এক পাশ থেকে অন্য পাশে বাচ্চার মাথা ঝাঁকানো – এটা কি স্বাভাবিক?

এক পাশ থেকে অন্য পাশে বাচ্চার মাথা ঝাঁকানো - এটা কি স্বাভাবিক?

আপনার শিশুর প্রথম বছরটি তার রিফ্লেক্স এবং মোটর দক্ষতার সাথে সম্পর্কিত বেশ কয়েকটি মাইলফলক দ্বারা চিহ্নিত – সেই প্রথম হাসি, প্রথমবার সে যখন নিজের আঙুলটি চোষে, প্রথমবার সে যখন পা উপরে ওঠায়, এমনকি মুখ দিয়ে পুক পুক করে মিষ্টি শব্দ করে! তবে আপনি যখন দেখেন যে আপনার শিশুটি মাথা নাড়ছে, এটি আপনার জন্য উদ্বেগের কারণ হতে পারে। আপনি ভাবতে পারেন যে সে মাথা নাড়ার পক্ষে খুবই ছোট। বেশিরভাগ ক্ষেত্রে, আপনার বাচ্চা এক মাস বয়সী হওয়ার পরে, সে নিজেই নিজের মাথাটি কিছুটা ঘোরাতে সক্ষম হবে। সে যখন বড় হবে, তার মোটর দক্ষতা আনুপাতিকভাবে বাড়বে এবং মাথা ঘোরানোর জন্য তার ঘাড়ের চারপাশের পেশীগুলি বিকাশ লাভ করবে।

aniview

বাচ্চারা 9 মাস বয়সী হওয়ার সময় থেকেই মাথা দুইপাশে ঝাঁকাতে শুরু করতে পারে। যদিও এটি বেশিরভাগ ক্ষেত্রেই স্বাভাবিক, তবে কখনও কখনও এটি স্নায়বিক বা বিকাশজনিত ব্যাধি নির্দেশ করতে পারে। এই নিবন্ধটিতে বাচ্চারা কেন মাথা ঝাঁকায় তার সাধারণ কারণগুলি এবং কখন এটি উদ্বেগের কারণ হয় তা তালিকাভুক্ত করা হয়েছে।

বাচ্চারা কেন মাথা পাশের দিকে ঝাঁকুনি দেয়?

বাচ্চারা কেন মাথা পাশের দিকে ঝাঁকুনি দেয়?

আপনার বাচ্চা যখন মাথা ঝাঁকায়, তখন এটি কেবল খেলাধুলাপূর্ণতা এবং যোগাযোগ করতে চাওয়ার একটি চিহ্ন। বাচ্চারা যদি বৃদ্ধির স্বাভাবিক লক্ষণগুলি দেখায় তবে তারা “হ্যাঁ” বা “না” সংকেত দেওয়ার জন্য তাদের মাথা ঝাঁকিয়ে দিতে সক্ষম হবে, যখন তারা এক বছর বয়সী হবে। প্রায়শই, জীবনের প্রথম কয়েক সপ্তাহের মধ্যে, বাচ্চাদের পেশীগুলির নিয়ন্ত্রণ বিকাশের সাথে সাথে তারা ঝাঁকুনিপূর্ণ আন্দোলন প্রদর্শন করে। অভিভাবক হিসাবে, আপনি যদি হঠাৎ হঠাৎ আপনার বাচ্চাকে দুইপাশে মাথা ঝাঁকাতে দেখেন তবে আপনি অবশ্যই চিন্তিত হবেন। আপনার শিশুর মাথা ঝাঁকানো কেন সম্পূর্ণ স্বাভাবিক এবং কেন কোনো উদ্বেগের কারণ হওয়া উচিত নয় তার এখানে কয়েকটি কারণ দেওয়া হল:

১. তার দেহের নিয়ন্ত্রণ নেওয়া

বেশিরভাগ বাচ্চা তাদের দেহের উপর কিছুটা নিয়ন্ত্রণ পাওয়ার অংশ হিসাবে মাথা নাড়ানো শুরু করে। তাদের পেশীগুলি বিকাশ করছে এবং তারা নিজের দেহ সম্পর্কে আরও আবিষ্কার করার সাথে সাথে তারা আশেপাশের লোকদের প্রতিটি ক্রিয়াকে অনুকরণ করার চেষ্টা করে। সুতরাং যদি আপনার ছোট্টটি মাথা নাড়ানোর চেষ্টা করে তবে ভয় পাবেন না; তার শরীর কীভাবে কাজ করে তা সে কেবল শিখছে এবং দেখার জন্য পরীক্ষা করছে।

