গর্ভাবস্থায় মশলাদার খাবার খাওয়া

গর্ভাবস্থায় মশলাদার খাবার খাওয়া

গর্ভাবস্থায় একজন মহিলার ডায়েট অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ, কারণ এটি কেবল মাকেই নয়, গর্ভস্থ বাচ্চাকেও প্রয়োজনীয় পুষ্টি দেয়। যেহেতু এটি ক্রমবর্ধমান ভ্রূণের পুষ্টির একমাত্র উত্স, তাই কোনো মহিলার ডায়েটে ভাল ভারসাম্য বজায় রাখা দরকার। কেবল সেই জিনিসগুলিকে অন্তর্ভুক্ত করা উচিত যা মা এবং শিশুর কোনো ক্ষতি করবে না।

aniview

গর্ভাবস্থায় মশলাদার খাবার খাওয়া কি নিরাপদ?

মশলাদার খাবার বাচ্চা বা গর্ভাবস্থাকে তেমন প্রভাবিত করে না। তবে আপনার দেহ যা সহ্য করতে পারে তার চেয়ে বেশি মশলাদার খাবার খাওয়া বদহজম, অ্যাসিডিটি এবং অম্বলজনিত সমস্যা তৈরি করে।

প্রথম ত্রৈমাসিকে মশলাদার খাবার

প্রথম ত্রৈমাসিকে মশলাদার খাবার গ্রহণ নিরাপদ এবং এটি শিশুর বিকাশকে প্রভাবিত করে না। প্রথম ত্রৈমাসিকে প্রারম্ভিক গর্ভাবস্থার ক্ষতির ঝুঁকি বেশি থাকে, প্রত্যাশিত মায়েরা মশলাদার খাবার গ্রহণের পার্শ্ব প্রতিক্রিয়া সম্পর্কে উদ্বিগ্ন হতে পারে।

দ্বিতীয় এবং তৃতীয় ত্রৈমাসিকে মশলাদার খাবার

দ্বিতীয় এবং তৃতীয় ত্রৈমাসিকে মশলাদার খাবার গ্রহণ অম্বল এবং অ্যাসিডের প্রবাহের সম্ভাবনা বাড়িয়ে তোলে। তৃতীয় ত্রৈমাসিকে, ক্রমবর্ধমান ভ্রূণের কারণে পেটের অ্যাসিড খাদ্যনালীতে ফিরে আসে এবং মশলাদার খাবার খাওয়া এই অবস্থাকে আরও বাড়িয়ে তুলতে পারে।

খাবারে কতটা মশলা নিরাপদ

আপনার শরীর যতটা মশলা হজম করতে পারে ততটায় পরিমাণে মশলাদার খাবার খাওয়া নিরাপদ। বাইরে রান্না করা মশলাদার খাবার খাওয়া এড়িয়ে চলুন। পরিবর্তে, ভারী ধাতু এবং কৃত্রিম রঙযুক্ত ভেজাল এড়াতে তাজা গোটা মশলা কিনুন এবং বাড়িতে পিষে নিন।

মশলাদার খাবার খাওয়ার ঝুঁকি এবং পার্শ্ব প্রতিক্রিয়া কি কি?

মশলাদার খাবার খেলে হজমে সমস্যা হতে পারে, যার ফলে গর্ভবতী মহিলার অস্বস্তি বাড়ে। গর্ভাবস্থায় মশলাদার খাবার খাওয়ার ঝুঁকি এবং পার্শ্ব প্রতিক্রিয়াগুলি নীচে তালিকাভুক্ত করা হল:

  • সকালের অসুস্থতা: হরমোনের মাত্রা পরিবর্তনের কারণে গর্ভাবস্থার প্রথম পর্যায়ে মর্নিং সিকনেস বা সকালের অসুস্থতা খুব সাধারণ। সকালের অসুস্থতা মশলাদার খাবার গ্রহণের ফলে বাড়তে পারে।
  • অম্বল: আপনি গর্ভবতী হলে অম্বল এবং অন্যান্য হজমের সমস্যা অনুভব করার সম্ভাবনা বেশি থাকে। মশলাদার খাবার বিশেষ করে গর্ভাবস্থার শেষের মাসগুলিতে অ্যাসিড রিফ্লাক্স এবং অস্থির বুকজ্বালার সম্ভাবনা বাড়িয়ে তুলবে।

যদি আপনি মশলাদার খাবার খাওয়ার সিদ্ধান্ত নেন, তবে অল্প বুকজ্বালা কমাতে এক গ্লাস দুধে পান করুন। মশলাদার খাবার খাওয়ার পরে মধুও অম্বল প্রতিরোধে সহায়তা করতে পারে।

