দন্তহীন শিশুর জন্য আঙ্গুলে তুলে নিয়ে খাওয়ার 15 টি সুস্বাদু খাবার

Boy taking fruits on his own

অনেক মায়েদের জন্যই তাদের বাচ্চাদের খাওয়ানো একটা মুশকিলের কাজ হয়ে যায়।যাইহোক,যেহেতু শিশুরা বেড়ে ওঠে,তারা পছন্দ করে নতুন স্বাদের এবং গঠনের খাবারগুলি খাওয়ার চেষ্টা করতে।খুব দীর্ঘ সময় তারা কেবল চটকানো খাবার এবং পিউরি খেতে পছন্দ করবে না।ঠিক এই সময়েই আঙ্গুলে তুলে নিয়ে খেতে পারার মত খাবারগুলির সাথে আপনার বাচ্চার পরিচয় করানো উচিত।শিশুদের জন্য আঙ্গুলে তুলে খাওয়ার খাবারগুলো শুধুমাত্র পুষ্টি প্রদানের থেকেও আরও বেশী কিছু করে থাকে।এটি একটি শিশুকে সূক্ষ্ম সঞ্চালন দক্ষতা শিখনে সাহায্য করে।এছাড়াও এটি শিশুর খাওয়ার জন্য তাকে নতুন কোনও কিছুর সাথে পরীক্ষা করার অনুমতি দেয়।

aniview

একটি দন্তহীন শিশুর জন্য 15 টি স্বাস্থ্যকর আঙ্গুলে তুলে নিয়ে খেতে পারার খাবার

আপনার বাচ্চার সাথে আঙ্গুলে তুলে খেতে পারার খাবারের পরিচয় করানো বাবামায়ের জন্য প্রাথমিকভাবে কিছুটা চ্যালেঞ্জের বিষয় হতে পারে।একবার আপনার বাচ্চা আঙ্গুলে তুলে খাওয়ার খাবার খাওয়া শুরু করলে একজন বাবামায়ের প্রস্তুত থাকা উচিত সকল প্রকার অপরিচ্ছন্নতা,এলার্জি অথবা এমনকি বিষম বিপত্তিগুলির জন্য।সুতরাং এটা করার অর্থ কি দাঁত বিহীন শিশুদের জন্য এই ফিঙ্গার ফুডগুলি আদর্শ নয়?উত্তর হল না।এমনকি,একটা আদর্শ ফিংগার ফুড হতে হবে এমন কিছু, যা বাচ্চা সহজেই তুলে নিতে পারবে এবং তার চোয়ালের মাঝে পিঁষে নিতে পারবে।এছাড়াও বাচ্চাকে আপনার দেওয়া উচিত ক্যালসিয়াম সমৃদ্ধ খাবার এবং সেইসকল খাবারগুলি যেগুলি গুরুত্বপূর্ণ পুষ্টিতে পরিপূর্ণ।

যদি আপনি বাচ্চার জন্য ফিঙ্গার ফুড বা আঙ্গুলে তুলে খেতে পারার খাবারের ধারণা পেতে চান,তবে এখানে তার মধ্যে কিছু দেওয়া হল সেগুলি দিয়ে শুরু করার জন্য।

