আপনার ২৮ সপ্তাহ বয়সী শিশু – উন্নয়ন, মাইলস্টোন এবং যত্ন

২৮ সপ্তাহ বয়সী শিশু - উন্নয়ন, মাইলস্টোন এবং যত্ন

আপনার শিশুর এখন শক্তির একটি বান্ডিল যা সর্বদা চলন্ত। এই বয়সে, আপনার সন্তানের মস্তিষ্কের উন্নতি একটি উল্লেখযোগ্য পদ্ধতিতে ঘটেছে। আপনার সন্তানের দ্বারা পাস করা উচিত এমন উন্নয়নমূলক মাইলফলকগুলিতে অনুসরণ করা একটি দুর্দান্ত ধারণা হবে তবে এইগুলি ঘটে না থাকলে চিন্তিত হবেন না। মাইলস্টোনগুলি কোন নিয়ম নয় তবে শিশুর উন্নতির একটি ভাল ধারণা দেওয়ার জন্য কেবল একটি নির্দেশিকা।

aniview

একটি ২৮ সপ্তাহ বয়সী শিশুর উন্নয়ন

শিশুটির পেশীগুলি ব্যাপকভাবে শক্তিশালী হয়

২৮ সপ্তাহ বয়সী বাচ্চার ওজন তার জন্মের সময়ের চেয়ে অনেক বেশি হয়, কারণ শিশুটির পেশীগুলি ব্যাপকভাবে শক্তিশালী হয়। আপনার সন্তান ইতিমধ্যেই হামাগুড়ি দিতে শিখবে, তাই মেঝেতে এমন জিনিসগুলি রাখবেন না যা গলায় আটকে বিপত্তি ঘটাতে পারে, তা নিশ্চিত করুন। এছাড়াও প্রায়ই গড়াগড়ি দেওয়া সাধারণ, এবং আপনার সন্তান প্রায় সব জায়গায় গড়াগড়ি দেওয়া চয়ন করতে পারে।

আন্দোলনের এই নির্বাচিত পদ্ধতিটি শিশুদের মধ্যে ব্যাপকভাবে পরিবর্তিত হয়, তাই এটিতে খুব বেশি মনোযোগ দেওয়া উচিত নয়। কিছু শিশু এখনও হামাগুড়ি দেওয়ার জন্য সংগ্রাম করতে পারে, কিন্তু কয়েকজন ইতিমধ্যেই উঠে দাঁড়াতে শুরু করতে পারে। মস্তিষ্কের বিকাশের ক্ষেত্রেও শিশু ভাল উন্নতি করছে। মস্তিষ্ক পেশীর অনুশীলন, এবং দাঁড়ানো ও হাঁটা শেখার দিকে ক্ষমতা বৃদ্ধি করে।

এই সময় পর্যন্ত, আপনার সন্তান আগের তুলনায় আরো ক্ষুধার্ত হবে। ক্ষুধা বৃদ্ধি সাধারণ, কারণ তার দ্রুত আন্দোলন ও মস্তিষ্কের বিকাশকে শক্তিশালী করার জন্য সন্তানের আগের চেয়ে বেশি শক্তি ক্ষয় করে। নতুন দক্ষতা শিখতে এই সময়ে প্রচুর পরিমাণে শক্তি দরকার, এবং শিশুর শরীরের জন্য খুব কম বিশ্রামের সময় থাকবে। যে কোন উপায়ে, এই সময়ে সবদিক থেকে দ্রুত উন্নয়ন জড়িত থাকে।

একটি ২৮ সপ্তাহ বয়সী শিশুর মাইলস্টোন

এই সময়ে শিশুটি কিছু মাইলফলক পাস করতে বাধ্য হলেও শিশুরা ই ক্রমবর্ধমান পর্যায়ে ধীর গতিতে চললেও তা ঠিকই আছে। এই মাইলফলকগুলি কোন নিয়ম নয়, বরং নির্দেশিকা, যা শিশু কীভাবে বৃদ্ধি পাচ্ছে, তা সম্পর্কে বাবা-মায়েদের একটি ধারণা পেতে সহায়তা করে।

