24 মাস বয়সী শিশুর খাদ্য-ধারণা,চার্ট এবং রেসিপি সমূহ

24 Months Old Baby Food - Ideas, Chart, and Recipes

আপনার শিশুটি দুইএ পড়েছে এবং সে এখন তার খাবারের থালায় আপনার পরিবেশন করা প্রায় সকল খাদ্য আইটেমগুলিই খেতে পারে।এটিকে যেমন একটি আশীর্বাদ বলে মনে হতে পারে,তেমনি আবার এর অর্থ হয়ে উঠতে পারে আপনার সন্তান এখন আগের থেকেও বেশি খাওয়ার ব্যাপারে খুঁতখুঁতে হয়ে উঠবে এবং বেশ কয়েকটি নির্দিষ্ট খাবার আবার সে খেতে প্রত্যাখ্যানও করতে পারে, শুধুমাত্র সে ঐ সকল খাদ্যগুলির স্বাদ পছন্দ না করার কারণে।সুতরাং তার খাদ্য চয়নের ব্যাপারে আপনাকে আরও বেশি সচেতন হতে হবে।তবে আপনার বাচ্চার খাদ্যাভ্যাসের ব্যাপারে চিন্তা করার কোনও প্রয়োজন নেই কারণ আমরা আপনাকে দিতে চলেছি অত্যাশ্চর্য এমন কিছু ধারণা এবং রেসিপি যেগুলি আপনি আপনার দুই বছর বয়সী ছোট্টটির জন্য প্রয়াস চালাতে পারেন।

aniview

একটি 24 মাস বয়সী শিশুর পুষ্টির প্রয়োজনীয়তাগুলি

2 বছর বয়সে, আপনার শিশুর ক্ষুধা অনিবার্যভাবেই বেড়ে যাবে, আর তাই আপনি তাকে দেখতে পাবেন, তার সম্মুখে আসা যেকোনও কিছুকেই গোগ্রাসে খেয়ে ফেলতে। তার কোনওকিছু এবং সবকিছু খাওয়ার ক্ষেত্রেই একজন অভিভাবক হিসেবে আপনার দায়িত্ব হল এটি ভালভাবে দেখা যে তার প্রয়োজনীয় পুষ্টির চাহিদাগুলি তার প্রাপ্ত খাদ্যগুলির দ্বারা পরিপূ্রণ হচ্ছে কিনা। একটি 24 মাস বয়সী শিশুর পুষ্টির প্রয়োজনীয়তাগুলি নিম্নরূপঃ

1.ক্যালোরি

1-4 বছর বয়সের মধ্যে থাকা একটি শিশুর ক্যালোরির প্রয়োজনীয়তা সেরকম ব্যাপকভাবে বৃদ্ধি পায় না যেরকম আপনি আশা করেন।অধিকাংশ শিশুরই দৈনিক ভিত্তিতে কেবলমাত্র প্রায় 1200-1300 ক্যালোরির প্রয়োজন হয়।

2.প্রোটিন

একটি শিশুর দেহের এবং মাংসপেশীর বৃদ্ধি ভীষণ মাত্রায় নির্ভর করে তার প্রোটিন গ্রহণের উপর।কিন্তু তাই বলে এর অর্থ কখনই এটি নয় যে তার খাদ্য তালিকাটি কেবলমাত্র প্রোটিন সমৃদ্ধ খাদ্যেই ভরপুর হওয়া উচিত।সাধারণ খাদ্য উপাদানগুলি থেকেই একটি শিশু যথেষ্ট প্রোটিন পায়।

3.কার্বোহাইড্রেট

এই বয়সের একটি শিশুর প্রতিটি খাদ্যের মূল গঠণেই বেশিরভাগ ক্ষেত্রে কার্বোহাইড্রেট থাকে।সারাদিন ধরে একটি শিশুকে সঠিকভাবে সক্রিয় রাখার জন্য প্রয়োজন মোটামুটি প্রায় 130-150 গ্রাম মত কার্বোহাইড্রেট।

4.খাদ্যগত তন্তু

এই বয়সের বাচ্চাদের বেশিরভাগ আহারেই প্রক্রিয়াজাত খাদ্যগুলি অন্তর্ভূক্ত হওয়ার কারণে, সেগুলির পাশাপাশি তাদের খাদ্য তালিকায় সম্পূর্ণ খাদ্য আইটেমগুলির অন্তর্ভূক্তিকরণ বজায় রাখাটাও গুরুত্বপূর্ণ।ফল অথবা শস্যদানাগুলির সংযোজন আপনার সন্তানের খাদ্যের মধ্যে ফাইবার বা তন্তুকে অন্তর্ভূক্ত করতে পারে এবং তার পাচন তন্ত্রকেও স্বাস্থ্যকর রাখে।

5.সোডিয়াম

বেশিরভাগ মাবাবারাই লবণ থেকে তাদের শিশুদের দেহে প্রচুর পরিমাণে সোডিয়াম প্রবেশের ব্যাপারে অস্থির হয়ে ওঠেন।কিন্তু শিশুদের এই বয়সে প্রতিদিন প্রায় এক গ্রাম মত সোডিয়াম গ্রহণ বজায় রাখাটা খুবই গুরুত্বপূর্ণ।

6.আয়রণ

সোডিয়ামের পাশাপাশি আয়রণ হল অপর আরেকটি গুরুত্বপূর্ণ উপাদান,যেটি কোনও শিশুর দেহে তার সংবহনতন্ত্রকে সর্বোত্তম মাত্রায় রাখতে একটি গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে।ডায়েট যখন ভারসাম্যযুক্ত হয়ে থাকে তখন তার সাথে আর অতিরিক্তভাবে আয়রণের পরিপূরক দেওয়ার প্রয়োজন হয় না।

7.দুধ

দুধের গুরুত্ব কেবল বলা বা লেখার জন্যই যথেষ্ট হতে পারে না এর গুরুত্ব অপরিসীম।দুধ হাড়ের গঠণ এবং একটি শিশুর বিকাশ ও সার্বিক বৃদ্ধির জন্য অপরিহার্য, সুতরাং আপনার সন্তানের প্রতিদিন এক গ্লাস করে দুধ পান করা নিশ্চিত করুন।আপনি তাকে গরুর দুধ, সয়া দুধ কিম্বা আবার আমণ্ড বাদামের দুধও দিতে পারেন।

8.জল

পুষ্টির উপাদানগুলির তালিকায় জলের উপস্থিতি বিস্ময়কর বলে মনে হতে পারে তবে আপনি জেনে অবাক হবেন যে কেবলমাত্র গুটি কয়েক শিশুই তাদের প্রতিদিনের 1.3 লিটার জল পানের প্রয়োজনীয়তাটুকু পূরণ করতে পায়।অতএব, আপনি অবশ্যই লক্ষ্য রাখুন আপনার সন্তান পর্যাপ্ত জল পান করছে কি না।

একটি 24 মাস বয়সী শিশুর কতটা খাদ্যের প্রয়োজন?