1.পাস্তা

উপকরণ

  • ঝিনুকের খোল আকৃতির পাস্তা বা/পেন্নি
  • অলিভ অয়েল/মাখন
  • টমেটো পিউরি

কীভাবে তৈরী করবেন

  • জল ফুটান এবং পাস্তা রান্না করুন(এটা একটু বেশী সময় ধরে রান্না করা উচিত যাতে এটি নরম এবং গলা গলা হয়ে যায় আপনার বাচ্চার জন্য)
  • একটা কড়াইয়ের মধ্যে অল্প মাখন অথবা অলিভ অয়েল নিয়ে তার সাথে রান্না করা পাস্তাটা যোগ করুন।এক মনিটের জন্য নেড়ে নিন এবং তারপর তার সাথে টমেটো পিউরি যোগ করুন(আপনি টমেটো পিউরিটিকে বাদ দিতে পারেন যদি আপনার বাচ্চা এর স্বাদ পছন্দ না করে)
  • খুব সূক্ষ্ম স্বাদযুক্ত হওয়ার কারণে এটি দাঁতহীন শিশুদের জন্য প্রথম আঙ্গুলে তুলে খাওয়ার খাবার হতে পারে।পাস্তা যখন একটু বেশী রান্না করবেন এটি ভীষণ নরম হয়ে যাওয়ার প্রবণতা থাকে।এটা আরও সহজ করে তোলে শিশুদের পাস্তাটিকে খাওয়ার জন্য কোনওরকম দাঁত ছাড়াই।

2.ঘরে প্রস্তুত শিশু বিস্কুট

উপকরণ(মোটামুটি 18-20 টি বিস্কুটের জন্য)

  • 1/4 কাপ সাদা ওট
  • 1/2 কাপ মাখন/পিনাট বা চিনা বাদামের মাখন
  • 2 বড় চামচ ভাঙ্গা ফ্লেক্স সীড বা শণ বীজ
  • 1 কাপ ছোলা গুঁড়া
  • 1/3 কাপ ম্যাপেল সিরাপ অথবা মধু
  • 1 টা ফ্যাটানো ডিম
  • 1 চাচামচ বেকিং সোডা
  • 2 চাচামচ ভ্যানিলা এসেন্স
  • 1-2 বড় চামচ জল(যদি প্রয়োজন হয়)


কীভাবে তৈরী করবেন

  • এক কাপের পরিমাপে ছোলা গুঁড়া নিন এবং সেটিকে ফ্রিজের মধ্যে রাখুন(এটি বেকিংএর জন্য সঠিক সামঞ্জস্য এবং গঠণ তৈরী করতে সাহায্য করবে)
  • ওভেনটিকে আগে থেকে 350 ডিগ্রী ফারেনহাইট অথবা 175 ডিগ্রী সেলসিয়াসে গরম করে রাখুন।
  • এদিকে,মাখন,মধু/ম্যাপেল সিরাপ,ফ্যাটানো ডিম,ভ্যানিলা এসেন্স এবং বেকিং সোডা সব একসাথে মিশিয়ে নিন।
  • অন্য আরেকটি বাটির মধ্যে,ছোলার গুঁড়া(ফ্রিজ থেকে বের করে নিয়ে),সাদা ওট এবং ভাঙ্গা ফ্লেক্স সীড বা শণের বীজ মিশিয়ে নিন।
  • এবার আপনার হাত দিয়ে সব কিছু একসাথে মিশিয়ে মেখে নিন এবং কুকি বানানর উপযুক্ত গঠনের একটা মন্ড বা তাল বানান।
  • এরপর ঐ মিশ্রণের মাখা তাল থেকে একটা ছোট বলের অংশ নিন এবং সেটিকে একটা বেকিং ট্রের উপর বাটার পেপার নিয়ে তার উপরে চেপ্টে দিন।
  • মোটামুটি 12 মিনিটের জন্য বেক করুন।
  • ওভেন থেকে বের করার পর,প্রতিটা বিস্কুটের কেন্দ্রে কাঁটা চামচ দিয়ে আলতো করে চাপ দিন ভিতরে বায়ু ঢুকে থাকলে সেটি মুক্ত করে দেওয়ার জন্য।
  • এই রেসিপিটি দাঁতবিহীন 8 মাস বয়সী শিশুর জন্য হতে পারে খুব ভাল একটা আঙ্গুলে তুলে খেতে পারার মত খাবার।

3.বেবি কুইচি (ডিম) কেক

উপকরণ

  • 2-3 কাপ সম্পূর্ণ গমের আটা
  • 1/4 কাপ অলিভ অয়েল
  • 3-5 কাপ যেকোনও সবজি(ঘনকাকারে কাটা গাজর,মিহি করে কুঁচানো পালং শাক অথবা ফুলকপি,কড়াইশুঁটি)
  • 4 টে ফ্যাটানো ডিম
  • 1 কাপ চেডার চীজ কুড়ানো
  • 1 1/2 কাপ দই
  • 1 বড় চামচ বেকিং পাউডার
  • স্বাদের জন্য লবণ

