গৃহে প্রস্তুত শিশু খাদ্য-সুবিধা,অসুবিধা এবং রেসিপিসমূহ

গৃহে প্রস্তুত শিশু খাদ্য

আপনার সন্তানকে কঠিণ খাবার খাওয়ানো শুরু করার জন্য কোনও তাড়াহুড়ো নেই,কিন্তু যখন সেটির সময় হবে,তখন এই বিষয়ে আপনাকে বিভিন্ন বিকল্পের বিষয়ে বিবেচনা করতে হবে।যদিও এর জন্য পুষ্টিকর এবং নিরাপদ বাণিজ্যিক খাদ্যগুলি সহজলভ্য,তবুও গৃহে প্রস্তুত শিশু খাদ্যগুলি হল এমন কিছু যা প্রকৃতপক্ষেই কার্যকর। গৃহে প্রস্তুত শিশু খাদ্যগুলির বিভিন্ন সুবিধা এবং অসুবিধাগুলি বুঝে নিন এবং আপনার ছোট্ট সোনাটিকে খাওয়ানোর জন্য পুষ্টিকর এবং সুস্বাদু বেশ কিছু রেসিপির সন্ধান করুন।

aniview

ছোট শিশুদের সাথে কঠিণ খাবারের পরিচয় কখন করাতে হবে?

ডাক্তারেরা সাধারণত সুপারিশ করে থাকেন যে আপনার সন্তানকে কঠিণ খাদ্য দেওয়া শুরু করার আগে তার ছয় মাস বয়স পূর্ণ হওয়া পর্যন্ত অপেক্ষা করার জন্য,কিন্তু কিছু ক্ষেত্রে সেটি কিছুটা আগেও হয়ে থাকতে পারে।কিছু গবেষণা অনুযায়ী,যে সকল শিশুরা মোটামুটি প্রায় চার মাস বয়সে কঠিন খাবার খাওয়া শুরু করেছিল,তাদের মধ্যে অ্যাসথেমা এবং অ্যালার্জিগুলি বিকাশের ঝুঁকি কম ছিল।তাছাড়াও আবার,যে সকল শিশুরা অনুন্নত অথবা অকালপ্রসবিত,তাদের মধ্যেও খুব শীঘ্রই একটি কঠিণ খাদ্য পদ্ধতি শুরু করার মাধ্যমে তাদের উপকৃত করে তোলা যেতে পারে,কিন্তু এটি করার পূর্বে আপনার শিশু রোগ বিশেষজ্ঞের সহিত এ বিষয়ে আলোচনা করে তার পরামর্শ নেওয়া আবশ্যক।

গৃহে প্রস্তুত শিশু খাদ্যের সুবিধাগুলি

আপনার সন্তানকে গৃহে প্রস্তুত খাদ্যগুলি দেওয়ার বিভিন্ন সুবিধা আছে।সেগুলির মধ্যে অন্তর্ভূক্ত হলঃ

1. গৃহে প্রস্তুত খাদ্যগুলি কম প্রক্রিয়াজাত হয়

ঘরে তৈরী খাবারগুলিতে মূলত থাকে ফল,সবজি এবং সম্পূর্ণ শস্য এবং দোকান থেকে কেনা খাবারে যেমন হয় এক্ষেত্রে সেরকম পরিশোধন প্রক্রিয়া করা হয় না।

2. গৃহে প্রস্তুত খাবারের বিস্তৃত বৈচিত্র্য রয়েছে

প্যাকেজযুক্ত খাবারগুলি কেবল সীমিত স্বাদ এবং গঠনের হয়ে থাকে এবং সাধারণত বিকল্পগুলির ক্ষেত্রে এগুলি খুব বেশি আসে না। অন্যদিকে, ঘরে তৈরি খাবারগুলিতে প্রতিবারই ভিন্ন স্বাদ আনা যেতে পারে।

