গর্ভাবস্থায় কাঁধে ব্যথা

গর্ভাবস্থায় কাঁধে ব্যথা

40% গর্ভবতী মহিলারা কাঁধে ব্যথার মত সমস্যার মুখোমুখি হন। এটি কেন ঘটে এবং কীভাবে এটি থেকে মুক্তি পাওয়া যায় এবং এটিকে রোধ করা যায় তা জানতে পড়ুন।

aniview

গর্ভাবস্থায় কাঁধে ব্যথা হওয়া সাধারণ কেন?

গর্ভাবস্থায় শরীরের অন্যান্য জয়েন্টগুলি সহ কাঁধের জয়েন্টে অনেকগুলি পরিবর্তন ঘটে। গর্ভবতী মহিলার দেহ রিল্যাক্সিন নামে একটি হরমোন তৈরী করে যা প্রসবের জন্য প্রস্তুতির ক্ষেত্রে শরীরের সমস্ত লিগামেন্টকে শিথিল করে। এই লিগামেন্টগুলির আলগা হয়ে যাওয়া এবং এর সাথে ঘুমের ভঙ্গি, দাঁড়ানো ও হাঁটার ভঙ্গির পরিবর্তন গর্ভবতী মহিলাদের কাঁধে ব্যথা ঘটাতে পারে। মচকে যাওয়া, আঘাত লাগা বা পড়ে গিয়ে চোট লাগার সম্ভাবনাও বেশি থাকে যার ফলে কাঁধে্র হালকা ব্যথাটিও তীব্র অস্বস্তিতে পরিণত হতে পারে। সুতরাং, গর্ভাবস্থায় আপনার কাঁধের স্বাস্থ্যের যত্ন নেওয়া গুরুত্বপূর্ণ।

গর্ভাবস্থায় কাঁধে ব্যথার লক্ষণ

গর্ভাবস্থায় কাঁধে ব্যথার লক্ষণকখনও কখনও, গর্ভাবস্থায় কাঁধে ব্যথা ঘুমের ভঙ্গিতে পরিবর্তন, হরমোনের পরিবর্তনের পাশাপাশি পেশী শক্ত হয়ে যাওয়ার কারণে হয়। গর্ভাবস্থায় কাঁধে ব্যথার অন্যান্য লক্ষণগুলি হ’ল:

  • কাঁধের ব্যথা সার্ভিকাল অঞ্চলে ছড়িয়ে পড়ে এবং দিন বাড়ার সাথে সাথে সেটিও বাড়তে থাকে। এর সাথে সাধারণত চোখে জ্বালা করার মত অনুভূতি সৃষ্টি হয় এবং মাথার খুলির গোড়ায় ব্যথা হয় যা উদ্বেগ এবং অবসাদ নিয়ে আসে।
  • প্রথম ত্রৈমাসিকের সময় কাঁধে ব্যথার সাথে বমি বমি ভাব, বমি, মাইগ্রেনের ব্যথা,সংজ্ঞা হারানো, নিম্ন রক্তচাপ এবং অস্বাভাবিক ওজন বৃদ্ধির মতো লক্ষণগুলি যুক্ত থাকতে পারে। এই লক্ষণগুলি উদ্বেগের কারণ হতে পারে এবং এটি সমাধান করার প্রয়োজন হতে পারে।

