শিশুর সাথে বাদামের পরিচয় করানো-কীভাবে এবং কখন দিতে হবে

শিশুর সাথে বাদামের পরিচয় করানো-কীভাবে এবং কখন দিতে হবে

যখন আপনার ছোট্ট সদস্যটির সাথে শক্ত খাবার প্রথম পরিচয় করানোর সময় আসে,যখন সে এটির জন্য প্রস্তুত হওয়ার প্রাথমিক লক্ষণগুলি সবেমাত্র প্রদর্শন করাতে শুরু করে সেক্ষেত্রে আপনি আপনার সন্তানের কাছে কোন খাদ্যটি প্রকাশ করতে চলেছেন সে ব্যাপারে অতিরিক্ত যত্নশীল হওয়া এবং চিন্তা করা সঠিক হবে।শক্ত খাবারগুলি শিশুদের কাছে এবং তাদের দেহের জন্য অভিনবত্ব নিয়ে আসে,যেগুলি হয় তাদের দেহে সফলভাবেই হজম হয়ে যায় নতুবা সেগুলির মধ্যে উপস্থিত কিছু নির্দিষ্ট উপাদানের কারণে অপ্রত্যাশিতভাবেই প্রতিক্রিয়া সৃষ্টি করে।বাচ্চা শেষ পর্যন্ত বাদামগুলি পছন্দ করছে কিনা তা পরীক্ষা করার জন্য যখন হয়ত আপনি তাকে আখরোট অথবা যেকোনও ধরনের বাদাম দেওয়ার কথা চিন্তা করেন তার যেকোনও দৃশ্যকল্পেই এই একই ঘটনা ঘটে থাকে।যদিও বাদামগুলি কোনওভাবেই বাচ্চাদের উপর সরাসরি কোনও প্রভাব ফেলে না তবে সেগুলির অ্যালার্জিজনিত প্রতিক্রিয়াকে বাড়িয়ে তোলার ক্ষমতা অনুযায়ী খুব ভেবেচিন্তে সিদ্ধান্ত নেওয়া যেতে পারে যে এগুলি তাদের জন্য নিরাপদ কিনা।

aniview

একটি শিশুকে বাদাম দেওয়া কি নিরাপদ?

বাদাম হল প্রাকৃতিক পণ্যগুলির মধ্যে একটি অন্যতম উপাদান যা সমগ্র বিশ্বের উদ্ভিদ জগতে পাওয়া যায়।স্বাভাবিকভাবেই এগুলি বহু লোকের ডায়েটের সাথে একীভূত হওয়ার কারণে আপনার সন্তানকে এগুলি দেওয়া বিশেষত বিপজ্জনক নয়।অধিকাংশ সুপারিশেই আপনার সন্তানের ডায়েটে যত শীঘ্র সম্ভব বাদাম দেওয়া শুরু করার বিষয়ে বলা হয়ে থাকে যাতে সেগুলি তার জন্য ভাল কি ভাল নয় সে ব্যাপারে দ্রুত সিদ্ধান্ত নেওয়া সম্ভব হয়।

কখন আপনি আপনার সন্তানকে বাদাম দিতে পারেন?

শুধুই চিনাবাদাম অথবা বিভিন্ন ধরনের বাদাম যা আপনি সংগ্রহ করেছেন তার সম্পূর্ণ প্লেটটাই হোক না কেন, আপনার শিশুর সাথে সেগুলি পরিচয় করানোর সঠিক সময়টি জেনে রাখা অত্যন্ত প্রয়োজন।তদুপরি, কোনও চিকিৎসা অধ্যয়ন বা গবেষণা এমন কোনও চূড়ান্ত বয়স বা সময়কালে উপণীত হয় নি যা আপনার সন্তানকে প্রথমবার বাদাম খাওয়ানোর জন্য আদর্শ বলে গণ্য করা যেতে পারে।বাদামজনিত অ্যালার্জির উপস্থিতি বেশ সাধারণ, যা আপনার সিদ্ধান্তকে কিছুটা দ্বিধায়িত করতে পারে।তবে, আপনার শিশুটিকে প্রাথমিকভাবে অন্যান্য শক্ত খাদ্যপদগুলিতে অভ্যস্ত হতে দেওয়া এবং তারপরে তার ডায়েটে বাদামের প্রচলন করা ভাল একটি অভ্যাস হতে পারে।এটি করা শুরু করা যেতে পারে তার জন্মের প্রথম এক বছর পূর্ণ হওয়ার পর যত তাড়াতাড়ি সম্ভব এবং খুব দেরী বলতেও তার তিন বছর সম্পূর্ণ করার আগে।

