20 এর কোটায় গর্ভবতী হতেঃ যে তথ্যগুলি আপনার জানা প্রয়োজন

গর্ভবতী হওয়া সেরা সময় হিসেবে প্রায়ই গণ্য করা হয় 20 এর কোটায় বয়স।এই একই সময়ে সুস্থ গর্ভধারণের ক্ষেত্রে বয়স ছাড়াও আরও অনেকগুলি কারণ আছে। সুতরাং, আপনার 20 এর দশকে যদি আপনি গর্ভবতী হওয়ার জন্য চেষ্টা করেন, সেক্ষেত্রে এমন কিছু দৃষ্টি ভঙ্গী থাকে যেগুলি সম্পর্কে আপনি অবশ্যই সচেতন হবেন।যেকোনো বয়সে গর্ভধারণের অর্থ হল আপনার শরীরের বিভিন্ন পরিবর্তন,ঠিক জীবন ধারার মতই।সেক্ষেত্রে এমন কিছু শারীরিক পরিবর্তন ঘটে যা সারাজীবনের জন্য চিরস্থায়ী হয়ে যায়,এবং কিছু আবার ভিন্ন মহিলার ক্ষেত্রে ভিন্ন ভিন্ন হয়।সুতরাং, 20 এর ঘরে গর্ভধারণ পরিকল্পনার পূর্বে গর্ভাবস্থা সম্পর্কিত এই সকল কারণের বিভিন্নতা এবং ঘটনা গুলি সম্পর্কে ভালো ভাবে বিবেচনা করুন।

aniview

20 এর কোটায় গর্ভধারণ

অনেক মহিলার মনেই এই প্রশ্নটা থাকে যে—গর্ভধারণের জন্য কি এটা সঠিক বয়স? 20র কোটার বয়স বিবেচনা করা যেতে পারে গর্ভধারণের সবচেয়ে সেরা সময় কারণ এই সময়ে খুব সামান্য কিছু শারীরিক সমস্যা থাকতে পারে।এটি সহজে স্বাভাবিক প্রসবের সম্ভাবনা বাড়ায় এবং দ্রুত আরোগ্য সাধন করে। যেহেতু শরীর তরুণ থাকে, এর ফলে খুব দ্রুত সুস্বাস্থ্য ও শরীরের গঠন পুনরায় ফিরে আসে।শরীরিক ক্রিয়াকলাপ গুলি সুষ্ঠু ভাবে হতে থাকে, সুতরাং তরুণ মায়েরা দ্রুত আরোগ্য লাভ করে।বয়স্ক মহিলাদের ক্ষেত্রে,বয়সের সাথে সাথে অনেক সমস্যা দেখা দেয় যার অর্থ হল গর্ভাবস্থা সম্পর্কিত সমস্যাগুলি কাটিয়ে উঠতে দীর্ঘ সময় লাগতে পারে।

এটিও সত্য যে পরবর্তী বয়সের তুলনায় এই বয়সে গর্ভধারণ অপেক্ষাকৃত সহজ।20এর কোটার মহিলারা গর্ভধারণে অধিকাংশ ক্ষেত্রেই সফল হন মাত্র 2 মাসের চেষ্টাতেই,যদি তারা অন্য কোনওরকম শারীরিক সমস্যায় না ভোগেন।

বেশী বয়সে গর্ভধারণের তুলনায় 20 এর ঘরে গর্ভধারণের ক্ষেত্রে গর্ভস্রাব ঘটার সম্ভাবনা খুবই কম থাকে।বেশীর ভাগ ক্ষেত্রে বেশী বয়স্ক মায়েদের বাচ্চাদের মধ্যে ক্রোমোজোমের অস্বাভাবিকতার সম্ভাবনা বেশী থাকতে পারে।এই একই কারণের জন্যই যেসব শিশুরা তাদের মায়ের 20 এর কোটায় জন্মায় তাদের মধ্যে ঝোঁক থাকে অনেক বেশী স্বাস্থ্যবান হওয়ার এবং জন্মগত ত্রুটির ঝুঁকি কম থাকে।

পুনরায় বলা ভালো সব ফলাফলই নির্ভর করে ভিন্ন মানুষের ক্ষেত্রে ভিন্ন ভাবে।সেক্ষেত্রে এমন ঘটনাও আছে যেখানে 20 এর কোটায় মহিলাও প্রিক্ল্যাম্পসিয়ায় ভুগতে পারে যার ফলে মহিলাদের উচ্চ রক্তচাপ হয়ে থাকে।কিছু ক্ষেত্রে আবার কম ওজনের শিশুও জন্মাতে পারে মায়ের নিম্নমানের খাদ্যাভ্যাস এবং পুষ্টিজনিত ত্রুটির কারণে।