গর্ভবতী অবস্থায় মশলাদার খাবার খাওয়া সম্পর্কে ভুল ধারণা

গর্ভাবস্থায় মশলাদার খাবার খাওয়ার সাথে মিথ বা ভুল ধারণা যুক্ত রয়েছে। কোনো বৈজ্ঞানিক সমর্থন নেই এদ্র সম্পর্কে, তাদের মধ্যে অন্তর্ভুক্ত:

  • মশলাদার খাবার আপনার শিশুর উপর বিরূপ প্রভাব ফেলতে পারে।
  • মশলাদার খাবার খাওয়ার ফলে অকাল প্রসব শ্রম হতে পারে।
  • গর্ভাবস্থায় মশলাদার খাবার গ্রহণের ফলে গর্ভপাত ও শিশু জন্মগত অক্ষমতা দেখা দিতে পারে।
  • এই ধারণাগুলির কোনওটিরই কোনো বৈজ্ঞানিক সমর্থন নেই, সুতরাং তাদের বিশ্বাস করা উচিত নয়।
  • সঠিকভাবে মশলাদার খাবার খাওয়ার টিপস

মশলাদার খাবারের ঝুঁকিগুলি দ্বারা আপনি যেন বিরূপভাবে প্রভাবিত না হন তা নিশ্চিত করার জন্য আপনাকে অবশ্যই সেগুলি সঠিকভাবে গ্রহণ করতে হবে।

  • খাদ্য শংসাপত্র কর্তৃপক্ষ বা এফসিএ দ্বারা অনুমোদিত ব্র্যান্ডের মশলা গ্রহণ করুন।
  • খোলাভাবে বিক্রি হওয়া মশলা সেবন করবেন না, কারণ এগুলিতে ইটের গুঁড়োর মতো ক্ষতিকর ভেজাল থাকতে পারে।
  • আপনি যদি নতুন মশলা সেবন করছেন তবে এগুলি অল্প পরিমাণে খাওয়া শুরু করুন। তাজা মশলা কেনা এবং বাড়িতে পিষে গ্রহণ করা ভাল।
  • বাইরে থেকে মশলা কেনার আগে প্যাকেজিং এবং মেয়াদের তারিখগুলি পরীক্ষা করুন।
  • প্রতিবার খাবার খাওয়ার সময় মশলাদার খাবারের সংখ্যা একটিতে সীমাবদ্ধ রাখুন এবং মশলাদার খাবারটি যদি আপনার বুকজ্বালা দেয় তবে আপনার খাবারটি পরিবর্তন করুন।
  • ঘরে রান্না করা খাবারকে অগ্রাধিকার দিন, যেহেতু আপনি খাবারে ব্যবহৃত মশালার গুণমান এবং পরিমাণ নিয়ন্ত্রণ করতে পারেন।

আপনি কিভাবে আপনার ডায়েটে মশলাদার খাবার অন্তর্ভুক্ত করতে পারেন

গর্ভাবস্থায় মশলাদার খাবার গ্রহণের সময় আপনার সতর্ক থাকা উচিত। আপনার ডায়েটে অন্তর্ভুক্ত করা যেতে পারে এমন কিছু মশলাদার খাবার এখানে দেওয়া রয়েছে:

  • ওয়াসাবি মটর: এগুলি গরম এবং মুচমুচে মটর যা খাওয়া নিরাপদ এবং কোনো ক্ষতি করে না।
  • কারি সস: পেঁয়াজ, রসুন, গোলমরিচ এবং সমস্ত সাধারণ মশালার মিশ্রণ, কারী সস ভারতীয় খাবারে বহুল ব্যবহৃত হয় এবং সেবন করা নিরাপদ।
  • পিরিপিরি সস: এটি পেঁয়াজ, রসুন, টমেটো এবং প্রধান উপাদান ‘সুপার হট’ আফ্রিকান বার্ডস আই লঙ্কার মিশ্রণ।
  • মধ্য প্রাচ্যের রান্নার সস: এটি ব্ল্যাক অনিয়ন সীড, কাঁচা লঙ্কা, টমেটো এবং ধনে দিয়ে তৈরি মিষ্টি সস।

  • মশলাদার আচার: সাধারণত বিভিন্ন দোকান ও শপিং সেন্টারে এটি পাওয়া যায়, আপনার খাবারের সাথে অল্প পরিমাণে এই আচারগুলি খাওয়া নিরাপদ এবং মশলার জন্য আপনার লোভকে তৃপ্ত করতে পারে।
  • গোলমরিচ: রোগপ্রতিরোধ ক্ষমতা কম থাকার কারণে যখনই আপনার ঠান্ডা লাগবে তখন গোলমরিচ দেওয়া গরম স্যুপ ব্যবহার করে দেখতে পারেন। গোলমরিচের অ্যান্টিব্যাকটেরিয়াল উপাদানগুলি, এর মশলাদার প্রভাব সহ এটি গর্ভাবস্থায় একটি আদর্শ মশলা তৈরি করে।