যদিও আপনার সন্তান এখনও ক্রমবর্ধমান পর্যায়ে কিন্তু তার মানে এই নয় যে আপনি তাকে প্রতি ঘন্টায় ঘন্টায় খাওয়াবেন।তার বর্তমান বয়স অনুযায়ী, দৈনিক ভিত্তিতে তার 1.5 কিলোক্যালোরির বেশি প্রয়োজন নেই।আর এটি সহজেই অর্জন করা যেতে পারে দানাশস্য, ফল, সবজি এবং অন্যান্য খাদ্য আইটেমের সমন্বয়ে গঠিত একটি সুষম আহার গ্রহণের মাধ্যমে।

একটি চব্বিশ মাস বয়সী শিশুর জন্য সর্বশ্রেষ্ঠ খাদ্যগুলি

24 মাস সম্পূর্ণ হওয়ার সাথে আপনার ছোট্ট শিশুটি তার জীবনের একটি গুরুত্বপূর্ণ পর্যায়ে এসে উপস্থিত হয়।সম্মুখে এগিয়ে চলার পথে একটা ভাল পরিমাণে ওজন লাভ করা এবং জৈবিক ক্রিয়ার জন্য প্রয়োজনীয় শক্তির সঞ্চয় ভাণ্ডারের বিকাশ লাভ করতে সর্বোত্তম খাদ্যগুলি গ্রহণ করা তার জন্য খুবই গুরুত্বপূর্ণ।আর এটি ঘটাতে সাহায্য করতে পারে বেশ কয়েকটি নির্দিষ্ট খাদ্য

1.ডিম

ডিম

অমলেট হিসাবে কিম্বা সেদ্ধ আকারে আপনার ছোট্টটিকে একটি সম্পূর্ণ ডিম দেওয়া্র অর্থ হল তার ওজনে আরও কিছুটা সংযোজন করা এবং তাকে একটি ভরাট খাবার বানিয়ে দেওয়ার এটি হল একটি দুর্দান্ত উপায়।বাচ্চারা কোনওরকম সমস্যা ছাড়াই কুসুম এবং সাদাডিমের এই উভয় অংশই খেতে পারে

2.খিঁচুড়ি

শিশুদের নিজে নিজে খাওয়ার মাধ্যমে যেহেতু তাদের একটি সম্পূর্ণ আহার পাওয়ানোর ব্যাপারটি মুশকিল হয়ে উঠতে পারে, সেক্ষেত্রে খিঁচুড়ি হল একটি দুর্দান্ত বিকল্প যা খুব কম সময়ের মধ্যেই তৈরী করা যেতে পারে এবং পুষ্টিতে পরিপূর্ণ, যার জন্য ধন্যবাদের দাবীদার এর মধ্যে উপস্থিত চাল এবং বিভিন্ন ধরনের ডাল উভয়ই। বাচ্চাদের খিঁচুড়ি খাওয়ালে তা তাদের স্বাস্থ্যকর ওজন লাভে সহায়তা করে এবং তার পাশাপাশি বিপাক ক্রিয়াকেও উদ্দীপিত করে।

3.আলু

আলু

এটি এমন এক প্রকার সবজি যেটিকে ব্যবহার করা যেতে পারে যেকোনও ধরণের খাদ্য প্রস্তুত করার সাথে।হ্যাঁ, আপনি এটি খেতে অবশ্যই বিরক্ত হতে পারেন কিন্তু আপনার শিশুর জন্য এটি অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ।আপনার শিশুর খাদ্য তালিকায় আলু সংযোজন করা প্রয়োজন কারণ শ্বেতসার জাতীয় সবজিগুলি এই বয়সে বেশ গুরুত্বপূর্ণ।

4.দই

প্রথম থেকেই একটি শিশুর দেহে শক্তির প্রয়োজন হয়।দুধ বা দইয়ের ক্রীম, ফ্যাট বা স্নেহ পদার্থের একটি দুর্দান্ত উৎস এবং এমনকি এটি শরীরে শক্তিও সরবরাহ করে, এটি আবার দেহ দ্বারা সবচেয়ে ভালভাবে সংশ্লেষিত হতে পারে, যা সন্তানের পক্ষে উপকারী প্রমাণিত হতে পারে

5.মিল্কশেক

আপনার ছোট্টটি ঘ্যান ঘ্যান করতে শুরু করতে পারে যখন প্রতিদিন তার এক গ্লাস দুধ খাওয়ার সময় আসে।এর সাথে কোনও একটি ফল যোগ করে সেটিকে একটি মিল্কশেকে রূপান্তরিত করে তুললে তা এক্ষেত্রে সহায়ক হয়ে উঠতে পারে যা আবার দুধের সাথে অতিরিক্ত পুষ্টিও সরবরাহ করে এবং অচিরেই আপনার ছোট্ট সোনাটির ভালবাসার একটি পানীয়ও হয়ে উঠতে পারে।

6.ঘি

আপনার সন্তানকে সবজি পরিবেশন করার সময় তার সাথে এক চামচ পূর্ণ করে ঘি যোগ করা তার এই বয়সে একটি অভ্যাসে পরিণত হয়ে ওঠা উচিত।যদিও সবজিগুলিকে ঘি দিয়েই প্রস্তুত করা উচিত কিন্তু আপনার নিজের স্বাস্থ্য অক্ষুণ্ণ রাখতে আপনি ঘিয়ের পরিবর্তে জলপাই তেল ব্যবহারকে বেছে নিতে পারেন।

7.বাদাম

আপনার বাচ্চার খাদ্য তালিকায় বিভিন্ন ধরণের বাদাম সংযোজন করার একটা দুর্দান্ত সময় হল তার প্রাতঃরাশের সময়টি।এগুলিকে সিরিয়াল বা দানাশস্যের সাথে মিশিয়ে তাকে দিতে পারেন অথবা সে ঘুম থেকে ওঠার পর শুধুশুধিই তাকে এর কয়েকটি দিতে পারেন।আমন্ড থেকে কাজুবাদাম কিম্বা কিশমিশ যাইহোক না কেন সবগুলিই তাকে দেওয়ার জন্য ভাল হতে পারে যদি তা মাঝারি পরিমাণে দেওয়া হয়।

8. শণ বীজ

একজন বাড়ন্ত বাচ্চার জন্য প্রোটিন, ফ্যাট এবং তন্তু সমন্বিত একটি স্বাস্থ্যকর আহার অত্যন্ত প্রয়োজনীয়।এই পুষ্টি উপাদানগুলির প্রয়োজন মেটানোর জন্য শণ বীজ আপনার সন্তানের ডায়েটে যোগ করতে পারেন।যদিও এইক্ষেত্রে শণ বীজ দারুণভাবে জনপ্রিয় কিন্তু কুমড়ো বা তরমুজের বীজ একই কাজ করতে পারে।

9.পীনাট বা চিনা বাদামের মাখন

পীনাট বা চিনা বাদামের মাখন

হ্যাঁ, এটি হল আপনার সন্তানের জন্য একটি স্বাস্থ্যকর খাদ্য আইটেম।যদিও বাদামের মাখন এবং জেলি স্যান্ডউইচগুলি বিশেষ অনুষ্ঠানের জন্য খাদ্য বরাদ্দ রাখাই সবচেয়ে ভাল তবুও আপনি বাদামের মাখন টিকে নানা ধরণের রান্নার কাজে ব্যবহার করতের পারেন কারণ এটি হল শক্তি এবং ফ্যাটের এক অসাধারণ উৎস।