এই বয়সে গর্ভধারণের আশা করেন এমন মহিলাদের গর্ভবতী হওয়ার পূর্বে একবার ডাক্তার দেখিয়ে নেওয়া উচিত।তারা অবশ্যই একটি স্বাস্থ্যকর জীবন যাত্রা বজায় রাখবেন,ভালোভাবে খাদ্যগ্রহণ করবেন এবং ত্রৈমাসিক জুড়ে স্ত্রীরোগ বিশেষজ্ঞের পরামর্শ মেনে চলবেন এইরূপ আশা করা হয়।

20 এর কোটায় আপনার গর্ভধারণের সুবিধাগুলি

জীববিজ্ঞানের দৃষ্টিকোণ থেকে,20 এর কোটা হল গর্ভধারণের জন্য আদর্শ বয়স,যেহেতু এটি হল সেই বয়স যখন মহিলাদের প্রজনন ক্ষমতা একদম শীর্ষে অবস্থান করে।তাদের শরীর হয় স্বাস্থ্যকর,জরায়ু তরুণ থাকে,ডিম্বাণুগুলি হয় স্বাস্থ্যকর, এবং শারীরবৃত্তীয় পদ্ধতিগুলি কাজ করে সর্বোত্তম ক্ষমতায়।এটি আবার সেই সময়,যখন ডিম্বাণুর উৎপাদনের হার সবচেয়ে বেশী হয়।ওভুলেশনের সময় যত অধিক মাত্রায় ডিম্বাণু মুক্ত হয়,গর্ভবতী হওয়ার সম্ভাবনা তত ভালো হয়।সুতরাং 20 এর কোটা হল “সুবর্ণ গর্ভাবস্থা বয়স”।

যখন কারুর বয়স বাড়ে, ডিম্বাণুর মধ্যে ক্রোমোজোমের ত্রুটির সম্ভাবনাও বাড়তে থাকে,এবং এই কারণের ফলেই বয়স্ক মায়েদের জন্ম দেওয়া শিশুদের মধ্যে জিনগত বৈষম্যের সম্ভাবনা দেখা যায়।

তরুণ মায়েদের সাধারণত গর্ভস্রাবের মত ঘটনা ঘটে না।এই ঝুঁকি সাধারণত বয়স্ক মহিলাদের মধ্যেই দেখা যায় কারণ বয়স্ক মহিলাদের অনেক বেশী শারীরিক সমস্যা থাকে তরুণ মহিলাদের তুলনায়।

অন্য আরেকটি সুবিধা হল শীঘ্র মাতৃত্ব একজনকে সাহায্য করে সব সময় তাদের দ্রুত গতিশীল থাকতে এবং বাচ্চার রুটিনের সাথে মায়ের গতি বজায় রাখতে সমর্থ করে।তাদের শরীর হয় স্বাস্থ্যকর এবং মাতৃত্বের যেকোন চাপ ও দায়িত্ববোধ অনেক বেশী কার্যকরি হয় একজন বয়স্ক মহিলার থেকে।

অবশ্যই আপনি শীঘ্র একজন মা হবেন,এটি স্বাভাবিকভাবেই আরো ভালো একটি সুযোগ এনে দেবে আপনাকে শীঘ্র একজন ঠাকুমা হওয়ার।একজন স্বাস্থ্যকর পিতামহীর সঙ্গ লাভের তুলনায় নাতি-নাতনিদের কাছে কখনই এর থেকে ভালো উপহার আর কিছু হতে পারে না,যিনি বাচ্চাদের সাথে খেলা করেন এবং তাদের সাথে জীবনের চ্যালেঞ্জ গুলি মোকাবিলায় তাদের সাহায্য করেন।

