে যেগুলির মধ্যে আবার তাকে প্রান্তিক ব্যবহারের দিকে ঠেলে দেওয়ার বিষয়টিও অন্তর্ভূক্ত থাকতে পারে।সে তার বদ মেজাজ প্রকাশ করবে এবং বিছিন্ন হবার আতঙ্ক তার মধ্যে দেখা দিতে পারে।অনেকেই আবার রহস্যময় আচরণ প্রকাশ করতে পারে।আবার এমনকি এই সময়ে আপনি সবসময় ভাল ব্যবহারকারী একটি শিশুর মধ্যেও ক্রোধান্বিত বদ মেজাজ এর প্রকাশ দেখতে পেতে পারেন।এটা সর্বোচ্চ পর্যায়ে ওঠে যখন তার বয়স 2 বছর হয়। বাচ্চারা তাদের মত চলতে চায় এবং প্রতিবন্ধকতা তাদের খুব সহজেই হতাশ করে তোলে।আপনি যদি সঠিক কৌশলটি জানেন তাহলে খুব সহজেই তার বদ মেজাজকে আয়ত্ত করে ফেলতে পারবেন।

অনেক বাচ্চাই সুপারমার্কেটে গিয়ে খেলনার কাছে মাটিতে লুটিয়ে পড়ে।এর থেকে অব্যহতি পাওয়ার জন্য আপনার টলটলায়মানটির ক্রোধান্বিত বদ মেজাজ এড়াতে হবে। আপনার ছোট্টটির ক্ষুধা এবং ঘুমের দিকে নজর রাখুন।বেশিরভাগ ক্ষেত্রেই এটি শক্তিহীনতার মত গোপন কারণের জন্য হয়ে থাকে।তাদের কিছুটা সময় দিন যাতে সে শান্ত হয়ে ওঠে যা দীর্ঘক্ষণ ধরে হয়ে থাকা তাদের রাগী বদমেজাজকে সামলানোর ক্ষেত্রে বেশি মাত্রায় কাজে আসে এবং একটি ভালো উপায়ে তাদের আবেগ নিয়ন্ত্রণেও সহায়তা করে।

খাদ্য এবং পুষ্টি

আপনি লক্ষ্য করবেন যে আপনার 16 মাসের সন্তানের ডায়েট প্রায় আপনার সঙ্গে মিলে যাচ্ছেসাধারণত খাদ্যাভ্যাস তাদের জীবনের প্রথম পর্যায়েতৈরী হয়ে যায় তাই স্বাদগ্রহণ এবং স্বাস্থ্যকর খাবারের অভ্যাসটি গড়ে তুলতে আপনাকে তাকে গাইড করতে হবেটলটলায়মানদের পেটের আয়তন কম হয়তাই 3 বা 4 বার বেশি পরিমাণে খাবার খাওয়ানোর বদলে কম পরিমাণে বার বার খেতে দিলে ভাল হয়আপনি সেই ধরনের খাবার দেওয়া নিশ্চিত করুন যাতে তার সঠিক বৃদ্ধির জন্য দৈনিক পুষ্টির চাহিদা পূরণ হয় এবং মিষ্টি,মিষ্টিজাতীয় খাবার,শুধুমাত্র ক্যালরি যুক্ত খাবারগুলি তাকে দেওয়া ড়িয়ে চলুনআপনি লক্ষ্য করবেন যে আপনার ছোট্টটি এখন নিজে নিজেই তার হাত দিয়ে বা অন্যান্য উপকরণের সাহায্যে খেতে চেষ্টা করেতাকে এটা করতে সুযোগ করে দিন কিন্তু যখন সে একান্তই না পেরে হতাশ হয়ে উঠবে তখন তাকে সাহায্যে করুন।যেহেতু সে ধীরে ধীরে কৌশলটি আয়ত্ত করে নেইয়,তাই আপনি বরং একধাপ পিছিয়ে যান এবং তাকে তার নতুন স্বাধীনতাকে ভোগ করার আনন্দটিকে সযত্নে অবলোকন করুনস্বাস্থ্যকর বিকল্প বেছে নেওয়ার জন্য ধৈর্য্যই হল এর চাবিকাঠি

