বুকের দুধ খাওয়ানোর সময় উপবাস করা

বুকের দুধ খাওয়ানোর সময় উপবাস করা

বিশ্বজুড়ে অনেক মানুষ তাদের ধর্ম ও সংস্কৃতির অবিচ্ছেদ্য অংশ হিসাবে উপবাস পালন করে। প্রতিটি ব্যক্তির তাদের ধর্ম পালন এবং তার নিয়ম মেনে চলার প্রতি একটি ভিন্ন উপলব্ধি আছে। আপনি যদি আপনার ধর্মীয় অনুভূতিগুলিকে অক্ষত রেখে আপনার মাতৃত্বের দায়িত্বগুলি পালন করতে চান, তবে ভালো খবর হল, আপনি তা করতে পারেন। অনেক ধর্মীয় পণ্ডিত বিশ্বাস করেন যে গর্ভাবস্থায় এবং বুকের দুধ খাওয়ানোর পর্যায়ে মহিলাদের উপবাস করার অনুমতি দেওয়া উচিৎ। তো, বুকের দুধ খাওয়ানোর সময় উপবাস করা সম্পর্কে আপনার কি উদ্বেগ আছে? আচ্ছা, নিচের নিবন্ধটি আপনাকে একটি সুনিশ্চিত সিদ্ধান্ত নিতে সহায়তা করবে।

aniview

বুকের দুধ খাওয়ানোর সময় উপবাস করা কি নিরাপদ?

উপবাস করা এবং বুকের দুধ খাওয়ানো একসাথে কথা নিরাপদ কিনা ভাবছেন? হ্যাঁ, বুকের দুধ খাওয়ানোর সময় উপবাস করা নিরাপদ। আপনার শরীর আপনার সন্তানকে তৃপ্ত করার মতো যথেষ্ট দুধ উৎপাদন করবে। এটি ঘটে কারণ আপনার শরীরের দুধ উৎপাদন করতে ক্যালোরি পোড়ানোর নতুন পদ্ধতিতে অভ্যস্ত হয়। অর্থাৎ, 24 ঘন্টা ধরে কিছু না খেলেও, আপনার শরীর আপনার শিশুর জন্য দুধ উৎপাদন করতে সক্ষম। একটি দিন বা অনুরূপ সময় ধরে উপবাস করলে, আপনার বুকের দুধের গুণমান বা পরিমাণে প্রভাব ফেলে না, তবে আরো বেশী সময় ধরে একটানা উপবাস করলে তা বুকের দুধ খাওয়ানোকে প্রভাবিত করতে পারে। কখনও কখনও দীর্ঘস্থায়ী উপবাস অকালে বাচ্চার বুকের দুধ খাওয়া ছেড়ে দেওয়ার দিকেও চালিত করতে পারে। উপবাস ও বুকের দুধ খাওয়ানোর বিষয়ে আপনার যদি উদ্বেগ থাকে তবে আপনি আপনার ডাক্তারের সাথে আলোচনা করতে পারেন।

ধর্ম কী বলে?

অধিকাংশ সংস্কৃতিতে উপবাসের বিরাট ধর্মীয় গুরুত্ব আছে, কিন্তু যখন গর্ভবতী এবং বুকের দুধ খাওয়ানো মহিলাদের কথা আসে, অধিকাংশ ধর্মই খুব নমনীয়। এখানে কিছু প্রধান ধর্ম কী বলে তা দেওয়া হল:

  • হিন্দুধর্ম: বুকের দুধ খাওয়ানোর মায়েদের ক্ষেত্রে, হিন্দুধর্মে উপবাসের ব্যাপারটি অত্যন্ত নমনীয়। পরিবারের প্রবীণরা আপনাকে বুকের দুধ খাওয়ানোর সময় উপবাস করতে বারণ করতে পারেন।
  • ইসলাম: ইসলামে বুকের দুধ খাওয়ানোর সময়, উপবাস করা থেকে নিষ্কৃতি দেওয়া হয়। তবে, এটা বিশ্বাস করা হয় যে, আপনার মিস হওয়া উপবাসগুলিকে পরে উপবাস করে পুষিয়ে দিতে হবে।
  • খ্রীষ্টধর্ম: খ্রিস্টানরা লেন্ট পর্বের আকারে উপবাস পালন করে। বুকের দুধ খাওয়ানোর সময় উপবাসের ব্যাপারে খ্রিস্টানরা দৃঢ় নিয়ম অনুসরণ করে না। আপনাকে উপবাস করতে হবে না, কিন্তু আপনি একটি ভিন্ন ধরনের উপাসনা অনুশীলন করতে পারেন, যেমন লেন্ট পর্বের সময় আপনি আপনার প্রিয় খাবার খাওয়া ছেড়ে দিতে পারেন।
  • ইহুদীধর্ম: আপনি যদি ইহুদি হন, তবে আপনাকে বুকের দুধ খাওয়ানোর সময় একটি উপবাস পালন করতে হতে পারে, যদিও এতে নমনীয়তার সুযোগ রয়েছে এবং এটির উপর কঠোর নিয়ম নেই।

ধর্ম কী বলে?

