নবজাতকের আম্বিলিক্যাল কর্ডের যত্ন : বাবা-মায়ের যা যা জানা উচিত

নবজাতকের আম্বিলিক্যাল কর্ডের যত্ন : বাবা-মায়ের যা যা জানা উচিত

এটি সত্যিই বিস্ময়কর যে, নাভি, মানুষের শরীরের একটি অবহেলিত ও অ-উল্লেখযোগ্য অংশ, মায়ের শরীরের ভিতরে বাড়তে থাকা শিশুর পুষ্টি সরবরাহের পথ। বাবা-মা হিসাবে, কর্ডের ফাংশন এবং আপনার সন্তানের শরীরের সাথে সংযুক্ত থাকা পর্যন্ত এটির প্রয়োজনীয় যত্নটি আপনাদের বোঝা উচিত। এটি নিশ্চিত করবে যে আম্বিলিক্যাল কর্ড শিশুর জন্য কোনও স্বাস্থ্য সমস্যা তৈরি করে না এবং এটি স্বাভাবিক ভাবেই খসে পড়ে। এই প্রবন্ধের মাধ্যমে, আপনি কর্ড, এটির যত্নের জন্য প্রয়োজনীয় কৌশল এবং এটির কোনও সংক্রমণ হলে সনাক্তকরণের উপায়গুলি সম্পর্কে আপনার যা যা জানা দরকার তা আপনি শিখবেন।

aniview

আম্বিলিক্যাল কর্ড কি?

বাচ্চাটির জন্মের সময় তার নাভির সাথে আম্বিলিক্যাল কর্ড সংযুক্ত থাকে এবং কর্ডের অন্য প্রান্তটি জরায়ুর ভিতরের দেওয়ালে প্ল্যাসেন্টাকে সংযুক্ত করে। এই প্লাসেন্টাই শিশুকে পুষ্টি ও অক্সিজেন সরবরাহ করে যেখানে সংযুক্ত আম্বিলিক্যাল কর্ড পুষ্টি বহন ও বর্জ্য নির্মূল করার পথ হিসাবে কাজ করে।

আম্বিলিক্যাল কর্ডের কাঠামো এবং কাজ

বেশিরভাগ ক্ষেত্রে গর্ভাবস্থার সপ্তম সপ্তাহে আম্বিলিক্যাল কর্ডটি গঠিত হয় এবং ভ্রুণের বৃদ্ধির সময় ভ্রূণকে সমস্ত প্রয়োজনীয় পুষ্টি সরবরাহের গুরুত্বপূর্ণ কাজ করে। আম্বিলিক্যাল কর্ড প্রাথমিকভাবে নিম্নের বস্তুগুলি দিয়ে গঠিত হয়:

  • মায়ের প্লেসেন্টা থেকে শিশুর কাছে অক্সিজেন এবং রক্ত পরিবহনের জন্য একটি শিরা
  • শিশুর থেকে প্লাসেন্টায় অক্সিজেনহীন রক্ত এবং অন্যান্য তরল ফেরত পাঠাতে দুটি ধমনী

কর্ডটি হোয়ার্টন জেলি নামে পরিচিত একটি আঠালো তরলের আচ্ছাদন দ্বারা নিরাপদে সুরক্ষিত থাকে। আরও সুরক্ষার জন্য, এটি আমিনিওন নামে পরিচিত একটি পাতলা ঝিল্লির দ্বারা আবৃত থাকে। বাচ্চা যখন তার মায়ের গর্ভ থেকে বেরিয়ে আসে, তখন এই কর্ডটি ব্যথাহীন পদ্ধতির মাধ্যমে বিচ্ছিন্ন হয় যেখানে এক প্রান্ত শিশুর শরীরের খুব কাছাকাছি আটকানো থাকে। এটি শিশুর নাভির সাথে সংযুক্ত একটি ছোট ফোলা অংশ ছেড়ে রেখে যায় যেটি 7 থেকে 21 দিনের জন্য নাভির সাথে আটকে থাকে ।

