শিশুদের জন্য ব্রাউন রাইস-স্বাস্থ্য সুবিধা এবং রন্ধন প্রণালী সমূহ

শিশুদের জন্য ব্রাউন রাইস-স্বাস্থ্য সুবিধা এবং রন্ধন প্রণালী সমূহ

সাধারণ ভাত থেকে বাদামী ভাতে পরিবর্তনের কথা বলা হলে সিদ্ধান্তটি প্রাপ্তবয়স্কদের জন্য নির্বোধের মত মনে হয়।কিন্তু শুধুমাত্র অন্য যেকোন খাদ্য উপাদানের মতই এটা জানা প্রয়োজন যে,আপনার শিশুকে এটি দেওয়ার সঠিক সময় কখন এবং এটি দেওয়ার সঠিক পদ্ধতি।

aniview

আপনার শিশুর জন্য কি ব্রাউন রাইস ভাল?

ব্রাউন রাইস বা বাদামী চাল,এটির মধ্যে অনেকগুলি পুষ্টিকর উপাদান আছে বলে পরিচিত এবং এছাড়াও এটি অন্যান্য আরও খাদ্য উপাদানের সাথেও বেশ সামঞ্জস্যপূর্ণ।শিশুর প্রথম খাবারের জন্য বাদামী চাল বা ব্রাউন রাইসটি খুব ভাল একটা পছন্দ,যেহেতু এটিতে কোনও এলার্জেন থাকার সম্ভাবনা অত্যন্ত নিম্ন।

আপনার শিশুর খাদ্যের সাথে কখন আপনার ব্রাউন রাইসের পরিচয় করানো উচিত?

ব্রাউন রাইস বা ভাত যেটি বাড়িতে প্রস্তুত করা হয়,সেটি আপনার বাচ্চাকে দেওয়ার জন্য সবচেয়ে নিরাপদ একটি বিকল্প।বেশীরভাগ লোকেরাই আপনার বাচ্চাকে শক্ত খাদ্য উপাদান দেওয়ার সুপারিশ করে থাকেন শুধুমাত্র তার 6 মাস বয়স পূর্ণ হওয়ার পরেই।সুতরাং আপনি আপনার ছোট্ট সোনাকে ব্রাউন রাইস দেওয়া শুরু করতে পারেন একবার সে 6 মাসে পড়লেই।

ব্রাউন রাইসের পুষ্টি তথ্য

ব্রাউন রাইসের পুষ্টি তথ্য
রান্না করা 100 গ্রাম ব্রাউন রাইস পরিবেশনের মধ্যে,পুষ্টির উপস্থিতি নিম্নরূপঃ

বিবরণ পরিমাণ
ভিটামিন B1 0.401 মিলিগ্রাম
ভিটামিন B2 0.093 মিলিগ্রাম
ভিটামিন B3 5.091 মিলিগ্রাম
ভিটামিন B5 1.493 মিলিগ্রাম
ভিটামিন B6 0.509 মিলিগ্রাম
ভিটামিন B9 20 এমসিজি
কার্বোহাইড্রেট 77.24 গ্রাম
চিনি 0.85 গ্রাম
তন্তু 3.5 গ্রাম
ফ্যাট 2.92 গ্রাম
প্রোটিন 7.94 গ্রাম
জল 10.37 গ্রাম
ক্যালসিয়াম 23 মিলিগ্রাম
আয়রণ 1.47 মিলিগ্রাম
ম্যাগনেসিয়াম 143 মিলিগ্রাম
ম্যাঙ্গানিজ 3.743 মিলিগ্রাম
ফসফরাস 333 মিলিগ্রাম
পটাসিয়াম 223 মিলিগ্রাম
সোডিয়াম 7 মিলিগ্রাম
জিঙ্ক 2.02 মিলিগ্রাম 

সূত্রঃ  https://www.verywellfamily.com/brown-rice-nutrition-information-for-babys-first-year-284323