শিশুদের জন্য বাদামের পুষ্টিকর উপকারিতাগুলি

বিভিন্ন ধরনের যে সমস্ত বাদামগুলি আমাদের কাছে থাকে সেগুলি হল অসংখ্য পুষ্টিকর উপকারিতার লক্ষণযুক্ত একটি সাধারণ বহিঃপ্রকাশ মাত্র,যেগুলি শিশুদের ডায়েটে অন্তর্ভূক্তিকরণের মাধ্যমে তাদেরকে সেগুলি সরবরাহ করা যেতে পারে।এগুলির বেশিরভাগটাই তাদের প্রাথমিক পর্যায়ের বিকাশে সমর্থনের জন্য অত্যন্ত প্রয়োজনীয়।

  • অনেক বাদামের মধ্যে রেসভেরেট্রোল থাকে।এটি তাদের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতার উন্নয়নে সহায়তা করে।
  • বাচ্চার নিয়মিত ডায়েটে বাদামের সংযোজন তার মস্তিষ্কের ক্রিয়ায় এবং বিকাশে সাহায্য করে।
  • বাদামে সাধারণত অসম্পৃক্ত ফ্যাট থাকে।অন্যান্য ফ্যাটগুলির সহিত তুলনামূলকভাবে এগুলি শরীরের জন্য উচ্চ মাত্রায় উপকারী হয়ে থাকে।
  • প্রাথমিকভাবে নিরামিশাষী পরিবারগুলির জন্য বাদামগুলি সাধারণত শরীরের প্রয়োজানুযায়ী দেহে সেই পরিমাণ প্রোটিন সরবরাহ করে থাকে।
  • এছাড়াও আবার বাদামের মধ্যে পর্যাপ্ত তন্তু জাতীয় উপাদানগুলি সমৃদ্ধ থাকে যা কোষ্ঠকাঠিণ্যের প্রকোপের যেকোনও ধরনের যত্ন নিতে শিশুর পাচন প্রক্রিয়াকেও উদ্দীপ্ত করতে সহায়তা করে।
  • কিছু বাদামে আবার বেশ ভাল পরিমাণে ফসফরাস থাকে।এটি অল্প বয়সী শিশুদের দাঁত এবং হাড়ের বিকাশে কার্যকরভাবে একটি মূখ্য ভূমিকা পালন করে।
  • আখরোটগুলি ওমেগা-3 ফ্যাটি অ্যাসিডে পরিপূর্ণ হিসেবে পরিচিত যা ভাল স্বাস্থ্য এবং যথাযথ রক্ত সঞ্চালন বজায় রাখার ক্ষেত্রে অপরিহার্য।
  • এক গুচ্ছ বাদামের মধ্যে ভিটামিন E,ফ্ল্যাভোনয়েড এবং বিভিন্ন অ্যান্টিঅক্সিডেন্টগুলির উপস্থিতি,শিশুর দেহস্থ বর্জ্য পদার্থগুলিকে দেহ থেকে কার্যকরভাবে বহিষ্কার করাকে নিশ্চিত করে।

শিশুদের জন্য বাদামের পুষ্টিকর উপকারিতাগুলি

শিশুদের সাথে কীভাবে বাদামের পরিচয় করাবেন?