10.গুড়

বেশির ভাগ পরিবারই মিষ্টি স্বাদ আনার জন্য পরিশ্রূত চিনি ব্যবহার করেন।সেটাকে গুড় দিয়ে প্রতিস্থাপন করলে সেটি শুধুমাত্র সকলের জন্যে একটা স্বাস্থ্যকর বিকল্প হয়ে উঠবে না আপনার সন্তানও আবার এর থেকে এর সমস্ত স্বাস্থ্য উপকারীতাগুলি পেয়ে থাকবে।

24 মাস বয়সী শিশুর খাদ্য তালিকা / মিল প্ল্যান বা আহার পরিকল্পনা

আপনার 24 মাস বয়সী টলটলায়মান শিশুটিকে কি খেতে দেবেন সেটা ঠিক করতে করতেই সারা দিন কেটে যেতে পারে।একটি সাধারণ আহার পরিকল্পনা নমুনা হিসাবে ধরে আপনার নিজের মত করে সেটাকে সাজিয়ে নিন।নিচের খাদ্য পরিকল্পনাটি দারুণ হবে সেইসব বাচ্চাদের জন্য যাদের বয়স 2

একটি 24 মাস বয়সী শিশুর জন্য ডায়েট– 1ম সপ্তাহ, 1ম দিন

প্রাতঃরাশ সেভিয়ান নারকেল উপমা+দুধ
সকালের জলখাবার কলা/আপেল/আঞ্চলিক ভাবে প্রাপ্ত যেকোনো ফল
মধ্যাহ্ন ভোজ ছোটো রুটি+ডাল+পছন্দ অনুযায়ী যেকোনো সবজী+কয়েক টুকরো গাজর/শসা/টমেটো+1 চামচ ধনেপাতা/পুদিনা পাতার চাটনি
সন্ধ্যার খাবার ফলের স্মুদি
নৈশভোজ মেথির(ফেনুগ্রিক)থেপলা+ডাল(মুসুর)স্যুপ

একটি 24 মাস বয়সী শিশুর জন্য ডায়েট– 1ম সপ্তাহ, 2য় দিন

প্রাতঃরাশ বিভিন্ন দানাশস্যের চিলা+আমন্ড মিল্কশেক
সকালের জলখাবার আঞ্চলিক ভাবে প্রাপ্ত যেকোনো ফল
মধ্যাহ্ন ভোজ ছোটো রুটি+ডাল+পছন্দ অনুযায়ী যেকোনো সবজী+কয়েক টুকরো গাজর/শসা/টমেটো+1 চামচ ধনেপাতা/পুদিনা পাতার চাটনি
সন্ধ্যার খাবার আমন্ডডুমুর(ফিগ) মিল্কশেক
নৈশভোজ পনীর(কটেজ চীজ)পোলাও+রায়তা

একটি 24 মাস বয়সী শিশুর জন্য ডায়েট– 1ম সপ্তাহ, 3য় দিন

প্রাতঃরাশ পরোটা সাথে দুধ+কিশমিশ+ মধু
সকালের জলখাবার কাটা ফল
মধ্যাহ্ন ভোজ ছোটো রুটি+ডাল+পছন্দ অনুযায়ী যেকোনো সবজী+কয়েক টুকরো গাজর/শসা/টমেটো+1 চামচ ধনেপাতা/পুদিনা পাতার চাটনি
সন্ধ্যার খাবার পনীর(কটেজ চীজ)+খাখারা চাট
নৈশভোজ বাজরা(পার্ল মিলেট)-ব্যাসন (ছোলার)-লাউ মুঠিয়া+টমেটো গাজর পুদিনার চাটনি

একটি 24 মাস বয়সী শিশুর জন্য ডায়েট– 1ম সপ্তাহ, 4র্থ দিন

প্রাতঃরাশ ফিরনি
সকালের জলখাবার কাটা ফল
মধ্যাহ্ন ভোজ ছোটো রুটি+ডাল+পছন্দ অনুযায়ী যেকোনো সবজী+কয়েক টুকরো গাজর/শসা/টমেটো+1 চামচ ধনেপাতা/পুদিনা পাতার চাটনি
সন্ধ্যার খাবার চীনা বাদামের চিক্কি+1/2 কাপ আঞ্চলিক ভাবে প্রাপ্ত যেকোনও ফল
নৈশভোজ পনীর পোলাও+রায়তা

একটি 24 মাস বয়সী শিশুর জন্য ডায়েট– 1ম সপ্তাহ, 5ম দিন

প্রাতঃরাশ ওটআমন্ড ক্ষীর
সকালের জলখাবার কাটা ফল
মধ্যাহ্ন ভোজ ছোটো রুটি+ডাল+পছন্দ অনুযায়ী যেকোনো সবজী+কয়েক টুকরো গাজর/শসা/টমেটো+1 চামচ ধনেপাতা/পুদিনা পাতার চাটনি
সন্ধ্যার খাবার কলা/ আপেলের মিল্কশেক
নৈশভোজ সাম্বার এবং চাটনির সাথে রাগি(ফিংগার মিলেট)ধোসা

একটি 24 মাস বয়সী শিশুর জন্য ডায়েট– 1ম সপ্তাহ, 6ষ্ঠ দিন

প্রাতঃরাশ টমেটো এবং ক্যাপসিকাম দিয়ে

পোহা(চিঁড়ে)+ চকলেট মিল্কশেক

সকালের জলখাবার কাটা ফল
মধ্যাহ্ন ভোজ ছোটো রুটি+ডাল+পছন্দ অনুযায়ী যেকোনো সবজী+কয়েক টুকরো গাজর/শসা/টমেটো+1 চামচ ধনেপাতা/পুদিনা পাতার চাটনি
সন্ধ্যার খাবার ডালিয়া( ভাঙা গম)
নৈশভোজ পনীর(কটেজ চীজ)-আলুপালং শাকের পরোটা+দই

একটি 24 মাস বয়সী শিশুর জন্য ডায়েট– 1ম সপ্তাহ, 7ম দিন

প্রাতঃরাশ কলার প্যানকেক
সকালের জলখাবার কাটা ফল
মধ্যাহ্ন ভোজ ছোটো রুটি+ডাল+পছন্দ অনুযায়ী যেকোনো সবজী+কয়েক টুকরো গাজর/শসা/টমেটো+1 চামচ ধনেপাতা/পুদিনা পাতার চাটনি
সন্ধ্যার খাবার মধু এবং আমন্ড সহযোগে পনীর(কটেজ চীজ)
নৈশভোজ বাজরার(পার্ল মিলেট)রুটি+বেগুন ভর্তা+ডালের(মুসুর)স্যুপ

একটি 24 মাস বয়সী শিশুর জন্য ডায়েট– 2য় সপ্তাহ, 1ম দিন

প্রাতঃরাশ ডালিয়া(ভাঙা গম)উপমা দুধের সাথে গাজর কোঁড়া দিয়ে।
সকালের জলখাবার সাধারণ খাখারা দই এর সাথে মিশিয়ে।
মধ্যাহ্ন ভোজ ছোটো রুটি+ডাল+পছন্দ অনুযায়ী যেকোনো সবজী+কয়েক টুকরো গাজর/শসা/টমেটো+1 চামচ ধনেপাতা/পুদিনা পাতার চাটনি
সন্ধ্যার খাবার সাধারণ খাখারা দই এর সাথে মিশিয়ে।
নৈশভোজ পালংমুগডাল(ভাঙা হলুদ ডাল)মুঠিয়া

