গর্ভাবস্থাকালে ড্রাগন ফ্রুট সেবন করা-এটি কি নিরাপদ?

গর্ভাবস্থাকালে ড্রাগন ফ্রুট সেবন করা-এটি কি নিরাপদ?

একজন গর্ভবতী মহিলার খাদ্য সংক্রান্ত প্রবল ইচ্ছাগুলি নানা রূপে প্রকাশ পায়।এই লালসাগুলি হতে পারে ডেজার্ট বা মিষ্টান্ন জাতীয় খাদ্যগুলির জন্য কিম্বা আবার এমনকি তা দেখা দিতে পারে বিশেষ কিছু নির্দিষ্ট স্বাদ এবং ফলের প্রতি।আবার অনেক সময় তা দর্শন দ্বারাও তাদের সেই খাদ্য-লিপ্সাকে উদ্দীপিত করে তুলতে পারে, ড্রাগন ফ্রুট এমনই একটি ফল যার দর্শনেই আসলে লোকেরা সেটির প্রতি এত উৎসাহিত হয়ে ওঠে যে সেটি এত বেশি জনপ্রিয় হয়ে উঠেছে।কিন্তু তাদের গর্ভস্থ শিশুর সুরক্ষা নিশ্চিত করার জন্য অনেক গর্ভবতী মহিলাই এ ব্যাপারে চিন্তা করেন যে, অন্তঃসত্ত্বাকালে তাদের ড্রাগন ফ্রুট খাওয়া উচিত কিনা।আসুন সন্ধান করা যাক আদপে ড্রাগন ফ্রুট নিরাপদ কিনা এবং কীভাবে সেটি গর্ভবতী মহিলাদের উপর প্রভাব ফেলতে পারে।

aniview

ড্রাগন ফ্রুট জিনিসটি আসলে কি?

ড্রাগন ফ্রুটের আরেকটি নাম আছে যেটি শুনে মূল নামটির মত অত ভয়ঙ্কর লাগে না, সেই নামটি হল পিতায়া।যদিও এই ফলটি মধ্য আমেরিকার কিছু অংশের পাশাপাশি দক্ষিণ আমেরিকা এবং ম্যাক্সিকো অঞ্চলের স্থানীয়, তবে তার সাথে আবার এর উপস্থিতি ভারতীয় উপমহাদেশেও দেখতে পাওয়া যায়।আঁশের ন্যায় খসখসে বহিরাবরণ যুক্ত এই ফলটিকে বিভিন্ন সুপার মার্কেটগুলিতে সহজেই দেখতে পাওয়া যেতে পারে এবং তার পাশাপাশি আবার সেগুলির জন্য অনলাইনে অর্ডারও করা যেতে পারে।এর স্বাদ সাধারণত টক-মিষ্টি সমন্বিত এক চটপটা স্বাদের হয়ে থাকে এবং এর বিভিন্ন রূপগুলি সেই স্বাদকে পৃথক করে।যদি তুলনা করতেই হয়, সেক্ষেত্রে কালো বীজের উপস্থিতির সাথে ড্রাগন ফ্রুটের আভ্যন্তরীণ গঠণটি কিউয়ির সবচেয়ে কাছের বলে মনে হয়।

ড্রাগন ফ্রুটের পুষ্টি মান

ড্রাগন ফ্রুটের খোসা ছাড়িয়ে সেটিকে কাটলে তার ভিতরে আপনি পাবেন পুষ্টির এক অমূল্য সঞ্চিত ধনভাণ্ডার যা আপনার স্বাস্থ্যের পাশাপাশি আপনার সন্তানের স্বাস্থ্যকেও বাড়িয়ে তুলবে।ড্রাগন ফ্রুটের মধ্যে কার্বোহাইড্রেটের উপস্থিতি কোনও গর্ভবতী মহিলার মধ্যে তার শক্তি পুনরুদ্ধারের জন্য বেশ উপকারী বলে প্রমাণিত।অতিরিক্তভাবে, এর মধ্যস্থ পর্যাপ্ত পরিমাণে ক্যালসিয়াম শিশুর হাড় গঠণের বিকাশকে প্রভাবিত করে।এ সময় রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতাটি বাড়িয়ে তোলাও খুবই গুরুত্বপূর্ণ আর সেটি সম্পন্ন হয়ে থাকে এই ফলের মধ্যে উপস্থিত আয়রণ, পটাশিয়াম এবং একাধিক অন্যান্য প্রোটিনগুলির দ্বারা।

