আপনার ২৭ সপ্তাহ বয়সী শিশু – উন্নয়ন, মাইলস্টোন এবং যত্ন

আপনার ২৭ সপ্তাহ বয়সী শিশু - উন্নয়ন, মাইলস্টোন এবং যত্ন

আপনার শিশু এখন ২৭ সপ্তাহের এবং দ্রুত বর্ধনশীল। ক্ষুধার্ত হয়ে রাতে ঘুম থেকে জগ ওঠা ও কাঁদতে থাকা এবং তার খাওয়া ও চাহিদাগুলি কেবল উচ্চতর হয়। আপনি যদি আপনার শিশুর তার ২৭ সপ্তাহে কি করা উচিত তা নিয়ে চিন্তিত থাকেন তবে পড়া চালিয়ে যান, এখানে আপনার যা জানা দরকার তা রয়েছে:

aniview

একটি ২৭ সপ্তাহ বয়সী শিশুর উন্নয়ন

এই পর্যায়টি আপনার শিশুর জন্য বেশ ব্যস্ততার সময়; তারা, শারীরিকভাবে, সামাজিকভাবে, আবেগগতভাবে এবং জ্ঞানীয়ভাবে উন্নয়নশীল। আপনি লক্ষ্য করবেন যে তারা ক্রমবর্ধমানভাবে সচেতন হয়ে উঠছে যে তারা কী চায় এবং এমনকি যখন কোন কিছু তাদের ইচ্ছা অনুযায়ী হয় না তখন তাদের শোকের মধ্যে একটু রাগও দেখায়। আপনি দেখতে পাবেন যে তাদের শরীরের গতিশীলতার দক্ষতা উপর তারা সারা দিন-রাত কাজ করে চলেছে।

একটি ২৭ সপ্তাহ বয়সী শিশুর মাইলস্টোন

বিভিন্ন বাচ্চারা বিভিন্ন হারে বেড়ে ওঠে ও একই সময়ে তাদের উন্নয়নের মাইলফলকগুলিতে পৌঁছে যায় না এবং আপনি যখন প্রত্যাশা কম করেন, তখন প্রায়ই সেগুলি প্রদর্শিত হয়। ২৭ সপ্তাহে কিছু বাচ্চারা শুধু বসতে পারে, কেউ হয়তো হামাগুড়ি দিতে পারে আবার কেউ কেউ সমর্থন নিয়ে উঠে দাঁড়াতে পারে। যেহেতু মাইলফলকগুলিতে পৌঁছানোর একটি বিস্তৃত সময়ের ফ্রেম থাকে, তাই আপনার বাচ্চার দেরী হয়ে গেলে চিন্তিত হওয়ার চেষ্টা করবেন না। যাইহোক, যদি আপনি কোন সমস্যা লক্ষ্য করেন তবে শিশু বিশেষজ্ঞের পরামর্শ নিন। এখানে আপনি যা আশা করতে পারেন তার উপর কিছু সাধারণ নির্দেশক রয়েছে:

  • আপনি আপনার শিশুকে তার পেটে ভর দিয়ে শুতে, ঘূর্ণায়মান হতে বা উঠতে চেষ্টা করার বিষয়ে বেশ খুশি দেখতে পাবেন। এটি তাদের সোজা হয়ে বসতে সাহায্য করার জন্য একটি ভাল সময়। খেলার সময় সমর্থন দিয়ে একটি বসার অবস্থান তাকে রাখুন, এটি তাদের গুরুত্বপূর্ণ মোটর দক্ষতার বিকাশ করবে।
  • কিছু বাচ্চার এই সময় দাঁত বেরনো শুরু হতে পারে, এবং আপনি ঠান্ডা খাবার ও টিথার খেলনা দ্বারা তাদের দাঁতের অস্বস্তি সহজ করতে সাহায্য করতে পারেন। তাদের মেজাজ এবং আচরণগুলিতে মনোযোগ দিন এবং যদি আপনি দেখেন যে তাদের মাড়ি লাল হয়েছে বা ফুলে আছে, ঠান্ডা টিথিং রিং দিয়ে ব্যথা সহজ করুন।
  • এখন তারা আপনার মুখের অভিব্যক্তি এবং সম্পর্কিত আবেগ বুঝতে শুরু করে। তারা যখন কিছু করে তখন কি করলে আপনি প্রশংসা করবেন এবং কখন আপনি বিরক্ত হবেন, তা তারা বলতে পারে। তারা বিস্ময়, আনন্দ, ভয় এবং দুঃখযুক্ত মুখ এবং তাদের সাথে যুক্ত কণ্ঠস্বরের মধ্যে পার্থক্য করতে পারে।