বুকের দুধ খাওয়ানোর সময় উপবাসের প্রভাব

এক বা দুই দিনের জন্য উপবাস আপনার বুকের দুধ খাওয়ানোকে প্রভাবিত করে না। যদিও, দেখা যায় যে রমদানের মতো দীর্ঘ দিন ধরে উপবাস রাখা আপনার বুকের দুধ খাওয়ানোকে প্রভাবিত করতে পারে। আপনি নিম্নলিখিত ভাবে প্রভাবগুলি লক্ষ্য করতে পারেন:

  • বুকের দুধের সরবরাহের উপর: বুকের দুধে চর্বি সামগ্রী প্রতিটি মায়ের জন্য আলাদা এবং এটি একটি নির্দিষ্ট সময়ের মধ্যে একজনক মায়ের মধ্যেও পরিবর্তিত হতে পারে। অতএব, আপনি যদি একটানা কয়েক দিনের জন্য উপবাস রাখেন, তবে আপনার বুকের দুধের চর্বির পরিমাণ একটু পরিবর্তিত হতে পারে, তবে এটি আপনার দুধের পরিমাণকে কমাবে না। আপনার শরীর যথেষ্ট বুদ্ধিমানভাবে আপনার শিশুর জন্য দুধ তৈরি করতে আপনার শরীরের সংরক্ষিত চর্বি ব্যবহার করতে পারে। শরীরের হারিয়ে যাওয়া পুষ্টির পুনরুদ্ধারের জন্য যখনই আপনি উপবাসের পরে খাওয়া শুরু করবেন, তখন আপনার শরীরের জন্য ভাল পুষ্টি সরবরাহ করা জরুরি। আপনি যদি সুস্থ থাকেন তবে উপবাস আপনার শিশুর বৃদ্ধিকে বাধা দেয় না।
  • বুকের দুধ খাওয়ানো মায়ের উপর: আপনার শরীর উপবাসের সাথে ভালোভাবে মানিয়ে নেয়। এটাও গবেষণা করে দেখা হয়েছিল যে, উপবাস পালনকারী মা এবং যিনি উপবাস পালন করেননি এমন মা-র রাসায়নিক ভারসাম্য কমবেশী প্রায়ই একই ছিল। এটি প্রমাণ করে যে যখন আপনি উপবাস পালন করেন তখন উপবাস পালন না করার সময়ের মতো, আপনার শরীর একইভাবে কাজ করবে। আপনি উপবাস থেকে কিছু ওজন হারাতে পারেন, কিন্তু সেটা খুব স্বাভাবিক। তবে, যদি আপনি মনে করেন যে আপনি দ্রুত ওজন হারাচ্ছেন (সপ্তাহে 0.5 কিলোগ্রাম থেকে 1 কেজি পর্যন্ত); আপনি উপবাস বন্ধ করুন এবং চিকিৎসার সাহায্য চান। এমনকি উপবাসের সময় আপনার যদি মাথা ঝিমঝিম করে, গুরুতর মাথাব্যথা হয়, গাঢ় রঙীন প্রস্রাব হয়, দুর্বল বা ক্লান্ত বোধ করেন; আপনার উপবাস বন্ধ করা উচিত। আপনার প্রচুর তরল এবং বিশ্রাম গ্রহণ করা উচিত। আপনি যদি অসুস্থ বোধ করতে থাকেন তবে আপনার চিকিৎসার সাহায্যের প্রয়োজন হতে পারে।
  • আপনার শিশুর উপর: বুকের দুধ খাওয়ানোর সময় উপবাস করলে আপনার সন্তানের উপর কোন প্রভাব ফেলে না। আপনার শিশুর প্রয়োজনীয়তা পূরণ করার জন্য আপনার শরীর যথেষ্ট দুধ উৎপাদন অব্যাহত রাখে। আপনি এক দিনের জন্য উপবাস করলে আপনার বুকের দুধের মান বা পরিমাণ পরিবর্তন হয় না। তবে, আপনি যদি নিম্নোক্ত উপসর্গগুলির মধ্যে কোনোটি লক্ষ্য করেন যেমন:
    • আপনার বাচ্চা যথেষ্ট ওজন অর্জন করছে না বা ওজন হারাচ্ছে
    • আপনার সন্তানের খাওয়ার সেশনের পরে সে তৃপ্ত হয় না
    • কম সংখ্যক ন্যাপি ভেজে