3. ঘরে রান্না খাবার পুষ্টিকর হয়ে থাকে

খাদ্য উপাদানগুলির পুষ্টি মানের উপর নির্ভর করে আপনি আপনার সন্তানকে দেওয়ার জন্য সঠিক উপকরণগুলির নির্বাচন এবং বেছে নিতে পারার কারণে গৃহে প্রস্তুত খাদ্যগুলি থেকে এটি প্রত্যাশা করাই যায়।অধিকন্তু,প্যাকেজযুক্ত খাবারগুলিকে পাস্তুরাইজড এবং সংরক্ষণ করা হয়ে থাকে যেকোনও জীবাণুকে মারার জন্য,কিন্তু এই প্রক্রিয়ার ফলে খাদ্যের পুষ্টি উপাদানের পরিমাণ বেশ কমে যায়।

4. শিশুর খাবার নিয়ে জ্বালাতন এবং ঘ্যানঘ্যানানি কিছুটা কমবে

শিশুদের মধ্যে খাবার নিয়ে ঘ্যানঘ্যান এবং জ্বালাতনের বেশ প্রবণতা থাকে।আপনার বাচ্চার সাথে বিভিন্ন স্বাদের,গন্ধের এবং গঠণের খাবারের পরিচয় করালে তা সময়ের সাথে সাথে তার খাওয়ার অভ্যাসে বাছবিছার করা এবং ঘ্যানঘ্যান করার সম্ভাবনাকে হ্রাস করবে।

5. সস্তা এবং পকেটবান্ধব

দোকান থেকে কেনা খাবার অথবা অভিনব জৈব খাবারের প্রতি খুব বেশি উৎসাহিত হওয়ার পরিবর্তে আপনি কেবল আপনার স্থানীয় কৃষকের বাজার থেকেই প্রয়োজনীয় উপাদানগুলি কিনে নিজেই নিজের মত করে খাদ্য প্রস্তুত করতে পারেন।এভাবে আপনি সহজেই অপ্রয়োজনীয় উৎপাদন, প্রক্রিয়াকরণ এবং প্যাকেজিং ব্যয়গুলি এড়াতে পারেন।

গৃহে প্রস্তুত শিশু খাদ্যের সুবিধাগুলি

গৃহে শিশু খাদ্য প্রস্তুত করার অসুবিধাগুলি

গৃহে প্রস্তুত শিশু খাদ্য প্রস্তু করার ক্ষেত্রে আবার বেশ কিছু অসুবিধাও আছে,সেগুলির মধ্যে কয়েকটি হলঃ

1. কম সময়

প্রাকৃতিক উপাদানগুলিকে পৃথক পৃথক ভাবে কিনে এবং সেগুলিকে আবার রান্না করে সময় দেওয়ার তুলনায় পূর্বপ্রস্তুত শিশুখাদ্য কিনে সেটিকে শিশুকে খাওয়ানো তুলনামূলকভাবে বেশ সহজ।

2. সংরক্ষণ

প্রাকৃতিক খাদ্যগুলির তুলনায় বাণিজ্যিকভাবে ক্রয় করা প্রক্রিয়াজাত খাদ্যগুলিকে সংরক্ষণ করা সহজ কারণ এগুলির মধ্যে দেওয়া থাকে বিভিন্ন প্রিজারভেটিভ বা সংরক্ষক যা খাদ্যগুলিকে তাজা রাখে।

3. অভিগম্যতা

বেশিরভাগ বাণিজ্যিক শিশু খাদ্যগুলি যে পাত্রগুলিতে করে আসে সেগুলি পরিবেশনের জন্য প্রায় প্রস্তুত থাকে,যা এটিকে বেশ সুবিধাজনক করে তোলে।

