অন্নপ্রাশণ (শিশুর প্রথম ভাত খাওয়ার অনুষ্ঠান)

অন্নপ্রাশণ (শিশুর প্রথম ভাত খাওয়ার অনুষ্ঠান)

শিশুদের সধারণত ছয় মাস বয়স পর্যন্ত বুকের দুধ খাওয়ানো হয়ে থাকে এবং এই সময়ের পর থেকে তাদের ধীরে ধীরে শক্ত খাবার দেওয়ার পরামর্শ দেওয়া হয়।এটি এমন একটি সন্ধিক্ষণ যা স্মরণীয় করা রাখতে হিন্দু পরিবারগুলিতে পরম্পরাগত ভাবে এটিকে অন্নপ্রাশণ নামক অনুষ্ঠানটির মাধ্যমে উদযাপন করা হয়।

aniview

অন্নপ্রাশণ কি?

অন্নপ্রাশণ হল হিন্দুদের মধ্যে প্রচলিত একটি জনপ্রিয় প্রথা।আক্ষরিক ভাবে এর অর্থ হল প্রথম ভাত খাওয়া শুরু করা‘,এর মধ্য দিয়ে একটি শিশুকে শুধুমাত্র তরল খাদ্য থেকে কঠিণ খাদ্য দেওয়ার প্রক্রিয়া শুরু করা হয়।অন্নপ্রাশণ অনুষ্ঠানটি সারা ভারতব্যাপী প্রচলিত,পশ্চিমবঙ্গে এটি মুখে ভাত,কেরলায় চরু,এবং হিমাচল প্রদেশের গাড়োয়াল অঞ্চলে ভাত খাওয়াই নামে পরিচিত।এই অনুষ্ঠাণের পরবর্তীকাল থেকে বাচ্চাদের বুকের দুধ ছাড়িয়ে তাদের শুধুমাত্র শক্ত খাদ্য গ্রহণ অভ্যাস করানো শুরু করা হয়।

অন্নপ্রাশণ অনুষ্ঠানটি কেন পালন করা হয়?

অন্নপ্রাশণ অনুষ্ঠানটি শিশুর বৃদ্ধির পরবর্তী ধাপকে সূচিত করে।যদি বৈদিক যুগে ফিরে যাওয়া যায় তাহলে দেখা যাবে যে অন্নপ্রাশণ অনূষ্ঠানটি তখন সমগ্র দক্ষিণ এশিয়া, ইরান,এমনকি পারস্যের মানুষজনেরাও পালন করতেন।অভিভাবকদের সংস্কৃতি এবং তাদের বাসস্থানের ভৌগলিক অবস্থানের উপর নির্ভর করে এই অনুষ্ঠানটি শিশুদের পাঁচ থেকে নয় মাস বয়সের মধ্যে কোন না কোন সময়ে পালন করা যেতে পারে। ঐতিহ্য অনুযায়ী সাধারণত চার মাসের কম বা এক বছরের বেশি বয়সের শিশুদের অন্নপ্রাশণ করা হয় না।এই অনুষ্ঠনের গুরুত্ব এতই বেশি যে সকল আত্মীয় স্বজনরা আমন্ত্রিত হন,যেখানে একটি বড় জায়গায় বিরাট ভোজের আয়োজন করা হয় এবং অনুষ্ঠানটির জন্য একটা শুভক্ষণ বেছে নিয়ে পুরোহিতরা উপস্থিত থেকে অন্নপ্রাশণের মন্ত্র উচ্চারণের মধ্য দিয়ে অনুষ্ঠানের সূচনা করেন।

শিশুর প্রথম ভাত খাওয়ার অনুষ্ঠানটি কোথায় সম্পাদন করা হয়?

প্রথমদিকে অন্নপ্রাশণ অনুষ্ঠানটি বাড়িতেই সম্পাদন করা হত।তবে এখনকার দিনে,মানুষ এই অনুষ্ঠানটির জন্য সাধারণত একটি ব্যাঙ্কোয়েট বা পার্টি দেওয়ার হলের মত কোনও বড় জায়গা ভাড়া নেওয়া পছন্দ করেন।পারিবারিক বিগ্রহের আশীর্বাদ পাওয়ার জন্য এই অন্নপ্রাশন অনুষ্ঠানটি আবার কোনও মন্দিরেও সম্পাদন করা যেতে পারে।এটি সাধারণত এক দিনের অনুষ্ঠান তবে বাচ্চার মাবাবা যদি নানান ধরনের আনন্দমজা এবং খেলাধূলা যোগ করে অনুষ্ঠানটিকে আরও স্মরণীয় করে তুলতে তার বিস্তৃত উদযাপন করতে চান তবে সেটি একদিনের জায়গায় সম্প্রসারিত করে দুদিন করা যেতেই পারে।