একটি 24 মাস বয়সী শিশুর জন্য ডায়েট– 2য় সপ্তাহ, 2য় দিন

প্রাতঃরাশ কলার প্যানকেক এবং চকলেট দুধ
সকালের জলখাবার
মধ্যাহ্ন ভোজ ছোটো রুটি+ডাল+পছন্দ অনুযায়ী যেকোনো সবজী+কয়েক টুকরো গাজর/শসা/টমেটো+1 চামচ ধনেপাতা/পুদিনা পাতার চাটনি
সন্ধ্যার খাবার চটকানো আলুর সাথে পনীর(কটেজ চীজ)কুড়োনো
নৈশভোজ ডালের খিচুড়ি(মুসুর)ার তার সাথে পদ্ম ডাঁটার স্যুপ

একটি 24 মাস বয়সী শিশুর জন্য ডায়েট– 2য় সপ্তাহ, 3য় দিন

প্রাতঃরাশ টোষ্ট এর সাথে ডিম ভূনা এবং ফলের মিল্কশেক
সকালের জলখাবার 2-3 টি ঘরে তৈরী কুকিজ+দুধ
মধ্যাহ্ন ভোজ ছোটো রুটি+ডাল+পছন্দ অনুযায়ী যেকোনো সবজী+কয়েক টুকরো গাজর/শসা/টমেটো+1 চামচ ধনেপাতা/পুদিনা পাতার চাটনি
সন্ধ্যার খাবার 2-3 টি ঘরে তৈরী কুকিজ+দুধ
নৈশভোজ সজনে শাক এবং সজনে ডাঁটার সাথে পনীরের(কটেজ চীজ)পরোটা

একটি 24 মাস বয়সী শিশুর জন্য ডায়েট– 2য় সপ্তাহ, 4র্থ দিন

প্রাতঃরাশ মুগডালপালং এর ধোকলা সাথে সবুজ চাটনি
সকালের জলখাবার মশলা মাখনা(পদ্মের সেদ্ধ বীজ)+ কলার মিল্কশেক
মধ্যাহ্ন ভোজ ছোটো রুটি+ডাল+পছন্দ অনুযায়ী যেকোনো সবজী+কয়েক টুকরো গাজর/শসা/টমেটো+1 চামচ ধনেপাতা/পুদিনা পাতার চাটনি
সন্ধ্যার খাবার মশলা মাখনা(পদ্মের সেদ্ধ বীজ)+ কলার মিল্কশেক
নৈশভোজ সবজির স্যুপ/মুরগীর ব্রথ বা সেদ্ধ ঝোল সাথে সবজির পরোটা এবং দই বা লস্যি

একটি 24 মাস বয়সী শিশুর জন্য ডায়েট– 2য় সপ্তাহ, 5ম দিন

প্রাতঃরাশ দুধ দিয়ে ছাতু (ছোলার), আমন্ড এবং খেজুর(বীজ ছাড়ানো)
সকালের জলখাবার রাজগিরা( অ্যামারান্থ) চিক্কি দুধে ডুবিয়ে
মধ্যাহ্ন ভোজ ছোটো রুটি+ডাল+পছন্দ অনুযায়ী যেকোনো সবজী+কয়েক টুকরো গাজর/শসা/টমেটো+1 চামচ ধনেপাতা/পুদিনা পাতার চাটনি
সন্ধ্যার খাবার টমেটোর চাটনির সাথে ফ্রেঞ্চ ফ্রাই(আলু ভাজা)
নৈশভোজ রাগি( ফিংগার মিলেট)টমেটো স্যুপ সাথে রাজমা(কিডনি বীন)চাউল

একটি 24 মাস বয়সী শিশুর জন্য ডায়েট– 2য় সপ্তাহ, 6ষ্ঠ দিন

প্রাতঃরাশ চাটনি বা সাম্বার দিয়ে ইডলি
সকালের জলখাবার কলা/আপেলের মিল্কশেক
মধ্যাহ্ন ভোজ ছোটো রুটি+ডাল+পছন্দ অনুযায়ী যেকোনো সবজী+কয়েক টুকরো গাজর/শসা/টমেটো+1 চামচ ধনেপাতা/পুদিনা পাতার চাটনি
সন্ধ্যার খাবার তিল গুড়োর লাড্ডু সাথে কলার মিল্কশেক
নৈশভোজ রুটি+ডাল+পছন্দ অনুযায়ী যেকোনো সবজী+কয়েক টুকরো শসা+হাতে চটকানো ভাত

একটি 24 মাস বয়সী শিশুর জন্য ডায়েট– 2য় সপ্তাহ, 7ম দিন

প্রাতঃরাশ ছোলা কারীর সাথে পুট্টু(তামিল রেসিপি)বা পুডিং
সকালের জলখাবার কাটা ফল
মধ্যাহ্ন ভোজ ছোটো রুটি+ডাল+পছন্দ অনুযায়ী যেকোনো সবজী+কয়েক টুকরো গাজর/শসা/টমেটো+1 চামচ ধনেপাতা/পুদিনা পাতার চাটনি
সন্ধ্যার খাবার গমের লাড্ডু এবং দুধ
নৈশভোজ ডালের ধোকলার সাথে গাজরের টুকরো

একটি 24 মাস বয়সী শিশুর জন্য ডায়েট– 3য় সপ্তাহ, 1ম দিন

প্রাতঃরাশ শসা কুঁচির সাথে ওটসের প্যানকেক
সকালের জলখাবার কাটা ফল
মধ্যাহ্ন ভোজ ছোটো রুটি+ডাল+পছন্দ অনুযায়ী যেকোনো সবজী+কয়েক টুকরো গাজর/শসা/টমেটো+1 চামচ ধনেপাতা/পুদিনা পাতার চাটনি
সন্ধ্যার খাবার গ্রীলড মিষ্টি আলুর টুকরো
নৈশভোজ ছোলার পুরি+লস্যি

একটি 24 মাস বয়সী শিশুর জন্য ডায়েট– 3য় সপ্তাহ, 2য় দিন

প্রাতঃরাশ মাখন তোলা দুধের সাথে প্রস্তুত সবজির উপমা
সকালের জলখাবার পনীর(কটেজ চীজ)-আপেল চটকানো
মধ্যাহ্ন ভোজ ছোটো রুটি+ডাল+পছন্দ অনুযায়ী যেকোনো সবজী+কয়েক টুকরো গাজর/শসা/টমেটো+1 চামচ ধনেপাতা/পুদিনা পাতার চাটনি
সন্ধ্যার খাবার ওটসআপেল স্মুদি
নৈশভোজ ভূট্টার(কর্ন)রুটি+সরষে শাক