ঘরে প্রস্তুত শিশু খাদ্য কীভাবে সংরক্ষণ করবেন

যেহেতু ঘরে তৈরী খাবার সহজেই খারাপ হয়ে যেতে পারে,তাই এটিকে সঞ্চয় করে রাখাটা বেশ অসুবিধাজনক।এটি জেনে রাখা গুরুত্বপূর্ণ যে,হিমায়িত করে রাখার ক্ষেত্রে কাঁচ একটি বিপজ্জনক পছন্দ,কারণ ঠাণ্ডা তাপমাত্রার সংস্পর্শে আসলে এটিতে চিঁড় ধরতে এবং পরিশেষে ফেটে যেতে পারে।গৃহে প্রস্তুত খাদ্য মজুদের জন্য এখানে তিনটি সহজ উপায় বর্ণত হল।

1. শীতলীকরণ

গৃহে প্রস্তুত খাদ্য মজুদ করার এটি হল ভীষণ সহজ এবং সবচেয়ে সুবিধাজনক একটি উপায়।তবে,এটি অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ যে,যেকোনও ব্যাকটেরিয়া এবং ছত্রাকের দূষণের সম্ভাবনা রোধ করর জন্য আপনি কখনই কোনও শিশু খাদ্যকেই দুই দিনের বেশি সংরক্ষণ করে রাখবেন না।

2. বরফের টুকরো প্রয়োগ পদ্ধতি

বরফের টুকরো প্রয়োগ পদ্ধতি

এই পদ্ধতিতে রয়েছে কম পরিমাণে অপচয় এবং দীর্ঘ সময়ের জন্য সঞ্চয়।একবার আপনার শিশুর খাদ্য প্রস্তুত করার পর তার যেকোনও অবিশিষ্টাংশটুকু নিয়ে সেটিকে আইস কিউব ট্রেএর মধ্যে রাখুন এবং তারপর সেগুলিকে ফ্রীজের ভিতরে রেখে দিন।এবার বরফের কিউবগুলিকে একটি ফ্রীজার ব্যাগের মধ্যে রাখুন।যখন এটি খাওয়ানোর সময় হবে,আপনি এর থেকে কেবল এক অথবা দুটি কিউব নিন,এবার হালকা গরম না হওয়া পর্যন্ত সেটিকে গরম করুন এবং তারপর সেটিকে নিয়ে আপনার সন্তানকে দিন।

3.ওয়াক্স পেপার(মোম কাগজ) পদ্ধতি

শিশুর অব্যবহৃত খাবারের পিউরিটুকু নিয়ে সেটিকে মোমের কাগজের একটি পাতার মধ্যে স্থানান্তরিত করে বোঝাই করুন।এবার মোমের কাগজের সেই পাতাটিকে ভাঁজ করে ফ্রীজের মধ্যে রাখুন।যখন খাবারের সেই দলাটি ঠাণ্ডায় জমে কঠিণ হয়ে উঠবে,তখন সেগুলিকে সংরক্ষণ করার জন্য একটি ফ্রীজার ব্যাগের মধ্যে রাখুন।

আপনার সন্তানকে শক্ত খাবার দেওয়া শুরু করার সময় যে বিষয়গুলি মনে রাখা প্রয়োজন

আপনি আপনার শিশুর ডায়েটে শক্ত খাবার শুরু করার আগে কয়েকটি গুরুত্বপূর্ণ বিবেচ্য বিষয়গুলি হলঃ

  • অ্যালার্জি প্রতিক্রিয়াগুলির প্রতি নজর রাখুন। চিনাবাদাম, দুগ্ধজাত এবং গমের মতো খাবারগুলিতে সম্ভাব্য অ্যালার্জিক যৌগ থাকে। আপনি যখন আপনার শিশুকে কোনও নতুন খাবারের আইটেমটি খাওয়ানো শুরু করবেন, তখন কয়েক দিনের জন্য তাকে ঐ একই খাবার খাওয়ান এবং তার মধ্যে কোনও পরিবর্তন ঘটছে কিনা তা নোট করুন।
  • জৈব খাদ্যগুলির সহিত সংলগ্ন থাকার চেষ্টা করুন,কারণ এগুলি কীটনাশক এবং অন্যান্য রাসায়নিকগুলি দ্বারা আচ্ছাদিত হওয়ার সম্ভাবনা কম থাকে।
  • গ্যাস হওয়ার প্রবণতা থাকতে পারে এমন ধরণের খাবারগুলিকে আপনার সোনাকে খাওয়াবেন না কারণ এগুলির কারণে ছোট শিশুদের মধ্যে বেশ অস্বস্তির সৃষ্টি হতে দেখা যায়।এর অর্থ হল কমপক্ষে প্রথম আট মাসের জন্য কোনও শিম্ব জাতীয় খাদ্য, দুগ্ধজাত পণ্য, গম ইত্যাদি খাওয়ানো চলবে না।

