শিশুর জন্য গাজরের মন্ড বা পিউরির রেসিপি- কিভাবে বানাবেন

শিশুর জন্য গাজরের মন্ড বা পিউরির রেসিপি- কিভাবে বানাবেন

অনেক মানুষ আছেন যারা তাদের শিশুদের শক্ত খাবার দেওয়া শুরু করার সময় ভাত দিয়ে শুরু করতে চান, তবে গাজর এই ক্ষেত্রে একই ধরনের কাজ করে। এতে প্রচুর পরিমানে পুষ্টিকর পদার্থ আছে,আর আছে একটা সুন্দর প্রাকৃতিক স্বাদ এবং এটিতে বাচ্চার এলার্জি হওয়ার সম্ভবনা খুবই কম। সব থেকে বড় কথা হল গাজরের পিউরি বানানো খুব সহজ এবং এটা তাড়াতাড়ি বানানো সম্ভব।

aniview

কিভাবে গাজর বাছবেন এবং কিনবেন ?

কিভাবে গাজর বাছবেন এবং কিনবেন ?

যখন আপনি আপনার বাচ্চার জন্য গাজর কিনবেন তখন দেখে নেবেন যেন সেগুলো শক্ত এবং পরিষ্কার থাকে।গাজর গুলোর রঙ যেন একই থাকে এবং সেটি যেন উজ্জ্বল কমলা বর্ণের হয়গাজরে যদি কান্ড দেখা যায় বা ছিদ্র থাকে তাহলে নেবেন না কারণ ওই ছিদ্র দিয়ে কীট পতঙ্গ প্রবেশ করে সংক্রমন করতে পারে।

কি কি উপাদান লাগবে গাজরের মন্ড বা পিউরি তৈরী করতে

  • একটা মাঝারি আকৃতির গাজর
  • বুকের দুধ বা কৌটোর দুধ
  • জল

কিভাবে শিশুর জন্য গাজরের মন্ড বা পিউরি বানাবেন ?

কিভাবে শিশুর জন্য গাজরের মন্ড বা পিউরি বানাবেন ?

গাজরের মন্ড বা পিউরি বানানো অত্যন্ত সহজ এবং এটি মাত্র কয়েকটি ধাপে সম্পন্ন হয়ে যায়

1.গাজর ক্রয় একটা শক্ত এবং উজ্জ্বল রঙ দেখে গাজর নিন। মাঝারি আকারের একটা গাজর আপনার বাচ্চার জন্য যথেষ্ট।

2. গাজরের প্রস্তুতি গাজরের গায়ে লেগে থাকা মাটি এবং নোংরা ঠান্ডা জলে ভাল করে ধুয়ে ফেলুন। খোসা ছাড়িয়ে নিন এবং সবুজ পাতাযেগুলো ওপরের দিকে লেগে থাকে সেগুলোকে কেটে বাদ দিন।তারপর খোসা ছাড়ানো গাজর টাকে ছোটো ছোটো টুকরো করে কাটতে হবে।

3. গাজরটাকে রান্না করা একটা প্যান নিন এবং তাতে জল দিন। এটাকে ফুটতে দিন তারপর আঁচ কমিয়ে দিন। এরপর গাজরের টুকরো গুলো তাতে দিন 15 মিনিট ধরে আঁচে রান্না হতে দিন যতক্ষণ না এটা নরম ও কোমল হয়। গাজরের টুকরো গুলোকে বের করে নিন এবং ঠান্ডা জল দিন এর ফলে গাজর অতিরিক্ত সেদ্ধ হবে না।

4. গাজরটা পিঁষে নিন গাজরের মন্ড বা পিউরি বানাতে হলে সবথেকে ভাল উপায় ব্লেন্ডার ব্যবহার করা। সমস্ত গাজরের টুকরো গুলো ব্লেন্ডারে নিয়ে ভাল করে ব্লেন্ড করুন। আপনার বাচ্চার খাবার মত গাঢ়ত্বে আনার জন্য এটাতে যতটা প্রয়োজন ততটা জল মেশান।খেয়াল রাখবেন যেন কোনো গাজরের টুকরো থেকে না যায়। আপনার সন্তানটি যতক্ষণ না 10 মাসের হচ্ছে ততক্ষন সে কোনো খাবার চিবোতে পারে না এবং সে শক্ত খাবার ঠিকভাবে হজমও করতে পারে না।

5. মন্ড বা পিউরির গন্ধ বৃদ্ধি যদিও পিউরি বা মন্ডটির নিজস্ব স্বাদ আছে। তবু আপনি এর সাথে বিভিন্ন সবজি যেমন ব্রকোলি, মিষ্টি আলু আরো অন্যান্য সবজি মিশিয়ে এটার স্বাদ বাড়াতে পারেন

6. পিউরি বা মন্ডটির মজুতকরণ যে কোন ধরনের মন্ড বা পিউরিকে পরবর্তী সময়ে ব্যবহার করার জন্য রেফ্রিজারেটারে রাখতে হয়। এই ধরনের মন্ড বা পিউরি গুলোকে একসাথে 3 দিন পর্যন্ত ফ্রিজে রাখতে পারেন।

মনে রাখার বিষয়গুলি

  • যদি আপনার বাচ্চার আগে থেকে নানা খাবারে এলার্জির ধাত থাকে তাহলে তাকে অতি অল্প পরিমাণে মন্ড বা পিউরি দিয়ে দেখতে পারেন অথবা আপনার ডাক্তারবাবুর পরামর্শ নিতে পারেন।
  • অনেক ডাক্তারবাবু আপনাকে বাড়িতে গাজরের মন্ড বা পিউরি বানাতে নিষেধ করতে পারেন যেহেতু বাজারের গাজরে নাইট্রোজেনের পরিমান খুব বেশী থাকে যা আপনার বাচ্চার ক্ষতি করতে পারে।

গাজরের মন্ড বা পিউরি হল খুব ভাল উপায় যা দিয়ে আপনি আপনার শিশুর শক্ত খাবার খাওয়ার প্রক্রিয়া শুরু করতে পারেন। গাজরের মন্ড বা পিউরি আপনি সহজেই বানাতে পারেন আপনার 6 মাস বয়সী সোনামণির জন্য এবং কোন সমস্যা ছাড়াই এটা খাওয়ানো যায়। সব সময় আপনি দুইবার করে নিরীক্ষণ করুন, আপনার ডাক্তারের সাথে বারবার পরামর্শ করুন কোন রকম জটিলতার লক্ষণ দেখতে পেলেইকারণ আপনি সব সময় এই বিষয়ে নিরাপদ অঞ্চলে থাকতে চাইবেন।