অন্নপ্রাশণ বিধি

অন্নপ্রাশণ অনুষ্ঠান প্রক্রিয়াটির সূচনা করা হয় সাধারণত বাচ্চাকে তার মামার কোলের উপরে বসিয়ে দিয়ে,যিনি সম্ভবত বাচ্চার মুখে প্রথম ভাত তুলে দিয়ে তার তরল থেকে শক্ত খাবার খাওয়ার প্রক্রিয়াটির সূত্রপাত করে থাকেন।প্রথম পরিবেশনটি শিশুর মুখে দেওয়ার পর পরিবারের অন্যান্য সকলে একে একে বাচ্চার মুখে আরও খাবার তুলে দিয়ে উপহার সহযোগে তাকে আশীর্বাদ করে থাকেন।অবশেষে অন্নপ্রাশনের বিধিগুলি পালন করা হয়।বেশ কিছু জিনিস যেমন মাটির দলা,সোনার গয়না,পেন,বই এবং খাদ্য সামগ্রী বাচ্চার সামনে রাখা হয় এবং সেগুলির থেকে যেকোনও একটিকে বাচ্চাকে বেছে নিতে হয়।যদিও অবোধ শিশুর কোনও কিছুই বেছে নেওয়ার মত ক্ষমতা থাকে না তথাপি অজান্তেই সে যা কিছুই খাবলে তুলে ধরে তার উপর ভিত্তি করে তার ভবিষ্যত পথের ইঙ্গিতকে অর্থ করা হয়।

  • যদি শিশু সোনার গয়না তুলে ধরে তার অর্থ হল সে ধনশালী হয়ে উঠবে।
  • যদি সে পেন তোলে তার মানে সে একজন জ্ঞানী ব্যক্তি হবে।
  • আর যদি বই বেছে নেয় সেক্ষেত্রে সে শিক্ষিত হয়ে উঠবে।
  • যদি সে মাটিকে স্পর্শ করে তবে সে ধন সম্পত্তির ব্যাপারে ভাগ্যশালী।
  • খাবার বেছে নেওয়ার অর্থ হল সে ভবিষ্যতে একজন সহানুভূতিশীল এবং দয়ালু ব্যক্তিতে পরিণত হবে।

যে সকল খাবারগুলি শিশুকে প্রদান করা হয়

অন্নপ্রাশণ অনুষ্ঠানটি উদযাপনের সময় শিশুকে ভাতের দানায় প্রথম কামড় দেওয়ানো ছাড়াও তার খাবারের থালায় অন্যান্য আরও বিভিন্ন ধরণের খাদ্য সামগ্রী প্রদান করা হয়ে থাকে।সেগুলির মধ্যে কিছু হলঃ

  • ফ্রাইড রাইস অথবা পোলাও
  • মাংসের বিভিন্ন পদ
  • মাছ
  • ডাল,সাম্বার অথবা রাসম
  • ভাজা
  • ক্ষীর অথবা পায়েস এবং মিষ্টি

অন্নপ্রাশণে ক্ষীর অথবা পায়েস দেওয়া এত গুরুত্বপূর্ণ কেন?

ক্ষীর অথবা পায়েস হল এক ধরনের মিষ্টি ভাতের প্রস্তুতি যা সারা ভারত ব্যাপী ভীষণ জনপ্রিয় এবং এটিই হল শিশুদের তরল থেকে শক্ত খাবারে পরিবর্তন করার ক্ষেত্রে তাদের মুখে তুলে দেওয়া প্রথম শক্ত খাবার।এই অনুষ্ঠানে বাচ্চার জন্য এটি সাধারণত তার মা কিম্বা ঠাকুমা প্রস্তুত করে থাকেন এবং একটি রূপার পাত্র করে সেটিকে বাচ্চার সামনে পরিবেশন করার রেওয়াজ রয়েছে।

খাবারের নিরাপত্তা বিষয়ে নেওয়া সাবধানতাগুলি যেগুলি মাথায় রাখা প্রয়োজন

আপনার সন্তানটি এখনও অত্যন্ত ক্ষুদ্র থাকার কারণে তাকে প্রথম শক্ত খাবারের সাথে পরিচয় করানোর সময় যে সাবধানতাগুলি অবশ্যই গ্রহণ করতে হবে সেগুলি নিম্নরূপঃ

  • আপনার সন্তানকে ভাত খাওয়ানোর জন্য তাকে ক্ষীর খাওয়ানো বাধ্যতামূলক নয়।আপনি সাদা ভাতও খাওয়াতে পারেন।
  • স্বাস্থ্যকর খাদ্য প্রস্তুত করা এক্ষেত্রে খুবই গুরুত্বপূর্ণ কারণ খাবারের মধ্যে থাকা রোগজীবণুগুলির কারণে শিশু অসুস্থ হয়ে পড়তে পারে।
  • অনুষ্ঠানটি সম্পাদনের আগে আপনার শিশুরোগ বিশেষজ্ঞের কাছে গিয়ে জেনে নিন যে তাকে কি কি খাবার দেওয়া নিরাপদ হতে পারে।