শিশুদের জন্য গৃহে প্রস্তুত খাদ্য রেসিপিগুলি প্রস্তুত করা সহজ

আপনি যদি জানতে চান যে কীভাবে ঘরেতেই শিশু খদ্য প্রস্তুত করা যায়,তবে তার সাথে এটিও মনে রাখা দরকার যে,প্রথম কয়েক মাস শিশুর জন্য কঠিন খাদ্যগুলি হওয়া উচিত পিউরি রূপে,যেহেতু শিশুরা চিবাতে অক্ষম হয়ে থাকে।সেরা বিকল্পগুলির মধ্যে রয়েছে সবুজ শাকসবজি, চর্বিহীন মাংস,মাছ, বাদাম, সম্পূর্ণ শস্য, ফল এবং অন্যান্য আরও অনেক কিছু

4-6 মাস বয়সী শিশুদের জন্য

আপনার সন্তানকে প্রথম কঠিণ খাদ্য খাওয়ানোর প্রয়াস হওয়া উচিত পাতলা,জলজলে পিউরি রূপে।এর কারণ হল ছোট্ট শিশুদের জন্য খাবারের বড় দলা গিলতে পারাটা বেশ কঠিণ হয়ে ওঠে যেহেতু এর আগে পর্যন্ত তারা কেবল তরল দুধই পান করেছে।

1. মটরশুঁটি চটকানো

মটরশুঁটি হল খুব সাধারণ অথচ প্রোটিন,ভিটামিন এবং খনিজে ভরপুর পুষ্টিগুণে সমৃদ্ধ।

উপকরণ

  • এক কাপ খোসা ছাড়ানো মটরশুঁটি
  • অর্ধেক কাপ জল

কীভাবে প্রস্তুত করবেন

সম্পূর্ণরূপে রান্না না হওয়া পর্যন্ত মটরশুঁটিগুলিকে সেদ্ধ করুন।জলটিকে ছেঁকে নিন,এরপর মটরশুঁটিগুলিকে অর্ধ কাপ পরিশুদ্ধ জলের সহিত মিশ্রিত করে সেটিকে ব্লেন্ড করুন যতক্ষণ না আপনি একটি সামঞ্জস্যপূর্ন মসৃণ পেস্ট পেয়ে থাকেন।

2. কলার পিউরি

কলা শিশুর পাচন তন্ত্রের জন্য কোমল এবং এতে পটাসিয়াম এবং ফাইবারের মত প্রচুর পুষ্টিকর উপাদান আছে।

উপকরণ

  • খোসা ছাড়িয়ে টুকরো টুকরো করে কাটা অর্ধ কাপ পাকা হলুদ কলা
  • এক কাপ জল

কীভাবে প্রস্তুত করবেন

একটি মিক্সচার গ্রাইন্ডারের মধ্যে উভয় উপাদানকেই একত্রিত করে মিশ্রিত করতে থাকুন যতক্ষন না আপনি একটি উপযুক্ত জলজলে মিশ্রন পেয়ে থাকেন।

কলার পিউরি

3. সম্পূর্ন শস্য পিউরি

সম্পূর্ণ শস্য মধ্যস্থ ভিটামিন A এবং আয়রণের কারণে এগুলিকে শিশুদের সাথে তাদের এই বয়সে পরিচয় করানো বেশ উপকারী।