শিশুর খাওয়া

আপনি এখন দ্বিধা ছাড়াই আপনার শিশুকে কঠিন খাবারের সাথে পরিচয় করিয়ে দিতে পারেন। অতীতে বিশ্বাস ছিল যে সাধারণ অ্যালার্জি সৃষ্টিকারী খাবারগুলি দেওয়াতে বিলম্ব করলে তা অ্যালার্জির ঝুঁকি কমিয়ে দেয়। নতুন গবেষণায় এটি ঠিক বিপরীত কথা উঠে এসেছে। যত তাড়াতাড়ি তারা বিভিন্ন ধরনের খাবার খাওয়া শুরু করে ততই বিভিন্ন রকমের খাবার পরিবেশন করা তাদের অনাক্রম্যতার বৃদ্ধির একটি ভাল উপায়। ডিম, বাদাম, গম, সোয়া, দুগ্ধজাত পণ্য, সীফুড ইত্যাদির মতো সাধারণ অ্যালার্জিকর খাবার অল্প পরিমাণে কঠিন খাবার হিসাবে আস্তে আস্তে শুরু করা উচিত। পিনাট মাখনের মাধ্যমে নিরাপদে বাদামের সাথে তাদের পরিচয় দেওয়া যেতে পারে, তবে, মধু, ফাস্ট ফুড, মিষ্টি খাবার এবং জাঙ্ক ফুড এড়িয়ে চলুন।

আপনার বাচ্চাকে বিভিন্ন ধরনের মশলা, সবজি এবং খাবার যা সাধারণত আপনার পরিবারে ব্যবহৃত হয় তা দিন এবং তাদের জন্য আলাদা খাবার তৈরি করার পরিবর্তে, শিশুর প্রয়োজনীয়তা অনুসারে আপনারা নিজেদের কিভাবে মানানসই করতে পারেন তা দেখুন।

ঘুমানো

একটি ২৭ সপ্তাহ বয়সী শিশুর ঘুম প্রায় ১৪-১৫ ঘন্টা হতে হবে। শিশুরা ঘুমানোর সময় ছটফট করতে পারে যদি তারা আবেগগতভাবে পরিপূর্ণ হয় বা ক্লান্ত হয় এবং পুরো দিনের খেলার সময় থেকে কষ্ট পায়। সারা দিন ধরে তাদের সংজ্ঞাবহ ইনপুটগুলি অত্যধিক হতাশাব্যঞ্জক হতে পারে, এবং দিনের শেষ দিকে তারা ঘ্যানঘ্যান করতে পারে, তা থেকে স্বস্তি পাওয়ার জন্য আশ্বাস এবং আরামের দরকার হবে। সারা দিন ধরে তাদেরর উপর নজর রেখে, আপনি দ্রুত শিখতে পারেন কখন তাদের খুব বেশি কার্যকলাপ থাকে এবং তাদের শিথিল করার জন্য কোন পদক্ষেপ নিতে হবে। গবেষণায় এটি দেখা যায় যে কোনও নতুন কার্যের পরে ৩০ মিনিটের ঘুমের বিশ্রাম তাদের মনে রাখতেএবং পরবর্তী সময় এটি প্রয়োগ করতে সাহায্য করে।

