5 মাস বয়সী শিশুর যত্নের জন্য দরকারী পরামর্শ

5 মাস বয়সী শিশুর যত্নের জন্য দরকারী পরামর্শ

যতক্ষণ না আপনার বাচ্চা একজন প্রাপ্তবয়স্ক হয়ে উঠছে, ততক্ষণ তার সমস্ত প্রয়োজনীয় যত্ন দরকার হবে। নবজাতক সন্তানের যত্ন নেওয়ার চেয়ে 20 সপ্তাহ বয়সী শিশুর যত্ন নেওয়া তুলনামূলকভাবে সহজ হতে পারে। তবে, কিছু কিছু সময়ে সবকিছু কঠিন বলে মনে হতে পারে। কিছু পরামর্শ মাথায় রাখলে, এই সময়গুলি যত তাড়াতাড়ি আসে তত তাড়াতাড়ি চলে যাবে।

aniview

কিভাবে আপনার 5 মাস বয়সী শিশুর যত্ন নিতে হবে?

আপনার ছোটটির যত্ন নেওয়া কঠিন হতে পারে। এটিকে সহজ করার জন্য এখানে কয়েকটি পদক্ষেপের কথা বলা হল।

1. তাদের খাওয়ার এবং ঘুমের চাহিদা বুঝলে অর্ধেক যুদ্ধ জেতা হয়ে যায়

এই বয়সে, আপনার সন্তান আপনাকে অনেক ভাবে অনুকরণ করতে চায়। আপনাকে একটি চামচ দিয়ে খেতে দেখলে সেও সেটা করার চেষ্টা করবে। আপনি তাকে শক্ত খাবার দেওয়া শুরু করার জন্য অধীর হতে পারেন কিন্তু সেটা করার সঠিক বয়স এটা নয়। চামচ করে একটু ফরমূলা দুধ দিলে তার ভালো লাগতে পারে। আপনার বাচ্চার খিদে পেলে, সে সাধারণত আপনাকে বলতে পারবে। তাই যদি আপনি বুকের দুধ খাওয়ানোর একটি কঠোর সময়সূচী মেনে চলেন, তবে আপনি ধীরে ধীরে এটি থেকে সরে যেতে শুরু করতে পারেন এবং যখন সে এটা চাইবে তখন তাকে খাওয়াতে পারেন। যদি আপনার শিশু ফরমূলার উপর নির্ভর করে থাকে তবে নিশ্চিত করুন যে তাকে সঠিক পরিমাণে সেটি দেওয়া হচ্ছে এবং তার বয়সে যে পরিমাণ দেওয়ার জন্য সুপারিশ করা হয় সেটি অনুযায়ী পরিমাণ কমাতে বা বাড়াতে হবে।

বেশিরভাগ মায়েরা বুকের দুধ খাওয়ানোর সময় তাদের বাচ্চাদের ঘুমাতে দিতে অভ্যস্ত। এই বয়সে, দুটি চক্রকে আলাদা করা ভালো, তাহলে সে বুঝবে যে খাওয়ার সময় এবং ঘুমের সময় আলাদা। এছাড়াও, এই বয়সেই আপনার শিশু ঘুরে শুতে শিখতে পারে। এটি আরেকটি চ্যালেঞ্জ সৃষ্টি করে কারণ সে যেন চিত হয়ে শোয় তা নিশ্চিত করা হল আর একটি বাধা অতিক্রম করা। আপনি বালিশ ব্যবহার করতে পারেন অথবা কোনো কম্বল ব্যবহার না করতে পারেন এবং তাকে ঘুরতে (ওল্টাতে) দিতে পারেন।

2. তাদের স্বাস্থ্যের জন্য প্রতিক্রিয়াভিত্তিক ব্যবস্থার পরিবর্তে প্রতিরোধমূলক পদক্ষেপ গ্রহণ করা

আপনার শিশুকে সুস্থ রাখা সবসময় প্রয়োজনীয় এবং টিকা দেওয়া হল সেটি নিশ্চিত করার সেরা উপায়। টিকাদানের সময়সূচী, সঠিকভাবে মেনে চললে অনেক কিছুকে ঠিক রাখে। আপনার শিশুর আগের মাসে টিকা নেওয়া না হয়ে থাকলে, আপনার ডাক্তারের সাথে কথা বলুন এবং যত তাড়াতাড়ি সম্ভব সেটির সময়সূচী বানান। কিছু নির্দিষ্ট টিকা আছে যা মা-কেও নিতে হতে পারে।

তাদের স্বাস্থ্যের জন্য প্রতিক্রিয়াভিত্তিক ব্যবস্থার পরিবর্তে প্রতিরোধমূলক পদক্ষেপ গ্রহণ করা

বাড়ি পরিষ্কার এবং স্বাস্থ্যকর রাখা ভাল কিন্তু সেটি অত্যধিক করবেন না। একটু ময়লা এবং ধূলিকণার উপস্থিতি আসলে আপনার শিশুর অনাক্রম্যতা গড়ে তুলতে সাহায্য করতে পারে।