একটি 24 মাস বয়সী শিশুর জন্য ডায়েট– 3য় সপ্তাহ, 3য় দিন

প্রাতঃরাশ রুটি দিয়ে অমলেট বা পনীরের(কটেজ চীজ)স্যান্ডউইচ
সকালের জলখাবার পাউরুটির স্লাইস মাখন বা ঘরে তৈরী ফলের জ্যাম দিয়ে
মধ্যাহ্ন ভোজ ছোটো রুটি+ডাল+পছন্দ অনুযায়ী যেকোনো সবজী+কয়েক টুকরো গাজর/শসা/টমেটো+1 চামচ ধনেপাতা/পুদিনা পাতার চাটনি
সন্ধ্যার খাবার পনীর(কটেজ চীজ)-খেজুর লাড্ডু
নৈশভোজ নানারকম সবজি দিয়ে পনিরের(কটেজ চীজ)পরোটা টমেটোর স্যুপ সহ

একটি 24 মাস বয়সী শিশুর জন্য ডায়েট– 3য় সপ্তাহ, 4র্থ দিন

প্রাতঃরাশ রাজগিরা(অ্যামারান্থ)-গমের শিরার সাথে চটকানো কিশমিশ
সকালের জলখাবার কলা/আপেল/আঞ্চলিক ভাবে প্রাপ্ত যেকোনো ফল
মধ্যাহ্ন ভোজ ছোটো রুটি+ডাল+পছন্দ অনুযায়ী যেকোনো সবজী+কয়েক টুকরো গাজর/শসা/টমেটো+1 চামচ ধনেপাতা/পুদিনা পাতার চাটনি
সন্ধ্যার খাবার বেকড আলুর ফালি উপরে চীজ দিয়ে
নৈশভোজ পনীরের(কটেজ চীজ)কাটলেট অথবা গ্রীলড মাছ টমেটো ও ধনে পাতার স্যুপের সাথে

একটি 24 মাস বয়সী শিশুর জন্য ডায়েট– 3য় সপ্তাহ, 5ম দিন

প্রাতঃরাশ পুরি সবজি আর সাথে দুধ
সকালের জলখাবার বিভিন্ন দানাশস্যের লাড্ডু
মধ্যাহ্ন ভোজ ছোটো রুটি+ডাল+পছন্দ অনুযায়ী যেকোনো সবজী+কয়েক টুকরো গাজর/শসা/টমেটো+1 চামচ ধনেপাতা/পুদিনা পাতার চাটনি
সন্ধ্যার খাবার কলা/আপেল/আঞ্চলিক ভাবে প্রাপ্ত যেকোনো ফল আর দই
নৈশভোজ টোষ্টের সাথে বেকড বীন্স

একটি 24 মাস বয়সী শিশুর জন্য ডায়েট– 3য় সপ্তাহ, 6ষ্ঠ দিন

প্রাতঃরাশ সেভিয়ান ক্ষীর
সকালের জলখাবার কলা/আপেল/আঞ্চলিক ভাবে প্রাপ্ত যেকোনো ফল
মধ্যাহ্ন ভোজ ছোটো রুটি+ডাল+পছন্দ অনুযায়ী যেকোনো সবজী+কয়েক টুকরো গাজর/শসা/টমেটো+1 চামচ ধনেপাতা/পুদিনা পাতার চাটনি
সন্ধ্যার খাবার কলা/আপেলের মিল্কশেক
নৈশভোজ সবজি খিচুড়ি সাথে দই

একটি 24 মাস বয়সী শিশুর জন্য ডায়েট– 3য় সপ্তাহ, 7ম দিন

প্রাতঃরাশ মাখন তোলা দুধের সাথে প্রস্তুত সবজি উপমা
সকালের জলখাবার ফলের টুকরো
মধ্যাহ্ন ভোজ ছোটো রুটি+ডাল+পছন্দ অনুযায়ী যেকোনো সবজী+কয়েক টুকরো গাজর/শসা/টমেটো+1 চামচ ধনেপাতা/পুদিনা পাতার চাটনি
সন্ধ্যার খাবার চিনা বাদাম ভাজা+লস্যি
নৈশভোজ রুটি+সবজি+ডাল

একটি 24 মাস বয়সী শিশুর জন্য ডায়েট– 4র্থ সপ্তাহ, 1ম দিন

প্রাতঃরাশ রাজগিরা(অ্যামারান্থ)মিল্কশেকের সাথে কুঁচানো ডুমুর(ফিগ)
সকালের জলখাবার খেজুর এবং স্কীমড গুঁড়ো দুধের লাড্ডু
মধ্যাহ্ন ভোজ ছোটো রুটি+ডাল+পছন্দ অনুযায়ী যেকোনো সবজী+কয়েক টুকরো গাজর/শসা/টমেটো+1 চামচ ধনেপাতা/পুদিনা পাতার চাটনি
সন্ধ্যার খাবার সাধারণ খাখারা দই এর সাথে মিশিয়ে
নৈশভোজ লাউ(বটল গউর্ড)-মেথি(ফেংগুগ্রীক)মুঠিয়া আর তার সাথে বাটারমিল্ক

একটি 24 মাস বয়সী শিশুর জন্য ডায়েট– 4র্থ সপ্তাহ, 2য় দিন

প্রাতঃরাশ সেদ্ধ ডিমের কুসুম/ বাড়িতে তৈরী পনীর(কটেজ চীজ)
সকালের জলখাবার পালংআঙ্গুরআপেলের স্ম্যুদি
মধ্যাহ্ন ভোজ ছোটো রুটি+ডাল+পছন্দ অনুযায়ী যেকোনো সবজী+কয়েক টুকরো গাজর/শসা/টমেটো+1 চামচ ধনেপাতা/পুদিনা পাতার চাটনি
সন্ধ্যার খাবার চটকানো আলুর সাথে চীজে কোঁড়া
নৈশভোজ পরোটা দিয়ে শাহি পনীর(কটেজ চীজ) এবং টমেটো মাশরুম স্যুপ

একটি 24 মাস বয়সী শিশুর জন্য ডায়েট– 4র্থ সপ্তাহ, 3য় দিন

প্রাতঃরাশ ব্যাসন(ছোলা ভাঙানো)- জোয়ার(শরগাম)-ধনের ছিলা দই সহযোগে
সকালের জলখাবার ব্যাসন(ছোলা ভাঙানো) সাত্তুর(বার্লি)মিশ্রণ+খেজুরের লাড্ডু+দুধ
মধ্যাহ্ন ভোজ ছোটো রুটি+ডাল+পছন্দ অনুযায়ী যেকোনো সবজী+কয়েক টুকরো গাজর/শসা/টমেটো+1 চামচ ধনেপাতা/পুদিনা পাতার চাটনি
সন্ধ্যার খাবার 2-3 টি বাড়িতে তৈরী কুকিজ+দুধ
নৈশভোজ পনীর(কটেজ চীজ)কাটলেট অথবা গ্রীলড মাছের সাথে বেকড বীনস স্যুপ এবং গাজর কুচির রায়তা