কীভাবে তৈরী করবেন

  • প্রথমে সবজিগুলিকে ভাঁপিয়ে নিন।
  • তারপর সেগুলিকে ব্যাটারের মধ্যে যোগ করুন(সম্পূর্ণ গমের আটা,দই,বেকিং পাউডার,ফ্যাটানো ডিম,চেডার চিজ,অলিভ অয়েল এবং লবণ)
  • এবার একটা মাফিন ট্রের মধ্যে তেলের প্রলেপ দিয়ে তারপর তার মধ্যে সম্পূর্ণ ব্যাটারটিকে স্থানান্তরিত করুন।
  • তারপর সেটিকে 20 মিনিটের জন্য 180 ডিগ্রী সেলসিয়াসে বেক করুন অথবা যতক্ষণ না সেটি সোনালী বাদামী রঙে পরিণত হয় এবং শক্ত হয়ে যায় ততক্ষণ বেক করুন।
  • একবার সেটি ঠাণ্ডা হয়ে গেলে,আপনি এটিকে ছোট ছোট টুকরো করে ভেঙ্গে নিতে পারেন এবং আপনার সোনাকে দিতে পারেন অথবা একটা কৌটার মধ্যে সেটিকে রেখে ফ্রিজের মধ্যে মজুত করে রাখতে পারেন।

4.বেরী বাইটস

উপকরণ

  • 3 টে কলা
  • এক মুঠো স্ট্রবেরী/ব্লুবেরী
  • 4 টে ডিম 

কীভাবে তৈরী করবেন

  • একটা ছোট মাফিন ট্রে নিয়ে তার উপর মাখনের প্রলেপ দিয়ে দিন
  • কলা 3 টি চটকে নিন এবং ডিমগুলিকে ভালোভাবে ফেটিয়ে নিন,এবার এই দুটি উপাদানকে একসাথে মিশিয়ে নিন।
  • মাফিন ট্রের প্রতিটি স্লটের বা খাপের মধ্যে কিছু স্ট্রবেরী অথবা ব্লুবেরী রাখুন।
  • তারপর তার মধ্যে মিশ্রণটিকে ঢেলে দিন।
  • মোটামুটি প্রায় 15 মিনিটের জন্য বেক করুন যতক্ষণ না ডিম ঠিকমত বসে যায়।
  • যখন মাফিনগুলি ঠান্ডা হয়ে যাবে,সেগুলিকে টোকা দিয়ে বের করে নিন।

5. মিষ্টি আলু ভাজা

উপকরণ

  • মিষ্টি আলু(মাঝারি/বড় আকারের)
  • 1/4 কাপ অলিভ অয়েল
  • এক চিমটি দারচিনি গুঁড়ো

কীভাবে তৈরী করবেন

  • ওভেনকে আগে থেকে গরম করে রাখুন(400 ডিগ্রী ফারেনহাইটে)
  • মিষ্টি আলুগুলিকে পরিষ্কার করুন এবং সেগুলির খোসা ছাড়িয়ে নিন।
  • সরু লম্বা লম্বা ফালি করে সেগুলিকে কাটুন।
  • এবার সেগুলির উপর কিছুটা দারুচিনি গুঁড়ো ছড়িয়ে দিন।
  • তারপর মিষ্টি আলুর কাটা লম্বা ফালিগুলিকে একটা বেকিং পাত্রের উপর রাখুন।
  • 30-45 মিনিটের জন্য সেগুলিকে বেক করুন অথবা যতক্ষণ না সেগুলি নরম হয়ে যায়।

6.ব্যানানা(কলা) প্যানকেক

উপকরণ

  • 1 কাপ সম্পূর্ন গমের আটা
  • 1/2 কাপ দুধ
  • জল যদি প্রয়োজন পড়ে
  • 1 টা পাকা কলা