মনে রাখবেন, জন্মের সময় আম্বিলিক্যাল কর্ড হলদেটে সবুজ রঙের হয় এবং এটি সময়ের সাথে কালো হয়ে যায়, তারপর প্রাকৃতিক প্রক্রিয়ায় ঝরে যায়। এটির অস্বাভাবিক চেহারার দ্বারা আপনি বিরক্ত বোধ করতে পারেন কিন্তু এটি অবশেষে ঝরে যাওয়ার কারণে আপনি এটিকে উপেক্ষা করতে পারেন।

কিভাবে আম্বিলিক্যাল স্টাম্পের (ফোলা অংশ) যত্ন নিতে হবে

আম্বিলিক্যাল কর্ড স্টাম্পটি আপনার নবজাতকের নয় মাস ধরে আপনার গর্ভের অন্তরস্থ থাকার সর্বশেষ অনুস্মারক এবং এটি নিজে ঝরে না যাওয়া পর্যন্ত এটির যত্ন নিতে হবে। যাইহোক, এটি থাকার কারণে চিন্তা করবেন না, এটি খুব সহজ! নিরাময় প্রক্রিয়া দ্রুত করার জন্য মামড়িটি সব সময় পরিষ্কার এবং শুষ্ক রাখা প্রয়োজন। মনে রাখবেন যে স্টাম্প বারবার স্পর্শ করলে এবং চেক করলে সেটা সাহায্য করে না। যদিও, সাবধানতা হিসাবে, আপনার নবজাতক শিশু স্বাভাবিকের চেয়ে বেশি কান্নাকাটি করলে, ব্যথা হচ্ছে বলে মনে হলে এবং সে যেরকম কাঁদুনে বলে জানেন তার থেকে বেশী কাঁদুনে হয়ে গেলে ডাক্তারের কাছে যাওয়ার প্রয়োজন হতে পারে।

প্রথমবার বাবা-মা হয়েছেন যারা তাদের জন্য, এখানে আম্বিলিক্যাল কর্ডের যত্ন বাড়িতেই নেওয়ার জন্য কিছু কৌশল দেওয়া হল যাতে আপনারা ভয় পেয়ে অযথা আপনার স্ত্রীরোগ বিশেষজ্ঞ বা শিশু বিশেষজ্ঞকে কল না করেন:

পরিচ্ছন্নতা অতীব গুরুত্বপূর্ণ: ছোট স্টাম্প সময়ে সময়ে অপরিষ্কার এবং চটচটে মনে হতে পারে। এটি এই সংকেত দেয় যে এটিকে তুলো বা একটি ভেজা কাপড় দিয়ে পরিষ্কার করা প্রয়োজন, পরে একটি নরম শুষ্ক টিস্যু বা কাপড় দিয়ে মুছে দিতে হবে। অ্যালকোহল বা সাবান ব্যবহার করবেন না – প্রতিবেশী এবং আত্মীয়দের সুপারিশ হতে পারে। এতে আপনার ছোটটির সূক্ষ্ম চামড়ায় জ্বালা করতে পারে। কোনো ক্ষেত্রে, স্বাভাবিকভাবেই যদি কাজ করে নিরাময় প্রক্রিয়া, তবে তা ত্বরান্বিত করার প্রয়োজন নেই।

শুষ্ক রাখুন: নিরাময় প্রক্রিয়া স্বাভাবিকভাবেই হওয়া নিশ্চিত করতে স্টাম্পটি সবসময়ই শুকনো রাখা দরকার। বায়ুতে এটি উন্মুক্ত করাও গুরুত্বপূর্ণ, তাই নিশ্চিত করুন যে ডায়াপারটি এলাকাটিকে ঘিরে না রাখে । ডায়াপারের ঐ অংশটি কেটে দিন বা নীচু কোমরওয়ালা ডায়াপার খুঁজুন। নাভি এলাকায় সাধারণ ডায়াপার ভাঁজ করে দিলেও তা দারুণ কাজ করে। এটি মূত্রের ছোঁয়া এড়াতেও সাহায্য করবে। ভিজা ডায়াপারগুলি ঘন ঘন পরিবর্তন করুন কারণ আর্দ্রতা নাভি অঞ্চলের দিকে অগ্রসর হতে পারে।