উপকরণ

  • রান্না করা ব্রাউন রাইস/রাগি/ওটঅর্ধেক কাপ
  • অর্ধ কাপ জল

কীভাবে প্রস্তুত করবেন

জলযুক্ত বা জলজলে একটা মণ্ড বা জাউ না পাওয়া পর্যন্ত উভয় উপাদান একটি ব্লেন্ডারে মিশ্রিত করুন।

4. অ্যাভোকাডোর মণ্ড

অ্যাভোকাডো বেশ সুস্বাদু এবং স্বাস্থ্যকর ফ্যাট সমৃদ্ধ যা বৃদ্ধি এবং বিকাশের জন্য প্রয়োজনীয়।

উপকরণ

  • খোসা ছাড়ানো অ্যাভোকাডোর ভিতরের অংশকে ঘনকাকারে কাটা অর্ধেক কাপ
  • এক কাপ জল

কীভাবে প্রস্তুত করবেন

উপরের উপকরণগুলিকে একটি ব্লেন্ডারের মধ্যে মিশ্রিত করুন এবং একটি মসৃণ কাস্টার্ডের মতো গঠণ না পাওয়া পর্যন্ত সেটিকে ব্লেন্ড করতে থাকুন।

অ্যাভোকাডোর মণ্ড

5. মিষ্টি বা রাঙা আলুর মণ্ড

আলুর বিপরীতে, মিষ্টি আলুতেও কার্বোহাইড্রেট ছাড়াও ভিটামিন  A এবং বিভিন্ন খনিজ থাকে।

উপকরণ

  • অর্ধেক কাপ মিষ্টি বা রাঙা আলু,খোসা ছাড়ানো এবং ঘনকাকারে কাটা
  • অর্ধেক কাপ জল

কীভাবে প্রস্তুত করবেন

ভাল ভাবে রান্না না হওয়া পর্যন্ত মিষ্টি আলুগুলিকে সেদ্ধ করুন।এরপর একটি সামঞ্জস্যপূর্ণ মসৃণ পিউরি না পাওয়া পর্যন্ত একটি ব্লেন্ডারের মধ্যে সেগুলিকে জলের সাথে মিশ্রিত করে একসাথে ব্লেন্ড করতে থাকুন।এই রেসিপিটিতে জলের বিকল্প হিসেবে বুকের দুধু দেওয়া যেতে পারে।

7-9 মাস বয়সী শিশুদের জন্য

এই বয়সের জন্য আপনি দুটি উপকরণ দ্বারা খাদ্য প্রস্তুত করা শুরু করতে পারেন যেহেতু আপনার শিশুর হজম শক্তিটি এই বয়সে আরও বেশি খাবার হজম করার ক্ষেত্রে আরও ভাল হবে এবং নতুন স্বাদের সংমিশ্রণেও সে উন্মুক্ত হবে।আপনি স্বভাবতই আপনার সন্তানকে অপেক্ষাকৃত ঘন পিউরি দেওয়া শুরু করতে পারেন।6-9 মাস বয়সী শিশুদের জন্য ঘরে প্রস্তুত শিশু খদ্যগুলির মধ্যে অন্তর্ভূক্ত হলঃ

1. কুমড়ো ও সাগুর মণ্ড

এই উভয় উপাদানই ভিটামিন এবং খনিজ থেকে শুরু করে প্রোটিন এবং স্বাস্থ্যকর ফ্যাট পর্যন্ত প্রচুর পরিমাণে গুরুত্বপূর্ণ পুষ্টিকর উপাদানগুলিতে সমৃদ্ধ।

উপকরণ

  • এক কাপ কুমড়ো,খোসা ছাড়ানো এবং টুকরো করে কাটা
  • অর্ধেক কাপ সাগু
  • এক কাপ জল