সাধারণ উপাদানগুলির পাশাপাশি, পিতায়া মধ্যস্থ ফোলিক অ্যাসিডের উপস্থিতি শিশুর স্নায়ুতন্ত্রের বিকাশের ক্ষেত্রে উপকারী বলে প্রমাণিত।তাছাড়াও এর ভিটামিন C, ফাইবার এবং বিটা-ক্যারোটিনগুলি হল মায়ের সার্বিক স্বাস্থ্যের জন্য অত্যন্ত মূল্যবান।এর মধ্যস্থ আরেকটি মূল উপাদান হল লাইকোপেন যা ড্রাগন ফলের একটি অনন্য বৈশিষ্ট্য।এটি বিভিন্ন হৃদ সমস্যা, হাইপারটেনশনের বিরুদ্ধে লড়াই করতে সহায়তা করার পাশাপাশি ক্যান্সারের সম্ভাবনাকেও হ্রাস করে।

গর্ভাবস্থায় ড্রাগন ফ্রুট খাওয়া কি নিরাপদ?

তাহলে, আপনি যদি এখনও চিন্তা করতে থাকেন যে গর্ভবতী মহিলারা ড্রাগন ফ্রুট খেতে পারেন কিনা, তবে বলা ভাল এর উত্তর হল ‘হ্যাঁ..হ্যাঁ…হ্যাঁ’।এর একাধিক উপকারিতা আছে যা আপনি আপনার নিজের এবং আপনার সন্তানের জন্য কাজে লাগাতে পারেন।লাল ড্রাগন ফলগুলিকে বেছে নেওয়া হল সেগুলি খাওয়া শুরু করা এবং তার স্বাদ ও গন্ধের সাথে অভ্যস্ত হয়ে ওঠার একটি দুর্দান্ত উপায়।

গর্ভবতী মহিলাদের জন্য ড্রাগন ফলের উপকারিতাগুলি

ড্রাগন ফল খাওয়ার উপকারিতাগুলি যা গর্ভবতী মহিলারা কাজে লাগাতে পারেন তার পরিমাণ অঢেল।ড্রাগন ফল গর্ভবতী মহিলাদের জন্য একটা স্বাস্থ্যকর মাত্রায় পুষ্টি সরবরাহ করে এবং তার সাথে গর্ভস্থ শিশুর বৃদ্ধির জন্য প্রয়োজনীয় পুষ্টিকর উপাদানগুলিরও যোগান দেয়।

1.ফ্যাট বা স্নেহ পদার্থের সমৃদ্ধ উৎস

যেকোনও গর্ভবতী মহিলার শরীরে ভাল ফ্যাটগুলির উপস্থিতি থাকা অনিবার্য কারণ এটি কেবলমাত্র বিভিন্ন বিপাকীয় প্রক্রিয়া চালিয়ে যাওয়ার শক্তিই সরবরাহ করে না এটি কিন্তু আবার ভ্রূণের মস্তিষ্ক গঠনের কাজকেও বর্ধিত করে। ড্রাগন ফলের মধ্যে ভাল ফ্যাটগুলির একটি সুন্দর অনুপাত রয়েছে, যার বেশিরভাগটাই মনোস্যাচুরেটেড,যা এই ফলটিকে আপনার বিদ্যমান ডায়েটে একটি অভূতপূর্ব সংযোজন করে তোলে।

2.শক্তি প্রদেয়কারী কার্বোহাইড্রেট

ফ্যাট বা স্নেহ পদার্থ সমৃদ্ধ হওয়ার পাশাপাশি, ড্রাগন ফ্রুটের মধ্যে রয়েছে বিশাল পরিমাণে কার্বোহাইড্রেটও।এটিই আবার শক্তির একটি উৎস হয়ে ওঠে যা সহজেই গ্রহণযোগ্য এবং সরাসরি ভ্রূণের কাছেও স্থানান্তরিত হতে পারে।

3.সংক্রমণের বিরুদ্ধে বাধার সৃষ্টি করে

জীবাণুগুলির দ্বারা সংক্রামিত হওয়া ভ্রূণের পক্ষে ঝুঁকিপূর্ণ হয়ে ওঠে কারণ সেগুলি প্ল্যাসেন্টা বা অমরার মাধ্যমে শিশুর কাছে পৌঁছানোর উপায় খুঁজে পেতে পারে। ড্রাগন ফ্রুট তার মধ্যস্থ উপকারিতাটি সরবরাহ করে কোষের পুনরোৎপাদন বা সেলুলার রিজেনেরেশনের মাধ্যমে ক্ষতের চিকিৎসায়, যা সংক্রমণ প্রতিরোধ করে ও শরীরের মধ্যে ইতিমধ্যেই উপস্থিত থেকে থাকা যেকোনও জীবাণুগুলির মোকাবিলা করতে অ্যান্টি-ফাঙ্গালএবংঅ্যান্টি-ব্যাকটেরিয়াল উপাদান দেহেসরবরাহকরে।