20 এর কোটায় আপনার গর্ভধারণের অসুবিধাগুলি

আপনার 20 এর কোটায় একজন মা হওয়ার যেমন অনেক সুবিধা আছে,পাশাপাশি এর কিছু অসুবিধাও আছে।কেরিয়ার শুরুর জন্য,কারুর ক্ষেত্রে তার 20 এর কোটাই হল সবচেয়ে সেরা বয়স কাল যখন তাদের মধ্যে খুঁজে পাওয়া যায় তাদের সম্ভাবনা গুলি এবং সেগুলিকে কাজে লাগাবার প্রচেষ্টা সমূহ,স্বাভাবিকভাবেই তাদের মধ্যে খুঁজে পাওয়া যায় ব্যক্তিগত জীবনের পাশাপাশি পেশাদারীর শর্তাবলী।এটি হল সেই মূল্যবান বয়স সীমা যখন আপনি নিজেকে নিয়ে যেতে পারেন একটি মহান কর্মজীবনের পথে । যদিও কিছু মহিলা আছেন যারা উভয় ক্ষেত্রেই ভালোভাবে ভারসাম্য রক্ষা করতে পারে,এমন অনেক চাকরী রয়েছে যেগুলির ক্ষেত্রে কিছুটা চ্যালেঞ্জের বিষয় থাকে, যেখানে একজন মহিলার প্রয়োজন হয়ে ওঠে তার নিজের লক্ষ্যকে প্রাধান্য দেওয়ার।এর অর্থ হল এই যে,একটি গর্ভাবস্থা জোর করে তাদের কর্ম জীবন থেকে বিরতি ঘটাতে পারে যেই সময়ের মধ্যে তারা অন্য কারোর দ্বারা প্রতিস্থাপিত হতে পারে।

একটি সন্তানের জন্মদানের ক্ষেত্রে অর্থনৈতিক কিছু দৃষ্টিভঙ্গীও রয়েছে।এখনকার দিনে বাচ্চার জন্মের জন্য প্রচুর টাকার দরকার, 20 এর কোটা হল সেই সময় যখন কিছু জন সবে উপার্জন করতে শুরু করে। এই সময় কালে সন্তান গ্রহণ খুব ব্যয়বহুল হয়ে উঠতে পারে এবং যা কিছু দম্পতির কাছে ভীষণভাবে আর্থিক চাপ সৃষ্টি করতে পারে।

সেক্ষেত্রে কিছু সম্পর্কের সমস্যা দেখা দেয় যা ক্রমশই বেড়ে উঠতে থাকে যখন একটি বাচ্চার দায়িত্ব চেপে বসে দম্পতিদের কাঁধে যখন তারা নিজেরাই যথেষ্ট তরুণ।অনেক মহিলার আবার এই তরুণ বয়সে একজন মা হয়ে ওঠার মত মানসিক পরিনতি ও প্রস্তুতিও থাকে না।

যদিও শারীরিক অসুবিধা গুলি কিছু কম থাকে যদি আপনি আপনার 20 এর কোটায় গর্ভধারণ করেন,প্রতিটি গর্ভাবস্থাই পৃথক ধরণের হয়।20 এর কোটাতেও মায়েদের অবশ্যই সঠিক স্বাস্থ্য বজায় রাখতে হবে একটি সুস্থ ও স্বাস্থ্যকর বাচ্চা বহন করার জন্য।

20 এর ঘরে গর্ভধারণের সম্ভাবনা গুলি

20 এর কোটায় জরায়ু হয় শক্তিশালী এবং প্রচুর পরিমাণে ডিম্বাণু উৎপন্ন হয়। সুতরাং 20 এর ঘরে মহিলাদের গর্ভবতী হওয়ার একটি ভালো সম্ভাবনা থাকে তারা যত তাড়াতাড়ি চেষ্টা শুরু করে।ওভুলেশনের পূর্বে মাত্র কিছুদিনের সঙ্গমই তাদের মধ্যে এনে দেয় 33% গর্ভধারণের সম্ভাবনা। তার অর্থ হল প্রতি চক্রে,চেষ্টার সঠিক পদ্ধতির উপর নির্ভর করে,যেকোনো বয়সের তুলনায় গর্ভবতী হওয়ার সম্ভাবনা বহুগুণ বেড়ে ওঠে।বয়সানুযায়ী সন্তান ধারণের সম্ভাবনার অর্থ শুধুমাত্র গর্ভধারণের কাজ সম্পন্ন করাই নয়, একটি সুস্থ ও স্বাস্থ্যকর সন্তান প্রসবের স্মভাবনারও বৃদ্ধি।

কি করবেন যদি আপনি এখন গর্ভবতী হতে চান?

যারা এই পর্বে গর্ভবতী হওয়ার আশা করেন,প্রথমেই তাদের শরীর এবং জীবনকে প্রস্তুত করা প্রয়োজন গর্ভধারণের জন্য। একটি স্বাস্থ্যকর এবং কার্যকর জীবনযাত্রা শুরু করুন।প্রত্যহ ব্যায়াম করুন,অতিরিক্ত মেদ কমান,এবং চেষ্টা করুন আপনার শারীরিক ওজন সঠিক BMI (বডিমাস ইন্ডেক্স)মাত্রা বজায় রাখতে।আরো বেশী পরিমাণে সবজি এবং ফল আপনার খাদ্য তালিকায় যোগ করুন এবং চর্বিহীন মাংসগ্রহণের পরিমাণ বাড়ান।মাদক দ্রব্য এবং ধূমপান এড়িয়ে চলুন।বেশী পরিমাণে জল পান করুন।চেষ্টা করুন চনমনে ও আনন্দে থাকতে এবং মানসিক চাপের সমস্ত রকম বিষয় গুলি এড়িয়ে চলতে।