কীভাবে প্রস্তুত করবেন

সাগু এবং কুমড়োকে পৃথক ভাবে রান্না করে নিন।এরপর একটি মিক্সচার গ্রাইন্ডারের মধ্যে সেগুলির সাথে জল মিশ্রিত করে একটি মসৃণ পিউরি না পাওয়া পর্যন্ত সেটিকে ব্লেন্ড করুন।

2. কলা ও অ্যাভোকাডোর পিউরি

8 মাস বয়সী শিশুদের জন্য এটি একটি দুর্দান্ত গৃহে প্রস্তুত শিশু খাদ্য।কলা এবং অ্যাভোকাডোগুলি হল ক্রীম জাতীয়,সহজপাচ্য এবং স্বাস্থ্যকর পুষ্টিকর উপাদানে পরিপূর্ণ।

উপকরণ

  • অর্ধেক কাপ কলা,খোসা ছাড়িয়ে টুকরো টুকরো করে কাটা
  • অর্ধেক কাপ অ্যাভোকাডো,খোসা ছাড়িয়ে ভিতরের অংশটিকে টুকরো করে কাটা
  • এক চাচামচ অ্যাপেল সীডার ভিনিগার
  • অর্ধেক কাপ জল

কীভাবে প্রস্তুত করবেন

একটি মসৃণ পেস্ট তৈরীর জন্য উপাদানগুলিকে মিশ্রিত করুন। পেস্টটি বাদামী হয়ে যাওয়াকে রোধ করতে এর সাথে অ্যাপেল সিডার ভিনেগার যুক্ত করা যেতে পারে।

কলা ও অ্যাভোকাডোর পিউরি3. পেঁপের মণ্ড

7 মাস বয়সী শিশুদের জন্য বাড়িতে প্রস্তুত খাদ্যগুলির মধ্যে এটি একটি প্রাথমিক রেসিপি।পেঁপে ক্যারোটিনয়েড এবং অন্যান্য অ্যান্টিঅক্সিডেন্টগুলির পাশাপাশি ভিটামিন C, ফোলেট এবং প্যানটোথেনিক অ্যাসিডে সমৃদ্ধ।

উপকরণ

  • এক কাপ পেঁপে,খোসা ছাড়িয়ে বীজ মুক্ত করে ছোট ছোট টুকরো করে কাটা
  • অর্ধ কাপ জল

কীভাবে প্রস্তুত করবেন

একটি মসৃণ পেস্ট না পাওয়া পর্যন্ত উপকরণগুলিকে একটি ব্লেন্ডারের মধ্যে নিয়ে মিশ্রিত করতে থাকুন।

4. ন্যাশপাতি এবং কুমড়ো পিউরি

নাশপাতিতে ভিটামিন  K , ভিটামিন C এবং স্বাস্থ্যকর ফলের শর্করা প্রচুর পরিমাণে থাকে, অন্যদিকে আবার কুমড়োতে রয়েছে কপার এবং ম্যাঙ্গানিজের মতো প্রয়োজনীয় খনিজগুলি।

উপকরণ

  • খোসা ছাড়িয়ে টুকরো করে কাটা অর্ধেক কাপ ন্যাশপাতি
  • খোসা ছাড়িয়ে বীজ মুক্ত করে টুকরো করে কাটা অর্ধেক কাপ কুমড়ো
  • এক কাপ জল

কীভাবে প্রস্তুত করবেন

একটি ঘন পিউরি পাওয়ার জন্য সকল উপকরনগুলিকে একত্রে ব্লেন্ড করে নিন।

ন্যাশপাতি এবং কুমড়ো পিউরি

5. বেরি এবং বীটরুটের পিউরি

বেরি এবং বীটরূট উভয়ের মধ্যেই রয়েছে অ্যান্থোকায়ানিনস নামে পরিচিত শক্তিশালী অ্যান্টিঅক্সিডেন্টগুলি,যা রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বৃদ্ধি করে।