আপনার সন্তান শক্ত খাবার গ্রহণের জন্য তার কিছু উৎসাহ দেখাতে শুরু করলে,তার কাছে বাদামের স্বাদকে বাড়িয়ে তোলার জন্য আপনি ধীরে ধীরে তাকে সেই দিকে উঁকিঝুঁকি মারানোর চেষ্টা শুরু করতে পারেন।যদিও আমরা সব ধরণের বাদামই পুরোপুরি খেতে পারি,তবে সেগুলির মধ্যে আবার কিছু আপনার ছোট্ট সোনার গলায় আটকে তার শ্বাসরোধ করার উপক্রম করে তুলতে পারে।সুতরাং,বাদামগুলিকে খুব ছোট ছোট টুকরো করে ভেঙ্গে নিয়ে অথবা সম্পূর্ণ রূপে গুঁড়ো করে নিয়ে তাদের খাওয়ানো শুরু করা,বাদাম খাওয়ানোর ব্যাপারে তাদের সাহায্য করার একটি দুর্দান্ত উপায় হয়ে উঠতে পারে।

শিশুদের মধ্যে বাদাম অ্যালার্জি

এটি কাজু বাদাম অথবা গাছের বাদামের কোনও বিশেষ ধরণ হতে পারে,কিন্তু বাদাম থেকে অ্যালার্জি প্রতিক্রিয়ার উপস্থিতি কোনও নতুনত্ব কিছু নয়।এই অ্যালার্জি প্রতিক্রিয়াগুলির কারণে শিশুদের সাথে বাদাম পরিচয় করানোর থেকে বহু মাবাবাকেই দূরে ঠেলে রাখে।

যে বাদামগুলিতে অ্যালার্জি হতে পারে

যদিও প্রতিদিনের এক গুচ্ছ বাদাম বাচ্চাদের জন্য সাধারণত নিরাপদ হতে পারে,তবে গাছ বাদামগুলিতে সাধারণত অ্যালার্জির সম্ভাবনা উচ্চ মাত্রায় থাকতে পারে।সেগুলির মধ্যে কয়েকটি হলঃ

  • পেস্তা বাদাম
  • হ্যাজেলনাট
  • কাজু বাদাম
  • আমন্ড বাদাম
  • আখরোট

আপনার সন্তানের ডায়েটে কীভাবে বাদামের সংযোজন করবেন

আপনার আদরের ছোট্ট সোনাটির খাদ্যে বাদাম অন্তর্ভূক্ত করার সবচেয়ে সহজ উপায়টি হল বাদামগুলিকে শিশুদের জন্য গুঁড়ো করে নেওয়া।বাচ্চাদের বিভিন্ন খাদ্যের রেসিপির সহিত এই বাদাম গুঁড়ো যোগ করে রেসিপিগুলির মধ্যে অভিনবত্ব আনার মধ্য দিয়ে একাধিক উপায়ে শিশুদের সাথে বাদামের পরিচয় করানো যেতে পারে,যেমনঃ

  • কুকিজ এবং লাড্ডু তৈরীতে ব্যবহৃত মিশ্রণের সহিত এই বাদাম গুঁড়ো সংযুক্ত করে
  • পরোটা বানানোর জন্য মাখা আটার তালের সাথে এটি যোগ করে
  • বাচ্চার জন্য প্রস্তুত যেকোনও চটকানো বা ভর্তা জাতীয় রেসিপির সহিত কিছুটা বাদাম গুঁড়ো যোগ করে এটিকে আরও বেশি ভাল স্বাদযুক্ত করে নেওয়া
  • দুধের সহিত অল্প পরিমাণে বাদাম গুঁড়ো যোগ করে এর যথেষ্ট পুষ্টিমূল্য বাড়িয়ে তলার মাধ্যমে।

বাদামের উপকারিতাগুলি বেশ বিস্তৃত এবং কিছু নির্দিষ্ট খাবারের রেসিপির মধ্যে এর অন্তর্ভুক্তি দ্বারা সেটি যে স্বাদটি নিয়ে আসে তা বেশ চমকপ্রদ।আপনার সন্তান সেগুলির প্রতি স্বাচ্ছন্দ্যবোধ করার পরেই কেবলমাত্র সাবধানতার একটি স্তর বজায় রেখে তাদেরকে বাদাম দেওয়া শুরু করার মাধ্যমে আপনি নিশ্চিত করতে পারেন যে বাদামগুলি তার জন্য নিরাপদ এবং ফলস্বরূপ তার পছন্দসই খাবারের পছন্দগুলিকে আরও প্রশস্ত করতে পারেন।