স্পঞ্জ স্নান: যতক্ষণ আপনার শিশুর সাথে আম্বিলিক্যাল কর্ড স্ট্যাম্প সংযুক্ত থাকে, ততক্ষণ আপনার শিশুর একটি টাবে স্নান দেওয়ার প্রলোভনকে প্রতিরোধ করুন। পরিবর্তে, একটি দ্রুত স্পঞ্জ স্নান দেওয়া বেছে নিন যেহেতু এটি নিশ্চিত করবে যে নাভি দীর্ঘ সময় ধরে জলের নীচে থাকবে না। আপনি যে বাচ্চাদের টাব কিনেছেন তা কয়েক সপ্তাহ বা অনুরূপ সময়ের জন্য অব্যবহৃত থাকতে পারে। যদি আপনি এলাকাটি একটি কাপড় দিয়ে মুছতে অস্বস্তিকর বোধ করেন, তবে এলাকাটি ফ্যান চালিয়ে শুকিয়ে দিন।

আপনার শিশুকে বুদ্ধির সাথে পোশাক পড়ান: নিশ্চিত করুন যে আপনার বাচ্চা আলগা-সুতি কাপড়ের পোশাক পরিধান করেছে যাতে স্টাম্পটিতে কোনো ধাক্কার সৃষ্টি না হয়। জামাকাপড়ে ঘষা যত কম লাগবে এবং বায়ু চলাচল যত বেশী হবে, তত দ্রুত নিরাময় হবে। আপনি আপনার সন্তানকে স্মার্টভাবে পোশাক পরিয়ে বিশ্বের কাছে আপনার সৃষ্টি প্রদর্শন করতে চাইতে পারেন, তবে কিছু সময়ের জন্য ফ্যাশন প্যারাড বন্ধ রাখা এবং আম্বিলিক্যাল কর্ডটি সঠিকভাবে নিরাময় হতে দেওয়া বুদ্ধির পরিচায়ক!

প্রাকৃতিকভাবে নিরাময় হতে দিন: প্রথমবার পিতামাতা হওয়া লোকেদের স্বাভাবিক প্রবণতা রয়েছে যে কর্ডটি শুকিয়েছে কিনা তা পরীক্ষা করা এবং তাড়াতাড়ি ঝরে গেছে কিনা তা দেখা। এটি সম্পূর্ণ নিরাময় হওয়ার কাছাকাছি হলে, আপনি এটি টেনে ছিঁড়ে দিতে প্রলুব্ধ হতে পারেন, বিশেষ করে যখন আপনি এটিকে একটি ক্ষুদ্র দুর্বল সুতো দ্বারা ঝুলন্ত দেখতে পান। প্রলোভন প্রতিরোধ করুন এবং প্রাকৃতিক প্রক্রিয়ায় ঘটতে দিন। এটা অবশেষে ঝরে যাবে।

শিশুর থেকে আম্বিলিক্যাল কর্ড কখন ঝরে যাবে?

মনে রাখবেন, এটি এক সপ্তাহ থেকে চার সপ্তাহের মতো সময় নেবে, যদি এটিকে যথাযথভাবে যত্ন নেওয়া হয়ে থাকে। যেহেতু এটি একটি জীবন্ত টিস্যু, এটি ঝরে যাওয়ার আগে শুকানোর প্রক্রিয়া সম্পন্ন করতে হবে। মাঝে মাঝে, অল্প পরিমাণ রক্ত দেখা যেতে পারে, অথবা ত্বকটি কাঁচা দেখাতে পারে। এটি স্বাভাবিক এবং নিজে নিজেই নিরাময় হবে। খুব শীঘ্রই, আম্বিলিক্যাল কর্ড প্রতিস্থাপন হয়ে যাবে একটি ছোট নাভি বোতাম দিয়ে। যদি স্টাম্পটি নিরাময় হতে এবং ঝরে যেতে চার সপ্তাহের বেশি লাগে তবে আপনার শিশুরোগ বিশেষজ্ঞকে কল করতে পারেন।