আপনার সন্তানের পর্যাপ্ত স্তন দুধ না পাওয়ার এগুলি লক্ষণ হতে পারে। আপনার ডাক্তারের সাথে পরামর্শ করা উচিৎ এবং সেই অনুযায়ী এগিয়ে যাওয়ার সিদ্ধান্ত নেওয়া উচিৎ।

বুকের দুধ খাওয়ানোর সময় উপবাস রাখা সহজতর করার জন্য পরামর্শ

আপনি বুকের দুধ খাওয়ানোর সময় উপবাস রাখার পরিকল্পনা করলে, আপনাকে কিছু পরামর্শ মেনে চলতে হবে যা আপনার কাছে উপবাসকে সহজ করে তুলবে:

  • একটি স্বাস্থ্যকর খাদ্য: উপবাসের আগে বা পরে যখনই আপনি খাবেন, তখনই আপনার ভাল খাদ্য খাওয়া দরকার। আপনি যখন উপবাস রাখছেন তখন আপনি কিছু কিছু খাবার খেতে পারছেন না, তাই এটির কার্যকরী পরিপূরক খাবার খাওয়া ভালো আইডিয়া হবে। উপবাস রাখার আগ আপনার পুষ্টির মাত্রা বেশী রাখলে, সেটি আপনার জন্য কেবল একটি শক্তির ব্যাঙ্ক হিসাবেই কাজ করবে না, এটি আপনার বাড়ন্ত শিশুকে যথেষ্ট পুষ্টি সরবরাহ করবে।
  • আপনার শরীরকে হাইড্রেটেড রাখুন: ডিহাইড্রেশন অনেক জটিলতার কারণ হতে পারে। অতএব, আপনি যদি উপবাস রাখেন তবে নিজেকে ভালভাবে হাইড্রেটেড রাখা খুব গুরুত্বপূর্ণ। উপবাস রাখার সময় যদি জল খাওয়ার সীমাবদ্ধতা থাকে, তবে উপবাস রাখার আগে ও পরে প্রচুর পরিমাণে তরল খাওয়ার পরামর্শ দেওয়া হয়। বুকের দুধ খাওয়ানোর ফলে আপনি খুব তৃষ্ণার্ত বোধ করতে পারেন, যখনই পারবেন তখনই পর্যাপ্ত জল এবং অন্যান্য তরল পান করুন।
  • বিশ্রাম: আপনাকে পরামর্শ দেওয়া হচ্ছে যে আপনি যখন উপবাস পালন করছেন তখন খুব বেশী পরিশ্রম করবেন না। পরিশ্রম শক্তির মাত্রাকে কমিয়ে দিতে পারে এবং আপনি অলস অনুভব করতে পারেন। অতএব, যতটা পারেন বিশ্রাম নিন এবং আপনার শক্তি সংরক্ষিত রাখুন।

বুকের দুধ খাওয়ানোর সময় উপবাস রাখা সহজতর করার জন্য পরামর্শ

  • আপনার টুকিটাকি কাজগুলি আগেই সেরে নিন বা পিছিয়ে দিন: আপনার যদি সুপারমার্কেট থেকে মুদির জিনিস আনা, ড্রাই ক্লিনার থেকে জামাকাপড় আনা ইত্যাদি প্রধান কাজগুলি থাকে তবে আপনাকে এটি একটি দিন আগে করতে হবে। যদি তা সম্ভব না হয় তবে সেই কাজটিকে পিছিয়ে দেওয়া ভাল আইডিয়া। অপ্রয়োজনীয় পরিশ্রম আপনার শক্তি নিঃশেষ করে দিতে পারে।
  • আপনার শিশুর স্বাস্থ্যের উপর নজর রাখুন: আপনার উপবাস আপনার বাচ্চার স্বাস্থ্যকে প্রভাবিত না করতে পারে, তবে আপনার শিশুর উপর নজর রাখা ভাল। যদি আপনি ভেজা ন্যাপির সংখ্যা কমে যেতে, আপনার বাচ্চার মলের রঙে পরিবর্তন হতে, ওজন হ্রাস পেতে বা অন্যান্য স্বাস্থ্য সমস্যা হতে লক্ষ্য করেন, আপনি তার জন্য আপনার ডাক্তারের সাথে পরামর্শ করতে পারেন।

বুকের দুধ খাওয়ানোর সময় উপবাস রাখা সাধারণত আপনার বা আপনার শিশুর জন্য জটিলতা সৃষ্টি করে না। তবে, আপনার বাচ্চা 6 মাসের কম বয়সী হলে বা শুধু আপনার বুকের দুধ খেলে, আপনার উপবাস সম্পর্কে আপনার ডাক্তারের সাথে পরামর্শ করা উচিত।