শিশুদের মশার কামড়ের জন্য 10 টি ঘরোয়া প্রতিকার

শিশুদের মশার কামড়ের জন্য 10 টি ঘরোয়া প্রতিকার

আক্ষরিক অর্থে মশা আজকাল ঘরে বাইরে সর্বত্র।বাস্তবে,মশার কামড় এড়ানোর কোনও নিশ্চিত নিশ্চয়তা নেই,কিন্তু এক্ষেত্রে আপনার সন্তানকে প্রথম দিকে মশার কামড় থেকে আপনি রক্ষা করতে পারেন এমন কিছু উপায় আছে।কীভাবে তা জানার জন্য আমাদের নিবন্ধটি পড়া বজায় রাখুন।

aniview

শিশুদের মশার কামড়ের জন্য প্রাকৃতিক ঘরোয়া প্রতিকার

শিশুদের মশার কামড়ের জন্য প্রাকৃতিক ঘরোয়া প্রতিকার

আপনার শিশুর ত্বক সংবেদনশীল হয়ে থাকে সেই কারণে টপিকাল(ত্বকের উপরে ব্যবহৃত হয় এমন রাসায়নিক ভিত্তিক)এজেন্টগুলির ব্যবহার প্রতিরোধের অনুশীলন স্বাস্থ্যকর ত্বক বজায় রাখার ক্ষেত্রে বহু দূর এগিয়ে নিয়ে যায়।শিশুদের মশার কামড়ের জন্য এখানে 10 টি সাধারণ কিন্তু কার্যকর ভেষজ প্রতিকার উল্লেখ করা হল।

1. বেকিং সোডা

বেকিং সোডা pH এর মাত্রা ফিরিয়ে আনে,এবং কেবল এক চা-চামচ বেকিং সোডাকে 1 কাপ জলের মধ্যে দ্রবীভূত করলে সেটি একাই তৎক্ষণাৎ চুলকানি হ্রাস করবে! শুধুমাত্র একটি পরিষ্কার কাপড়কে এর মধ্যে ডুবিয়ে নেওয়ার পর সেটিকে 10-15 মিনিটের এর জন্য ত্বকের উপরে প্রয়োগ করুন।

2. লেবু

লেবু অনুভূতিনাশক এবং প্রদাহ বিরোধী সুবিধাগুলি সরবরাহ করে এবং শিশুদের মশার কামড়ের জন্য এটি একটি সহজ এবং সর্বাধিক প্রাকৃতিক নিরাময়।শুধু একটি লেবুকে দু’টুকরো করে কেটে নিন এবং ধীরে ধীরে আক্রান্ত এলাকার উপরে ঘষে দিন।অপর বিকল্পটি হল কয়েক ফোঁটা তাজা লেবুর রসকে নিয়ে ত্বকের উপর প্রয়োগ করুন।

3. অ্যাপেল সীডার ভিনিগার

বাথ টাবে জলের সাথে দুই অথবা তিন কাপ অ্যাপেল সীডার ভিনিগার যোগ করে সেটির দ্বারা একটি উষ্ণ স্নান,আপনার শিশুর দেহে একাধিক মশার কামড়ের বিরুদ্ধে একটি বিস্ময়কর ভাবে কাজ করে।শুধু একবার চেষ্টা করুন আর নিজেই দেখে নিন।

4. অ্যালোভেরা

অ্যালভেরা বা ঘৃতকুমারী চুলকানি,ফুলে যাওয়া,যন্ত্রণার চিকিৎসার জন্য পরিচিত এবং এর প্রাকৃতিক অ্যান্টিসেপ্টিক গুণাবলী রয়েছে যা এটিকে একটি ভাল ঘরোয় প্রতিকার করে তুলেছে শিশুদের মশার কামড়ের চিকিৎসার জন্য।এটি যে উপায়ে আপনি প্রয়োগ করবেন তা হল,এটিকে ফ্রীজের মধ্যে 10-15 মিনিটের জন্য রেখে তারপর সেটিকে আক্রান্ত এলাকার উপর ধীরে ধীরে ঘষে দিন।