কীভাবে তৈরী করবেন

  • কলাটিকে আড়াআড়ি ভাবে অথবা গোল গোল করে কেটে নিন।
  • এবার সম্পূর্ণ গমের আটা এবং দুধ একসাথে মিশিয়ে নিন(আপনি আবার এর সাথে জলও যোগ করতে পারেন যদি প্রয়োজন পড়ে)
  • কলার টুকরোগুলিকে এবার এই ব্যাটারটির দ্বারা পুরু আস্তরণ দিন।
  • এবার সেগুলি সোনালী বাদামী রঙ না হওয়া পর্যন্ত ভাজুন।

7.ডিম ভুনা

উপকরণ

  • 2 টি ডিম
  • 2 বড় চামচ দুধ
  • মাখন

কীভাবে তৈরী করবেন

  • ডিমগুলি ফেটিয়ে নিন।
  • এর সাথে দুধ যোগ করুন এবং পুনরায় ফেটিয়ে নিন।
  • একটা চাটুর মধ্যে কিছুটা মাখন নিন।
  • মাখনটা গলে যাওয়ার পর চাটুর মধ্যে ফ্যাটানো ডিমটিকে ঢেলে দিন।
  • এবার 20 সেকেন্ডের জন্য এটিকে না নাড়িয়ে তাপের মধ্যে বসিয়ে রাখুন এবং তারপর এটিকে ঘেঁটে নাড়িয়ে নিন।
  • আবার আরও 10 সেকেন্ডের জন্য এটিকে তাপের মধ্যে বসিয়ে রাখুন এবং তারপর পুনরায় নাড়িয়ে ঘাটতে থাকুন।
  • এরপর এটিকে আগুনের থেকে সরিয়ে নিন এবং শেষ বারের মত এটিকে ঘেঁটে নাড়ানোর আগে পূর্বের মতই অনুসরণ করে এটিকে কিছু সময়ের জন্য স্থির অবস্থায় রাখুন।

8.ইডলি

উপকরণ

  • 1 1/2 কাপ আতপ চাল
  • 1/2 কাপ শুদ্ধ বিউলীর ডাল

কীভাবে তৈরী করবেন

  • চাল এবং ডালকে ভালো করে ধুয়ে নিয়ে আলাদা আলাদা বাসনে 5-6 ঘন্টার জন্য ভিজিয়ে রাখুন।
  • তারপর ডালটিকে মিহি পেষ্ট করে পিঁষে নিন এবং চালটিকে পিঁষে সামান্য দানা দানা রাখুন।
  • এবার দুটি উপকরণই একসাথে মিশিয়ে নিন তার সাথে সামান্য লবণ যোগ করুন।
  • এর সাথে অল্প জল যোগ করে ফোঁটা ফোঁটা হয়ে পড়বে এমন ঘনত্বের একটা ব্যাটার বানান।
  • এটিকে ফার্মেন্ট বা সন্ধান করার জন্য সারা রাত রেখে দিন।
  • মিশ্রণটির সন্ধান(ফার্মেন্টেশন) সম্পন্ন হওয়ার পর সেটিকে একটি ইডলি স্টিমারের মধ্যে করে ভাঁপিয়ে নিন।
  • এবার আপনি হয় ইডলিগুলিকে ছোট ছোট টুকরো করে কেটে আপনার আদরের সোনাকে খেতে দিতে পারেন অথবা আপনার সোনামণিকে খেতে দেওয়ার আগে আপনি ইডলিটিকে ছোট ছোট টুকরো করে কেটে নিয়ে সেগুলিকে মাখনের মধ্যে ভেজে নিতে পারেন।

9.স্টীমড ধোসা

উপকরণ

  • 1 কাপ আতপ চাল(অথবা আপনি ধোসা রাইস বা চাল নিতে পারেন)
  • 1/3 কাপ বিশুদ্ধ বিউলির ডাল
  • কিছু মেথি দানা
  • বড় 1 চামচ চিঁড়ে