একটি 24 মাস বয়সী শিশুর জন্য ডায়েট– 4র্থ সপ্তাহ, 4র্থ দিন

প্রাতঃরাশ ফলের স্মুদি
সকালের জলখাবার দই দিয়ে চিঁড়ে সঙ্গে কলা চটকানো
মধ্যাহ্ন ভোজ ছোটো রুটি+ডাল+পছন্দ অনুযায়ী যেকোনো সবজী+কয়েক টুকরো গাজর/শসা/টমেটো+1 চামচ ধনেপাতা/পুদিনা পাতার চাটনি
সন্ধ্যার খাবার মশলা মাখনা(পদ্মের বীজ সেদ্ধ)+কলার মিল্কশেক
নৈশভোজ বাজরার(পার্ল মিলেট)রুটি+বেগুনের ভর্তা+ডাল+সবজির রায়তা

একটি 24 মাস বয়সী শিশুর জন্য ডায়েট– 4র্থ সপ্তাহ, 5মদিন

প্রাতঃরাশ ডিমের ভুজিয়া
সকালের জলখাবার ওটসআপেল স্মুদি
মধ্যাহ্ন ভোজ ছোটো রুটি+ডাল+পছন্দ অনুযায়ী যেকোনো সবজী+কয়েক টুকরো গাজর/শসা/টমেটো+1 চামচ ধনেপাতা/পুদিনা পাতার চাটনি
সন্ধ্যার খাবার রাজগিরা(অ্যামারান্থ)চিক্কি দুধে ডুবিয়ে
নৈশভোজ ম্যাকর্নি এবং চীজ টমেটো স্যুপের সাথে।

একটি 24 মাস বয়সী শিশুর জন্য ডায়েট– 4র্থ সপ্তাহ, 6ষ্ঠ দিন

প্রাতঃরাশ সেভিয়ান উপমা+কেশর এলাচ মিশ্রিত দুধ
সকালের জলখাবার চিনা বাদামের লাড্ডু
মধ্যাহ্ন ভোজ সুইট কর্নের (মিষ্টি ভুট্টার দানা)স্যুপের সাথে ফ্রায়েড রাইস
সন্ধ্যার খাবার দই দিয়ে চিঁড়ে, সাথে কলা চটকানো
নৈশভোজ ছোটো রুটি+ডাল+পছন্দ অনুযায়ী যেকোনো সবজী+কয়েক টুকরো গাজর/শসা/টমেটো+1 চামচ ধনেপাতা/পুদিনা পাতার চাটনি

একটি 24 মাস বয়সী শিশুর জন্য ডায়েট– 4র্থ সপ্তাহ, 7ম দিন

প্রাতঃরাশ রাগি সাটভা(ফিংগার মিলেট মল্ট) আমন্ড পাউডারের সাথে
সকালের জলখাবার চীজ দিয়ে আলু চটকানো
মধ্যাহ্ন ভোজ ছোটো রুটি+ডাল+পছন্দ অনুযায়ী যেকোনো সবজী+কয়েক টুকরো গাজর/শসা/টমেটো+1 চামচ ধনেপাতা/পুদিনা পাতার চাটনি
সন্ধ্যার খাবার দইবড়া (বাড়িতে তৈরী)
নৈশভোজ ভাতের সাথে ধনশক(গুজরাটি এবং মারাঠি জরাথ্রুষ্টিয়ানদের একটি জনপ্রিয় খাদ্য যা ছাগলের মাংস শিম্বি জাতীয় ডাল ইত্যাদি দিয়ে তৈরী করা হয়)

একটি 24 মাস বয়সী শিশুর জন্য খাদ্য রেসিপি বা রন্ধনপ্রণালীগুলি

আপনার ছোট্টটির আহার যথাযথ ভাবে গ্রহণ করা নিশ্চিত করতে এখানে বেশ কয়েকটি রন্ধন প্রণালীর উল্লেখ করা হল যেগুলির দ্বারা আপনি তার সঠিক পুষ্টি পাওয়াকে নিশ্চিত করতে পারেন

1.পালং এবং বীটরুটের কাটলেট

পালং এবং বীটরুটের কাটলেট

সপ্তাহের মাঝে এবং সপ্তাহান্তের দিনগুলিতে এগুলি একটি দুর্দান্ত প্রাতঃরাশের আইটেম হয়ে উঠতে পারে।

উপকরণ

  • পালং পিউরিবড় 2 চামচ
  • বীটরুটের পিউরিবড় 2 চামচ
  • সম্পূর্ণ গমের আটা-0.5 কাপ
  • গুড়-0.5 কাপ
  • মাখনবড় 2 চামচ

কীভাবে প্রস্তুত করবেন

  • শুরু করুন ওভেনটিকে 200 ডিগ্রী তাপমাত্রায় প্রিহিট করে রাখার দ্বারা
  • একটি বাটির মধ্যে কিছুটা মাখন ও গুড়ের সাথে পালং পিউরিটিও ভালভাবে একসাথে মিশ্রিত করুন
  • অন্য আরেকটি বাটিতে আবার কিছুটা মাখন ও গুড়ের সাথে বীটরুট পিউরিটিও ভালভাবে একসাথে মিশ্রিত করুন
  • এবার দুটি বাটির মধ্যেই কিছুটা করে আটা নিন এবং প্রয়োজন মত জল দিয়ে মেখে মাখা আটার তালের ন্যায় গড়ে তুলুন।
  • আপনি এমনকি আবার পালং এবং বীটরুটের পিউরিগুলিকে আটা মাখার সাথে একসাথে মিশিয়ে নিয়েও তাদের জন্য কাটলেটগুলি বানাতে পারেন।
  • এবার ঐ আটার তাল থেকে কিছুটা করে নিয়ে সেগুলিকে কুকির আকার দিন এবং একটি বেকিং ট্রের উপর সেগুলিকে পর পর সারনীতে সাজিয়ে নিন।
  • ট্রেটিকে ওভেনের মধ্যে রেখে মোটামুটি প্রায় 8-10 মিনিটের জন্য বেক করুন।
  • আপনার ছোট্টটির জন্য তার পছন্দের কাটলেটগুলি একেবারে প্রস্তুত, সেগুলিকে এবার চাটনি কিম্বা দইয়ের সাথে গরম গরম পরিবেশন করুন।

2.রাগি কেক

আপনার ছোট্ট ব্যক্তিটির মিষ্টি খাওয়ার বাসনাকে সম্পূর্ণ রূপে চরিতার্থ করে তুলতে পারেন এই স্বাস্থ্যকর এবং সুস্বাদু রাগি কেক দিয়ে

উপকরণ

  • জলপাই তেল-0.5 কাপ
  • ভ্যানিলা এসেন্স-1 চাচামচ
  • লবণ
  • দুধ-1 কাপ
  • দই-1 কাপ
  • বেকিং সোডা-1 চাচামচ
  • ব্রাউন সুগার-1 কাপ
  • কোকোয়া পাউডার-2 চাচামচ
  • সম্পূর্ণ গমের আটা-1 চাপ
  • রাগির আটা-0.5 কাপ