গর্ভবতী মহিলাদের কাঁধে ব্যথার কারণগুলি

কাঁধে ব্যথা আবার কিছু অন্তর্নিহিত স্বাস্থ্য অবস্থারও লক্ষণ হতে পারে।

  • গর্ভাবস্থার শুরুর দিকে কাঁধে ব্যথা কোনও এক্টোপিক বা টিউবাল গর্ভাবস্থার লক্ষণ হতে পারে যার জন্য অবিলম্বে চিকিৎসাগত হস্তক্ষেপের প্রয়োজন হয়। এই অবস্থায়, বিকাশমান ভ্রুণ জরায়ুর পরিবর্তে ফ্যালোপিয়ান টিউব বা জরায়ুতে বৃদ্ধি পেতে শুরু করে। এটি তীক্ষ্ণ , ছুরিকাঘাতের মতো ব্যথা দ্বারা চিহ্নিত করা যায় এবং যা পেটে শুরু হয় ও কাঁধ এবং পিঠে প্রসারিত হতে পারে।
  • পিত্তথলি বা পিত্তনালীতে কোলেস্টেরল বা ক্যালসিয়াম জমা হওয়ার কারণে তৈরী হওয়া পিত্তথলির পাথরের কারণে আপনি কাঁধে ব্যথা অনুভব করতে পারেন। পিত্তপাথরযুক্ত ব্যক্তিদের পেটের উপরের দিকে ছুরিকাঘাতের মতো ব্যথা হয় যা পিঠে ও কাঁধে ছড়িয়ে পড়ে।
  • কখনও কখনও আবার কোষ্ঠকাঠিন্য, পেট ফাঁপা, পেটের বায়ু এবং পেটের আলসারের মতো সমস্যার কারণে কাঁধে ব্যথা হতে পারে। এই জাতীয় ব্যথা পেটে উৎপন্ন হয় এবং পিঠে ও কাঁধে ছড়িয়ে পড়ে।
  • পেটে অতিরিক্ত বা ভারসাম্যহীন ওজনও দ্বিতীয় ত্রৈমাসিকের সময় কাঁধের উপর ব্যথা সৃষ্টি করতে পারে। এখানে, ব্যথাটি পিঠের নিচে কোমড় থেকে উত্থিত হয় এবং পিঠের পেশী ও কাঁধে ছড়িয়ে পড়ে।
  • দ্বিতীয় এবং তৃতীয় ত্রৈমাসিকে ভ্রূণে আরও ভাল রক্ত সরবরাহের জন্য মহিলারা যখন তাদের বাম পাশে ফিরে ঘুমান তখন তাদের বাম কাঁধে ঘন ঘন ব্যথাটি হয়ে থাকে ।
  • ডান কাঁধে গুরুতর ব্যথা, কখনও কখনও, প্রিক্ল্যাম্পসিয়ার লক্ষণ, যেটি হল একটি অবস্থা যেখানে গর্ভবতী মহিলার রক্তচাপ এবং তার প্রস্রাবে প্রোটিনের পরিমাণ খুব বেড়ে যায়
  • কাঁধে ব্যথার সাথে যখন পিঠের উপরের দিকে এবং মাথার খুলির গোড়ায় টানটান ব্যথা হয় ও শক্ত হয়ে যায়, মাথা ব্যথা এবং মাইগ্রেন হয়, তখন তা মানসিক চাপের এর কারণ হতে পারে।

কাঁধের ব্যথার চিকিৎসা

কাঁধের ব্যথার চিকিৎসাকিছু ব্যথানাশক গর্ভাবস্থায় ক্ষতিকারক হতে পারে এবং ডাক্তারের পরামর্শ ছাড়া গ্রহণ করা উচিত নয়। সুতরাং, কাঁধে ব্যথার জন্য ব্যথানাশক নেওয়ার পরিবর্তে, আপনি কিছু সাধারণ ব্যথা-উপশমকারী পদক্ষেপ অনুসরণ করতে পারেন।