কীভাবে তৈরী করবেন

  • একটি পাত্রে চাল,মেথি দানা এবং চিঁড়ে একসাথে ভিজিয়ে রাখুন,এবং অন্য একটি পাত্রে বিউলির ডালটি ভিজান।
  • 3 ঘন্টা ভিজানোর পর চাল,মেথি দানা এবং চিঁড়েটাকে পিঁষে নিয়ে একটা মিহি পেষ্ট বানান।
  • তারপর বিউলির ডালটিকে পিঁষে মিহি পেষ্ট বানিয়ে নিন।
  • দুটি মিশ্রণকে এবার একসাথে মিশিয়ে নিন।
  • সঠিক ঘনত্বে আনার জন্য এবার এর সাথে প্রয়োজন মত জল যোগ করুন।
  • এরপর ব্যাটারটিকে ফার্মেন্টেশন বা সন্ধান হওয়ার জন্য 6-8 ঘন্টা রেখে দিন।
  • এটা সন্ধান হওয়ার পর চাটু গরম করুন।
  • এবার ঐ মিশ্রণটির থেকে হাতায় করে এক হাতা তুলে নিয়ে সেটিকে চাটুর উপরে একটা ছোট আকারের গোল করে ছড়িয়ে দিন।

10.ফ্রুট স্যালাড

উপকরণ

  • বিভিন্ন ধরনের ফল যেমনআপেল,কলা,বেদানা এবং আঙুর


কীভাবে তৈরী করবেন

  • ফলগুলির খোসা ছাড়িয়ে সেগুলিকে কেটে নিন।
  • এগুলির সাথে কিছুটা বীট নুন মিশিয়ে নিন (ইচ্ছে হলে)এবং আপনার ছোট্ট সোনাকে পরিবেশন করুন।

11.চীজি ক্র্যাকার

উপকরণ

  • 1 কাপ সাদা ময়দা
  • কুড়ানো চীজ 1 কাপ
  • 2 বড় চামচ লবণহীন বা সাদা মাখন

কীভাবে তৈরী করবেন

  • মাখন এবং চীজকে কয়েক মিনিটের জন্য ভালোভাবে ফেটিয়ে নিন যতক্ষণ না বুঁদ বুঁদ কেটে নরম বলের আকারের একটা গঠন গড়ে ওঠে।এটা সবচেয়ে ভাল হয় একটা ইলেক্ট্রিক ব্লেন্ডার ব্যবহার করলে।
  • এর সাথে ধীরে ধীরে ময়দাটা মিশিয়ে একটা ঝুরঝুরে মিশ্রণ তৈরী করুন।
  • এরপর একটা আদ্র ময়দার তাল বানাতে এর সাথে কিছুটা জল যোগ করুন।
  • এবার ময়দার মাখা তালটিকে একটা পরিষ্কার ভিজা কাপড় দিয়ে মুড়ে ফ্রিজের মধ্যে 1 ঘন্টার জন্য রেখে দিন।
  • এক ঘন্টা পর,মুড়িয়ে রাখা ভিজা কাপড়টির থেকে খুলে নিন এবং ময়দার তালটিকে বেলে নিন।ছোট গোলাকার কাটার ব্যবহার করে ঐ রুটিটি থেকে গোল গোল বিস্কুটের আকারে কে্টে নিন এবং সেগুলি্র উপর কাঁটা চামচ দিয়ে ছিদ্র করে নিন।
  • এরপর আগে থেকেই ওভেনকে 180 ডিগ্রী সেলসিয়াসে গরম করে রাখুন।
  • এবার বিস্কুটগুলিকে 15 মিনিটের জন্য বেক করুন সেগুলি সোনালী বাদামী রঙের না হওয়া পর্যন্ত।

12.ধুন্দুলের চিপস

উপকরণ

  • 1 টি ধুন্দুল(পাতলা পাতলা করে কাটা)
  • অলিভ অয়েল

কীভাবে তৈরী করবেন

  • 100-110 ডিগ্রী সেলসিয়াসে ওভেনকে আগে থেকে গরম করে রাখুন।
  • ধুন্দুলের পাতলা কাটা টুকরোগুলির সাথে তেল যোগ করুন।
  • এবার ট্রের উপরে ধুন্দুলের সমস্ত কাটা টুকরোগুলিকে একটা স্তরে সাজিয়ে দিন।
  • এবার 60 মিনিট বা এক ঘন্টার বেশী সময় ধরে এটিকে বেক করুন।30 মিনিট পরে ধুন্দুলের টুকরোগুলিকে উল্টে দিতে মনে রাখবেন।