4.কোষ্ঠকাঠিণ্য থেকে স্বস্তি আনে

ড্রাগন ফ্রুট মধ্যস্থ এর ফাইবারের উপস্থিতি আবার এর অপর উপকারিতাটি প্রদান করে গর্ভবতী মহিলাদের মধ্যে অবিরামভাবে থেকে থাকা কোষ্ঠকাঠিণ্যের সমস্যায়।নিয়মিতভাবে ড্রাগন ফলটি সেবন করলে তা আপনার পাচন প্রক্রিয়াটিকে স্বাভাবিকের দিকে ফিরে আসতে সহায়তা করবে।

5.হিমোগ্লোবিনের মাত্রা বাড়ায়

ড্রাগন ফ্রুট মধ্যস্থ এর আয়রণ উপাদানটি রক্তে হিমোগ্লোবিনের মাত্রা বাড়িয়ে রক্তকোষের অক্সিজেন বহন করার ক্ষমতাকে উন্নত করতে সহায়তা করে।ফলস্বরূপ, এটি বেশিরভাগ মহিলাদের রক্তাল্পতা বা অ্যানিমিয়ার সম্ভাবনাকেও হ্রাস করে।

6.হাড়ের বিকাশে সহায়তা করে

ভ্রূণের হাড় গঠণের বিকাশের জন্য প্রয়োজন এমন একমাত্র খনিজ কেবল ক্যালসিয়ামই নয়, ফসফরাসও এক্ষেত্রে একটি গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে, আর এই দুটোই ড্রাগন ফ্রুটের মধ্যে বেশ ভালো মাত্রায় উপস্থিত।এগুলি আবার মায়ের দাঁতের ভাল স্বাস্থ্য বজায় রাখারও কাজ করে।

7.জন্ম ত্রুটিগুলি রোধ করে

এটি বেশ সঙ্কটপূর্ণ যে, শিশুর স্নায়ুর বিকাশ কোনওরকম প্রতিবন্ধকতা ছাড়াই অব্যাহত থাকে।ভিটামিন B কমপ্লেক্স গ্রুপ ফোলেটের সাথে সমন্বিত হয়ে, শিশুর নিউরাল টিউবের পাশাপাশি তার স্নায়ু তন্ত্রের বিকাশের ক্ষেত্রেও একটি গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে এবং নিশ্চিত করে যে সে যেকোনও ব্যাধি থেকে মুক্ত।

8. প্রাক-এক্ল্যাম্পসিয়া প্রতিরোধ করে

গর্ভবতী মহিলাদের মধ্যে হাইপারটেনশন বা উচ্চরক্তচাপ থেকে থাকলে তা তাদের মধ্যে প্রি-এক্ল্যাম্পসিয়া বা প্রাক-এক্ল্যাম্পসিয়া হওয়ার ঝুঁকিকে যথেষ্ট পরিমাণে বাড়িয়ে তোলে।ড্রাগন ফল রক্ত শর্করা বা ব্লাড সুগারের পাশাপাশি রক্তচাপের একটা স্থিতিশীল মাত্রা বজায় রাখতে সহায়তা করে, আর তার ফলে তা গর্ভাবস্থার সাথে জড়িত সমস্যা ও জটিলতাগুলিকেও নূন্যতম রাখে।

কীভাবে আপনি আপনার ডায়েটে ড্রাগন ফ্রুটকে অন্তর্ভূক্ত করতে পারেন?

অন্য যেকোনও ফলের মতই, নিয়মিত ভাবে ড্রাগন ফ্রুটটিও কাঁচাই খাওয়া যেতে পারে।এছাড়াও আপনি আবার এর রসটিকেও বের করে নিতে পারেন কিম্বা আপনার স্যালাডের প্রস্তুতির মধ্যে এটিকে একটি অতিরিক্ত সংযোজন হিসেবেও ব্যবহার করতে পারেন।

গর্ভাবস্থাকালে, আপনার খাদ্য তালিকায় ড্রাগন ফ্রুটের অন্তর্ভূক্তিকরণ করা হল আপনার স্বাস্থ্য এবং সুস্বাস্থ্যের পক্ষে সহায়তা করার জন্য নেওয়া সেরা সিদ্ধান্তগুলির মধ্যে একটি।এর বহুবিধ উপকারিতাগুলি আপনার শিশুর বৃদ্ধির জন্য খুবই গুরুত্বপূর্ণ এবং এর মধ্যে প্রায় কোনওরকম ঝুঁকি থাকে না বলেই, কোনওরকম চিন্তা ছাড়াই গর্ভবতী মহিলাদের দ্বারা গ্রহণযোগ্য সুরক্ষিত ফলগুলির মধ্যে এটিকে একটি করে তুলেছে।