উপকরণ

  • খোসা ছাড়িয়ে টুকরো করে কাটা এক কাপ বীট
  • অর্ধেক কাপ মরশুমি বেরি
  • অর্ধ কাপ জল

কীভাবে প্রস্তুত করবেন

নরম না হওয়া পর্যন্ত বীটগুলিকে রান্না করুন।এরপর একটি সুস্বাদু পিউরি পাওয়ার জন্য সকল উপকরণগুলিকে একত্রে ব্লেন্ড করুন।একটা ঘন পিউরি পাওয়ার জন্য আপনি জলের সাথে বুকের দুধ প্রতিস্থাপন করতে পারেন।

10-12 মাস বয়সী শিশুদের জন্য

এই বয়স থেকেই, আপনি পুরোপুরি শক্ত খাবারের ডায়েটের জন্য আপনার সন্তানকে আরও জটিল খাদ্য সরবরাহ করা শুরু করতে পারেন।

1. রাগি র‍্যাতাতোইলে

এটি একটি সুস্বাদু মিশ্রিত রেসিপি, যা আপনার বাচ্চাকে সম্পূর্ণ পুষ্টি সরবরাহের পাশাপাশি একটি বহুল স্বাদযুক্ত খাবারের সূত্রপাত হিসেবে পরিচয় দেবে।

উপকরণ

  • এক কাপ টুকরো করে কাটা সবজি যেমন পিঁয়াজ,বেগুন,ঘন্টা মরিচ,ধুন্দুল,টমেট এবং ব্রকোলি
  • বড় এক চামচ জলপাই তেল
  • এক চাচামচ আদারসুন পেস্ট
  • বড় চার চামচ রাগি
  • অর্ধেক কাপ স্যুপের ঝোল বা ব্রথ
  • অর্ধ চাচামচ শুকনো ভেষজ(ঐচ্ছিক)
  • অর্ধেক কাপ জল

কীভাবে প্রস্তুত করবেন

একটি সসপ্যানের মধ্যে জলপাই তেলটিকে নিয়ে গরম করুন,এরপর তার সাথে যোগ করুন পিঁয়াজ এবং সোনালী বাদামী রঙ না হওয়া পর্যন্ত সেটিকে ভাজুন।এবার অবশিষ্ট সকল উপকরণগুলিকে এর সাথে যোগ করে আগুনের আঁচ কমিয়ে সেটিকে প্রায় 20 মিনিটের জন্য ঐ অবস্থায় রেখে দিন যতক্ষন না সমস্ত সবজিগুলি নরম হয় যায়।এরপর এটি ঠাণ্ডা হয়ে গেলে এর সাথে শুকনো ভেষজগুলিকে মিশ্রিত করুন। অবশেষে এটিকে ব্লেন্ড করে নিন আপনার পছন্দমত ঘনত্ব পাওয়া্র জন্য।এটি ঘরে প্রস্তুত শিশু খাদ্যের একটি দুর্দান্ত ভারতীয় রেসিপি।

2. মাছ পালং এবং গাজরের মিশ্রণ

উপকারী ফ্যাট এবং ওমেগা ফ্যাটি আসিডের ভরপুর উস হল মাছপালং যেখানে আয়রণে পূর্ণ সেখানে গাজরে আছে ভিটামিন A এবং ভিটামিন C

উপকরণ

  • আধ কাপ মাছের ফিলে
  • আধ কাপ গাজর খোসা ছাড়িয়ে এবং টুকরো করা
  • আধ কাপ পালং পাতা
  • আধ কাপ জল

কীভাবে প্রস্তুত করবেন

একটা সসপ্যানে জল গরম করে তাতে গাজর,পালং এবং মাছের টুকরোগুলি নিয়ে কুড়ি মিনিট ধরে ফোটানতারপর উপকরণগুলিকে একটা মিক্সারে দিয়ে মনের মতন গঠণ না পাওয়া পর্যন্ত মিশ্রিত করতে থাকুন