শিশুদের স্বাস্থ্যের জন্য ব্রাউন রাইসের উপকারীতা

আপনার সন্তানের স্বাস্থ্যের জন্য ব্রাউন রাইসের উপকারীতাগুলি নিম্নরূপ

  • ব্রাউন রাইসে অ্যালার্জেন থাকার সম্ভাবনা খুবই কম,তাই আপনার শিশুকে শক্ত খাবারের বিশ্বে পরিচয় করানোর ক্ষেত্রে এটি একটি নিখুঁত ও পূর্ণাঙ্গ উপাদান রূপে কাজ করে।
  • এর মধ্যে অপরিহার্য ফ্যাটি অ্যাসিড থাকে যা আপনার সন্তানের বিকাশের জন্য গুরুত্বপূর্ণ।
  • এই ভাতে প্রচুর পরিমাণে ফাইবার বা তন্তু থাকায়,শিশুদের কোষ্ঠকাঠিন্যে তাদের এটি দেওয়া সবচেয়ে সেরা খাদ্য।

ব্রাউন রাইস নির্বাচন এবং সংরক্ষণ

কীভাবে ব্রাউন রাইস নির্বাচন এবং সংরক্ষণ করবেন তার কিছু পরামর্শ এখানে দেওয়া হল।

1. রান্না না করা চাল

বাজার থেকে রান্না না করা ব্রাউন রাইসের যেকোনও প্যাকেট কেনার সময় সেগুলির উপর লেখা তার মেয়াদ শেষ হওয়ার তারিখ পুনঃনিরীক্ষণ করে নিন।

বাড়িতে,চালের এই প্যাকেটগুলিকে ফ্রীজে মজুত রাখা উচিত।এর কারণ হল এই যে,ব্রাউন রাইসের উপর এখনও তৈলাক্ত স্তর দ্বারা ঢাকা থাকে,যা সাদা চালে উপস্থিত থাকে না।যদি এটিকে ঘরের তাপমাত্রায় উন্মুক্ত করা হয়,তবে সেই তাপ চালকে বিস্বাদ করে তুলতে পারে।

2. রান্না করা ভাত

একবার রান্না করা হলে,ভাতের মধ্যে ব্যাকটেরিয়ার উপস্থিতি দ্বিগুণ হারে দ্রুত বৃদ্ধি পায় মজুত করে রাখা চালের তুলনায়।সাধারণত,ভাতকে 4 দিন পর্যন্ত ফ্রীজে রাখা যেতে পারে।যাইহোক,যতটুকু প্রয়োজন সেই পরিমাণটুকু চাল রান্না করাই সবথেকে ভাল এবং সংক্রমণ এড়াতে বেঁচে যাওয়া অবশেষ ফেলে দেওয়াই শ্রেয়।

রান্না করা ব্রাউন রাইসের ভাত মজুত করার অন্য উপায় হল রান্না করার পর এটিকে দ্রুত ঠাণ্ডা করতে হবে এবং অবিলম্বে তা হিমায়িত করা।এই ধরণের জমায়িত ব্রাউন রাইসের প্যাকেট ফ্রীজের মধ্যে একটানা দীর্ঘ 6 মাস ব্যাপী মজুত রাখা যেতে পারে।

ছোট শিশুদের জন্য ব্রাউন রাইস রান্না করার সবচেয়ে ভাল উপায়

  • শিশুদের জন্য ব্রাউন রাইসের পিউরি হল তার সাথে ব্রাউন রাইসের পরিচয় করানোর সবচেয়ে ভাল উপায়।
  • এটা করা হয় একটা কুকারের মধ্যে ব্রাউন রাইসকে নিয়ে রান্না করে।এক চতুর্থাংশ কাপ চাল গুড়ো নিয়ে দুই কাপ জলের সাথে মিশিয়ে সেটিকে সঠিকভাবে এবং অনবরত নাড়িয়ে যাওয়া উচিত।

শিশুর জন্য ব্রাউন রাইস খাওয়ার ঝুঁকি

খুব কম ক্ষেত্রে,ব্রাউন রাইসের মধ্যে আর্সেনিকের মাত্রা নির্দেশিত মানের থেকে বেশি দেখা গেছে।যাইহোক, সাধারণ স্তরে ,আর্সেনিকের সম্মুখীন হওয়ার সম্ভাবনা খুবই নগণ্য হয় যখন বিশুদ্ধ খাঁটি ব্রাউন রাইস কেনা হয় এবং সেটির স্বাস্থ্য উপকারীতাগুলি উচ্চমানের হয়।