আম্বিলিক্যাল কর্ড সংক্রমণের লক্ষণ

নাভি এলাকায় নজর রাখা এবং কোনো সংক্রমণ ঘটেনি তা নিশ্চিত করা অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ। জন্মের সময় বাচ্চার ওজন কম থাকলে বা শিশুর অকাল জন্ম হলে, তবে ক্ষতটিতে ঘনিষ্ঠ দৃষ্টি রাখার পরামর্শ দেওয়া হয়। আম্বিলিক্যাল কর্ড সংক্রমণ বিরল, কিন্তু আপনার নিম্নলিখিত সংকেতগুলির প্রতি সতর্ক করা উচিত:

  • কর্ডের ভিত্তি অংশটি লাল হওয়া বা ফুলে যাওয়া
  • স্টাম্প থেকে একটি নোংরা-গন্ধওয়ালা স্রাব বেরোয়
  • শিশুর শরীরের তাপমাত্রা স্বাভাবিকের চেয়ে উপরে থাকে
  • শিশুর পেট ফুলে যায়
  • ক্ষুধার পরিবর্তন হয়
  • শিশু সাধারণ বিরক্তি প্রদর্শন করে

আম্বিলিক্যাল কর্ড সংক্রমণের চিকিত্সা

আপনি উপরে উল্লেখিত লক্ষণগুলির কোনোটি যদি দেখেন, আপনার শিশুরোগ বিশেষজ্ঞর সঙ্গে অবিলম্বে কথা বলুন। সংক্রমণ পরিষ্কার করার জন্য ডাক্তার অ্যান্টিবায়োটিক দিতে পারেন। এছাড়াও মনে রাখবেন, যদি কর্ডটি টেনে বের করে আনা হয় তবে অবিরত রক্তপাত ঘটতে পারে এবং এর জন্য অবিলম্বে চিকিৎসার মনোযোগ প্রয়োজন।

একটি নবজাতকের মধ্যে আম্বিলিক্যাল গ্রানুলোমা

কয়েকটি ক্ষেত্রে, একটি সম্ভাবনা রয়েছে যে আম্বিলিক্যাল কর্ডটি একটি গোলাপী রঙের দাগ তৈরি করতে পারে যা নিয়মিত একটি হলুদ স্রাব নিষ্কাশন করে। এই টিস্যুটি নবজাতকের মধ্যে আম্বিলিক্যাল গ্রানুলোমা নামে পরিচিত এবং এটি এক সপ্তাহের মধ্যে নিজে নিজেই নিরাময় হয়ে যাওয়া উচিত। সংক্রামিত অঞ্চলে মনোযোগ দিন, কারণ এই অবস্থাতে, অন্যান্য কিছু সংক্রমণের বিপরীতে, উচ্চ জ্বর, পেটের এলাকা ফুলে যাওয়া, এলাকাটি লাল হওয়া, বা কোমলতার মতো উপসর্গগুলি নেই। যদি অবস্থার উন্নতি না হয়, আপনার শিশুরোগ বিশেষজ্ঞকে দেখানো উচিত এবং বিলম্ব ছাড়াই চিকিত্সার সাহায্য নেওয়া উচিৎ।

আম্বিলিক্যাল গ্রানুলোমার চিকিত্সা

আম্বিলিক্যাল গ্রানুলোমা থেকে আক্রান্ত শিশুদের চিকিৎসার জন্য, ডাক্তাররা সাধারণত সংক্রামিত এলাকার কটেরাইজেশন প্রক্রিয়া পরিচালনা করেন। কটেরাইজেশন একটি চিকিৎসা কৌশল যা এলাকাটিতে সিলভার নাইট্রেট প্রয়োগ করে টিস্যুটিকে পুড়িয়ে দেয়। এটি আম্বিলিক্যাল কর্ডের অবশিষ্ট অংশ ঝরে পড়তে বা অপসারণ করতে সাহায্য করে। এই অঞ্চলে কোন স্নায়ু প্রান্ত না থাকায়, এটি দ্রুত এবং যন্ত্রণাহীন হয়।