মাছ পালং এবং গাজরের মিশ্রণ

3. কলা এবং ব্রাউন রাইস পিউরি

কলা এবং ব্রাউন রাইসের সংমিশ্রণ হল আপনার সন্তানের জন্য একটি অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ খাদ্য যা প্রচুর পরিমাণে বিভিন্ন পুষ্টিকর পদার্থ যেমন ফসফরাস,তন্তু বা ফাইবার, ভিটামিন C এবং নানা ধরনের প্রয়োজনীয় কার্বহাইড্রেটের জটিল যৌগ।

উপকরণ

  • আধ কাপ খোসা ছাড়ানো কলার টুকরো
  • আধ কাপ ব্রাউন রাইস রান্না করা
  • বড় এক চামগ্রীক দই
  • আধ কাপ জল
  • স্বাদের জন্য দারুচিনি

কীভাবে প্রস্তুত করবেন

একটা মিক্সারে উপকরণগুলিকে নিয়ে ভালভাবে মিশ্রিত করুন একটি ভাল পিউরি না পাওয়া পর্যন্ত

4. ক্রীমযুক্ত চিকেনের পিউরি

চিকেন বা মুরগীর মাংস হল অতি প্রয়োজনীয় প্রোটিনের উৎসআর চীজ এবং দই হল ভিটামিন A এবং র‍্যাবোফ্ল্যাবিন সমৃদ্ধ

উপকরণ

  • এক কাপ চিকেন ব্রেষ্টের কাটা টুকরো
  • আধ কাপ সবজির সেদ্ধ ঝোল
  • বড় এক চামচ অলিভ বা জলপাই তেল
  • এক চাচামচ চীজ
  • বড় দুই চামচ গ্রীক য়ুর্গাট বা দই
  • এক চাচামচ শুকনো ভেষজ যেমন থাইম,রোজমারি এবং অরেগ্যানো
  • এক কাপ জল

কীভাবে প্রস্তুত করবেন

যতক্ষন না মুরগীর মাংস সর্ণালী বাদামী বর্ণ ধারণ করছে ততক্ষঅলিভ তেল দিয়ে সেটাকে রান্না করতে থাকুননিশ্চিত হন যে চিকেনটা ঠিকঠাক রান্না হয়েছে ,অসিদ্ধ চিকেন সমস্যা সৃষ্টি করতে পারেকয়েক মিনিট ঠান্ডা হতে দিন তারপর অন্যান্য উপকরণগুলি দিয়ে চিকেনটিকে মিশ্রিত করতে থাকুন যতক্ষণ না সঠিক গঠণ লাভ করছে

ক্রীমযুক্ত চিকেনের পিউরি

5. কলা এবং আপ্রিকট মিশ্রণ

এই রন্ধন প্রণালীতে আপ্রিকট ভিটামিন A,ভিটামিন C, কপার এবং অন্যান্য বিভিন্ন আন্টিঅক্সিডেন্টের প্রধান উ

উপাদান

  • খোসা ছাড়ানো এক কাপ কলার টুকরো
  • খোসা ছাড়ানো টুকরো করা আধ কাপ আপ্রিকট
  • আধ কাপ জল

কীভাবে প্রস্তুত করবেন

ব্লেন্ডার দিয়ে যতক্ষনা সঠিক গঠন পাচ্ছেন ততক্ষণ মিশ্রিত করতে থাকুনএর মধ্য কিছুটা দারুচিনি এবং মধু মিশিয়ে এর স্বাদ বাড়াতে পারেন

সঠিক পুষ্টি হল আপনার বাচ্চার বৃদ্ধি এবং বিকাশের মূল চাবিকাঠিআপনার সন্তানকে বাড়িতে প্রস্তুত খাবার দেবার মাধ্যমে আপনি তাকে সুস্বস্থ্যের অধিকারী করে তোলার দিকে এক ধাপ এগিয়ে থাকুন