২. ক্লান্তির লক্ষণ প্রদর্শন করা

বাচ্চারা ক্লান্ত হয়ে পড়লে, ঘুমিয়ে পড়ার জন্য মাথা ঝাঁকিয়ে নিজেদের শান্ত করে নেয়। অবিরত নাড়াচাড়া ঝিমুনি ভাব এনে দেয় এবং কয়েক মিনিটের মধ্যে তাদের ঘুম পাড়িয়ে দেয়। সুতরাং আপনার শিশু ঘুমন্ত অবস্থায় যদি মাথা ঝাঁকায় তবে এটি একটি কৌশল যা সে ঘুমানোর জন্য ব্যবহার করছে।

৩. কানের সংক্রমণ থেকে ভোগা

আপনার বাচ্চা কানের সংক্রমণ হওয়ার সময় বা তার মাড়িতে আঘাত লাগার সময় মাথা ঝাঁকাতে পারে, আরও স্বাচ্ছন্দ্য বোধ করার জন্য। শিশুদের দাঁত বেরোনোর সময় পাশের দিকে মাথা ঝাঁকানো খুব সাধারণ ব্যাপার। মাথা ঝাঁকানো স্বাভাবিক হলেও, আপনি যদি মনে করেন যে আপনার শিশুটির জ্বর আছে, সর্দি আছে বা দাঁত বেরোচ্ছে, তবে তার সমস্যার জন্য চিকিৎসার পরামর্শ নেওয়া উচিত।

৪. বুকের দুধ খাওয়ার সময় ল্যাচ করার চেষ্টা করা

বেশিরভাগ বাচ্চারা যখন বুকের দুধ খায় এবং ল্যাচ করার চেষ্টা করে তখন তারা মাথা ঝাঁকায়। একবারে তারা রুটিনে অভ্যস্ত হয়ে গেলে, তারা উত্তেজনায় মাথা ঝাঁকানো চালিয়ে যেতে পারে। আপনার সন্তানের জীবনের প্রথম তিন মাস বুকের দুধ খাওয়ানোর সময় তার মাথায় অবলম্বন দেওয়ার পরামর্শ দেওয়া হচ্ছে। এটি তার পেশীর রিফ্লেক্স নিয়ন্ত্রণ করতে সহায়তা করে যাতে সে সহজেই ল্যাচিং শিখতে পারে।

৫. খেলতে গিয়ে মাথা ঝাঁকানো

বাচ্চারা খেলতে গিয়ে মাথা ঝাঁকায়। উপুড় হয়ে বা চিত হয়ে থাকাকালীন আপনি আপনার শিশুকে মাথা ঝাঁকাতে দেখতে পারেন। অন্যের সাথে তার আলাপচারিতা থেকে সে মাথা ঝাঁকানো শিখে থাকতে পারে। 6-8 মাসের মধ্যে, আপনি আপনার বাচ্চাকে বাড়িতে তার সমবয়সী বা ভাইবোনদের আচরণ এবং ক্রিয়াকলাপের অনুকরণ করতে দেখবেন।

৬. তারা কতটা নড়তে পারে তা পরীক্ষা করা

বাচ্চারা কিছুটা সাহসী হয় এবং তারা কতটা তাদের দেহকে চালিত করতে সক্ষম হবে তা পরীক্ষা করতে আগ্রহী হয়। যখন বাচ্চাদের প্রায় 5-6 মাস বয়স হয়, তারা তাদের মাথা বা তাদের দেহ দোলাতে শুরু করে। আপনার বাচ্চা যখন তার মাথাটি খুব নাড়াচাড়া করে তখন এটি কিছুটা ভীতিজনক মনে হলেও এটি পুরোপুরি স্বাভাবিক, কারণ এটি হল আপনার শিশু বসে থাকার উপায় বের করার চেষ্টা করছে তার সূচক। এই জাতীয় দোলানো এবং ঝাঁকানোর আচরণগুলি কেবল স্বল্পকালের হয় যা কয়েক মিনিটের জন্য শুধু স্থায়ী হয়।

এটি কি অটিজমের লক্ষণ?