যখন আপনারা পরিবারের সকলের সাথে খাবার টেবিলে বসবেন তখন তাকে নিজের খাবার বাছাই করবার স্বাধীনতা দিনতাকে সকল খাবারের বিকল্পগুলি দিন এবং সেখান থেকে তাকে তার নিজের পছন্দ বাছাই করতে দিনসে নতুন খাবারটি পছন্দ করতে পারে আবার সম্পূর্ণরূপেই সেটা অপছন্দকরতে পারেএকটি নতুন খাবারের সাথে পরিচয় ঘটাবার জন্য মোটামুটি 20 থেকে 30 বার সেটি আপনার সন্তানকে দিন যাতে তার সেই খাদ্যটির প্রতি অনুরাগ জন্মায়।সবসময় প্রতি একবারে একটি মাত্র নতুন খাবারের সাথে তার পরিচয় করাবেনফলে আপনার সন্তানের যদি কোনো খাবারে এলার্জি থাকে সেটা বুঝতে পারবেনযেসব খাবারে বিষম লাগতে পারে যেমন পপকর্ন,আঙ্গুর,শক্ত ক্যান্ডি,কিশমিশ ইত্যাদি এড়িয়ে চলুনআপনার সন্তানের খাবার সময় সর্বদা তার উপর লক্ষ্য রাখুন

ঘুমানো

বাচ্চা ঘুমাচ্ছে

আপনি খুব তাড়াতাড়িই লক্ষ্য করবেন যে আপনার টলমল পায়ে চলা শিশুটি তার দিনের বেলায় ঘুমের পরিমাণ কমিয়ে ফেলেছেসে তার সকালের এবং বিকালের ঘুম বন্ধ করে দিয়েছে শুধুমাত্র দুপুরের ঘুমটি বজায় রেখেছেপ্রথমদিকে তার দুপুরের ঘুমের সময়টি একটু বর্ধিত হতেই পারে তার নতুন রুটিনটি রপ্ত করার জন্যেতার বিকালের দিকে বেশিক্ষণ ঘুমানো এড়াতে চেষ্টা করুন কারণ এর ফলে তার রাত্রে ঘুম আসতে অসুবিধা হবেশিশুরা একই রুটিন মানতে বেশি পছন্দ করে,তাই তাপ্রতিদিন নির্দিষ্ট সময়ে বিছানায় যাওয়ার ব্যবস্থাটি ধারাবাহিক ভাবে বজায় রাখা উচিতশোফাতে শোবার বদলে তার বিছানাতে শুতে যাওয়ার জন্য তাকে সাহিত করুনঅনেক কিছু করার ফলে আপনার ছোট্টটি হয়তো ক্লান্ত হয়ে পরবে তা সত্বেও সে বিছানায় ঘুমাতে যেতে অনিচ্ছা প্রকাশ করবে তার অদম্য ইচ্ছা এবং শক্তির জন্যতার পরবর্তী আডভেঞ্চারটি শুরু করার আগে যাতে তার সম্পূর্ণরূপে ঘুম হয় সে ব্যাপারটি নিশ্চিত করতে কিছুটা কঠোরতা অবলম্বন করতে হতে পারেখুব বুদ্ধিমানের কাজ হবে যদি কিছু খেলনা এবং বই তার ঘরে রেখে দেওয়া হয় এগুলোসাহচর্যে সে আরাম করে ঘুমিয়ে পরবে

খেলাধূলা এবং ক্রিয়াকলাপ

কখনও কখনও আমাদের এক পদক্ষেপ পিছতে হয় আমাদের সন্তানের বৃদ্ধির কাঙ্ক্ষিত ক্ষমতা বাড়ানোর ক্ষেত্রে তাদের অন্বেষণ করতে দেওয়ার জন্যআপনার ছোট্টটি তার ছোট্ট দুটো হাত দিয়ে নতুন কল্পনাগুলিকে বাস্তবায়িত করার জন্য অনেক বেশি উসাহিত হয়ে উঠবেআপনি স্বচ্ছন্দে তাকে এই জায়গাটি দিন যাতে সে নিজেনিজেকে সহায়তা করতে পারে এবং তার আবিষ্কারী সত্বাকে সে প্রকাশ করতে পারেযখন সে খেলে তখন সে সমস্যা সমাধান করতে শেখে এবং তার সঞ্চালন দক্ষতা বেড়ে ওঠেএই 16 মাস বয়সের শিশুরা স্বাধীনভাবেই কাজ করতে পছন্দ করেতার মত করে শিখতে তাকে সাহায্য করুনআপনি খুব বেশি হলে তার মোজাগুলোকে যেখানে তার হাত পৌছায় এমন ড্রয়ারে রাখতে পারেন বা তার জুতোগুলোকে সদর দরজার কাছে তার নাগালের মধ্যে থাকা কোনো প্লাস্টিকের বাক্সের মধ্যে রাখতে পারেন যাতে সে সেটা বাইরে বেরোবার সময় নিজে নিজেই বের করে নিয়ে পরে নিতে পারে