ব্রাউন রাইসের এলার্জি প্রতিক্রিয়া গুলি

ব্রাউন রাইস খাওয়ার পর একটি শিশুর মধ্যে কোনও এলার্জির প্রতিক্রিয়া থাকলে সেটি সম্ভবত হতে পারে ঐ চালের মধ্যে অন্যান্য উপাদানের উপস্থিতির কারণে।এগুলি হল প্রাথমিকভাবে গ্লুটেন এবং গম,যেগুলি ব্রাউন রাইসের সাথে থাকে,এবং এর ফলে এলার্জির প্রতিক্রিয়া হতে পারে।

ব্রাউন রাইসের সহজ এবং স্বাস্থ্যকর শিশুখাদ্য রন্ধন প্রণালী

শিশুদের জন্য আপনি ব্রাউন রাইসের এই সকল সহজ এবং স্বাস্থ্যকর রেসিপিগুলি তৈরী করার চেষ্টা করতে পারেন।

1. ব্রাউন রাইস খিচুড়ি

আপনার কি কি প্রয়োজন হবে

  • ব্রাউন রাইস
  • ঘি
  • সবুজ কলাই বা হলুদ কড়াইশুঁটি
  • জল

কীভাবে প্রস্তুত করবেন

  • চালগুলি নিয়ে ভালোভাবে ধুয়ে নিন।30 মিনিটের জন্য এটিকে জলে ভিজিয়ে রাখুন।এরপর জলটি ফেলে দিন।
  • একটা প্রেসার কুকার নিন এবং তার মধ্যে চালের সাথে কলাই অথবা কড়াইশুঁটিগুলি যোগ করুন।এর সাথে জল যোগ করে কুকারটিকে ঢাকা দিয়ে আটকে দিন।
  • এবার চালটিকে রান্না হতে দিন যতক্ষণ না কুকারের তিনটি সিটি পড়ে।
  • এরপর কুকারের ঢাকা খুলে ভাতের সাথে ঘি যোগ করে দিন এর স্বাদ ও গন্ধ বাড়াবার জন্য।

2. ব্রাউন রাইসের ঘন ব্রথ বা স্যুপ

আপনার কি কি প্রয়োজন হবে

  • ছোট দানার ব্রাউন রাইস
  • ঘনকাকারে কাটা অ্যাপ্রিকট বা খুবানি
  • জল
  • লবণ

কীভাবে প্রস্তুত করবেন

  • ভালোভাবে চালটা ধুয়ে নিন।একটা কুকারের মধ্যে চালগুলি দিয়ে তার সাথে জল যোগ করুন এবং এর পাশাপাশি খুবানির কাটা টুকরোগুলিও দিয়ে দিন।
  • কুকারটিকে এবার উচ্চ তাপমাত্রায় রাখুন এবং প্রায় 5 ঘন্টা মত সেটিকে রান্না হতে দিন।
  • প্রতি এক বা দুই ঘন্টা ছাড়া ছাড়া কুকারটিকে খুলে মিশ্রণটিকে ভালোভাবে নাড়িয়ে দিন।
  • ব্রথ বা স্যুপের ঘনত্বটিতে সামঞ্জস্য আনার জন্য সেটির সাথে প্রয়োজন মত জল যোগ করুন।