13.ফ্রেঞ্চ টোস্ট ফিঙ্গার

উপকরণ

  • ডিম 2 টি
  • 1/4 কাপ দুধ
  • সম্পূর্ণ আটার পাউরুটি-8 টি স্লাইস
  • এক চিমটি নুন(ইচ্ছে হলে)

কীভাবে তৈরী করবেন

  • দুধ এবং নুনের(ইচ্ছে হলে)সাথে ডিমগুলিকে ভালোকরে ফেটিয়ে নিন।
  • পাউরুটির প্রতিটি টুকরো থেকে গুঁড়োগুলিকে ঝেড়ে ফেলুন।
  • প্রিত্যেকটা স্লাইসকে তিন ফালি করে কাটুন।
  • মাঝারি তাপে চাটুটিকে আগে থেকে গরম করে নিন।
  • এবার চাটুটির উপরে সামান্য মাখনের প্রলেপ লাগিয়ে দিন।
  • এবার পাউরুটির কেটে রাখা সকল ফালিগুলিকে সম্পূর্ণরূপে ডিমের মধ্যে ডুবিয়ে নিন।
  • তারপর রুটির টুকরগুলিকে চাটুর উপর রেখে টোস্ট করে নিন উভয় পাশই সোনালী বাদামী রঙ না ধরা পর্যন্ত।

14.গোল সবজির পরোটা

উপকরণ

  • সবজি
  • গমের আটা
  • তেল/মাখন

কীভাবে তৈরী করবেন

  • সবজিগুলিকে ঝিরিঝিরি করে কেটে নিন(যেকোনও সবজি নিয়েই করতে পারেন)
  • এগুলিকে গমের আটার সাথে মিশিয়ে নিয়ে জল সহযোগে মেখে একটা দলা বা মণ্ড তৈরী করুন।
  • ছোট ছোট গোলাকাকারে বেলে নিন।
  • চাটু গরম করে তার উপরে তেল/মাখনের প্রলেপ লাগান।
  • এবার সেই চাটুর উপরে বেলে রাখা পরোটাগুলিকে দিয়ে মাঝারি আঁচে সেঁকে নিন।

15.পনীর স্টিক

উপকরণ

  • পনীর
  • ঘি/তেল
  • নুন(ঐচ্ছিক)

কীভাবে তৈরী করবেন

  • লম্বা লম্বা ফালি করে পনীরকে(কটেজ চীজ)কাটুন(আপনি যদি চান তবে আপনি পনীরের এই ফালিগুলিকে সামান্য নুন,হলুদ মাখিয়ে ম্যারিনেট করেও রাখতে পারেন,কিন্তু এটি ঐচ্ছিক)
  • একটা কড়াইয়ের মধ্যে অল্প ঘি অথবা তেল নিন।
  • সামান্য বাদামী রঙ হওয়া পর্যন্ত মাঝারি আঁচে পনীরের ফালিগুলিকে কড়াইয়ের ঐ ঘি বা তেলের মধ্যে হাল্কা করে সাঁতলে নিন।

শিশুদেরকে বিভিন্ন ধরনের খাবার খাওয়ানো এবং তার স্বাদ দেওয়ানোর খুব ভাল একটা উপায় হল ফিংগার ফুড বা আঙ্গুলে তুলে নিয়ে খাওয়ার খাবারের সাথে তার পরিচয় করানো।এটি শরীরের সমন্বয় দক্ষতার বিকাশ ঘটায় এবং নিজে নিজে খাওয়াতে উৎসাহ যোগায়।এখন আপনি উপরের 15 টি ফিঙ্গার ফুড রেসিপির সাথে আপনার ছোট্ট সোনার স্বাদ এবং পছন্দ অন্বেষণ করতে পারেন।