  • অ্যান্টি-ইনফ্ল্যামেটরি বা প্রদাহ বিরোধী স্প্রে এবং ক্রীমগুলি ব্যবহার করুন।
  • ব্যথার স্থানে এবং তার আশেপাশে একটি আইস প্যাক রাখুন।
  • যোগা, আকুপ্রেশার, প্রসারণ ব্যায়ামের মতো শারীরিক স্ব-থেরাপি করুন এবং ঘুমানোর জন্য ভাল জায়গা বা বিছানাটিকে বেছে নিন।
  • গ্যাস্ট্রিকের সমস্যাগুলির যত্ন নিন যাতে সেগুলি থেকে কাঁধে ব্যথা না হয়।
  • চিন্তা, চাপ এবং কাঁধের ব্যথা প্রতিরোধ করার জন্য পর্যাপ্ত বিশ্রাম নিন।
  • তৃতীয় ত্রৈমাসিকের সময় কাঁধে ব্যথা বাড়িয়ে তুলতে পারেএমন ধরনের শারীরিক পরিশ্রমের কাজগুলি কম করুন।
  • ঘুমোতে যাওয়ার আগে নিজেকে একটি মালিশ দিন।

কাঁধে ব্যথা রোধ করবেন কীভাবে?

আপনার দেহ প্রসবের মত অলৌকিক ঘটনাটির সহিত মানিয়ে নেওয়ার জন্য নিজেকে পরিবর্তন করছে। এর জন্য গর্ভবতী মহিলার জীবনযাত্রায় স্বাস্থ্যকর পরিবর্তন আসা উচিত। যে মুহূর্তে আপনি স্বাস্থ্যকর পছন্দগুলি বেছে নেবেন, আপনি আপনার কাঁধে ব্যথার কারণগুলিকেও আটকাতে সক্ষম হতে পারেন। গর্ভাবস্থায় কাঁধে ব্যথা রোধের সর্বোত্তম উপায় হ’ল স্বাস্থ্যকর থাকা। কাঁধে ব্যথা রোধ করার জন্য এখানে কয়েকটি পরামর্শ দেওয়া হয়েছে:

  • অতিরিক্ত চিন্তা যা থেকে কাঁধে ব্যথা সৃষ্টি হতে পারে তা এড়াতে ভালভাবে ঘুমান।
  • ভাল খাওয়া দাওয়া করুন এবং গ্যাস্ট্রিক সমস্যাগুলি এড়িয়ে চলুন যা কাঁধে ব্যথা ঘটাতে পারে।
  • ঘুমোনো, দাঁড়ানো, বসাএবংহাঁটারসময়খারাপভঙ্গিপরিহার করুন।
  • যদি আপনি ধূমপান করেন তবে আপনার এটি ছেড়ে দেওয়া উচিত।
  • পেশাগত ক্ষেত্রে এবং বাড়িতে দায়বদ্ধতা কমান।
  • সম্ভব হলে বিশ্বস্ত কোনও বন্ধু বা পরিবারের সদস্যের কাছ থেকে সহায়তা চান।
  • কাঁধের উপর চাপ কমাতে এবং ভাল ঘুমের ক্ষেত্রে সার্ভিকাল মেরুদণ্ড এবং পাগুলির জন্য বিশেষভাবে ডিজাইন করা বালিশ নিয়ে আসুন।
  • গ্যাস্ট্রিকের কারণে এবং পিত্তথলির পাথরের জন্য হওয়া কাঁধে ব্যথাতে সহায়তা করতে কম মশলাদার এবং তৈলাক্ত খাবার খান

আপনি গর্ভবতী থাকাকালীন কাঁধে ব্যথা উপশমের অন্যান্য কৌশল

  • মানসিক চাপ এবং যারা এটি সৃষ্টি করে তাদের এড়িয়ে চলুন।
  • কাঁধের ব্যথা উপশম করতে এবং সুস্বাস্থ্য বৃদ্ধিতে সহায়তার জন্য একজন কাইরোপ্রাক্টর বা একজন আকুপ্রেশার থেরাপিস্টের সাহায্য নিয়ে দেখুন।
  • চায়ের সময় এবং আহারগুলির মধ্যবর্তী সময়ে স্বাস্থ্যকর স্ন্যাকস দিয়ে জাঙ্ক ফুডগুলিকে বা তেল মশলাযুক্ত খাবারগুলিকে প্রতিস্থাপন করুন।
  • কিছুতা অবসর সময় নিজের জন্য রাখুন। সপ্তাহের একদিন কিছুই না করা স্বাস্থ্য, শিথিলকরণ এবং সুস্বাস্থ্যের জন্য বিস্ময়করভাবে কাজ করে।
  • একটি নতুন গদি কিনুন, একটি স্লিপিং মাস্ক এবং গোলমালদূরকরার হেডফোন আনুন এই সমস্ত ঘুমসহায়তাকারীগুলি ঘুমের মানের জন্য আশ্চর্যজনকভাবে কাজ রবে