3. ব্রাউন রাইসকুমড়োর পোরিজ বা জাউ

আপনার কি কি প্রয়োজন হবে

  • ব্রাউন রাইস
  • খোসা এবং বীজ ছাড়ানো কুমড়ো
  • জল

কীভাবে প্রস্তুত করবেন

  • সঠিকভাবে ব্রাউন চালটিকে ধুয়ে নিয়ে সেটিকে 30 মিনিটের জন্য জলে ভিজিয়ে রাখুন।
  • কুমড়োকে ভালোকরে ধুয়ে নিয়ে সেটিকে ছোট ছোট টুকরো করে কাটুন।
  • এবার কুমড়োর টুকরোগুলিকে একটা স্টীমারের মধ্যে দিয়ে সেগুলিকে আধ ঘন্টার জন্য ভাপিয়ে নিন।
  • এরপর একটা ব্লেন্ডারের মধ্যে ভিজানো চাল,জল এবং কুমড়োর টুকরোগুলি দিয়ে সব একসাথে পিঁষে মিশ্রিত করে নিন।
  • এটিকে যতটা সম্ভব মসৃণ করার জন্য এর সাথে জলের সামঞ্জস্য রাখুন।
  • এরপর পুরো মিশ্রণটিকে একটা পাত্রে ঢেলে সেটিকে কয়েক মিনিটের জন্য উচ্চ তাপমাত্রায় ফুটান।
  • এবার আগুনের শিখাটিকে কমিয়ে সেটিকে আরও কয়েক মিনিটের জন্য রান্না করুন।
  • এটিকে ঠাণ্ডা হতে দিন এবং শিশুকে পরিবেশনের জন্য ব্রাউন রাইস পোরিজের রেসিপিটি একদম প্রস্তুত।

4. ব্রাউন রাইস এবং ফলের পুডিং

আপনার কি কি প্রয়োজন হবে

  • ব্রাউন রাইসের রান্না করা ভাতের একটা পেষ্ট
  • মাখন
  • ম্যাপেল সিরাপ
  • জায়ফল
  • ড্রাই ফ্রুট
  • ছোট ছোট করে কাটা পাকা কলা

কীভাবে প্রস্তুত করবেন

  • একটা পাত্র নিন এবং তার মধ্যে সকল উপকরণগুলিকে নিয়ে সঠিকভাবে মিশ্রণ করুন।
  • এরপর পাত্রটিকে মাঝারী আঁচে বসান ও আধ ঘন্টার জন্য রান্না হতে দিন।
  • সমগ্র তরল সম্পূর্ণ রূপে শুষে গেলে সেটিকে আঁচ থেকে সরিয়ে নিন এবং পরিবেশন করুন।

5. আপেল এবং ন্যাশপাতির সাথে ব্রাউন রাইস

আপনার কি কি প্রয়োজন হবে

  • আপেলের জ্যুস
  • ব্রাউন রাইসের রান্না করা ভাতের একটা পেষ্ট
  • সম্পূর্ণরূপে খোসা ছাড়ানো ন্যাশপাতির কাটা টুকরো
  • সম্পূর্ণরূপে খোসা ছাড়ানো আপেলের কাটা টুকরো
  • কিশমিশ

কীভাবে প্রস্তুত করবেন

  • একটা সসপ্যান নিয়ে তার মধ্যে সকল উপকরণগুলিকে যথাযথ সঠিকভাবে মিশ্রিত করুন।
  • প্যানটিকে গরম করে মিশ্রণটিকে ফুটান।
  • এটিকে সঠিকভাবে নেড়ে দিন,আঁচ কমিয়ে দিন,এবং প্যানটিকে ঢাকা দিয়ে দিন।
  • এরপর সেটিকে আধ ঘন্টার জন্য রান্না হতে দিন যতক্ষন না জ্যুসটি পুরোপুরি শুকিয়ে যায়।
  • এটা একবার হয়ে গেলে পরিবেশন করুন।

6. ব্রাউন রাইস ফিশ ক্যাসারল

আপনার কি কি প্রয়োজন হবে

  • ব্রাউন রাইস
  • ক্যানজাত টুনা
  • চেডার চীজ কুড়ানো
  • ঘনকাকারে কাটা ধুন্দুল
  • কুঁচানো সেলারি(রাঁধুনি)শাক
  • শুকনো ইস্ট্রাগন (তার্খূন)
  • দই
  • জল
  • বুকের দুধ অথবা ফরমূলা ভিত্তিক দুধ