চেষ্টা করুন তিনটি চক্রের মধ্যে স্বাভাবিক ভাবে সন্তানধারণের জন্য।আপনি ব্যবহার করতে পারেন ওভুলেশন প্রেডিক্টর কিট অথবা অন্যান্য পদ্ধতি,যেমন সার্ভিক্যাল মিউকাসকে ট্রাক করে এবং ব্যাসাল বডি টেম্পারেচারের মাধ্যমে নির্ণয় করুন আপনার ওভুলেট হওয়ার সঠিক দিন।এই দিন গুলিতে সঙ্গমে আপনার গর্ভধারণের সম্ভাবনা সবচেয়ে বেশী হয়।

এমন কি চেষ্টা করার পরেও যদি আপনি গর্ভধারণে সক্ষম না হন তবে একজন স্ত্রীরোগ বিশেষজ্ঞের সাথে আপনার আলোচনা করা উচিত।তাঁরা আপনার চক্র ভালোভাবে পর্যালোচনা করবেন এবং খুঁজে বের করবেন সেখানে কিছু সমস্যা আছে কিনা এবং সেগুলি দূর করে সমাধানের উপায় বের করবেন।তাঁদের পরামর্শ মেনে চলুন এবং খুব শীঘ্রই তার ফলাফল লক্ষ্য করতে পারবেন।

20 এর কোটায় কীভাবে গর্ভধারণ এড়িয়ে চলবেন?

যদি আপনি আপনার 20 এর ঘরে গর্ভবতী হতে না চান,সেক্ষেত্রে সেটি নিয়ন্ত্রণের অনেক পদ্ধতি আছে যেগুলি আপনি চেষ্টা করতে পারেন।মনে রাখবেন,এক্ষেত্রে গর্ভনিরোধের জন্য কিছু প্রাকৃতিক উপায় আছে,কিন্তু এক্ষেত্রে ডাক্তারের পরামর্শ নেওয়াই ভালো।আপনার  20 এর ঘরে বয়সের সময় আপনি আপনার ডিম্বাণুগুলি সংরক্ষণ করে রাখতে পারেন যাতে সেগুলি ব্যবহার করতে পারেন পরবর্তীকালে, যখন আপনি মাতৃত্বের জন্য প্রস্তুত হবেন।এটি খুব ভালো একটি উপায় সেই সব মহিলাদের জন্য যারা গর্ভধারণের জন্য তাদের 30 এর ঘরে পৌঁছানো পর্যন্ত অপেক্ষা করতে চান এবং আরো মানসিক,আর্থিক এবং সাইকোলজিকাল পূর্ণতা অর্জন করতে চান।আপনি এই সময়ে বা যখন আপনার ইচ্ছে তখন প্রজনন সাহায্য প্রাপ্ত প্রযুক্তি(অ্যাসিস্টেড রিপ্রোডাকশন টেকনোলজি)এর কোর্সটিও করতে পারেন।

জৈবিক ভাবে, 20 এর কোটাই হল মহিলাদের গর্ভধারণের জন্য সবচেয়ে আদর্শ সময় যেহেতু এই বয়সে মহিলাদের স্বাস্থ্য সর্বোত্তম অবস্থায় থাকে।যাইহোক,এক্ষেত্রেও কিছু সমস্যাও ঝুঁকি থেকেই যায়।প্রতি পৃথক মানুষের ক্ষেত্রে তাদের পার্থক্যটাও পৃথক ধরণের হয়,এবং তরুণরা কেবল সেই সমস্যাগুলি কিছুটা কমাতে পারে কিন্তু পুরোপুরি নির্মূল করতে পারে না।

উপসংহার 

মহিলারা প্রকৃত কখন গর্ভধারণ করতে চান এই বিষয়টি তাদের কাছে একটি খুব কঠিন পছন্দ হয়ে দাঁড়ায়।তারা তাদের 20 এর ঘরে সন্তানধারণের ক্ষেত্রে একটি সম্ভাব্য নিরাপদ গর্ভাবস্থা চাইবেন নাকি পরবর্তীকালে সমস্যার ঝুঁকি বাড়ার জন্য অপেক্ষা করবেন?পরিণামে,পছন্দ নির্ভর করে ব্যক্তি বিশেষের ওপর।এ বিষয়ে আপনি কি চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নেবেন তা একজন ডাক্তারের সাথে আলোচনা করার পরেই ঠিক করা ভালো।