একটি ২৭ সপ্তাহ বয়সী শিশুর যত্নের টিপস

  • এখন নিশ্চিতভাবে আপনার বাড়িকে শিশুর জন্য সুরক্ষিত করার একটি ভাল সময়। যেহেতু তারা হামাগুড়ি দিতে শিখবে তাই তাদের নাগালের মধ্যে আসতে পারে এমন সব আসবাবপত্রের ও তাকে থাকা জিনিসগুলইর দিকে ভাল করে নজর দিন। এই সময়ে তাকগুলিকে দেয়ালে শক্ত করে স্থাপন করা এবং সিঁড়ি ও অন্যান্য সতর্কতাপূর্ণ এলাকাগুলি যেমন ব্যালকনি, রান্নাঘর এবং বাথরুম, সেগুলি আটকানোর জন্য গেট কিনে আনুন। খোলা বৈদ্যুতিক সকেটগুলি ঢকে দেওয়া গুরুত্বপূর্ণ।
  • তারা পায়ে ওজন ধরে রাখতে পারে যখন আপনি তাদের সোজা রাখেন। তাদের এটা করার অনুমতি দিন; তাদের পায়ে ওজন রাখা পেশীকে শক্তি পেতে এবং স্থূল মোটর নিয়ন্ত্রণ বিকাশ করতে উদ্দীপিত করে। পুরাতন স্ত্রী-গল্পের কথা শুনবেন না, যেমন তাদের পা বেঁধে রাখা। যদি তারা এটি উপভোগ করে, তবে তাদের ওজন সহ্য করতে দিন। অন্যদিকে, যদি তারা অসন্তুষ্টির লক্ষণ দেখায় তবে তা করতে বাধ্য করবেন না।
  • প্রায়ই তাদের কোল তুলে নিন এবং সান্ত্বনা দিন। বিশেষজ্ঞরা সম্মত হন যে একটি শিশুকে তাদের প্রথম বছরের মধ্যে খুব বেশি ভালবাসা তাদের ক্ষতি করে না। যদি আপনি চিন্তিত হন যে আপনার বাচ্চাকে তারা ঘ্যানঘ্যান করা শুরু করলেই তাদের কোলে তুলে নেওয়া তাদের বিগড়ে দিতে পারে তবে তারা কেন কাঁদছে তা প্রথমে খুঁজে বের করার চেষ্টা করুন।
  • আপনার শিশু এখন তাদের প্রথম সান্ত্বনার বস্তু বা “ভালবাসার যোগ্য” টেডি বিয়ার, একটি নরম কম্বল বা কোনও খেলনা যা তারা উপভোগ করে তা বেছে নিতে পারে এবং আগামী কয়েক বছর ধরে তার সাথে চিপকে থাকবে। এইগুলিকে বিশেষজ্ঞরা “ট্রান্সফিশনাল অবজেক্টস” বলেন, কারণ এটি শিশুকে নির্ভরতা ও স্বশাসনের মধ্যে পার্থক্য বজায় রাখতে সহায়তা করে। যখন আপনি কাছাকাছি না থাকেন তখন সেগুলি তাদের সান্ত্বনা এবং আশ্বাস দেয়। তাই তারা যাই বাছাই করুক না কেন, বেশ কিছু কিনে রাখার চেষ্টা করুন।
  • এটি বিচ্ছেদের উদ্বেগের উপর কাজ করার জন্য একটি ভাল সময়; এটা শিশুর এবং বাবা-মায়ের উভয়ের জন্য কঠিন হতে পারে। চেষ্টা করুন এবং প্রতিদিন তাদের কাছ থেকে দূরে কিছু সময় ব্যয় করুন যখন তারা অন্য পরিবারের সদস্য বা তত্ত্বাবধায়কের কাছে যত্ন পাচ্ছে। একটি অনুষ্ঠানের সঙ্গে শুরু করুন: আপনার শিশুকে আলিঙ্গন করুন ও চুম্বন করুন এবং তাদের যত্নকারীর হাতে দিন এবং চলে যান। এমনকি যদি তারা কাঁদে, আপনার প্রস্থান বাতিল করবেন না। আপনি দরজা দিয়ে বেরিয়ে যাওয়ার দুই মিনিট পর তারা স্বাভাবিক হয়ে উঠবে।

পরীক্ষা এবং টিকা

শারীরিক পরীক্ষাগুলিতে অন্তর্ভুক্ত:

  • বৃদ্ধির চার্টে এটি মাপজোক করার জন্য বাচ্চাকে ওজন করুন এবং পরিমাপ করুন। এটি তাদের বৃদ্ধির হারের একটি ধারণা দেয়।
  • হার্ট এবং ফুসফুসের অস্বাভাবিক ছন্দ বা শ্বাসের সমস্যার জন্য পরীক্ষা করা হয়
  • চোখের জন্মগত অবস্থা এবং ব্লক ডাক্টস-এর জন্য পরীক্ষা করা হয়।
  • কানের সংক্রমণের লক্ষণ এবং আপনার শিশুর শোনায় সাড়া কিভাবে দেয় তা পরীক্ষা করা হয়।
  • মুখের পরীক্ষা ছত্রাক সংক্রমণ এবং নতুন দাঁত ও ক্ষত হওয়ার লক্ষনের জন্য করা হয়।
  • মাথার নরম স্থান (fontanels) এবং তার আকৃতির জন্য পরীক্ষা করা হয়।
  • শরীরের প্রতিফলন, পেশীর টোন এবং ত্বকের জন্য ত্বকের পরীক্ষা করা হয়। তাদের পেশী নিয়ন্ত্রণের জন্য বসা, জিনিস ধরা এবং অন্যান্য মিথষ্ক্রিয়ার মূল্যায়ন করা হয়। বাচ্চাদের হাত ও পায়ের জয়েন্টগুলোতে সমস্যার সন্ধানে সেগুলি চারপাশে সরানো হয়।