মশলা বা তেলের অতিরিক্ত ব্যবহার এড়াতে বাড়িতে সস তৈরি করা উচিত, নাহলে তা অম্বলের কারণ হতে পারে।

মশলাদার খাবারের কারণে জরায়ুতে অস্বস্তি

যদিও মশলাদার খাবার গর্ভাবস্থায় সাধারণত নিরাপদ, তবে অত্যধিক মশলা সেবন করলে বা সংবেদনশীল পাচনতন্ত্রযুক্ত গর্ভবতী মহিলাদের জন্য কিছু পার্শ্ব প্রতিক্রিয়া হতে পারে। কিছু মহিলার মধ্যে মশলাদার খাবার অন্ত্রে একটি জ্বালার অনুভূতি, জরায়ুতে জ্বালা বা অস্বস্তি সৃষ্টি করতে পারে। অতিরিক্ত মশলাদার খাবারগুলি সাধারণত গ্যাস্ট্রোঅন্ত্রের ট্র্যাক্টের মধ্য দিয়ে যায় এবং ডায়রিয়া, অ্যাসিডিটি বা গ্যাসের কারণ হতে পারে। এইগুলি অন্ত্রে ক্র্যাম্প তৈরি করতে পারে, যার ফলে অন্ত্রের নিকটবর্তী হওয়ার কারণে জরায়ুতে জ্বালা হয়। জরায়ুর জ্বালার প্রধান লক্ষণ হল জরায়ুর পেশীগুলিতে অস্বস্তি বা তলপেটে জ্বালা বা খিঁচ লাগা, যা বিরল ক্ষেত্রে, সংকোচনের কারণ হতে পারে বা জরায়ুর পর্দার বিভাজন শুরু করে। যে মহিলারা ৩৭ সপ্তাহের কম সময়ের গর্ভবতী হন এবং এই জাতীয় কোনো লক্ষণ অনুভব করেন, তাদের সঙ্গে সঙ্গেই চিকিত্সকের সাথে পরামর্শ করা উচিত, যারা তাদের আরও ভালোভাবে গাইড করতে পারবেন। যদি আপনি গর্ভাবস্থায় মশলাদার খাবারগুলি খাওয়ার পর অম্বল, গ্যাস বা ক্র্যাম্পিংয়ের সংবেদনশীলতা লক্ষ্য করেন তবে আপনাকে মশলাদার খাবার খাওয়া এড়িয়ে চলার পরামর্শ দেওয়া হচ্ছে।

প্রায়শই জিজ্ঞাসিত প্রশ্নাবলী

মশলাদার খাবারের সাথে সম্পর্কিত প্রায়শই জিজ্ঞাসিত প্রশ্নাবলী নিম্নরূপ:

মশলাদার খাবার গ্রহণ কি আমার শিশুর জন্য নিরাপদ?

মশলাদার খাবার গর্ভস্থ শিশুর ক্ষতি করে না এবং সেবন করা একেবারেই নিরাপদ।

মশলাদার খাবার গ্রহণের কোনো পার্শ্ব প্রতিক্রিয়া আছে কি?

মশলাদার খাবার বেশি খাওয়ার কারণে অম্বল এবং হজমের সমস্যা হতে পারে।

মশলাদার খাবার কি আমার বাচ্চাকে প্রভাবিত করতে পারে?

গর্ভবতী মহিলার সবচেয়ে সাধারণ প্রশ্নটি হল গর্ভাবস্থার জন্য মশলাদার খাবার কি খারাপ? মশলাদার খাবার গর্ভাবস্থায় কোনো ক্ষতিকর প্রভাব ফেলবে না এবং এটি কোনওভাবেই শিশুর ক্ষতি করবে না।

যদিও গর্ভাবস্থায় মশলাদার খাবার গ্রহণ করা নিরাপদ, তবে অম্বল এবং বদহজমের কারণে অস্বস্তি এড়াতে তার গ্রহণের পরিমাণ সীমিত রাখাই ভাল। বিভিন্ন স্বাদের মিশ্রণের সাথে একটি স্বাস্থ্যকর ডায়েট খাওয়া একঘেয়েমিটি কাটাতে এবং আপনার স্বাদকোরকগুলিকে খাবার খাওয়ার প্রতি আগ্রহী রাখতে সহায়তা করবে।