কীভাবে প্রস্তুত করবেন

  • ব্রাউন রাইসকে ভালোভাবে ধুয়ে নিয়ে জলে ভিজিয়ে রাখুন।এরপর চালটাকে সেদ্ধ করুন।
  • আঁচ কমিয়ে নিয়ে ঢাকা দিয়ে সেটিকে আধ ঘন্টার জন্য রান্না হতে দিন।
  • এটিকে আঁচ থেকে সরিয়ে নিয়ে মিশ্রণটির সাথে একে একে দুধ,টুনা,সেলারি(রাঁধুনি)শাক,দই,ইস্ট্রাগন (তার্খূন) এবং ধুন্দুল যোগ করুন।
  • এই সম্পূর্ণ মিশ্রণটিকে একটা বেকিং ডিশের মধ্যে ঢেলে দিন।এবার ওভেনের মধ্যে এটিকে রেখে 180 ডিগ্রী তাপমাত্রায় আধ ঘন্টার জন্য বেক করুন।
  • এটা হয়ে গেলে ডিশটি বের করে আনুন এবং এর উপরে কুড়ানো চেডার চীজ দিয়ে সাজিয়ে দিন।

7. ব্রাউন রাইস শস্যদানা

আপনার কি কি প্রয়োজন হবে

  • ব্রাউন রাইস গুড়ো অথবা জৈব চাল
  • জল
  • বুকের দুধ অথবা ফরমূলাজাত দুধ
  • চিনি

কীভাবে প্রস্তুত করবেন

  • একটা বাটিতে জল নিয়ে ফোটান।এবার সমানে নাড়তে নাড়তে ফুটানো জলের সাথে চাল গুড়োটি যোগ করুন।
  • কোনওরকম দলা পাকিয়ে যাওয়া এড়িয়ে চলতে সমানে নাড়তে নাড়তেই মিশ্রণটিকে 8-10 মিনিটের জন্য কম আঁচে বসিয়ে রাখুন।
  • এবার এটির সঙ্গে ফরমূলা বা বুকের দুধের সাথে কিছুটা চিনি যোগ করুন।
  • এবার আগুন থেকে সরিয়ে নিন এবং শিশুদের পরিবেশনের জন্য জৈব ব্রাউন রাইস শস্যদানা একদম প্রস্তুত।

8. বেকড ব্রাউন রাইস

আপনার কি কি প্রয়োজন হবে

  • ব্রাউন রাইস
  • বাড়িতে প্রস্তুত ব্রথ বা স্যুপ অথবা জল
  • সেলারি(রাঁধুনি)ডাটা

কীভাবে প্রস্তুত করবেন

  • ওভেনটিকে 180 ডিগ্রী তাপমাত্রায় গরম করে প্রস্তুত করুন।
  • একটা পাত্রের মধ্যে চাল নিয়ে সেটিকে মাঝারী আঁচে ক্রমাগত নাড়তে থাকুন।চালটি একদম সোনালী বাদামী বর্ণের হয়ে উঠবে।
  • সেলারি(রাঁধুনি) ডাটাগুলিকে ছোট ছোট টুকরো করে কেটে নিয়ে এর সাথে সাঁতলে নিন।
  • একটা বেকিং ডিশ নিয়ে তার মধ্যে চাল,সেলারি এবং ঘরে প্রস্তুত ব্রথ বা স্যুপ যোগ করুন
  • এরপর বেকড ডিশটিকে ওভেনের ভিতরে ঢুকিয়ে 45 মিনিটের জন্য বেক হতে দিন যতক্ষন না সমস্ত জলটা চাল দ্বারা শোষিত হয়ে যায়।
  • এটিকে বের করে এনে সব একসাথে ব্লেন্ড করে নিন।একবার ঠাণ্ডা হয়ে গেলে এটা পরিবেশনের জন্য প্রস্তুত।

প্রায়শই জিজ্ঞাসিত প্রশ্নাবলী

1. সাদা চাল কি ব্রাউন রাইসের তুলনায় বেশি তাড়াতাড়ি রান্না হয়?