3. আপনার বাড়ি আপনার শিশুর জন্য সবচেয়ে নিরাপদ জায়গা হতে হবে

আপনার বাচ্চা চারপাশে ঘুরে বেড়াতে বা ঘরের মধ্যে হামাগুড়ি দিতে শুরু করলে, তার কৌতূহল যেন তার জন্য খারাপ হয়ে না দাঁড়ায়। শিশুসুরক্ষা-অভেদ্যকরণ (বেবি-প্রুফিং) সঠিকভাবে সম্পন্ন করা উচিত যখন আপনি জানেন যে আপনার ছোট্টট্টি তার বিছানাতে নিজেকে সীমাবদ্ধ রাখবে না। বৈদ্যুতিক সকেটে শিশু সুরক্ষার ব্যবস্থা রাখা, উচ্চ তাকের উপর বিপজ্জনক রাসায়নিক রাখা, এবং এই ধরনের বিষয়গুলি সম্পর্কে সতর্কতা নেওয়া উচিত। আপনার 5 মাসের শিশুর যত্নের পরামর্শগুলির তালিকায় এটি একটি গুরুত্বপূর্ণ বিষয় হওয়া উচিত।

4. আপনার শিশুকে কিছু ধরে বসতে দিতে শুরু করুন

এই বয়সে, আপনার শিশু সাধারণত তার গলা ঠিকভাবে খাড়া রাখতে সক্ষম হবে। তাই এই সময়টি তাকে বসতে শেখানো শুরু করার একটি ভালো সময় হতে পারে।

আপনার শিশুকে কিছু ধরে বসতে দিতে শুরু করুন

সে যাতে সোজা হয়ে বসতে পারে এবং বালিশ ব্যবহার করে অনেকক্ষণ ধরে সে এভাবেই থাকতে পারে, সে জন্য তাকে যথেষ্ট অবলম্বন দিন। বিছানাতে বা মেঝেতে একটি নরম মাদুর দিয়ে এটি করুন, যাতে সে উত্তেজিত হলেও এবং এক পাশে পড়ে গেলেও, এটি তাকে আঘাত করবে না।

5. বোতলের অন্যতম সেরা বন্ধু, কাপের সাথে পরিচয় করান

যেভাবে আপনার বাচ্চা চামচ দিয়ে খেতে চেষ্টা করবে, সেভাবে আরেকটি জিনিস যা আপনি তার উপস্থিতিতে আনতে পারেন তা হল একটি কাপ। এটি তাকে নিজে নিজে জিনিস ধরা শুরু করতে সাহায্য করবে, যদিও সে প্রথমেই সফল হবে না। কাপ থেকে একটু জল খেলে বা দুধ পান করলে সে খুশী হবে এবং তার কৃতিত্বের উপলব্ধি ঘটবে। যদি সে এখনই এটির জন্য প্রস্তুত না হয়, তাহলে তার চারপাশে কোথাও কাপটি রেখে দিন ও তাকে এটি নিয়ে খেলতে দিন। ধীরে ধীরে, স্বস্তির মাত্রা বৃদ্ধি পাবে এবং সে এটি দিয়ে খেতে আবার চেষ্টা করবে।

6. আপনার ছোটটির সঙ্গে খেলুন

আপনার সন্তান আপনার বিভিন্ন দিকগুলি বুঝতে শুরু করছে। আপনি একসাথে বিভিন্ন গেম খেলে তাকে আপনাকে আরো ভালো করে জানতে দিন। তাকে আনন্দ দেওয়া এবং যে মজার মুখগুলি সে সবচেয়ে বেশি ভালবাসে সেগুলি বানানো তাকে খুশি করার একটি দুর্দান্ত উপায়। এখন শুধু আকর্ষণীয় ছবির মাধ্যমে রং এবং প্রাণীদের সাথে পরিচয় করাতে শুরু করুন। তার মস্তিষ্ক সবই গ্রহণ করছে এবং নিজস্ব বোধের সাথে সঙ্গতি রেখে প্রক্রিয়াকরণ করছে।

আপনার ছোটটির সঙ্গে খেলুন

পাঁচ মাস বয়সী বাচ্চার যত্ন নেওয়া কোনও সহজ কাজ নয়, তবে যতটা মনে হয় এটি ততটাও কঠিন নয়। আপনার বাচ্চা নির্ভরহীন হতে শুরু করলে, আপনিও তার সাথে একটি বন্ধন গড়ে তুলতে শুরু করতে পারেন। তার সাথে যোগাযোগ শক্তিশালী করতে থাকুন এবং প্রতিদিন তার সাথে কথা বলুন। খুব শীঘ্রই, সবাইকে আনন্দ দিয়ে আপনার ছোটটি সোজা হয়ে বসবে, চারপাশে হেঁটে বেড়াবে, এবং তার প্রথম কথা বলবে।