মাথা ঝাঁকানো সহ বারবার নড়াচড়া এবং কিছু অন্যান্য লক্ষণ ইঙ্গিত দিতে পারে যে আপনার বাচ্চা অটিজম বর্ণালীতে থাকতে পারে। সাধারণত, যখন আপনার শিশুটি মাথা পাশের দিকে ঝাঁকায়, সেটি অটিজমের লক্ষণ নয়; যাইহোক, অন্যান্য লক্ষণগুলি যেগুলি স্বাভাবিক বলে মনে হয় না সেগুলির দিকে নজর দেওয়া ভাল। আপনার শিশুর 18 মাস বয়স হওয়ার সময় প্রায়শই এই অদ্ভুত আচরণগুলি লক্ষ্য করা যায়। অটিস্টিক নয় এমন বেশিরভাগ শিশুরা 3 বছর বয়স হওয়ার সাথে সাথে এই লক্ষণগুলি থেকে বেরিয়ে আসবে। বর্ণালীতে থাকা শিশুদের ক্ষেত্রে নিম্নলিখিত লক্ষণগুলি বেশ সাধারণ।

১. সামাজিক যোগাযোগের অভাব

যে শিশুরা বাবা-মা এবং ভাইবোনদের সাথে খুব বেশি যোগাযোগ করে না, তাদের নাম বা শব্দে কোনও প্রতিক্রিয়া দেয় না, অস্বাভাবিক দৃষ্টি রাখে, হাসিতে কোনও আগ্রহ বা প্রতিক্রিয়া প্রদর্শন করে না, এর অর্থ এই হতে পারে যে এই জাতীয় শিশুদের চিকিৎসার হস্তক্ষেপ প্রয়োজন।

২. দুর্বল যোগাযোগ সংকেত

একটি পুরোপুরি স্বাস্থ্যকর শিশু যোগাযোগের জন্য সক্রিয় অঙ্গভঙ্গি এবং হাতের নড়াচড়া ব্যবহার করবে। বেশিরভাগ 7-8 মাসের বাচ্চারা নিজেকে প্রকাশ করার জন্য জিনিসের দিকে অঙ্গুলি নির্দেশ করে এবং শব্দ করে। অটিজমে আক্রান্ত শিশুরা অঙ্গভঙ্গিগুলি যথাযথভাবে ব্যবহার করতে সক্ষম হবে না এবং তাদের কণ্ঠ্যস্বরের মানও খারাপ থাকবে।

৩. মূল দক্ষতার অবনতি এবং হ্রাস

অটিজমে আক্রান্ত বাচ্চাদের বেড়ে ওঠার সাথে সাথে ভাষা দক্ষতা এবং বোঝার দক্ষতা কম থাকবে। তারা মানুষের সাথে চোখ মেলাবে কম এবং অন্যদের সাথে খুব কমই আলাপচারিতা করবে। এই লক্ষণটি সাধারণত 9-12 মাস বয়সের মধ্যে পরিলক্ষিত হয়।

৪. পুনরাবৃত্তি আচরণ বা নড়াচড়া

অটিজমে আক্রান্ত শিশুরা নতুন জিনিস শেখার লক্ষণ ছাড়াই বারবার নড়াচড়া এবং অদ্ভুত আচরণ প্রদর্শন করতে পারে। আপনার শিশু যখন এই জাতীয় লক্ষণগুলি প্রদর্শন করে তখন এটি উদ্বেগের কারণ হতে হবে।

৫. মাথা ঠোকা

আপনার বাচ্চা যদি দেওয়ালে, বিছানায় মাথা ঠোকে, বা এমনকি তার হাতের মুঠি দিয়ে দেওয়ালে আঘাত করে নিজের আঘাত লাগার পরেও, তবে অবশ্যই আপনার উদ্বেগ করার কারণ রয়েছে। এমনকি উদ্বেগের মুহুর্তগুলিতে সে হিংস্রভাবে মাথা ঝাঁকাতে পারে বা দীর্ঘ সময় ধরে ঘন ঘন মাথা নাড়াতে পারে।

৬. বিকাশমূলক মাইলফলকগুলি অনুপস্থিত হওয়া

আপনার শিশু যদি সময় মতো তার বয়সের উপযুক্ত বিকাশমূলক মাইলফলকে না পৌঁছায়, তবে এটি ইঙ্গিত করতে পারে যে সে অটিজম বর্ণালীতে আছে।

কীভাবে আপনার বাচ্চার মাথা ঝাঁকানো থামানো যায়

মাথার একটানা ঝাঁকুনি থেকে আপনার শিশুর ঝিমুনি আসতে পারে বা মাথা ঘুরতে পারে। আপনার শিশুর মাথা নাড়ানো বন্ধ করতে এই পরামর্শগুলি অনুসরণ করুন:

১. কোনো মনোযোগ দেবেন না

সে যখন মাথা নাড়ে তখন মনোযোগ দেবেন না এবং এমন কোনও প্রতিক্রিয়া দেখাবেন না যে তাকে আবার মাথা নাড়তে উদ্বুদ্ধ করতে পারে ।

২. ফ্রিকোয়েন্সি এবং সময়কাল ট্র্যাক করুন

যে মুহুর্তগুলিতে এবং সময়কাল ধরে আপনার শিশু মাথা নাড়ায় তার হদিশ করুন। আপনার অনুসন্ধানের ভিত্তিতে, আপনি এটি নির্ধারণ করতে সক্ষম হবেন যে এটি কোনও অবিরত হওয়া, পুনরাবৃত্ত ঘটনা যাতে আপনার মনোযোগের প্রয়োজন নাকি এটি আপনার উপেক্ষা করার মতো কোনো ঘটনা।

৩. পরিবেশ পরিবর্তন করুন

কখনও কখনও, শিশুর চারপাশের পরিবেশে নির্দিষ্ট কারণগুলি তাকে মাথা নাড়ানো শুরু করাতে পারে। আপনার বাচ্চা যে পরিবেশে এটি সর্বাধিক করে সেটির একটি পরিবর্তন আনার চেষ্টা করুন। যদি এটি কাজ না করে, তবে তাকে শান্ত ও চাপমুক্ত জায়গায় নিয়ে যাওয়া ভাল।

৪. রিল্যাক্সিং টেকনিকগুলি ব্যবহার করে দেখুন

আপনার বাচ্চার পেশীর রিফ্লেক্সগুলিকে শান্ত করতে পেশীগুলিতে উপশমকারী তেল মালিশ দিয়ে শিথিল করুন।

কখন কোন ডাক্তারের পরামর্শ নিতে হবে

যদি আপনার শিশুটি ক্রমাগত মাথা নাড়ানোর পাশাপাশি নিম্নলিখিত লক্ষণ এবং উপসর্গগুলি প্রদর্শন করে তবে একজন পেশাদারের কাছ থেকে চিকিৎসার পরামর্শ নেওয়া ভাল:

  • পিতা-মাতা এবং ভাইবোনদের সাথে খুব বেশি যোগাযোগ করে না
  • চোখে চোখ মেলানো কম করে এবং চোখের অস্বাভাবিক নড়াচড়া হয়
  • মাথাঠোকাথেকেআঘাতরয়েছে
  • সে যখন উদ্বিগ্ন হয় তখন খুব মাথা ঝাঁকায়
  • নিজেকে আঘাত করার তাগিদ প্রদর্শন করে
  • শব্দ এবং কণ্ঠস্বরে দুর্বল প্রতিক্রিয়া প্রদর্শন করে
  • 2 বছর বয়স পেরিয়ে যাওয়ার পরেও এই ধরণের অস্বাভাবিক আচরণ প্রদর্শন করে

বাচ্চারা যখন নিজেরাই নিজেদের শান্ত করার চেষ্টা করে তখন প্রায়শই অদ্ভুত কাজ করে। ঘুমন্ত অবস্থায় তাদের মাথা ঠুকতে, নিজের বা আপনার চুল নিয়ে খেলা করতে, কান, পেট বা গোপনাঙ্গগুলিতে আঘাত করতে বা এমনকি নিজেকে দুইপাশে দোলাতে দেখা অস্বাভাবিক কিছু নয়। আপনার শিশুর মাথা এক পাশ থেকে অন্য পাশে দ্রুত নড়ানো অদ্ভুত নয় এবং এটি স্বাভাবিক। তবে কষ্ট পাওয়ার চেয়ে নিরাপদ থাকা সবচেয়ে ভাল। আপনি যদি দেখেন যে আপনার ছোট্টটি তার মাথা ঝাঁকাচ্ছে এবং উপরে বর্ণিত অন্যান্য লক্ষণগুলি প্রদর্শন করছে, তবে ডাক্তারের সাথে পরামর্শ করুন

চূড়ান্ত কথাটি হল এই ঘটনাটি অবশ্যই কোনও জরুরী চিকিৎসার লক্ষণ নয়। ফ্রিকোয়েন্সি প্রায়শই এটা বোঝার দুর্দান্ত লক্ষণ যে ঝাঁকুনিটি স্বাভাবিক কিনা না। যদি আপনার শিশুটি দীর্ঘ সময় ধরে একটানা বা খুব ঘন ঘন এটি করে থাকে তবে ডাক্তারের সাথে পরামর্শ করার উপদেশ দেওয়া হচ্ছে