একটি নিরাপদ অন্নপ্রাশন অনুষ্ঠান সম্পাদনের জন্য কয়েকটি পরামর্শ

আমাদের অন্যান্য সকল অনুষ্ঠানের মতই অন্নপ্রাশণ সংস্কার অনুষ্ঠানটিও একটি নিরাপদ অনুষ্ঠান হওয়া উচিত,তাই দয়া করে নিম্নলিখিত পরামর্শ কয়টি অনুসরণ করা নিশ্চিত করুন যাতে অনুষ্ঠানটি সকলের জন্যই আনন্দদায়ক এবং মজাদার হয়ে ওঠে।

  • পরিষ্কার হাতের সাহায্যে আপনার ছোট্টটিকে খাওয়ানো খুবই গুরুত্বপূর্ণ কারণ এই বয়সে বাচ্চারা খুব সহজেই সংক্রমণের কবলে পড়ে।
  • অনুষ্ঠান পর্বটি শুরু হওয়ার আগেই বাচ্চাকে ভালভাবে ঘুম পাড়িয়ে নিন যাতে সে এই অনুষ্ঠানের রীতি নীতিগুলি চলার সময় ঘ্যান ঘ্যান না করে।
  • খুব বেশি অতিথিকে নিমন্ত্রণ করা আপনার এড়িয়ে চলা উচিত কারণ এটি শিশুর পক্ষে অত্যুক্তিকর হয়ে উঠতে পারে।
  • সুতি অথবা লিনেনের মত উপাদানে তৈরী নরম এবং আরামদায়ক পোশাক আপনার বাচ্চাকে পরিধান করান।
  • কোনও রকম আলঙ্করিক কাজ বা ধাতব সূত্রগুলি এড়িয়ে চলার চেষ্টা করুন কারণ এগুলিতে বাচ্চার ত্বকে অস্বস্তির উদ্রেক হতে পারে।
  • তাকে আলগা ঢিলেঢালা পোশাক পরান যাতে তার পেটের উপর চাপ না পড়ে।
  • খুব বেশি ঠাণ্ডা লাগলে হাতের কাছে একটা সোয়াটার বা কার্ডিগেন রাখুন।
  • যদি খাওয়ার সময় বাচ্চার মুখ থেকে কোনও খাবার পরে তার জামা কাপড় বা অঙ্গ প্রত্যঙ্গগুলি ময়লা হয়ে যায়,তবে হাতের নাগালে একটা ছোট তোয়ালে অথবা এক বাক্স ন্যাপকিন রাখুন,যেগুলি তাকে মুছিয়ে পরিষ্কার করার কাজে আপনার সহায়ক হবে।
  • এই রীতির যজ্ঞের আগুন থেকে বাচ্চাকে দূরে রাখারই চেষ্টা করুন কারণ যজ্ঞের ধোঁয়ায় তার চোখ এবং গলা জ্বালা করতে পারে।
  • অনুষ্ঠানের স্থানটি যাতে ভালভাবে বায়ু চলাচল যোগ্য হয়ে থাকে সে ব্যাপারটিকে নিশ্চিত করুন যাতে অতিথিদের যজ্ঞের ধোঁয়ায় শ্বাসপ্রশ্বাস নিতে এবং তার তাপ সহ্য করতে কোনওরকম কষ্ট না হয়।
  • অনুষ্ঠানে আগত ছোট বাচ্চাদের একত্রিতকরণের জন্য তাদের উদ্দেশ্যে বিশেষ খেলার সরঞ্জামের আয়োজনের দ্বারা একটি পৃথক অবস্থানের ব্যবস্থা করা যেতে পারে।
  • মিষ্টি এবং ড্রাই ফ্রুট জলখাবার হিসেবে আপ্যায়িত সকল অতিথিবৃন্দকে পরিবেশনের দ্বারা নূন্যতম নম্রতা বহাল রাখুন।
  • সমগ্র অনুষ্ঠানটিকে স্মরণীয় করে রাখতে প্রচুর ফটো তোলার পাশাপাশি সকল মুহূর্তগুলিকে ভিডিও করার মাধ্যমে ক্যামেরাবন্দী করে রাখতে ভুলবেন না যেন।

অন্নপ্রাশণ হল আপনার শিশুর জীবনের একটি গুরুত্বপূর্ণ ঘটনা।আপনার সন্তান তার জীবনের যাত্রাপথে গ্রহণ করবে এমন বিভিন্ন পদক্ষেপগুলির মধ্যে এটিই হল তার দ্বারা গৃহীত প্রথম পদক্ষেপ,যা আপনাকে স্মরণ করিয়ে দেয় যে সে ক্রমশ বড় হয়ে উঠছে।