  • হামাগুড়ি দেওয়া এখন আদর্শ হবে, আপনার সন্তানের যেখানে যেতে ইচ্ছা করবে সেখানেই দ্রুত গতিতে চলে যাবে। যদি সে ইতিমধ্যে আসবাবপত্র এবং অন্যান্য কিছুর সাহায্যে নিজেকে টেনে আনছে, আপনার সন্তান ইতিমধ্যে বাঁকাভাবে এগিয়ে যাবে।
  • ক্রুজিং-ও এমন জিনিস যা আপনার বাচ্চা করবে, এবং এটি কিছুর সাহায্যে উঠে দাঁড়াতে সমর্থ হয়ে, তার পা এবং গোড়ালির পেশীগুলিকে শক্তিশালী করতে সহায়তা করে, যা দাঁড়িয়ে থাকতে সাহায্য করে।
  • আপনার বাচ্চার জন্য এই পদ্ধতিতে অনেক ঘোরাফেরা করা খুবই সাধারণ, বিশেষত যদি আপনার কাছে কিছু আসবাবপত্র রয়েছে যা ঘনিষ্ঠভাবে সাজানো থাকে।

শিশুর খাওয়া

এই বয়সে, সম্ভবত আপনি বুকের দুধ ব্যতীত আপনার সন্তানের জন্য কঠিন খাদ্য সরবরাহ করেছেন। যাইহোক, কিছু শিশু এখনও কঠিন খাদ্য খাওয়ার দিকে ঝোঁক না দেখাতেও পারে। এটা মনে রাখা গুরুত্বপূর্ণ যে শিশুটির খাদ্যের মধ্যে কঠিন খাদ্যের নিয়মিত অন্তর্ভুক্তি সম্ভবত একটি একিটি করে ঘটতে পারে, সুতরাং আপনি কোনওভাবে শিশুকে কঠিন খাবার খেতে বাধ্য করবেন না। পারিবারিক নৈশভোজের সময় তাকে অন্তর্ভুক্ত করে তাকে কঠিন খাদ্য সরবরাহ করে আপনি তাকে উৎসাহিত করতে পারেন, তবে খাবারের শেষে তার কাছে যা অবশিষ্ট ঠাকে তা সরিয়ে ফেলতে মনে রাখবেন। আপনি কঠিন খাবারের দিকে যাওয়ার জন্য তাকে জোর করার চেষ্টা করলে, এটি নেতিবাচক প্রভাব তৈরি করতে পারে এবং এর ফলে শিশুটি কঠিন খাবার একদমই গ্রহণ করবে না। বারো মাস বয়সের মধ্যে শিশুটি সম্ভবত কঠিন খাদ্যের সম্মুখের দিকে যেতে পারে যা তার পরিবার খায়। এই সময়ে তার মুখের মধ্যে কয়েকটি দুধের দাঁত উঁকি দিতে পারে।

এই বয়সে শিশুদের জিহ্বা সমস্যা একটি সাধারণ ঘটনা। এর অর্থ এই যে, শিশুর জিহ্বা প্রয়োজন হিসাবে নাড়াচাড়া করতে অক্ষম হয়, যা তাকে মুখের সামনের অংশ থেকে মাঝখানে এবং পিছনে খাবারকে ঠেলে দিতে অক্ষম করে তোলে। চিবানোও একটি সমস্যা হয়ে দাঁড়ায়, দাঁতের মাধ্যমে সঠিকভাবে চিবানোর জন্য শিশুটি খাবার এপাশ-ওপাশে সরাতে পারে না। এই সমস্যাটির কিছু লক্ষণগুলি হ’ল গলায় আটকে যাওয়া, কাশি বা বমি করা, যখন শিশুকে কঠিন খাদ্য দেওয়া হয়। যদি আপনি সন্দেহ করেন যে এটাই ঘটনা, তবে শিশুর দাঁতের ডাক্তারের কাছে পরিদর্শন করা ভাল। তিনি তার জিহ্বা কার্যকরী কিনা পরীক্ষা করে এবং বুকের দুধ খাওয়ানোর সময় থেকেই এটি একটি সমস্যা হিসাবে আছে কিনা তা যাচাই করবেন।