কীভাবে প্রস্তুত করবেন

  • 180 ডিগ্রী তাপমাত্রায় ওভেনটিকে প্রিহিট করে রাখুন
  • একটা বড় বাটির মধ্যে গমের আটা নিয়ে তার সাথে একের পর এক যোগ করতে থাকুন রাগির আটা, ব্রাউন সুগার, বেকিং সোডা, লবণ এবং কোকোয়া পাউডার।এবার এগুলি সব একসাথে ভালকরে মিশ্রিত করে নিন।
  • এরপর এর সাথে দই, তেল, দুধ এবং ভ্যানিলা এসেন্স যোগ করে পুনরায় সব একসাথে ভালভাবে মিশিয়ে নিন।
  • তারপর এই মিশ্রণটিকে একটি বেকিং ট্রের মধ্যে ঢালুন এবং সেটিকে একটি ওভেনের মধ্যে মোটামুটি প্রায় আধ ঘন্টার জন্য রাখুন।
  • বেক করা হয়ে গেলে সেটিকে বাইরে এনে ঠাণ্ডা হতে দিন।আপনার রাগি কেক প্রস্তুত এবার এটির উপর সুন্দর একটি চকোলেট সিরাপ ছড়িয়ে দিয়ে পরিবেশন করুন।

3.ডিম ধোসা

যখন একটি সাধারণ পাউরুটির টুকরো কিম্বা একটা ছোট সাদা ধোসা আপনার ছোট্টটির পেট ভরিয়ে তুলতে পারে না, সেই সময় তাকে একটি ডিম ধোসার দ্বারা চমক দিতে পারেন।দেখবেন আপনার বাচ্চার সেটিকে খেয়ে শেষ করতে প্রায় কোনও সময়ই লাগবে না।

উপকরণ

  • লবণ
  • মরিচ
  • একটি ডিম
  • ধোসার গোলা (ব্যাটার)

কীভাবে প্রস্তুত করবেন

  • চাটুটিকে গরম করুন এবং তার উপর কয়েক ফোঁটা তেল ছিঁটিয়ে দিন
  • চাটুর ঠিক মাঝখানটায় ধোসার ব্যাটারটিকে ঢালুন এবং সেটিকে গোলা করে চারপাশে ছড়িয়ে দিন। এখন একটি ডিম নিয়ে সেটিকে ঠিক ঐটির উপর ফাটান।
  • এবার উভয় পাশই ঠিকমত ভাজা ভাজা করে রান্না করে নিন এবং অতিরিক্ত স্বাদের জন্য এর সাথে লবণ এবং মরিচ যোগ করুন

4.মিষ্টি আলুর পাফ

এই খাদ্য আইটেমটি একটি দুর্দান্ত সান্ধ্য জলখাবার হয়ে উঠতে পারে আবার এমনকি এটিকে একটি হালকা নৈশভোজের সাথে একটি ভারী সাইড ডিশ হিসেবেও রাখা যেতে পারে।

উপকরণ

  • আটা– 0.5 কাপ
  • দানাশস্য (সিরিয়াল)- 1 কাপ
  • আপেলশসবড় 1 চামচ
  • জলবড় 2 চামচ
  • ভেজিটেবল অয়েলজলবড় 2 চামচ
  • মিষ্টি আলু– 4 কাপ (চটকানো)

কীভাবে প্রস্তুত করবেন

  • 350 ডিগ্রী তাপমাত্রায় ওভেনটিকে প্রিহিট করে রাখুন
  • একটি বাটিতে তেল, চটকানো মিষ্টি আলু এবং আপেলশস নিয়ে সব একসাথে মিশিয়ে নিন।এবার মিশ্রণটি সম্পূর্ণ রূপে ভালভাবে মিশে না যাওয়া পর্যন্ত এর সাথে ধীরে ধীরে অল্প অল্প করে জল মেশাতে থাকুন।
  • তারপর এর সাথে প্রয়োজন মত আটা এবং দানাশস্য (সিরিয়াল)ঢেলে মিশিয়ে একটি তাল বা দলা বানিয়ে নিন
  • এবার ওই মণ্ডটি থেকে কিছুটা করে অংশ নিয়ে এক একটি ছোট ছোট বল আকারে গড়ে তুলুন। এবার এর মধ্যস্থ আটকে থাকা বায়ুকে বের করে দেওয়ার জন্য প্রতিটি বলের মাঝে একটি করে ছোট গর্ত করুন সেগুলিকে এক একটি আদর্শ পাফ হিসেবে গড়ে তোলার জন্য।
  • বেকিং ট্রের উপর কিছুটা তেলের প্রলেপ দিন এবং তার উপর সারিবদ্ধভাবে পাফগুলিকে সাজিয়ে নিন।এরপর সেই ট্রেটিকে মোটামুটি প্রায় 15 মিনিটের জন্য বেক করতে ওভেনের ভিতরে ঢোকান।একবার সুস্বাদু পাফগুলি প্রস্তুত হয়ে গেলে সেগুলিকে আপনার সোনার সামনে পরিবেশন করুন।

5.কলা ভাজা

যে সকল শিশুরা কলা দেখা মাত্রই তাদের মাথাটিকে অন্য দিকে ঘুরিয়ে ফেলে, এই উপাদেয় কলা ভাজাগুলিকে দেখে সেগুলিকে প্রতিরোধ করা তাদের পক্ষে কঠিণ হয়ে উঠবে।

উপকরণ

  • তেল / ঘি
  • এলাচ গুঁড়ো– 1 চাচামচ
  • কলা– 2 টি

কীভাবে প্রস্তুত করবেন

  • ভালভাবে ধুয়ে নিয়ে খোসা ছাড়ানোর পর কলাগুলিকে পাতলা পাতলা টুকরো করে কেটে নিন।
  • একটি চাটুর মধ্যে কিছুটা ঘি নিয়ে গরম করুন।এবার তার মধ্যে কলার টুকরোগুলিকে দিয়ে ভাজুন,এর উপর একটু এলাচ গুঁড়ো ছড়িয়ে দিয়ে আপনার সোনাকে এর অতুলনীয় স্বাদটিকে উপভোগ করতে দিন।

খাওয়ানোর পরামর্শগুলি

আপনার সন্তানকে খাওয়ানোর ক্ষেত্রে কয়েকটি সহজ পরামর্শ তার খাবারের সম্পূর্ণ অভিজ্ঞতাটিকে স্মরণীয় করে রাখতে অনেকটা পথ এগিয়ে নিয়ে যেতে পারে।