হ্যাঁ,ব্রাউন রাইস সঠিকভাবে রান্না হতে সাদা চালের থেকে তুলনামূলকভাবে বেশি সময় নেয়।যাইহোক, এটি রান্না করার সময়টাকে কিছুটা কমানো যেতে পারে প্রয়োজনীয় পরিমাণে ব্রাউন রাইস আগে থেকে নিয়ে এবং সেটিকে আগের দিন সারা রাত ধরে ভিজিয়ে রাখার মাধ্যমে।ঐ ভিজিয়ে রাখা জলটিকেই রান্নার জন্য ব্যবহার করা যেতে পারে সকল পুষ্টিকর উপাদানগুলিকে বজায় রাখার জন্য।

2. শিশুদের জন্য কি ব্রাউন রাইসের সিরাপ নিরাপদ?

ব্রাউন রাইসের মধ্যে আর্সেনিকের উপস্থিতি সামান্য কিছু নমুনার মধ্যেই দেখা গেছে।একটি গবেষণায় জানা গেছে যে,ব্রাউন রাইস সিরাপে আর্সেনিকের পরিমাণ ছিল তার নিরাপদ পরিমাণের তুলনায় 6 গুণ বেশি।যদিও বেশিরভাগ লোকেরাই খাদ্য উপাদানগুলিকে মিষ্টি করতে ব্রাউন রাইস সিরাপকে ব্যবহার করে,বেশীরভাগ শিশুখাদ্যে তা করা হয় না এবং কৃত্রিম মিষ্টি সৃষ্টিকারী বা চিনি ব্যবহার করা উচিত নয়।

3. ব্রাউন রাইস দুধ কি শিশুকে দেওয়া যেতে পারে?

যদি কোনও ক্ষেত্রে শিশু ল্যাকটোজ অসহিষ্ণু হয় অথবা সয়াতে এলার্জি থাকে,তবে সেক্ষেত্রে ডাক্তারের সাথে আলোচনা করার পর শিশুকে ব্রাউন রাইস দুধ দেওয়া যেতে পারে।

4. ফার্মেন্টেড বা গেঁজিয়ে ওঠা ব্রাউন রাইস কি শিশুর জন্য নিরাপদ?

ফার্মেন্টেশন বা গেঁজিয়ে যাওয়া ভাতের পুষ্টি মূল্য বৃদ্ধি করে।যাইহোক,শিশুদের খাওয়ানোর জন্য এটি ব্যবহার করার আগে ফার্মেন্টেড বা গেঁজিয়ে ওঠা ভাতকে সঠিকভাবে ফ্রীজের মধ্যে মজুত রাখা গুরুত্বপূর্ণ।

5. শিশুদের জন্য কি ব্রাউন বাসমতী রাইস বা বাদামী বাসমতী চাল ভাল?

লম্বা দানার সাথে গ্লুটেনের অনুপস্থিতি এবং উচ্চ পরিমাণে অ্যামাইনো অ্যাসিডগুলি ব্রাউন বাসমতী রাইসে বিদ্যমান যা শিশুদের পুষ্টির জন্য দূর্দান্ত।

6. আপনি কি আপনার সন্তানকে চটজলদি ব্রাউন রাইস দিতে পারেন?

ইন্সট্যান্ট বা চটজলদি ব্রাউন রাইসের পুষ্টি মূল্য উচ্চ মাত্রায় কমে যায় এটিকে প্রক্রিয়াজাত করার কারণে।সুতরাং,তাজা সাধারণ ব্রাউন রাইস দেওয়াই সবচেয়ে ভাল।

ব্রাউন রাইসের পুষ্টিগুণ এবং বিভিন্ন রেসিপিতে এর ব্যবারের বহুমুখীতা শিশুদের জন্য খাদ্য উপাদান হিসেবে এটিকে অতিমাত্রায় ব্যবহারযোগ্য করে তোলে।কোনও ক্ষেত্রে,আপনার শিশুর খাদ্যে ব্রাউন রাইসের পরিমাণ যোগ করার জন্য আপনার ডাক্তারবাবুর কাছ থেকে দ্রুত কোনও সুপারিশ পেলে আপনি সবকিছুই সেক্ষেত্রে ভালোভাবে করে যেতে পারেন।