আম্বিলিক্যাল গ্রানুলোমা চিকিত্সার জন্য ডাক্তাররা আরেকটি যে প্রমাণিত পদ্ধতি ব্যবহার করেন তা হল আম্বিলিক্যাল কর্ডের ভিত্তিটিতে একটি অস্ত্রোপচার থ্রেড বেঁধে দেওয়া হয়। এটি এই অঞ্চলে রক্ত সরবরাহ বন্ধ করে দেয়, এইভাবে কর্ডের শুকনো হওয়া দ্রুততর করে এবং এটি প্রাকৃতিক ভাবে ঝরে পড়তে সাহায্য করে। যেহেতু এই প্রক্রিয়াগুলির মধ্যে কোনোটি আপনার নবজাতককে কোনও ব্যথা দেয় না, তাই আপনি এগিয়ে যেতে পারেন এবং আপনার ডাক্তারকে এটি করার জন্য বলতে পারেন।

প্রায়শই জিজ্ঞাসিত প্রশ্নাবলী

1. কিভাবে আমার নবজাতক শিশুর আম্বিলিক্যাল কর্ডের যত্ন নেওয়াকালীন তাকে স্নান করানো উচিৎ?

আপনার নবজাতক শিশু যখন এখনও তার জীবন প্রদায়ী আম্বিলিক্যাল কর্ডের স্টাম্পের সাথে আটকে আছে, তখন একটি পূর্ণাঙ্গ টাব স্নানের পরিবর্তে একটি স্পঞ্জ স্নান দেওয়ার পরামর্শ দেওয়া হয়। একটি টাব স্নানের ফলে কিছুদিন ধরে নাভি এলাকাটি জল ধরে রাখতে পারে এবং এটি সংক্রমণের সম্ভাবনা বাড়াতে পারে। এলাকাটিকে যতটা সম্ভব শুষ্ক রাখা দরকার এবং এই কারণে, এ সময়ে স্পঞ্জ স্নানই যথেষ্ট। স্পঞ্জ স্নানের পরেও, আম্বিলিক্যাল কর্ড এবং এর আশেপাশের এলাকাটি শুকনো না হওয়া পর্যন্ত চাপড়ানো দরকার অথবা ফ্যানের নীচে রাখা উচিৎ যতক্ষণ না শুকিয়ে যায়।  প্রভাবিত এলাকার চারপাশটি সম্পর্কে খুব সতর্ক থাকুন এবং সাবান বা অন্য কোনও পরিষ্কারক এজেন্ট প্রয়োগ করবেন না যা আপনার ছোটটির সূক্ষ্ম ত্বকে ক্ষতিকারক হতে পারে। মনে রাখবেন, নাভি এলাকাটি যত শুকনো থাকবে, তত তাড়াতাড়ি নিরাময় প্রক্রিয়া ঘটবে, এভাবে কর্ডকে প্রাকৃতিকভাবে শুকাতে এবং ঝরে যেতে সাহায্য করবে।

2. আম্বিলিক্যাল কর্ড ঝরে যাওয়ার পর আমার কী করা উচিত?

স্বাভাবিকভাবেই নিরাময় হওয়ার পরে আম্বিলিক্যাল কর্ডের অবশিষ্টাংশ বা স্টাম্প সাধারণতঃ 7 থেকে 21 দিনের মধ্যে (সর্বাধিক চার সপ্তাহের মধ্যে) ঝরে যায়। আম্বিলিক্যাল কর্ডটি ঝরে গেলে, সেখানে চারপাশের এলাকায় একটি ক্ষুদ্র কাঁচা এলাকা থাকতে পারে এবং এটি থেকে রক্তপূর্ণ তরল বের হতে পারে। যাইহোক, বেশিরভাগ ক্ষেত্রে এটি সম্পূর্ণরূপে শুকিয়ে যাওয়ার পরেই কর্ডটি ঝরে যায়।

3. আম্বিলিক্যাল কর্ড থেকে রক্তক্ষরণ হলে আমার কী করা উচিত?

আম্বিলিক্যাল কর্ডের চারপাশে কিছু রক্তের বিন্দু স্বাভাবিক এবং বেশিরভাগ ক্ষেত্রে এটি বিপজ্জনক হওয়া উচিত নয়। তবে, সক্রিয়ভাবে রক্তপাত হলে আপনার নজর রাখা উচিত। এক ফোঁটা মুছে দেওয়ার পরই আর এক ফোঁটা দেখতে পেলে, সেটিকে আপনি সক্রিয় রক্তপাত বলে নিশ্চিত হতে পারেন। সম্পূর্ণরূপে নিরাময় হওয়ার আগে কর্ড টানলে এই অবস্থা হতে পারে এবং আপনাকে অবিলম্বে আপনার ডাক্তার / শিশু বিশেষজ্ঞের সাথে যোগাযোগ করতে হবে।

4. কখন আমার ডাক্তারকে ডাকবো?