ঘুমানো

২৮ সপ্তাহের শিশুর জন্য, ঘুমের ব্যাঘাত ঘটবে। আপনি বাচ্চাকে রাতে হঠাৎ করে জেগে উঠতে দেখবেন এবং আপনার মনোযোগের জন্য কাঁদতে দেখবেন। এটি পেশীর অনুশীলনের ফলে ঘটে, কারণ শিশুটির পেশী ঘুমের সময় শক্তিশালী হয়।

শিশুর সাথে একসাথে ঘুমানো বাবামায়েরা খুব পছন্দ করেন, যাতে তারা শিশুটির চাহিদাগুলি আরও ভালভাবে পূরণ করতে পারেন। একসাথে ঘুমানো মানে বাচ্চা তার বাবা-মায়ের সঙ্গে একই ঘরে থাকে। আপনার বাচ্চার সাথে নিরাপদ বেড-শেয়ারিংয়ের যে যে নির্দেশিকাগুলি পূরণ করা উচিত তা নিশ্চিত করতে হবে যাতে বাবা-মা এবং শিশুর কোন অসুবিধা না হয়। এই সময়ে, আপনার শিশুর বুকের দুধ খাওয়ানোর সময় নিজে নিজ স্তনবৃন্ত মুখে নিতে এবং আলাদা করতে সক্ষম হবে। অতএব, বাচ্চাদের বুকের দুধ খাওয়ানোর সময় মায়েরা ঘুমিয়ে নিতে পারবেন, ঘুমিয়েও এটা সহজ হবে।

একটি ২৮ সপ্তাহ বয়সী শিশুর যত্নের টিপস

  • বাচ্চাদের জন্য টিথিং খেলনা সান্ত্বনাদায়ক হবে, কারণ এই সময়ে তার মুখে দাঁত ফুটে উঠবে। আপনি মাঝে মাঝে আপনার শিশুকে ঠান্ডা বস্তু দিতে পারেন যাতে এই জিনিসগুলিতে কামড় দেওয়ার সময় দাঁত বেরনোর অস্বস্তি হ্রাস পায়।
  • বিছানা ভাগ করা পরিচালনা করা সহজ, কিন্তু আপনার সন্তান যাতে রাতে নিরাপদ ঘুমের জন্য যথেষ্ট স্থান পায় তা নিশ্চিত করুন।
  • বাচ্চাটি যদি পিউরি বা চটকানো খাবার খেতেও অসুবিধা দেখায়, তার জিহ্বার সমস্যার সম্ভাবনা পরীক্ষা করে দেখতে হবে।
  • তাকে কঠিন খাদ্য খাওয়ার জন্য জোর করবেন না, এটি দীর্ঘমেয়াদে খারাপ প্রভাব তৈরি করতে পারে।

পরীক্ষা এবং টিকা

চার থেকে সাত মাস বয়সে শিশুকে টিকা দেওয়া হবে। এই সময়ে টিকাগুলির বেশিরভাগ শট দেওয়া হয়, যেমন ডিট্যাপ, পোলিও ভ্যাকসিন, হেপ বি, হিব, পিসিভি এবং রোটাভিরাস ভ্যাকসিন। এইগুলি শিশুটিকে ডিপথেরিয়া, পোলিও, টিটেনাস, হেপাটাইটিস বি, ফ্লু এবং অন্যান্য কিছু রোগের সংক্রমণ থেকে রক্ষা করে, তা নিশ্চিত করে। ডাক্তার যদি মনে করেন যে আপনার সন্তান মেনাইনাইটিস দ্বারা সংক্রামিত হওয়ার জন্য ঝুঁকিপূর্ণ, তবে আপনার সন্তানের জন্য ম্যানিংগোকোকাল টিকাও নির্ধারণ করা হবে।