  • যখন তার খাওয়ার অভ্যাস গড়ে তোলার সময় আসে,কখনও তাকে এ ব্যাপারে পুরস্কৃত কিম্বা শাস্তি প্রদান নীতি প্রয়োগ করবেন না।সময়ের সাথে সাথেই সে জেনে ও শিখে যাবে কোনটি তার জন্য স্বাস্থ্যকর আর কোনটি নয়, সুতরাং তাকে কোনওকিছুই খাওয়ানোর ক্ষেত্রে জোর করবেন না।
  • জীবনের শুরুতেই মশলাদার ঝাল খাবারের আইটেমগুলি তাকে খাওয়াতে যাবেন না।
  • প্রচণ্ড ঠাণ্ডা কিম্বা প্রচণ্ড গরম যেকোনও কিছুই তাকে খাওয়ানো থেকে বিরত থাকুন, পরিবর্তে একটি মোটামুটি সহনশীল তাপমাত্রায় থাকা খাদ্য পরিবেশন করুন।
  • শুরু থেকেই সবার মাঝে একসাথে ডায়নিং টেবিলে বসিয়ে খাবার আনন্দ উপভোগ করার অভ্যাস গড়ে তুলুন।
  • তাকে যখন জলখাবারগুলি দেবেন, চেষ্টা করুন কেবল পুষ্টিকর বিকল্পগুলিকেই বেছে নিতে।
  • তাকে অল্প পরিমাণে কিন্তু বারে বারে খাওয়ান।
  • বাচ্চাদের খাবারের অল্প অল্প অংশ নিজেদের নিয়েও খেতে দিন।
  • খাবার খাওয়ানোর পিছনে দৌড় ঝাঁপ করে ছুটে বেড়ানোগুলি এড়িয়ে চলুন।
  • তার খাদ্য তালিকায় সবজি, ফল, দুধের একটি সুষম সমন্বয় বজায় রাখুন।
  • যখনই কোনও খাবার তাকে দেবেন লক্ষ্য রাখুন সেটি তাকে শক্তির যোগান দিচ্ছে কিনা।এমন খাবারগুলি দেওয়া এড়িয়ে চলুন যেগুলিতে কোনও ক্যালোরিই নেই।

সঠিক বয়সের সাথে সাথে সঠিক মানের স্বাস্থ্যকর এবং পুষ্টিকর খাদ্যগুলির সাথে পরিচয় করালে তা আপনার সন্তানকে তার ভবিষ্যতেও ভালো অভ্যাসগুলিকে বেছে নিতে সাহায্য করতে পারে।বেশিরভাগ শিশুরাই অত্যন্ত উৎসাহিত হয়ে ওঠে যখন তারা পুরো পরিবারকে একসাথে বসে খাবারগুলিকে আনন্দের সাথে উপভোগ করতে দেখে এবং তা দেখাদেখি শিশুদের মধ্যেও এই একই কাজ করার সুঅভ্যাসটি ক্রম বিকশিত হতে থাকে।সুতরাং আপনিও প্রতিদিন আপনার পরিবারের সাথে একসাথে বসে খাওয়ার ব্যাপারটিকে নিশ্চিত করুন।

বিধিসম্মত সতর্কীকরণ

  1. প্রতিটি শিশু স্বতন্ত্র আর তাই আপনার বিবেচনার ভিত্তিতে গড়ে তুলুন তাদের জন্য এই সকল খাদ্য সমূহের দ্বারা একটি ভরসাযোগ্য খাদ্য পরিকল্পনার নির্দেশিকা। আপনি আবার সন্তানের পছন্দ কিম্বা প্রয়োজনীয়তা অনুযায়ী তার আহারগুলির মধ্যে কিছু পরিবর্তন নিয়েও আসতে পারেন।
  2. কখনও জোর করে ধরে বেঁধে শিশুদের খাওয়াবেন না।
  1. যখন বাচ্চার জন্য ফরমূলা বা কৌটার দুধগুলি প্রস্তুত করবেন,দয়া করে সর্বদা তার বাক্স বা কৌটার গায়ে লেখা নির্দেশাবলীগুলি অনুসরণ করুন, এবং তার সাথে দেওয়া পরিমাপের চামচটিকে ব্যবহার করে আন্দাজের পরিবর্তে সঠিক পরিমাণটি নিন।
  1. প্রথম যখন কোনও শিশুকে শক্ত খাবারের সাথে পরিচয় করাবেন, প্রথমে তার জন্য প্রস্তুত করা প্রয়োজন জল জলে তরল কিম্বা আধা তরল মণ্ড বিশেষ অথবা স্যুপ জাতীয় খাদ্য।শিশুটি বেড়ে ওঠার সাথে সাথে তার মা কিম্বা তত্ত্বাবধায়ক, শিশুটির সেই খাদ্যটিকে গেলার ক্ষমতার উপর নির্ভর করে তার খাদ্যের তরলতার ভাগটিকে ক্রমশ ধীরে ধীরে ঘন করে তুলতে পারেন।যে সকল খাবারগুলি ভীষণ ঘন প্রকৃতির হয়ে থাকে,সেগুলি বাচ্চার পেটে ব্যথার কারণ হয়ে উঠতে পারে কিম্বা তার পেটে অহেতুক চাপ বাড়াতে পারে, সেরকমই আবার অতিরিক্ত তরল খাদ্য গ্রহণের ফলে শিশুটি হয়ত ক্ষুধার্থও থেকে যেতে পারে।
  2. কিছু বাচ্চা আবার মাঝেমধ্যে বেশ কয়েক দিন পরিমাণে অল্পও খেতে চাইতে পারে,এটি একেবারে ঠিক আছে।তবে কোনও শিশু যদি পরপর একটানা 3-4 দিনের বেশি সময় ধরে পরিমাণের তুলনায় যথেষ্ট কম আহার করে থাকে, তাকে আরও সুরক্ষা দিতে দয়া করে একজন ডাক্তারের কাছে নিয়ে যান।

6.দাঁত ওঠার সময় শিশুরা সাধারণত কম পরিমাণে খেয়ে থাকতে পারে অথবা তারা হয়ত কখনো কখনও কোনও কিছুই না খেতে চাইতে পারে তাদের ভালো না লাগার কারণে।ঐ দিনগুলিতে আপনি আপনার ছোট্টটিকে স্তন পান করানো অথবা ফরমূলা খাওয়ানোর পরিমাণ বাড়িয়ে দিন।রোজের সাধারণ খাবারগুলির সাথে তার পুনরায় পরিচয় করান কেবল তখনই যখন সে দাঁত ওঠার এই দুঃসহ যন্ত্রণা কাটিয়ে উঠে পুনরায় স্বাভাবিকে ফিরে আসবে।

7. আপনার ছোট্টটি যদি ডায়রিয়ায় ভুগে থাকে, তাকে খাওয়ানো পুরোপুরিভাবে বন্ধ করে দেবেন না কারণ এটিতে হিতে বিপরীত হয়ে ওঠে।পরিবর্তে আপনার ডাক্তারবাবুর থেকে জেনে এমন ধরণের খাদ্যগুলির ব্যাপারে যেগুলি তাকে সেই সময় খাওয়ানো যেতে পারে এবং তার সাথেই আবার ডায়রিয়াকে নিয়ন্ত্রণ করাও যেতে পারে।

8. প্রথমেই আপনার শিশুটি যদি তার খাবারগুলিকে গ্রহণ করতে না চায়, তখন আপনি আবার তার খাবারগুলির সাথে দারচিনি, জিরা গুঁড়ো্‌, লেবুর রস, কারি পাতা ইত্যাদির মত কিছু প্রাকৃতিক স্বাদ সংযোজন করার দ্বারা তার স্বাদের বদল আনতে পারেন।

9. আপনার ছোট্টটি যদি বাদাম, গ্লুটেন (আটা/ময়দার দ্বারা প্রস্তুত আঠালো) অথবা ডিম থেকে অ্যালার্জিতে ভুগে থাকে, তবে সেক্ষেত্রে এগুলি থাকতে পারে এমন জাতীয় যেকোনও খাবারগুলি তাকে খাওয়ানোর আগে দয়া করে আপনার ডাক্তারবাবুর পরামর্শ নিয়ে নিন।