কখন আমার একজন ডাক্তারকে ফোন করা উচিত?

গর্ভবতী মহিলার চিকিৎসককে ডাকতে দ্বিধা করা উচিত নয় যদি কাঁধে ব্যথা অনেক দিন অব্যাহত থাকে এবং এর সাথে উচ্চ জ্বর, মলদ্বারের উপর চাপ, কাঁধের জয়েন্ট নিশ্চল হয়ে যাওয়া এবং ত্বকের ফোলাভাব এবং রঙ হারিয়ে যাওয়ার সাথে ব্যথা ইত্যাদি লক্ষণগুলি থেকে থাকে।

প্রায়শই জিজ্ঞাসিত প্রশ্নাবলী

গর্ভাবস্থায় কাঁধে ব্যথা সম্পর্কে কয়েকটি প্রায়শই জিজ্ঞাসা করা প্রশ্নের আমরা উত্তর দিচ্ছি।

1. আমার কাঁধের হাড়ের বা অংসফলকের মাঝে কেন ব্যথা হচ্ছে?

একে সোল্ডার ব্লেড পেইন বা কাঁধের হাড়ের ব্যথা হিসাবে অভিহিত করা হয় যা দুর্বল ভঙ্গির কারণে ঘটে থাকে, অর্থাৎ যখন পিঠের উপরের অংশ এবং কাঁধ সামনে বাঁকানো হয়,কাঁধের হাড়্গুলি তখন একে অপরের থেকে বিচ্ছিন্ন হওয়ার কারণে ব্যথা হয়। গাড়ি চালানো, দীর্ঘ সময় ধরে বসে থাকা, খাওয়া বা সাঁতার এই পরিস্থিতিটিকে আরও বাড়িয়ে তুলতে পারে।

2. আমার কাঁধের ডগায় ব্যথা আছে। অনুগ্রহ করে সাহায্য করুন!

কিছু গর্ভবতী মহিলা কাঁধের ডগায় ব্যথা অনুভব করেন, যেখান থেকে হাতগুলি শুরু হয়। এটি খুবই বিরল এবং এক্টোপিক গর্ভাবস্থার একটি অন্যতম লক্ষণ।

3. বাম বাহু এবং কাঁধে ব্যথার জন্য আমার কী করা উচিত?

বাম হাত এবং কাঁধে ব্যথা নার্ভে অতিরিক্ত চাপ লাগার জন্য বা জয়েন্টের আঘাতের কারণে হতে পারে। এটি আবার হার্টের অসুস্থতার লক্ষণও হতে পারে।তাই এরকম হলে অবিলম্বে আপনার একজন ডাক্তার দ্বারা পরীক্ষা করানো উচিত।

গর্ভাবস্থা তার সাথে ব্যথা ও যন্ত্রণার ভাগ নিয়ে আসে, যার বেশিরভাগই এড়ানো যায় না। পর্যাপ্ত বিশ্রাম, হালকা ব্যায়াম এবং স্বাস্থ্যকর খাদ্যাভাস অস্বস্তি হ্রাসে অনেকদূর সাহায্য করে। মনে রাখবেন যে, কোনওরকম ব্যথা বা উপসর্গগুলি যদি আপনার প্রতিদিনের রুটিনে হস্তক্ষেপ শুরু করে তবে সেই মুহূর্তে কোনও একজন ডাক্তারের কাছে সেটি দেখানো দরকার।