আপনার শিশুর টিকাগুলিতে ডিটিএপি, পোলিও, হেপাটাইটিস বি, নিউমোকোকাল এবং হিবস অন্তর্ভুক্ত রয়েছে যা দুটি বা তিনটি শট মিলিয়ে দেওয়া হয়। তারা মৌখিকভাবে দেওয়া একটি রোটাভাইরাস ভ্যাকসিন পাবে।

খেলা এবং ক্রিয়াকলাপ

এখানে দুটি মজার খেলা রয়েছে যা আপনি আপনার শিশুর সাথে চেষ্টা করতে পারেনঃ

) লুকানো এবং খাওয়া

এই খেলাটি তাদের সূক্ষ্ম মোটর দক্ষতা বিকাশ করে এবং বস্তুর স্থায়িত্বের ধারণা তৈরি করতে সহায়তা করে। এই কার্যকলাপের জন্য আপনার একটি পরিষ্কার তোয়ালে, কিছু আঙুল দিয়ে ধরে খাওয়ার খাবার এবং কিছু ওপাক কাপ প্রয়োজন হবে। খেলাটি আপনার শিশুকে স্ন্যাকটি দেখিয়ে শুরু করুন এবং এটি তোয়ালে দিয়ে ঢেকে দিন। স্ন্যাকটি যে সেখানেই আছে খুঁজে পাওয়ার জন্য বাচ্চাটিকে তোয়ালেটি উঁচুতে তোলার অনুমতি দিন, যদিও তারা এটি এক মুহূর্ত আগে দেখতে পায়নি।

আপনি সামান্য একটু ম্যাজিশিয়ান স্পর্শ যোগ করে খেলাটি চেষ্টা করতে পারেন। একটি ওপাক কাপ দিয়ে স্ন্যাকটি ঢেকে রাখুন এবং তার পাশে দুটি অন্য কাপ রাখুন। কাপগুলি উলটোপালটা করে দিন এবং তাদের কাপগুলি তুলে স্ন্যাকটি খুঁজে পেতে দিন।

) বড় পতন

শিশুদের একটি বিস্ময়কর শেষযুক্ত খেলা ভালোবাসে, বিশেষত একটি আন্দোলন জড়িত খেলাগুলি। এই খেলা স্থূল মোটর দক্ষতা বিকাশ এবং কারণ ও প্রভাবের একটি ধারনা তৈরি করে। ঘরে বা বাড়ির বাইরে একটি নরম র‍্যাগে বা আপনার লনের উপর, আপনি হাঁটু তুলে চিত হয়ে শুয়ে পড়ুন। আপনার হাঁটুতে ঠেস সিয়ে আপনার দিকে মুখ করে আপনার শিশু আপনার পেটে বসান। হ্যাম্প্টি ডাম্পটির মতো একটি নার্সারি ছড়া বলুন ও আপনার হাত দিয়ে তাদের ধরে একপাশ থেকে অন্যপাশে দোলান। প্রতিটি সময় যখন ছড়ায় “পতন” শব্দটি আশে, একদিকে হেলিয়ে দিন ও ফিরিয়ে নিয়ে আসুন। প্রয়োজন হলে নিরাপত্তার জন্য পাশে কিছু কুশন ব্যবহার করুন।

কখন একজন ডাক্তারের পরামর্শ নিতে হবে

আপনি নিম্নলিখিতগুলইর যে কোনটি লক্ষ্য করুন:

  • আপনার শিশুর শব্দ দিকে ঘুরে তাকিয়ে শব্দ উদ্দীপকে সাড়া দেয় না।
  • তাদের চোখ আপনাকে বা চলন্ত বস্তুকে অনুসরণ করে না এবং কখনও কখনও আর-চোখে তাকায় না।
  • আপনি দেখত পান যে সে যেভাবে হামাগুড়ি দেয় তা সঠিক না, এক হাত বা পায়ের উপর বেশি পক্ষপাতী হয়ে বা কোন দিকে কাত হয়ে হামাগুড়ি দেয়।
  • তারা নতুন খাবারের অ্যালার্জি প্রতিক্রিয়া প্রদর্শন করে যা আপনি তাদের খাওয়ানোর চেষ্টা করছেন।
  • তাদের মল শুষ্ক এবং দানা দানা হয়।

প্রতিটি শিশুর নিজস্ব গতিতে বিকাশ ঘটে এবং অবশেষে মাইলস্টোনে পৌঁছায়। আপনারটি এখনও সেখানে না পৌঁছালে, সে ক্ষেত্রে ধৈর্য ধরে অপেক্ষা করুন। ইতিমধ্যে, অভিভাবকত্বের যাত্রা উপভোগ করুন।