সংক্রমণের যে কোনও লক্ষণ দেখতে পেলেই, আপনার ডাক্তারকে কল করুন, যার মধ্যে রয়েছে ফুলে যাওয়া নাভি এলাকা, কর্ডের লাল হয়ে যাওয়া, নাভিতে ব্যথা, রক্তপাত এবং একটি নোংরা গন্ধযুক্ত স্রাব। এর পাশাপাশি নিম্নলিখিত অবস্থাগুলির জন্যও দ্রুত চিকিৎসার প্রয়োজন:

ওমফ্যালাইটিস: যখন নাভি এলাকাটি অস্বাভাবিকভাবে উষ্ণ হয়ে যায়, লাল, নমনীয় বলে মনে হয় এবং এর সাথে একটি স্রাব থাকে, তখন নতুন জন্মগ্রহণকারী ওমফ্যালাইটিস থেকে ভুগতে পারে। এই ব্যাকটেরিয়া সংক্রমণটি গুরুত্ব সহকারে গ্রহণ করা দরকার কারণ এটি প্রাণঘাতী হতে পারে এবং বিলম্ব ছাড়াই আপনার ডাক্তারের কাছ থেকে তাত্ক্ষণিক চিকিৎসার প্রয়োজন।

আম্বিলিক্যাল হার্নিয়া:

এই অবস্থায়, একটি অন্ত্রের টিস্যু নাভি এলাকা থেকে বেরোতে দেখা যায়। এটি প্রাথমিকভাবে কান্নাকাটি চলাকালীন আপনার শিশুর পেটের এলাকাতে চাপ প্রয়োগের কারণে ঘটে। এটি পার্শ্ববর্তী পেশী এলাকায় একটি ছোট গর্ত তৈরি করে। এই অবস্থা আপনার ডাক্তার দ্বারা সহজে চিকিত্সা করা যেতে পারে।

আম্বিলিক্যাল কর্ড এলাকার সংক্রমণ বা ব্যথার আরেকটি চিহ্ন ক্রমাগত কান্নাকাটি। এটিও ডাক্তারকে ডাকার সময়। চার সপ্তাহ বা তার বেশি সময় পরে স্টাম্পটি স্বাভাবিকভাবে ঝরে না পড়লে ডাক্তারকে অবগত রাখুন, কারণ অস্ত্রোপচারের থ্রেডের সাহায্যে এটি কটেরাইজ বা অপসারণ করা প্রয়োজন।

5. একটি ফুলে বেরিয়ে আসা নাভি বোতামকে কি সংকুচিত করা যাবে?

মা-রা সাধারণত মনে করেন যে নাভি বোতামের ফুলে বেরিয়া আসা অযথাযথ যত্ন বা সংক্রমণের কারণে হয়। এটি ঠিক করার জন্য, অনেক বাবা-মা একটি মুদ্রা বা চেপটা আইটেম ব্যবহার করে নাভি এলাকাটিতে টেপের সাহায্যে আটকে দেন। এটি ভুল এবং নাভি বোতামের শারীরিক চেহারা পরিবর্তন করতে পারে না। নাভি বোতামের চেহারাটি যেমনই হোক তেমনই রাখার এবং আপনার বাচ্চাকে বড় করার অন্যান্য প্রয়োজনীয় দিকগুলিতে মনোযোগ দেওয়ার পরামর্শ দেওয়া হয়।

গর্ভের শিশুটির বিকাশের জন্য আম্বিলিক্যাল কর্ডটি অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ এবং শিশুর জন্মের পর এটির পর্যাপ্ত যত্নের প্রয়োজন। এটির যত্ন নেওয়ার সঠিক উপায় সম্পর্কে সচেতন থাকলে নিশ্চিত হওয়া যায় যে কোনও সমস্যা দেখা দেবে না।