আপনি তাকে তার বয়স অনুযায়ী কাজগুলি দিতে পারেন, যেমন সে তার নিজস্ব প্লেটটিকে বয়ে আনবে এবং সিঙ্কের ভিতরে রাখবে।আপনি কখনই তার কাছ থেকে নিখুঁত কাজ আশা করবেন না,যদি সে ভুল করে তাহলেও তার প্রতি অনুরাগ প্রকাশ করুন।এই ভাবেই আপনি তাকে তার চারিপাশ আবিষ্কার করার জন্য জায়গা করে দিতে পারবেন এবং তার সাথে আবার আত্মনির্ভর করে তুলতেও পারবেন।আপনার টলমলে ছোট্টটিকে বই পড়ে শোনান।বই পড়ার ফলে তার শব্দ শুনে উচ্চারণ করার দক্ষতা বৃদ্ধি পাবে;এটি তার ভাষা বিকাশের ক্ষেত্রে সহায়ক হবে এবং তার মনঃসংযোগ করার পরিধি এবং স্মৃতিশক্তি বৃদ্ধি করবে।যখন আপনি একটা বই আপনার টলটলায়মানটির সামনে পাঠ করবেন আপনার সাথে তার বন্ধনের দৃঢ়তা বাড়বে এবং এইটি তার মধ্যে পড়ার প্রতি ভালবাসা জাগাতে সাহায্য করবে।

মাবাবাদের জন্য পরামর্শ

আপনার টলমল করে হেঁটে চলা ছোট্ট শিশুটি সম্ভবত তার স্থানটিকে অনুসন্ধান করবে।আপনি তাকে একটানা এবং অবিচলিত ভাবে চলমান দেখতে পেতে পারেন।এখানে রইল কয়েকটি পরামর্শ যা আপনার 16 মাস বয়সী টলটলায়মানকে পরিচালনা করতে সাহায্য করবেঃ

  • কখনই আপনি তাকে আপনার চোখের আড়াল করবেন না।কারণ কোন জিনিসগুলিতে তা্র আঘাত লাগতে পারে বা কোনটি তার ক্ষেত্রে ক্ষতিকারক সে বিষয়ে ছোট্ট টলমলে শিশুদের জ্ঞান থাকে না।
  • টলটলায়মানদের ঠান্ডা লাগা এবং পেটের সমস্যা দেখা দেওয়া খুব সাধারণ সমস্যা।সঠিক স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলা এবং খাবার আগে অবশ্যই তার হাত ধোয়ার অভ্যাস তৈরী করা প্রয়োজন।এই ভাবে অনেক ধরণের সংক্রমণ এড়ানো যায়।
  • দাঁতের জন্য একটি সুন্দর স্বাস্থ্যবিধি বজায় রাখতে হবে।দিনে দুবার করে তাদের ব্রাশ করানো উচিত।
  • তারা বিছানায় যাবার জন্য প্রস্তুত হলেও তাদের শিশুশয্যা ব্যবহার করা উচিত।যা তাদের ক্ষতিকর পথ থেকে দূরে রাখার একটি পন্থা।
  • আপনার গৃহটিকে শিশু সুরক্ষিত করে তোলার ব্যাপারটি নিশ্চিত করুন।

যদি প্রয়োজন হয় একজন ডাক্তারের পরামর্শ গ্রহণ করুন

প্রতিটি শিশুই হল অনন্য।আর প্রত্যেকেই তাদের মাইল ফলকগুলি একই সময়ে ছুঁয়ে ফেলবে এমন কোনো কথা নেই।আপনি আপনার ডাক্তার বাবুর সাথে কথা বলুন যদি আপনি অনুভব করেন যে আপনার ছোট্ট সন্তানটি তার মাইলফলকগুলিতে পৌঁছতে বেশ কিছু মাস দেরী করে ফেলছে।

এটা খুব সহজ কাজ নয়একজন টলটলায়মান শিশুর অভিভাবক হিসাবে তার পিছন পিছন দৌড়ে বেড়ানো।কিন্তু অন্তিম পর্বে এর যথাযোগ্য মূল্য আপনি পাবেন।