5. টুথপেস্ট

টুথপেস্টের বিভিন্ন ধরণের মধ্যে যেগুলি ফ্লুওরাইড মুক্ত সেগুলি শিশুদের ক্ষেত্রে মশা বিতাড়ণের জন্য একটি পথপ্রদর্শক এবং সোডিয়াম লরিল সালফেট শিশুদের মশা কামড়ের চিকিৎসায় ব্যবহার করা যেতে পারে।সংক্ষিপ্ত সময়ের মধ্যে চুলকানি এবং যন্ত্রণাদায়ক ফোলা দূর করার জন্য শুধু আক্রান্ত এলাকার উপর এটির প্রলেপন সরাসরি করুন।

6. টি ব্যাগ

যদি অপ্রচলিত পথে আপনার আপত্তি না থাকে,তবে টি ব্যাগগুলি মশার কামড়ে সৃষ্ট হওয়া উদ্বেগের দিনটিকে বাঁচাতে আসবে।চা ব্যাগগুলিতে ট্যানিন থাকে যা অ্যাস্ট্রিজেন্ট এজেন্ট হিসাবে পরিচিত-আক্রান্ত স্থানগুলি থেকে তরল নিষ্কাশনের দ্বারা মশার কামড়ের চিকিৎসার জন্য একদম উপযুক্ত।

7. বরফের টুকরো

বরফের টুকরগুলি মশা কামড়ের অঞ্চলের ফোলা হ্রাস করে এবং যন্ত্রণা নিবারণ করে।শিশুদের মশার কামড়ের বিরুদ্ধে যন্ত্রণায় স্বস্তি সরবরাহের জন্য এটি হল একটি অন্যতম সেরা ঘরোয়া প্রতিকার।শুধু খান দুয়েক বরফের টুকরো নিন এবং সেগুলিকে একটি পরিষ্কার কাপড়ে মুড়িয়ে নিন।এরপর সেটিকে আক্রান্ত এলাকার উপর প্রতিস্থাপিত করুন এবং একটি কার্যকর চিকিৎসার জন্য মোটামুটি প্রায় 15 মিনিটের জন্য ধীরে ধীরে আলতো চাপ দিন।

8. মধু

আপনি কি জানেন যে মধুর নিজস্ব একটি আশ্চর্যজনক জীবন আছে?সময় এসেছে মধুর সেই গুপ্ত রহস্য উন্মোচনের এবং একটি তাৎক্ষণিক প্রাকৃতিক প্রতিকারের জন্য আপনার সন্তানের আক্রান্ত অঞ্চলের উপর এর একটি পাতলা আস্তরণ প্রয়োগের।প্রদাহ দূরীকরণের এবং মশার কামড়ে আক্রান্ত এলাকাকে প্রশমিত করার জন্য মধু পরিচিত।

9. রসুন

প্রদাহ এবং ফুলে যাওয়ার চিকিৎসার জন্য বহু বছর ধরে ব্যবহার হয়ে আসা একটি সুপ্রাচীন প্রতিকার হল রসুন।এটি আবার মশার কামড়ের চিকিৎসার জন্যও ব্যবহার করা হয়ে থাকে এবং আপনি এটিকে ব্যবহার করতে পারেন মশার কামড়ানো জায়গাটির উপর সেটিকে ঘষে দেওয়ার মাধ্যমে।বেশ কয়েক মিনিট অপেক্ষা করার পর আপনার শিশুর ত্বকটিকে জল দিয়ে ধুয়ে দিন।

10. সামুদ্রিক লবণ

সামুদ্রিক লবণে রয়েছে উচ্চ মাত্রায় প্রদাহ বিরোধী এবং অ্যান্টিসেপ্টিক বৈশিষ্ট্যাবলী,যা তাকে গড়ে তুলেছে শিশুদের জন্য একটি সহজ এবং আশ্চর্যজনক মশার কামড়ের প্রতিকার রূপে।শুধু রান্নাঘর থেকে এক খাবলা তুলে নিন এবং তারপর সেটিকে জলের সাথে মিশিয়ে নিন এবং জ্বলন ও ফোলা হ্রাস করতে মশা কামড়ের জায়গাটির উপর এই জলটি দিয়ে ধুয়ে দিন।

ব্যাস এটাই! শিশুদের মশা কামড়ের চিকিৎসার জন্য এগুলি হল কয়েকটি সাধারণ কিন্তু কার্যকর নিরাময়।শুধু এগুলির দ্বারা একবার চেষ্টা করুন এবং আপনি অনতিবিলম্বেই তার পার্থক্যটা লক্ষ্য করতে পারবেন।