খেলা এবং ক্রিয়াকলাপ

শিশুর পা এবং পায়ের পাতার পেশীগুলি এখন তার ওজনকে সমর্থন করার জন্য পর্যাপ্ত পরিমাণে শক্তিশালী হয়ে উঠবে, তাই আপনি হয়তো এই সময়ে আপনার বাচ্চাকে কিছুর সমর্থন নিয়ে হাঁটতে বা লাফাতে দেখতে পারেন। যদি সে আপনার কোলে লাফায়, তবে তার হাতের তলায় আপনার হাতদুটি দিয়ে তাকে সমর্থন করা ঠিক হবে যাতে তার পা দ্রুততর হয়।

ধরা এবং নিক্ষেপ করা এখন আদর্শ, আপনি তাকে যতটা পছন্দ করেন তার খেলনাগুলি নিক্ষেপ করার অনুমতি দিলে আপনি তাকে উন্নত করতে সহায়তা করবেন। এছাড়াও, আপনি যতটা সম্ভব নিক্ষেপ করা খেলনাগুলিকে তুলে তার কাছে নিয়ে আসা এড়িয়ে চলতে হবে- এর অর্থ এই যে সন্তানকে এটি নেওয়ার জন্য নিজে নিজে স্থানান্তরিত হতে হবে, এইভাবে তার পায়ে পেশীগুলিকে একটি দুর্দান্ত অনুশীলন করাতে সহায়তা করতে পারবেন। মেঝেতে খেলা অবশ্যই অনেক বেশি পছন্দ করা উচিত, কারণ এটি বাচ্চাদের পক্ষে দাঁড়াতে এবং খুব তাড়াতাড়ি হাঁটতে সাহায্য করে।

আপনার সন্তানের এই বয়সে একটি আগ্রহী শ্রোতা হবে। সে তার চারপাশের কথোপকথনে ভুলভাল বকবক করতে শুরু করতে পারে, তার দ্বিতীয় বছরে কথা বলার জন্য তার গলার স্বরকে তৈরি করবে। সম্ভবত কথোপকথনের ‘কথা বলা এবং থামা’-র প্রক্রিয়াটি বুঝতে শুরু করে, যার মানে তার বাবা-মা যখন তার সাথে কথা বলে তখন সে অনেক উপভোগ করবে। তার মস্তিষ্ককে আরও উত্তেজিত করার জন্য, আপনি তার কাছ থেকে আসা শব্দগুলিকে পুনরাবৃত্তি করতে পারেন এবং তারপরে তার জন্য অপেক্ষা করতে পারেন যাতে সে তারপর কথা বলে।

কখন একজন ডাক্তারের পরামর্শ নিতে হবে

টিকা দেওয়ার পরে, আপনার সন্তানের ভ্যাকসিনের জায়গায় জ্বালা করা বা তার জ্বর আসা এটি সাধারণ ঘটনা। যাইহোক, যদি এই লক্ষণগুলি কিছু সময়ের জন্য স্থায়ী হয় তবে ডাক্তারের কাছে যাওয়া ভাল। আপনি যদি আপনার সন্তানের সাথে আপনার মনের মায়ের সহজাত প্রবৃত্তির সাথে কিছু অস্বাভাবিক দেখেন, তবে তাকে ডাক্তারের কাছে নিয়ে যাওয়া ভাল- পরে দুঃখিত হওয়া থেকে সবসময় নিরাপদ থাকা ভালো।

সাতটি মাস যেন এক মুহূর্তে পেরিয়ে গেছে বলে মনে হয় কিন্তু উন্নয়নের শর্তাবলী অনুযায়ী, আপনার শিশু অনেক কিছুর মাধ্যে দিয়ে গেছে। সে ইতিমধ্যে বসা এবং এমনকি উঠে দাঁড়াতে, এবং কঠিন খাবারের দিকে চলছে। আপনার সন্তানের সঙ্গে এই পূর্ণ সময় উপভোগ করুন।